Walton Primo R9 Review: ১২ হাজারে অনবদ্য একটি স্মার্টফোন!

দারুণ দামে মানসম্মত স্মার্টফোন বাজারে আনার জন্য অন্যতম দেশীয় ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড হচ্ছে ওয়ালটন। ওয়ালটন বছরে সময়ে সময়ে সাশ্রয়ী দামে দারুণ দারুণ সব স্মার্টফোন নিয়ে দেশের বাজেট স্মার্টফোন লাইনআপে বেশ ভালো-কিছু স্মার্টফোন উপহার দিয়ে থাক। যেখানে স্মার্টফোন ছাড়া আধুনিক সময়ে চলা প্রায় অসম্ভব, সেখানে ওয়ালটনই একমাত্র দেশীয় কোম্পানি যারা দেশের বৃহৎ এক ক্রেতা শ্রেণির বাজেটের কথা চিন্তা করে তাদের হাতে মানসম্মত স্মার্টফোন তুলে দেবার জন্য খুব ভালোভাবে কাজ করে।

ওয়ালটনের বাজেটে দারুণ দারুণ সকল স্মার্টফোন নিয়ে আসার ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ওয়ালটন বাজারে নিয়ে এসেছে তাদের নতুন একটি স্মার্টফোন। আর ওয়ালটনের নতুন এই স্মার্টফোনটির নাম হচ্ছে প্রিমো আর৯। বাজেট লাইনআপ হিসেবে ওয়ালটনের প্রিমো আর৯ অনেক জনপ্রিয় একটি স্মার্টফোন সিরিজ। ওয়ালটন প্রতি বছরই এই সিরিজের অধীনে স্মার্টফোন নিয়ে আসে। সেই ধারাবাহিকতায় ওয়ালটন ২০২২ সালে এই প্রিমো আর সিরিজের অধীনে তাদের নতুন স্মার্টফোন প্রিমো আর৯ নিয়ে আসল।

একনজরে প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনে যা যা থাকছে,

  • অ্যান্ড্রয়েড ১১
  • ন্যানোমিটার প্রযুক্তির হেলিও জি২৫ গেমিং চিপ-সেট
  • ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম, সাথে ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৬ দশমিক ৫২ ইঞ্চি ইনসেল আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১৩ মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরা সেন্সর সহ ট্রিপল ক্যামেরা মডিউল, ৫২ মেগাপিক্সেল ইউএইচডি মোড
  • ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা সেন্সর
  • স্মার্ট জেসচার ন্যাভিগেশন
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি

আন-বক্সিং করতে ভেতরে যা যা পাওয়া যাবে: প্রথমত প্রিমো আর৯ ডিভাইসটি, একটি সিম ইজেক্টর পিন, একটি ব্যাক-কভার, একটি চার্জিং এডাপ্টার, একটি ইউএসবি কেবল, একটি মিডিয়াম কোয়ালিটি হেড-ফোন এবং একটি ওয়ারেন্টি কার্ড।

ডিজাইন এবং ডিসপ্লে

প্রিমো আর৯ স্মার্টফোন বাজেট লাইনআপের হলে কি হবে! দাম হিসেবে মোটেও বাজেট স্মার্টফোনের মত হবে মনে হবেনা। স্মার্টফোনটি প্লাস্টিক বিল্টের হলেও, এতে ব্যবহার করা হয়েছে খুবই উন্নত মানের প্লাস্টিক ম্যাটেরিয়াল। প্রিমো আর৯ ডিভাইসের রিয়ার প্যানেলের টেক্সচারে দারুণ একটা এক্স টাইপের প্যাটার্ন বুঝতে পারবেন, যা স্মার্টফোনটির ডিজাইনটিকে একটি অন্য মাত্রায় নিয়ে গিয়েছে।

প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৬ দশমিক ৫২ ইঞ্চি সাইজের ফুল আইপিএস ডিসপ্লে প্যানেল। আইপিএস ইনসেল ডিসপ্লে প্রযুক্তির হবার ফলে বাজেট হিসেবে অন্যসকল স্মার্টফোনের চাইতে প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনের ডিসপ্লে কোয়ালিটি অনেক বেশি উপরে পাবেন নিঃসন্দেহে!

হার্ডওয়্যার

প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনটিতে দুটি সিমই ৪জি কানেকটিভিটিতে ব্যবহার করতে পারবেন। আর ডিভাইসটির সিম কার্ড ট্রেতে একটি এসডি কার্ডের পাশাপাশি দুটি ন্যানো সিম ব্যবহার করা যাবে অনায়াসেই।

প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়া-টেকের হেলিও গেমিং সিরিজের হেলিও জি২৫ চিপ-সেট। ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির এই চিপ-সেটটির সাথে প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনে পেয়ে যাবেন ৩ জিবি র‍্যাম। স্মার্টফোনটিতে জিপিইউ হিসেবে থাকছে PowerVR Vogue GE8320 জিপিউ মডিউল। অর্থাৎ বাজেট হিসেবে প্রিমো আর৯ ডিভাইসটিতে বেশ চলনসই হার্ডওয়্যার সেটাপ প্রোভাইড করেছে ওয়ালটন।

ফোনটিতে ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ পাওয়া যাবে, যার মধ্যে কিছু অংশ ফোনটির অ্যান্ড্রয়েড ১১ অপারেটিং সিস্টেম দখল করে রাখবে, বাকিটা আপনি আপনার সাধারণ ব্যবহারের জন্য পাবেন। তবে যাদের আরও বেশি স্টোরেজ দরকার তারা ২৫৬ জিবি পর্যন্ত এক্সট্রা ইন্টারনাল স্টোরেজ আপগ্রেড করে নিতে পারবেন।

এনটুটু বেঞ্চ-মার্ক অ্যাপে প্রিমো আর৯ এর স্কোর ১১১০৯৩। আর গিক বেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোরে এর স্কোর ১৪৫ এবং মাল্টি কোরে ৮৪১।

ক্যামেরা

বাজেট স্মার্টফোন হলে কি হবে? ওয়ালটন তাদের প্রতিটি স্মার্টফোনের সকল সেক্টরই এমনভাবে তৈরি করে যেন তা বাজারের অন্যসকল স্মার্টফোনের টেক্কা দিয়ে একটি আদর্শ স্মার্টফোনের সকল অভিজ্ঞতাই ক্রেতাকে দিতে পারে! ক্যামেরার দিক দিয়েও তার বিকল্প নয়! একটি স্মার্টফোনে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ক্যামেরা। আপনি স্মার্টফোন দিয়ে আর যাই কিছু করেন ফটোগ্রাফি এবং ভিডিওগ্রাফি কিন্তু করবেনই! সেই দিক দিয়েও প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনে পেয়ে যাচ্ছে রিয়ারে শক্তিশালী ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ। এই ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপে প্রাইমারি হিসেবে থাকছে একটি ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর।

বেশ ভালো এপার্চার এবং বড় সেন্সর সাইজ হবার কারণে এই স্মার্টফোনটির ক্যামেরা দিয়ে আপনি বেশ ভালোমানের ছবি তুলতে পারবেন। একদম ৪কে মানের ভিডিও রেকর্ডিং করা গেলেও; খুব ভালো মানের ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। পাশাপাশি স্মার্টফোনটির রিয়ার ক্যামেরা প্যানেলে ইআইএস তথা ইলেক্ট্রনিক ইমেজ স্টেবিলাইজেশন প্রযুক্তি থাকবার ফলে, টুকটাক ঝাঁকিতেও এই স্মার্টফোন দিয়ে স্টেবল ভিডিওগ্রাফি এবং ফটোগ্রাফি করতে পারবেন।

প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনের ফ্রন্ট প্যানেলে পেয়ে যাবেন একটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর। ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সরটির এপার্চার সাইজ এফ২ দশমিক ০। অর্থাৎ, বেশ ভালো এপার্চার সাইজ হবার কারণে স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়েও দারুণ দারুণ সকল সেলফি ধারণ করতে পারবেন।


স্মার্টফোনটিতে প্রাইমারি সিকিউরিটি সুবিধা হিসেবে থাকছে একটি ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর। পাশাপাশি স্মার্টফোনটিতে অন্যান্য স্পেশাল ফিচার তো থাকছেই। আপনার বাজেট যদি ১২হাজার টাকার মধ্যে হয়, তবে আপনার জন্য একটি আদর্শ স্মার্টফোন হতে পারে এই প্রিমো আর ৯ স্মার্টফোনটি।

ওয়ালটনের অন্যসকল স্মার্টফোনের মতই এই প্রিমো আর৯ স্মার্টফোনেও পেয়ে যাবেন রেগুলার ১ বছরের সার্ভিস ওয়ারেন্টি এবং ৬ মাসের স্পেয়ার পার্টস ওয়ারেন্টি। পরিশেষে দীর্ঘ এই লেখাটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ, আবার হাজির হবো অন্যকোন স্মার্টফোনের রিভিউ নিয়ে।

Level 12

আমি Touhidur Rahman Mahin। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 326 টি টিউন ও 88 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 24 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

ভালোবাসি প্রযুক্তি নিয়ে লিখতে, ভালবাসি প্রযুক্তি নিয়ে ভাবতে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস