বাতাসের ওজন কত? গাড়ি বা প্লেনে সিটবেল্ট না বাঁধলে কি হবে?

এই টিউনে দুটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। প্রথমে বাতাসের ওজন নিয়ে আলোচনা শুরু করা যাক৷

প্রতিদিনই আমরা বাতাসের মধ্যে চলা ফেরা করে থাকি। গ্রিষ্মকালে হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে গেলে রুমের মধ্যে বসে থাকা দায় হয়ে উঠে। কারণ বদ্ধ রুমে বাতাস খুব একটা বেশি পাওয়া যায় না। আমরা বাতাস অনুভব করি কিন্তু দেখতে পাইনা৷ বাতাস কখনো কখনো আবার তুফান হয়ে আমাদের নিকট আবির্ভূত হয়৷ বাতাসের ঝাপটায় টিনের ঘর ছোট্ট কুড়েঘরগুলো উড়িয়ে চিন্নবিচ্ছিন্ন করে দেয়। আবার বাতাসের বেগ বেশি থাকলে মানুষও সে বাতাসের বিপরীতে দাড়িয়ে থাকতে সমর্থ হয় না।

তাহলে কি বাতাসের ওজন আছে? যার বলে কোন কিছুকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। হ্যা, বাতাসের ওজন আছে ; বাতাস প্রতি বর্গসেন্টিমিটার এলাকার প্রায় এক কেজি চাপ প্রয়োগ করে৷ অর্থাৎ আমরা প্রত্যেকেই মাথার তালুর অনুপাতে তিন-চার কেজি বাতাসের ওজন বয়ে বেড়াচ্ছি৷ যেহেতু বাতাস আমাদের শরীরের চারদিক থেকে প্রযুক্ত হয় এবং এর বিপরীতমুখী চাপগুলো একে অপরকে নাকচ করে দেয়৷ তাই আমরা আমাদের মাথার তালুতে বাতাসের সেই ওজন টের পাই না৷

এখন আসি গাড়ি বা প্লেনে সিটবেল্ট বাঁধা প্রয়োজনীয়তা নিয়ে৷ এই বিষয়টি আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিনই অনেকে গাড়ি ড্রাইভ করে থাকেন। অনেকে প্রাইভেটকার আরোহি অবহেলা বশত হয়ত সিটবেল্ট বাঁধেননা৷ কিন্তু এটা আরোহির জন্য জরুরি৷ উন্নত দেশগুলো গাড়িতে বসে সিটবেল্ট না বাঁধা একটি বেআইনি কাজ। আরোহি যদি সিটবেল্ট না বাঁধেন তাহলে পুলিশ তাকে জরিমানা করে। অবশ্য আমাদের দেশেও এরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে৷

তো গাড়ি বা প্লেনে সিটবেল্ট বাঁধা আপনার জন্য এত জরুরি কেন?

এর একমাত্র কারণ হচ্ছে আরোহির নিরাপত্তা নিশ্চিত করা৷ কারণ যখন কোন আরোহি গাড়িতে চড়ে তখন আরোহি নিজেও গাড়ির গতির সমান গতি অর্জন করে৷ মানে আমরা যখন কোন গতিশীল বাহনে অবস্থান করি তখন আমরা নিজেরাও সেই বাহনের সমান হতি অর্জন করি৷ এখন চলন্ত অবস্থায় যদি কোন কারণে গাড়ি হঠাৎ ব্রেক করতে হয়, তাহলে গাড়ি থামবে অবশ্যই কিন্তু গতিজড়তার কারণে আরোহির দেহ গাড়ি থেকে প্রাপ্ত গতিতেই মানে গাড়ি যে গতিতে চলছিল সে গতিতেই সামনের দিকে ছিটকে পড়বে। এটাই হল নিউটনের প্রথম গতিসূত্র৷ গাড়িতে ব্রেক করার পর গাড়ি থেমে গেল ঠিকই কিন্তু আরোহির দেহটা সামনের দিকেই চলতে থাকল৷ এখন মনে করুন আপনি একটি প্রাইভেট কারে চড়ছেন আর গাড়িটি ১২০ কিলোমিটার স্পিডে চলছে৷

যদি হঠাৎ গাড়ি হঠাৎ করে ব্রেক করা হয় তাহলে আপনার যদি সিটবেল্ট বাঁধা না থাকে আপনি ১২০ কিলোমিটার স্পিডে  ছিটকে পড়ে  সামনের দিকে কাছ ভেঙে রাস্তায় গিয়ে পড়বেন। এতে কি সাংঘাতিক দুর্ঘটনা আপনার জীবনে বয়ে আসতে পারে চিন্তা করুন৷ তাই আরোহি যেন ছিটকে পড়ে না যায়, সে জন্য সিটবেল্ট বাঁধা অত্যান্ত জরুরি৷ সামনের আসনের আরোহিদের সিটবেল্ট বাঁধা বেশি জরুরি কারণ, বিপদ তাদেরই বেশি৷ পিছনের আসনের আরোহিরা তাদের সামনের আসন ধরে ব্রেক কষার চাপ সামলাতে পারে। কিন্তু সামনের আসনের আরোহিরা হাত দিয়ে কিছুটা চাপ সামলাতে পারলেও মাথা গিয়ে সামনে কাচে ধাক্কা খেয়ে মারাত্বকভাবে আহত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি৷

 

Level 1

আমি নূরুদ্দীন শহীদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 29 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

নির্দেশনা [০১]

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন’ অনুযায়ী হয়নি।

কারণ:

আপনার টিউনটি, লিস্ট বেইসড টিউনে ফরমেটিং করা হয়নি। ‘টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন’ অনুযায়ী এধরনের প্রকাশিত টিউন, লিস্ট বেইসড টিউন বা ‘Listicle’ (লিস্টিক্যাল) বা List Post (লিস্ট Post) ফরমেটিং করতে হয়।

লিস্ট বেইসড টিউনকে কন্টেন্ট রাইটিং এর ভাষায় ‘Listicle’ (লিস্টিক্যাল) বা List Post (লিস্ট Post) বলা হয়। লিস্ট বেইসড, ‘Listicle’ (লিস্টিক্যাল) বা List Post (লিস্ট Post) ফরমেটিং এর টিউন এর উদাহরণ হিসেবে টিউন ১টিউন ২ লক্ষ করুন।

লিস্ট বেইসড টিউনে লিস্টের

  1. প্রতিটি আইটেমের হেডিং H2 হতে হয়।
  2. প্রতিটি আইটেমের ক্রমিক নম্বর থাকতে হয় এবং প্রতিটি আইটেমের ক্রমিক নম্বর টেকটিউনস গাইডলাইন ফরমেট অনুযায়ী হতে হয়।
  3. প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে, আইটেমের সাথে প্রাসঙ্গিক, আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করে এমন ও ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুসরণ করে ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ থাকতে হয়।
  4. প্রতিটি আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করা ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ গুলো H2 হেডিং এর ঠিক নিচে থাকতে হয়। অর্থাৎ H2 হেডিং এর ঠিক পরেই প্রতিটি আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করা ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ থাকতে হয়।
খেয়াল রাখুন

১. টিউনে H2, H3 বা H4 সহ যে কোন হেডিং কখনও বোল্ড করা যায় না ও লিংক করা যায় না।

২. লিস্ট বেইসড টিউনে প্রতি আইটেমের ক্রমিক নম্বর থাকতে হয়।

লিস্ট বেইসড টিউনে প্রতি আইটেমের ক্রমিক নম্বর বাংলা নিচের ফরমেটে থাকতে হয়।

১. আইটেম ১
২. আইটেম ২

এখানে প্রথমে বাংলা ক্রমিক নম্বর, তারপর একটি ডট, ডটের পর স্পেস তারপর আইটেমের নাম।

লিস্ট বেইসড টিউনে লিস্টের প্রতি আইটেমে হুবহু এই ফরমেটে ক্রমিক নম্বর থাকতে হয়।

উদারহরণ সরূপ টিউন ১,টিউন ২, টিউন ৩ লক্ষ করুন।

এখানে লিস্ট বেইড টিউনে লিস্টের

  1. প্রতিটি আইটেমের হেডিং H2 রয়েছে।
  2. প্রতিটি আইটেমের ক্রমিক নম্বরের ফরমেট টেকটিউনস গাইডলাইন অনুসরণ করে রয়েছে।
  3. প্রতিটি আইটেমের হেডিং এর অধীনে, আইটেমের সাথে প্রাসঙ্গিক, আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করে এমন ও ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুসরণ করে ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ রয়েছে।
  4. প্রতিটি আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করা ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ গুলো H2 হেডিং এর ঠিক নিচে অর্থাৎ H2 হেডিং এর ঠিক পরেই প্রতিটি আইটেমকে রিপ্রেজেন্ট করা ছবি/স্ক্রিনসট/ইমেইজ রয়েছে।

করণীয়:

আপনার টিউনটি লিস্ট বেইসড টিউন ফরমেটিং এ ফরমেট করুন।

খেয়াল করুন: আপনার এই টিউন সংশোধনের জন্য আপনাকে সর্বোচ্চ ৫ বার নির্দেশনা দেওয়া হবে। এই ৫ বার নির্দেশনার মধ্যে আপনি যদি টিউন সঠিক ভাবে ও নির্ভুল ভাবে সংশোধনে ব্যর্থ হোন তবে এই টিউন টি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হবে না এবং ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য বাতিল হবে। নির্দেশনার ক্রমিক নম্বর নির্দেশনার শুরুতে নির্দেশনা [০১], নির্দেশনা [০২] এভাবে দেওয়া থাকে।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

খেয়াল করুন, এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই না করে টিউনে টিউমেন্ট করলে তার নোটিফিশেন ‘টেকটিউনস কন্টেন্ট অপস’ টিম পাবে না। তাই অবশ্যই এই টিউমেন্টের রিপ্লাই বাটনে ক্লিক করে রিপ্লাই করুন।

আমি নির্দেশনা [০২] অনুযায়ী টিউনটি সংশোধন করেছি। নির্দেশনা [০১] এর টুলসগুলো আমি খুঁজে পাচ্ছিনা। অন্য কোন উপায় কি রয়েছে? জানানোর জন্য অনুরোধ করছি।