চশমার ইতিহাস

টিউন বিভাগ অন্যান্য
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

বর্তমানে চশমা শব্দটি খুবই পরিচিত। দাদু বা বাবার চোখের দিকে তাকালেই বোঝা যায় উনাদের চোখের পাওয়ার কমে গেছে। চশমার সবথেকে বড় ব্যবহার হলো চোখের দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি করা। এত বড় কাজের জিনিসটি কে প্রথম আবিষ্কার করেছিলো তার কোন হদিস ইতিহাস থেকে জানা যায় না। তবে যতটুকু জানা যায়, ১২৬৬ খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী রজার বেকন একধরনের কাঁচ আবিষ্কার করেছিলেন। আর এই কাচের বিশেশত্য ছিল যে, এই কাচের মধ্য দিয়ে তাকালে ছোট জিনিসকে বড় করে দেখা যায়। কিন্তু চশমা বলতে যা বোঝায় তা রজার বেকন আবিষ্কার করতে পারেননি।

পরবর্তিতে ১৩৫২ সালে কোন এক সময় কর্ডিনাল ওগোন এর একটি তৈলচিত্র আঁকা হয়েছিলো। তাতে শিল্পী ওগোনী চশমা পড়েছিলেন। আর এ থেকেই ধারণা করা হয় যে ১২৬৬ সাল থেকে ১৩৫২ সালের মাঝে কোন এক সময় কোন অজ্ঞাত বিজ্ঞানী আবিষ্কার করেছিলেন চশমা। তবে তখনও চশমার ব্যবহার ব্যাপকভাবে শুরু হয় নি। চশমার ব্যবহার মুলত শুরু হয় যখন ছাপার বই প্রকাশিত হয়। বই পড়তে গিয়েই মানুষ প্রথম আবিষ্কার করল যে তারা চোখে কম দেখে আর তাদের দৃষ্টিশক্তিও অন্যদের থেকে আলাদা। আর এজন্যই চশমার ব্যবহার দিন দিন বাড়তে থাকলো।

এরপরে কেটে যায় অনেক বছর। ১৬২৯ সালের দিকে ইংল্যান্ডের রাজা প্রথম চার্লস "গিলড" নামের একটি বড় চশমার কারখানা প্রতিষ্ঠানের অনুমোদন দিয়েছিলেন। এরও প্রায় অনেক পরে ১৭৮৪ সালে চশমার কাঁচের অনেক উন্নতি সাধন করেন মার্কিন বিজ্ঞানী বেঞ্জামিন ফ্রাংঙ্কলিন আর তিনিই প্রথম চশমার বাইফোকাল কাঁচ আবিষ্কার করেন।

এরপর থেকেই চশমার ব্যবহার সব জায়গাতেই দেখা যায়। শুরু হয় সাদা কালো বাহারী রঙের চশমা তৈরি। তৈরি হয় চোখের দৃষ্টি শক্তির তারতম্য অনুসারে নানা পাওইয়ারের চশমার কাঁচ। বর্তমানে চশমার ব্যবহার অনেক। ছোট থেকে বড় সবাই এখন চশমা ব্যবহার করেন। কেও বা চোখের পাওয়ার কম বা বেশি করার জন্য, কেও বা রোদ থেকে চোখকে রক্ষা করতে আবার কেও একটু ভাব নেওয়ার জন্য চশমা পরে থাকে। চশমাকে এখন ফ্যাশনের অন্যতম দিক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

Level 0

আমি Saadman Rafeed Islam Promise। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস