অ্যাপেলের আশ্চর্যজনক আপডেট: আইফোন কি অ্যান্ড্রয়েডের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে?

অ্যাপেলের আশ্চর্যজনক আপডেট: আইফোন কি অ্যান্ড্রয়েডের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে?

অ্যাপেল দীর্ঘকাল ধরে গোপনীয়তা এবং সুরক্ষার ক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে এগিয়ে থাকার জন্য খ্যাতি অর্জন করেছে। কিন্তু সাম্প্রতিক ঘটনাবলীতে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে এই পার্থক্য কমে আসছে।

খবর বেরিয়েছে যে অ্যাপেল চীনা কোম্পানি বাঁইডুর সাথে একটি জেনারেটিভ এআই চুক্তিতে আলোচনা করছে। বাঁইডুর এআই মডেলটি চীনা সরকারের অনুমোদিত, যা গোপনীয়তা নিয়ে উদ্বেগ উত্থাপন করে।

আরেকটি চমকপ্রদ ঘটনায়, অ্যাপেলের গুগলের সাথে জেমিনি একটি এআই প্রকল্পে সহযোগিতা করার সম্ভাবনা রয়েছে। গুগল ক্লাউড-ভিত্তিক এআই-এর পক্ষে, যা আবারও গোপনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন উত্থাপন করে।

অ্যাপেলের গুগলের সাথে জেমিনি এআই প্রকল্প:

অ্যাপেল এবং গুগল 'জেমিনি' একটি যৌথ এআই প্রকল্পে সহযোগিতা করতে পারে। এই প্রকল্পের লক্ষ্য হলো স্মার্টফোনের জন্য উন্নত এআই প্রযুক্তি তৈরি করা।

গুগলের ক্লাউড-ভিত্তিক এআই:

গুগল দীর্ঘদিন ধরে ক্লাউড-ভিত্তিক এআই-এর পক্ষে। এর মানে হলো যে এআই প্রক্রিয়াকরণ ক্লাউডে সঞ্চালিত হয়, স্মার্টফোনের হার্ডওয়্যারের উপর নয়।

গোপনীয়তা নিয়ে উদ্বেগ:

অ্যাপেলের ক্লাউড-ভিত্তিক এআই-এর সাথে জড়িত হওয়ার সিদ্ধান্ত গোপনীয়তা নিয়ে উদ্বেগ উত্থাপন করে। কারণ:

  • ডেটা সংগ্রহ:ক্লাউড-ভিত্তিক এআই ব্যবহার করার জন্য, ব্যবহারকারীর ডেটা ক্লাউডে আপলোড করতে হবে। এটি ডেটা লিক বা অপব্যবহারের সম্ভাবনা তৈরি করে।
  • নিয়ন্ত্রণের অভাব:ব্যবহারকারীদের তাদের ডেটা কীভাবে ব্যবহার করা হয় তার উপর নিয়ন্ত্রণ কম থাকে।
  • সরকারি নজরদারি:ক্লাউড-ভিত্তিক এআই সরকারের জন্য ব্যবহারকারীদের ডেটা নজরদারি করা সহজ করে তোলে।

অন্যান্য বিবেচ্য বিষয়:

  • অ্যাপেলের "প্রাইভেসি ফার্স্ট" নীতি:অ্যাপেল দীর্ঘকাল ধরে গোপনীয়তাকে গুরুত্ব দিয়েছে। এই নতুন পদক্ষেপ কি এই নীতির সাথে সঙ্গতিপূর্ণ?
  • ব্যবহারকারীর পছন্দ:ব্যবহারকারীরা কি তাদের ডেটা শেয়ার করার বিনিময়ে উন্নত এআই বৈশিষ্ট্যগুলি পছন্দ করবে?
  • নিয়ন্ত্রক নজরদারি:সরকারগুলি কি এই নতুন এআই প্রযুক্তি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য পদক্ষেপ নেবে?

অ্যাপেলের গুগলের সাথে জেমিনি এআই প্রকল্পে সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলতে পারে। এটি উন্নত এআই বৈশিষ্ট্যগুলির দিকে নিয়ে যেতে পারে, তবে এটি গোপনীয়তা নিয়েও উদ্বেগ তৈরি করে। এই প্রযুক্তির দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব এখনও স্পষ্ট নয়, তবে এটি স্পষ্ট যে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা সাবধানে বিবেচনা করা উচিত।

অ্যাপেল কে যে চ্যলেঞ্জ ফেস করতে হবে  :

  • অ্যাপেল কি গোপনীয়তা নিয়ে আপস করছে?
  • ক্লাউড-ভিত্তিক এআই কি স্মার্টফোনের জন্য সঠিক পছন্দ?
  • ব্যবহারকারীরা কি তাদের ডেটা শেয়ার করার ঝুঁকি নিতে ইচ্ছুক?

 

এই ঘটনাবলী আইফোন এবং অ্যান্ড্রয়েডের মধ্যে পার্থক্য কমিয়ে আনতে পারে। অ্যান্ড্রয়েড দীর্ঘদিন ধরে ক্লাউড-ভিত্তিক এআই ব্যবহার করে আসছে এবং এখন অ্যাপেলও একই পথ অনুসরণ করতে পারে।

এই পরিবর্তনের ফলে গুরুতর সুরক্ষা এবং গোপনীয়তা ঝুঁকি দেখা দিতে পারে। চীনা সরকারের সাথে বাঁইডুর সম্পর্কের কারণে ব্যবহারকারীর ডেটা নিয়ন্ত্রণ এবং নজরদারির বিষয়ে উদ্বেগ রয়েছে।

আপেল যে বিয়য়ে কম্প্রোমাইজ করবে না :

  • অ্যাপেলের "প্রাইভেসি ফার্স্ট" নীতি
  • ব্যবহারকারীর পছন্দ
  • নিয়ন্ত্রক নজরদারি:

আপেলের এই নতুন পদক্ষেপগুলির দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব এখনও স্পষ্ট নয়। তবে এটা স্পষ্ট যে, স্মার্টফোন এআই-এর দিকে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে এবং এর সাথে গুরুত্বপূর্ণ গোপনীয়তা এবং সুরক্ষা ঝুঁকিও জড়িত।

 

Level 0

আমি আলামিন হোসেন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

Web Content Writer | Copywriter| Ghostwriter | Helping you make money with writing and marketing. Sharing what I've learned from 5+ years of Health Niche marketing experience |


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস