মোমবাতির আদিকথা

টিউন বিভাগ অন্যান্য
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

মােমবাতি আসলে এক ধরনের মশাল। তবে একটু পার্থক্য আছে। মশালে সলতে থাকে না। প্রদীপে থাকে। মােমবাতিতেও থাকে। তাই মােমবাতি হল মশাল আর প্রদীপের সংমিশ্রণে তৈরি এক প্রকার বাতি। মােমবাতি খুবই ক্ষুদ্রবস্তু। তবে বড় প্রয়ােজনীয়। কোনও কারণে বৈদ্যুতিক বাতির গােলমাল হলে তখনি খোঁজ পড়ে মােমবাতির। একেবারেই ক্ষীণ আলাে। তবে প্রয়ােজনের বড় বন্ধু।
| এই ক্ষীণ আলাের মােমবাতি যে কবে কে আবিষ্কার করেছিলেন তার নাম কেউ জানে না। হয়তাে প্রাগৈতিহাসিক যুগের আদিমানবেরা কোনও গাছের শুকননা ডালায় আগুন ধরিয়ে তৈরি করেছিল এক ধরনের মশাল। কে জানে হয়তাে ওটাই পরিবর্তিত হতে হতে আজকের মােমবাতির আকার পেয়েছে।
| মােমবাতির ইতিহাস আসলেও দীর্ঘদিনের কথা। অতি প্রাচীন কালেই আলাে | জ্বালানাের তাগিদে সেকালের লােকেরা মােম অথবা পশুর চর্বিকে হাত দিয়ে গােলাকার দণ্ডের মতাে করে নিত। তারপর মােমদণ্ডের ভেতরে ঢুকিয়ে দিতাে গাছের আঁশ বা আলগা করে পাকানাে অঁতাের দড়ি। মৌচাকের মােম দিয়ে যে অতীতে মােমবাতি তৈরি করা হতাে, প্রাচীন রােমান ও ভারতীয় সাহিত্যে এর প্রচুর উল্লেখ আছে।
কিন্তু প্রাচীনকাল থেকে ঊনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত মােমবাতি তৈরির | কারিগরি কৌশলের খুব একটা উন্নয়ন হয়নি। এ পর্যন্ত যেসব মােমবাতি তৈরি হয়েছে | তা সবই পারিবারিক পরিবেশে বাড়িতে তৈরি। ঘরের লােকেরাই নিজেদের প্রয়ােজনে তৈরি করে নিত মােমবাতি। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে মােমবাতি তৈরির কৌশল বা রীতি তখনাে চালু হয়নি।
| ঘরে তৈরি মােমবাতিগুলাের তৈরি কৌশলও ছিল অতি সাধারণ। খাসি বা গরুর | চর্বিকে তারা প্রথমে একটি পাত্রে গরম করে গলিয়ে নিত। তারপর একটি চোঙার মতাে
বাঁশের বা ধাতব ডাইসে ঢেলে দিতাে। মাঝখানে ঢুকিয়ে দিত একটি সুঁতাের সলতে। | গলিত চর্বিটা জুড়িয়ে গেলেই তৈরি হয়ে যেতে মােমবাতি।
| কারখানায় মােমবাতি তৈরি করার প্রচলন শুরু হয়েছে বড় জোর পঞ্চাশ বছর আগে। কলে কারখানাতে মােমবাতি তৈরির পদ্ধতিও প্রায়ই একই। একইভাবে ডাইসে | তৈরি করা হয় এবং মাঝে একটি সলতে পরানাে হয়।

এখনও মােম তৈরিতে মৌচাকের মােম, প্যারাফিন এবং চর্বি ব্যবহার করা হয়। তবে চর্বি মেশালে মােমবাতির আলােতে কেরােসিনের শিখার মতাে ধােয়া হয়। কারণ চর্বিতে থাকে গ্লিসারিন। তাই মােমবাতিতে ব্যবহার করার আগে চর্বিকে গ্লিসারিন মুক্ত করে নেয়া হয়। তাই আধুনিক মােমবাতির শিখায় ধোয়া হয়না।

Level 0

আমি Saadman Rafeed Islam Promise। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস