পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ডোপ টেষ্ট করতে যা যা প্রয়োজন!

চলুন জেনে নেওয়া যাক, পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে ডোপ টেস্ট করতে আপনাদের কি কি প্রয়োজন হবে?

  • স্ব স্ব বিআরটিএ কর্তৃক ডোপ টেস্টের আবেদন ফর্ম।
  • দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • দুই কপি জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।
  • দুই কপি লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ফটোকপি।

প্রথমত আমরা যে বিআরটিএ'র অধীনে ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে যাচ্ছি, সেখানকার যে কোন কম্পিউটার দোকান থেকে ডোপ টেস্টের দুই কপি আবেদন ফরম সংগ্রহ করবো। তারপর ফর্মটি পূরণ করে যেকোনো পাশে পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি লাগাবো। তারপর, লার্নার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ফটোকপি তার নিচে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি পিনআপ করবো। এমন দুই সেট ফরম রেডি করে বিআরটিএ অফিসে চলে যাব।

বিআরটিএ'র লাইসেন্সিং কর্তৃপক্ষ উক্ত আবেদন ফরমে স্বাক্ষর এবং সিল লাগিয়ে দিয়ে একটি স্মারক নাম্বার বসিয়ে দেবেন। তারপর আবেদন ফরমের এক সেট বিআরটিএ অফিস রেখে দেবেন এবং একসেট আবেদনকারীকে দিয়ে দেবেন। আবেদনকারী ফরমটি নিয়ে সংশ্লিস্ট সরকারি হাসপাতালে চলে যাবেন। হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগে ৯০০ টাকা টিকিট কেটে ডোক টেস্ট করানো যাবে। ডোপ টেস্ট হয়ে গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ই-মেইলের মাধ্যমে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষের কাছে একটি কপি পাঠিয়ে দেবেন। এবং ৭২ ঘণ্টা পর আবেদনকারীকে একটি হার্ডকপি দিয়ে দেবেন।

আবেদনকারী সেই হার্ডকপিটি নিয়ে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষের কাছে গেলে "ইমেইল চেক করে সঠিক পাওয়া গেল" এমন একটি সিল ও স্বাক্ষর করে দেবেন। ড্রাইভিং লাইসেন্সের বায়োমেট্রিকের দিন এই ডোপ টেস্টের কাগজটি জমা দিতে হবে।

সকলকে ধন্যবাদ লেখাটি পড়ার জন্য।

Level 0

আমি এস. এম. সরোয়ার পারভেজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 2 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস