রুটrootএর আদ্যোপান্ত–১

টিউন বিভাগ অন্যান্য
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

আসসালামু আলাইকুম। এটি টেকটিউনস এ আমার প্রথম লেখা। চেষ্টা করেছি রুট নিয়ে যতটা জানি তা আপনাদের জানানোর। ভুলত্রুটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।
অনেকেই তাদের অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলি রুট(root) করতে চায় যাতে তারা বিভিন্ন তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ্লিকেশন(third-party apps) ইনস্টল করতে পারে বা সাধারণত সিস্টেমের সীমাবদ্ধতাগুলি অতিক্রম করতে পারে। যা সাধারণত হার্ডওয়্যার নির্মাতাদের দ্বারা স্থাপন করা হয়। কিছু ফোন রুট হয়ে থাকতে পারে তবে তাদের বেশিরভাগই সাধারণত থাকে না।

প্রথমেই জেনে নেয়া যাক রুটিং(rooting) কি?
আইওএস(ios) এ রুটিং Jailbreaking হিসেবে পরিচিত। এটি ব্যবহারকারীকে নিয়ন্ত্রণ সুবিধা বা রুট অ্যাক্সেস দেওয়ার জন্য একটি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস আনলক করার একটি পদ্ধতি। এটি অনেকটা উইন্ডোজ বা লিনাক্স-ভিত্তিক ওএসে প্রশাসকের(administration) অধিকার পাওয়ার মতো। অর্থাৎ আপনার ডিভাইস রুট করা থাকলে আপনি ডিভাইসে নিজের পছন্দসই যেকোন পরিবর্তন (customize) করতে পারবেন।
একটি rooted অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সুবিধা
অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করার সাথে কিছু বিপদ রয়েছে। এটি সাধারণত তখন ঘটে যখন ব্যবহারকারীরা তাদের ফোনগুলির থেকে খুব বেশি পারফরম্যান্স নিতে(boost) চেষ্টা করেন, ডিভাইসের লিমিটেশনের ঠেলে দেয় বা কোনও নতুন ফার্মওয়্যার ইনস্টল করতে চেষ্টা করে যা পুরোপুরি ঐ ফোনে সাপোর্ট করে না। তবে ঘাবড়ে যাবেন না। রুটেড ফোন রাখার ক্ষেত্রেও যথেষ্ট সুবিধা রয়েছে। আপনি যদি প্রয়োজনীয় সিস্টেম প্রক্রিয়াগুলিতে গণ্ডগোল না করেন তবে ফোনের কার্যকারিতা কাস্টমাইজ করতে ও উন্নত করতে আপনি অনেক কিছু করতে পারেন।
১.Control একটি rooted অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে একটি ডেস্কটপ পিসি হিসাবে কল্পনা করুন। আপনি যতক্ষণ চান ডেস্কটপটি কনফিগার করতে পারবেন যতক্ষণ না সবকিছু সামঞ্জস্যপূর্ণ। রুটিং আপনাকে ফোনের সিপিইউ(CPU)এবং জিপিইউ(GPU) তে ওভারক্লোকিং বা আন্ডারক্লোক করার অ্যাক্সেস দিতে পারে। আপনি পারফরম্যান্সটি আরও সুন্দর করে তুলতে বা এটিকে নির্দিষ্ট করে রাখতে পারেন যাতে আপনার ফোন আরও ভালো সার্ভিস দিতে পারে।
এছাড়াও আপনি সম্পূর্ণ অ্যাপ্লিকেশন নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি অ্যাপ্লিকেশনগুলি সম্পাদনা করে আপনি যা চান তা ব্যাকআপ(backup), পুনরুদ্ধার(restore), সরিয়ে ফেলতে(remove) এবং যুক্ত(add) করতে সক্ষম হবেন। আপনি প্রি-ইনস্টল(pre-installed) হওয়া কিছু অপ্রয়োজনীয় সিস্টেম অ্যাপ্লিকেশনও সরাতে পারেন। এগুলি সাধারণত ব্লটওয়্যার(bloatwear) হিসাবে পরিচিত। ২.কাস্টমাইজেশন(Customization) রুট ফোন থাকার দুর্দান্ত সুবিধার মধ্যে একটি হ'ল কাস্টমাইজেশন যার মাধ্যমে আপনি থিম(theme) থেকে অ্যানিমেশন এবং আইকন সহ সমস্ত কিছু এর মধ্যে পেতে পারেন।
বেশিরভাগ স্মার্টফোন সীমিত বিকল্পের সাথে আসে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি আনরোটেড ফোনে আপনার লোডিং স্ক্রিন অ্যানিমেশনগুলি পরিবর্তন করতে পারবেন না। কিন্তু একটা রুট করা ফোনে আপনি চাইলেই আপনার পছন্দের অ্যানিমেশনগুলি দিতে পারবেন।
এর মানে রুট করার পর আপনি আপনার ফোনের একচ্ছত্র অধিপতি হয়ে গেলেন, আপনি যেমনটি চাইবেন তা করতে পারবেন।
আপনার ফোন রুট করা আছে কিনা তা পরীক্ষা করার কয়েকটি সহজ এবং ফ্রি উপায় রয়েছে। দেখে নিন আপনার ফোনটি রুট করা কিনা।
Settings থেকে
১.সেটিংস এ যান

২.একদম নিচে 'About Phone' অপশনটি খুঁজে বের করুন এবং ক্লিক করুন।
৩.'Status Information ' অপশনে ক্লিক করুন

৪.Device Status বা Phone Status লেখাটি দেখুন এবং এর নিচে ছোট করে Official লেখা কিনা দেখুন।
অফিসিয়াল লেখা মানে ফোনটি প্রস্তুতের পর এর কোন পরিবর্তন হয় নি, অর্থাৎ ফোনটি আনরুটেড(unrooted)। এরপরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য কোম্পানির ওয়েবসাইট ভিজিট করে আপনার ফোনের মডেল মিলিয়ে দেখে নিন।
App থেকে
১. প্লে স্টোর এ যান
২.সার্চ বারে লিখুন 'root checker'.লিংকঃhttps://play.google.com/store/apps/details?id=com.joeykrim.rootcheck
৩.Install করুন

৪.Root Checker অ্যাপটি ওপেন করুন এবং Get Started বাটনে ক্লিক করুন
৫.আপনার ফোনের মডেল স্ক্রিনে উঠলে Verify Root অপশন এ ক্লিক করুন।
এরপরই আপনাকে দেখাবে আপনার ফোনটি রুট করা কিনা।

আপনি কিভাবে রুট করবেন তা নিয়ে আগামী পর্বে লিখব ইনশাআল্লাহ।

Level 0

আমি মো.জাহিদুল ইসলাম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 5 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস