নতুন ব্লগ কেনো গুগল সার্চে র‍্যাংক করেনা : ওয়েবমাস্টার কেসস্টাডি ০১

শুরুতেই আমি অতীতের ব্লগিং জীবনের অভিজ্ঞতার কথা লিখি, ৮ বছর আগে আমি search engine optimization বলতে কি বুঝতাম। ফরেক্স রিলেটেড রিভিউ সাইট করেছিলাম, বিভিন্ন ফরেক্স ট্রেডিং টেকনিক্যাল বিষয় নিয়ে লিখতাম তখন। গুগল তখন এতটা কঠিন ছিলো না তবুও কপিরাইট এর বিষয়ে আমি যথেষ্ট সচেতন ছিলাম। তবে টিউন যত বড়ই হোক না কেনো, সব যায়গায় ছিলো কীওয়ার্ড এর ছড়াছড়ি। ডেনসিটি রুলস ফলো করতাম না কারন তখন এসব বিষয়ে কেউ শিক্ষায় দিতো না। ২০০+ শব্দের ১০ বা ১২ টা কন্টেন্ট লিখেই এডসেন্স পাওয়া যেতো কারণ বেশিরভাগ ব্লগার কন্টেন্ট এর মূল্য দিতো না যতটা মূল্য দিতো ব্যকলিংক এর। সারাদিনের কাজ ছিলো ফোরাম খুঁজে রেজিষ্ট্রেশন করে সিগনেচার এ নিজের সাইটের লিংক দেয়া, বিভিন্ন ব্লগে শত শত টিউমেন্ট করা, ওয়েব ২.০ হতে ইচ্ছামতো ডু ফলো ব্যকলিংক নেওয়া, pvn নেটওয়ার্ক ডিজাইন করে কাজ করা। আমি মনে করি তখনকার দিনে গুগল rank করার জন্যই ব্যকলিংক যথেষ্ট ছিলো। কতইনা পদ্ধতি অবলম্বন করে seo নামের অসাধ্য সাধন করে ফাস্ট পেইজে টিকে থাকার জন্য। আপনি কি এখনো তাই মনে করেন, ঐসব সহজ কাজগুলো করলে আপনার সাইট গুগল সার্চে সহজেই rank করবে? যদি ভেবে থাকেন তবে আপনি মান্দাতার আমলেই পড়ে আছে আর যদি এখনো ওসব করে বেড়ান তবে আপনি বৃথা নিজের মূল্যবান সময় নষ্ট করছেন। ভেবে দেখুন ঐ সময়ে ব্লগার থেকে সাব ডোমেইন নিয়ে ব্লগিং করেও আপনি টপ লেভেল ডোমেইনকে পিছেনে ফেলে rank করেছেন। তবে এখন কেনো আপনি রাংক করতে পারছেন না, কখনো এই বিষয়ে কেস স্টাডি করেছেন কি?

 

ব্লগিং এখন একটি মুক্ত পেশা, তাই নতুন নতুন অনেক ব্লগার কাজ শুরু করছেন প্রতিদিন। কিন্তু কাজ শুরু করার পর যখন সাইট rank করেনা তখন একবুক হতাশা নিয়ে বিদায় নিতে হয় ব্লগিং দুনিয়া হতে। আমি ব্লগিং ছেড়ে দেওয়ার আগে অন্তত এটা জেনে যায় আমি কেনো ফেইলর যেটা আমার শুরুতেই জানা উচিত ছিলো " যুদ্ধে টিকে থাকার জন্য আমার অস্ত্রের সাথে কি কি কৌশল অবলম্বন করতে হবে "।

★★★ ব্লগিং, এস ই ও, ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিন :

ফেসবুক গ্রুপ লিংক ::-  https://www.facebook.com/groups/281544592921165/

★ আমার ব্লগ / কন্টেন্ট গুগল কেনো rank করবে:-
ধরুন আপনি আপনার ব্লগে কন্টেন্ট লিখেছেন মোবাইল রিলেটেড নিশ নিয়ে, যেমন: " best 10 onleplus 8 pro screen প্রতেচতরস" নিয়ে আপনি ২০০০ হাজার শব্দের রিভিউ লিখেছেন। এখন যাদের অনলাইন থেকে রিভিউ পড়ে জেনে নেওয়া প্রয়োজন যে, আসলে কোন স্ক্রিন প্রোটেক্টর ভালো হবে তারা অবশ্যই গুগল সার্চ ইঞ্জিনে আসবে সঠিক তথ্য খুজতে। যখন গুগলে তারা ঐ কীওয়ার্ড টি লিখে সার্চ করবে তখন প্রথম পেজের প্রথম দিকের লিস্ট থেকে পছন্দের এক বা একাধিক সাইটের রিভিউ তারা পড়বে। তারা যা খুজছে আপনিও তাই লিখেছেন কিন্তু গুগল আপনার সাইটকে প্রথম পেইজে রাখেনি। তারা যাদের প্রথম পেইজে শো করছে তার মাঝে প্রথম ৩ টি সাইটের বয়স ৫+ বছর, তাদের রিভিউগুলো খুবই তথ্যবহুল। এরপরের প্রথম পেইজের বাকি সাইটগুলোর রিভিউ কেউ লিখে ১২ হাজার শব্দের, কেউ লিখেছে ৯ হাজার শব্দের, কেউবা নূন্যতম ৫০০০ হাজার শব্দের অার্টিকেল লিখেছে। লিস্টে থাকা প্রতিটি সাইট খুব পরিকল্পিত ভাবে লিংক বিল্ডিং করেছে। এবার আসি আপনার সাইটের বিষয়ে: নতুন ব্লগ বা রিভিউ কন্টেন্ট সাইট করেছেন আপনি, আপনার রিভিউ টিউনে শব্দের সংখ্যা কম, আপনি অপরিকল্পিত লিংক বিল্ডিং করেছেন আপনার ইচ্ছামতো।

ওয়েবমাস্টার কেসস্টাডি ০২ আসবে আগামী সপ্তাহে।  নিয়মিত এই বিষয়ে  আপডেট  পেতে উপরে দেওয়া আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিন।

Level 0

আমি আবির মিলন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 মাস 2 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 7 টি টিউন ও 1 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

এম আবির মিলন ::- প্রফেশনাল ব্লগার, কন্টেন্ট রাইটার, ডিজিটাল মার্কেটার এবং মোবাইল অ্যাপস ডেভেলপার।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস