5 টি সেরা ফ্রী এন্টিভাইরাস ডাউনলোড করে নিন 2020

সেরা ৫ ফ্রি এন্টিভাইরাস [২০২০ এডিশন]

বর্তমানে আমরা সকলেই এন্টিভাইরাসের সাথে কমবেশি পরিচিত। ম্যালওয়্যার এবং ভাইরাসের হাত থেকে নিজেদের পিসিকে নিরাপদ ও সুরক্ষিত রাখতে একটি সেরা এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করা প্রয়োজন, হোক সেটা ফ্রী কিংবা পেইড।

আপনি যদি উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন, তাহলে এর মধ্যে মাইক্রোসফটের নিজস্ব ফ্রি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার “উইন্ডোজ ডিফেন্ডার” দেওয়া আছে, যা নিয়মিত আপডেট করলে বেশিরভাগ ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যারের হাত থেকে সুরক্ষিত থাকা যাবে।

তবে আপনি যদি বাড়তি নিরাপত্তা চান তাহলে উইন্ডোজ ডিফেন্ডারের পাশাপাশি অন্য একটি ফ্রি কিংবা পেইড এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন। ফ্রি এন্টিভাইরাসের চেয়ে পেইড এন্টিভাইরাসে ফিচারস সংখ্যা বেশি থাকে। তবে সাধারণ ইউজারদের জন্য ফ্রি এন্টিভাইরাসই যথেষ্ট।

কিন্ত যারা অফিসে কিংবা ব্যবসায় ক্ষেত্রে বিভিন্ন কাজের জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করেন তাদের অব্যশই একটি ভালো পেইড এন্টিভাইরাস ব্যবহার করা প্রয়োজন।

যারা এখনো পুরনো সংস্করণের উইন্ডোজ ব্যবহার করেন কিংবা যারা কোন ফ্রি এন্টিভাইরাসটি ব্যবহার করবেন বা সবচেয়ে ভালো এন্টিভাইরাস কোনটি সেটা নিয়ে ভাবছেন তাদের জন্যই আজকের এই আর্টিকেল। নিম্নে বর্তমান সময়ের কয়েকটি সেরা এন্টিভাইরাস নিয়ে আলোচনা করা হলো।

সেরা ৫ ফ্রি এন্টিভাইরাস ২০২০

1 AVAST Free Antivirus

সেরা ৫ ফ্রি এন্টিভাইরাস - এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার
ফ্রি এন্টিভাইরাসের কথা বললে সবার আগে যে এন্টিভাইরাস এর নাম আসে সেটি হলো AVAST এন্টিভাইরাস। ১৯৯৫ সালে অ্যাভাস্ট কোম্পানি তাদের প্রথম এন্টিভাইরাস বাজারে ছাড়ে।

২০১৫ সালের এক জরিপ অনুযায়ী, বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার হলো এই অ্যাভাস্ট। প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ইউজার রয়েছে এর। সেইসাথে এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বাজারে এটির বৃহত্তম শেয়ারও রয়েছে।

ফ্রি এন্টিভাইরাসগুলোর মধ্যে সেরা প্রটেক্টশন পাওয়া যাবে অ্যাভাস্ট হতেই। অ্যাভাস্ট এন্টিভাইরাসের ফ্রি সংষ্করণে থাকছে ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যার প্রটেক্টশন, ওয়াই ফাই সিকুউরিটি স্ক্যান এবং পাসওর্য়াড স্টোরেজ ভল্ট।

অ্যাভাস্টের ফ্রি সংষ্করণে অটোমেটিক গেমিং মোড নামে একটি ফিচারও রয়েছে, যা পিসিতে গেমিং করার জন্য একটি উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে ইউজারকে সাহায্য করে থাকে।

উপরের এই ফিচারগুলো একজন সাধারণ ইউজারের জন্য যথেষ্ট। নিয়মিত আপডেট ছাড়াও এর সহজে ব্যবহারযোগ্য একটি ইউজার ইন্টারফেসও রয়েছে। এন্টিভাইরাসটি আপনি ২ গিগাবাইট র‌্যামের পিসিতেও ব্যবহার করতে পারবেন।

এছাড়াও ২০১৬ সালে অ্যাভাস্ট এভিজি টেকনোলজিকে কিনে নিয়েছে। তাই অ্যাভাস্টের টেকনোলজি এখন আরও উন্নত হয়েছে।
ডাউনলোড

2Bitdefender Free Antivirus

Bitdefender - এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার
ফ্রি এন্টিভাইরাসের কথা বললে অ্যাভাস্টের পর যার নাম আসে সেটি হলো Bitdefender এন্টিভাইরাস। এটি খুবই লাইটওয়েট একটি এন্টিভাইরাস।

এন্টিভাইরাসটি লাইটওয়েট হওয়ায় পিসির পারফরমেন্সে কোন রকম ব্যাঘাত ঘটায় না। উইন্ডোজ ডিফেন্ডারের মতোই ব্যাকগ্রাউন্ডে যে এন্টিভাইরাসটি কাজ করছে সেটি আপনি বুঝতেই পারবেন না। অ্যাভাস্টের মতো এটিও ২ গিগাবাইট র‌্যামের পিসিতে রান করানো যাবে।

এই এন্টিভাইরাসটির একটি পজিটিভ দিক হলো এটি পেইড সংস্করণে যে রকমের প্রটেক্টশন দেয় ঠিক একই ধরনের প্রটেক্টশন দেয় ফ্রি সংস্করণেও। তাছাড়া এন্টিভাইরাসটি পিসির জায়গা এবং রিসোর্স দুটোই খুবই কম ব্যবহার করে থাকে।

বেসিক এন্টিভাইরাস প্রটেক্টশনের পাশাপাশি এতে রয়েছে সিকিউর ব্রাউজার, ফ্রি এড-অন সফটওয়্যার এবং একটি লিমিটেড পাসওর্য়াড ম্যানেজার।

অন্যান্য ফ্রি এন্টিভাইরাস মতো এটি কোন ধরনের পেইড সংষ্করণের বিজ্ঞাপণ এবং বিভিন্ন অফারের বিজ্ঞাপণ দেখায় না, যা এই এন্টিভাইরাসটির আরেকটি পজিটিভ দিক।

তবে এন্টিভাইরাসটি খুব বেশি পরিমাণে কাস্টমাইজেশন করা যাবে না। সেরা এন্টিভাইরাস প্রটেক্টশনের জন্য বিটডিফেন্ডার AV-Comparatives এর প্রোডাক্ট অব দ্য ইয়ার ২০১৯ অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে।

ডাউনলোড

3Kaspersky Security Cloud

সেরা এন্টিভাইরাস - এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার
পেইড এন্টিভাইরাস হিসেবে Kaspersky এন্টিভাইরাস ইউজারদের কাছে বেশ পরিচিত। তবে ক্যাসপারেস্কির পেইড সংস্করণের পাশাপাশি তাদের একটি ফ্রি সংস্করণও রয়েছে, যার ভাইরাস প্রটেকশন যথেষ্ট ভালো।

ক্যাসপারেস্কি ফ্রি এন্টিভাইরাস থেকে সকল বেসিক প্রক্টেশনেই পাওয়া যাবে। রিয়েল-টাইম স্ক্যানিং, স্পাইওয়্যার প্রটেকশন, এন্টি-ফিশিং, ইমেইল স্ক্যানিং সহ আরও নানা ধরনের ফিচার ফ্রি সংস্করণে পাওয়া যাবে।

ক্যাসপারেস্কির সাহায্যে পিসিকে ভাইরাস থেকে মুক্ত রাখার পাশাপাশি, ঝুঁকিপূর্ণ ফাইলস এবং সফটওয়্যারকে রিয়েল টাইম ব্লকও করা যাবে।

তাছাড়া এর ইউজার ইন্টারফেস অনেক সহজ হওয়ায় যে কেউ এটি ব্যবহার করতে পারবে কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই। Pcmag ক্যাসপারেস্কি এন্টিভাইরাসকে এডিটরস চয়েজ হিসেবে মার্ক করে এর রেটিং ৫ এর মধ্যে ৪.৫ দিয়েছে।
ডাউনলোড

4AVG Free Antivirus

সেরা ফ্রি এন্টিভাইরাস - এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার
আজকের ফ্রি এন্টিভাইরাস লিস্টে ৪র্থ স্থানে থাকছে AVG। অ্যাভাস্টে যে এন্টিভাইরাস প্রটেকশন ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে ঠিক একই ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে এতেও। তবে এতে এমন কিছু ফিচার রয়েছে যা অ্যাভাস্টের ফ্রি সংস্করণে নেই।

এভিজি এন্টিভাইরাস ব্যবহার করার মাধ্যমে ভাইরাস, স্পাইওয়্যার, র‌্যানসমওয়্যার এবং অনান্য ম্যালওয়্যার থেকে সহজেই প্রক্টেশন পাওয়া যাবে। এছাড়াও রিয়েল টাইমে ব্রাউজারের অসুরক্ষিত লিংক, ডাউনলোড এবং ইমেইল এটাচমেন্ট স্ক্যান করাও যাবে এর সাহায্যে।

এভিজি এন্টিভাইরাস বিটডিফেন্ডারের মতো পিসির পারফরমেন্সে কোন রকম ইম্প্যাক্ট ফেলে না। অর্থাৎ এটি আপনার কম্পিউটারকে স্লো না করেই কাজ করতে সক্ষম। এছাড়াও এন্টিভাইরাসটি নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করে নেওয়ার সুযোগও রয়েছে।

এভিজি এন্টিভাইরাসের এতসব পজিটিভ দিক থাকা সত্বেও এর একমাত্র নেগেটিভ দিকটি হলো এটি অন্যান্য এন্টিভাইরাসের তুলনায় স্ক্যান করতে একটু বেশি সময় নেয়।
ডাউনলোড

5Avira Free Antivirus

সেরা এন্টিভাইরাস - এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার
লিস্টে থাকা আরেকটি সেরা এন্টিভাইরাস হচ্ছে Avira। এন্টিভাইরাসটির ক্লিন এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি ইউজার ইন্টারফেস থাকায় এটি ব্যবহার করা অনেক সহজ।

প্রাইভেসি ভিক্তিক ওয়েব ব্রাউজার, ভিপিএন ইত্যাদি এন্টিভাইরাসটি ইন্সটলের সময় অতিরিক্ত অ্যাড-অনস হিসেবে ইন্সটল করে নেয়া যাবে।

এতে ভাইরাস, ট্রোজান, স্পাইওয়্যার, এডওয়্যার এবং বিভিন্ন ধরনের ম্যালওয়্যার থেকে একজন ইউজারকে নিরাপদ রাখতে সকল ফিচারসই প্যাক করা হয়েছে।

তবে এই ফ্রি এন্টিভাইরাসটি নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করাটা একটু কঠিন হবে। তাই যারা এন্টিভাইরাস নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করতে পছন্দ করেন তারা অন্য কোন ফ্রি এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে পারেন।

তাছাড়া এটি পিসির পারফরমেন্সে বেশ ভালোই ইমপ্যাক্ট ফেলে। অর্থাৎ এটি ইন্সটল করলে পিসি কিছুটা স্লো হয়ে যেতে পারে।
ডাউনলোড
এই ছিলো বর্তমান সময়ের সেরা ৫টি ফ্রি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার। আশা করি আর্টিকেলটি ভালো লেগেছে। আর ভালো লেগে থাকলে টিউমেন্ট করে অব্যশই জানাবেন।

কোন সমস্যা হলে ঘুরে আসুন এই সাইটে.

Level 3

আমি TechsamirBD। MD, Blogger, Bogura। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 4 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

প্রিয় টিউনার,

‘টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন’ সেকশন ৬ অনুযায়ী

৬.১ সফটওয়্যার, অ্যাপ, প্লাগিং, এক্সটেনশন, স্ক্রিপ্ট, ই-বুক, ডকুমেন্ট, মিউজিক, মুভি এর পাইরেটেড, ক্র্যাক, প্যাচ, কী-জেন, ফুল ভার্সন, লাইসেন্স, কপি রাইট ভঙ্গ করে এমন জাতীয় কোন টিউন টেকটিউনসে প্রকাশ করা যাবে না।

৬.২ টিউনের যে কোন লিংক হতে হবে নন-রিডাইরেক্ট। টিউজিটর ও টিউডার রিডাউরেক্টের উদ্দেশ্যে, উদ্দেশ্যমূলক ভাবে ডাউলোডের জন্য প্রয়োজনীয় লিংক টিউনে না দিয়ে ডাউনলোড করতে নিজেস্ব সাইট, ব্লগ, ফোরাম, অনলাইন মিডিয়া, অনলাইন নিউজ মিডিয়া, ভিডিওতে গিয়ে ভিডিও এর ডেসক্রিপশনে ডাউনলোডের লিংক দেওয়া যাবে না। যে কোন কিছু ডাউনলোডের জন্য প্রয়োজনীয় লিংক টিউনে অবস্থান করতে হবে।

৬.৩ যে কোন ফ্রিওয়্যার, ফ্রিঅ্যাপস, ফ্রি গেমস, ওপেন সোর্স প্রোডাক্ট, প্লাগিং, এক্সটেনশন, স্ক্রিপ্ট, ই-বুক, ডকুমেন্ট অন্য সাইটে, নিজের সাইটে, যে কোন ধরনের ফাইল হোস্টিং ও ফাইল শেয়ারিং সার্ভিসে হোস্ট করে বা অন্য কোথাও আপলোড করে ডাউনলোড করার জন্য লিংক দেওয়া যাবে না। যে কোন ফ্রিওয়্যার, ফ্রিঅ্যাপস, ফ্রি গেমস, ওপেন সোর্স প্রোডাক্ট, প্লাগিং, এক্সটেনশন, স্ক্রিপ্ট, ই-বুক, ডকুমেন্ট ডাউনলোডের জন্য অবশ্যই এবং অবশ্যই নির্মাতা/প্রকাশক বা নির্মাতা/প্রকাশক প্রতিষ্ঠানের নিজেস্ব ওয়েবসাইট বা প্রোডাক্টপাতার ডাউনলোড লিংক বা নির্মাতা/প্রকাশক বা নির্মাতা/প্রকাশক প্রতিষ্ঠানের দ্বারা সাবমিট কৃত মার্কেটপ্লেস বা ডাউনলোড পোর্টাল এর ডাউনলোড লিংক দিতে হবে। ফ্রিওয়্যার ডাউনলোডের জন্য অব্যশ্যই নির্মাতার ওয়েবসাইট বা প্রোডাক্ট পেইজের ডাউলোড লিংক দিতে হবে।

৬.৪ যে কোন কিছু ডাউনলোডের জন্য প্রয়োজনীয় লিংক টিউনে অবস্থান করতে হবে। অর্থাৎ টিউজিটর ও টিউডার ডাউলোড লিংক এ ক্লিক করলে সেটি যেন মূল প্রোডাক্ট পাতা / মার্কেট প্লসে থেকে ডাউনলোড করতে পারে। টিউজিটর ও টিউডার রিডাউরেক্টের উদ্দেশ্যে নিজেস্ব বা এমন ব্লগ, ফোরাম, অনলাইন মিডিয়ার ভিডিওতে গিয়ে ডাউনলোড করতে হয়, এমন ডাউনলোড এর লিংক দেওয়া যাবে না।

৬.৫ গান, মিউজিক, মুভি ডাউনলোডের জন্য কোন প্রকার টিউন টেকটিউনসে করা যাবে না। শুধু মাত্র সাইন্সফিকশন মুভি, প্রযুক্তির কোন বিষয় আলোতপাত করা মুভি নিয়ে পূর্ণ রিভিউ প্রকাশ করা যাবে অথবা যে কোন মুভির ট্যাকনিক্যাল দিক, মুভিতে বিশেষ কোন প্রযুক্তির ব্যবহার ইত্যাদি নিয়ে পূর্ণাঙ্গ টিউন করা যাবে।


টেকটিউনস গাইডলাইন অনুযায়ী টিউন করুন

আপনি যদি কোন সফটওয়্যারের রিভিউ করতে চান তবে প্রথমত সফটওয়্যার, অ্যাপ, প্লাগিং, এক্সটেনশন, স্ক্রিপ্ট, ই-বুক, ডকুমেন্ট, মিউজিক, মুভি এর পাইরেটেড, ক্র্যাক, প্যাচ, কী-জেন, লাইসেন্স, কপি রাইট ভঙ্গ করে এমন জাতীয় কোন টিউন করা থেকে বিরত থাকুন।

দ্বিতীয়ত আপনি যে সফটওয়্যারের রিভিউ করতে চান সে সফটওয়্যারের পূর্ণ রিভিউ করুন। সফটওয়্যার ও অ্যাপ এর পূর্ণ রিভিউ ফরমেট, এই স্যাম্পল টিউন গুলো থেকে ধারনা নিন।

  1. Mobo Market ফুল ফেইজ রিভিউ : https://techtun.es/zJs0c5
  2. Poly Pane ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/oBc9Dc
  3. Feem ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/UVg1vN
  4. Magisk ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/s3mcmY
  5. Youtube Vanced ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/p5wdUe
  6. NewPipe ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/dQPwAk
  7. Easeus Todo Backup ফুল ফেইজ রিভিউ : https://techtun.es/4pFT24
  8. EaseUs Data Recovery Wizard ফুল ফেইজ রিভিউ: https://techtun.es/u7B0pf

যদি সফটওয়্যার ও অ্যাপ  ফ্রিওয়্যার হয় তবে আপনি টেকটিউনস গাইডলাইন মেনে ডাউনলোড লিংক দিন।

আর যদি সফটওয্যারটি ট্রায়ালওয়্যার, শেয়ারওয়্যার, ফ্রিমিয়াম বা পেইড সফটওয়্যার হয় তবে সফটওয়্যারটি কত দিনের ট্রায়াল, ট্রায়াল ও ফুল ভার্সনের কি কি পার্থক্য রয়েছে, আরও অন্য কোন কোন ভার্সন রযেছে কিনা, থাকলে কোন ভার্সনে কী সুবিধা তা বিস্তারিত টিউনে উল্লেখ করুন। ফুল ভার্সন এর মূল্য কত, কিভাবে ফুল ভার্সন কেনা বা Purchase করা যাবে, বাংলাদেশি টাকায় কত দাম পড়বে, ফুল ভার্সনের প্রাইজিং পেইজ ইত্যাদি বিস্তারিত টিউনে উল্লেখ করুন।

এরপর ডাউনলোডের জন্য অন্য আনঅফিসিয়াল/থার্ডপার্টি সাইটে, নিজের সাইটে, যে কোন ধরনের ফাইল হোস্টিং ও ফাইল শেয়ারিং সার্ভিসে হোস্ট করে বা অন্য কোথাও আপলোড করে ডাউনলোড করার জন্য লিংক না দিয়ে অবশ্যই এবং অবশ্যই নির্মাতা/প্রকাশক বা নির্মাতা/প্রকাশক প্রতিষ্ঠানের নিজেস্ব ওয়েবসাইট বা প্রোডাক্টপাতার ডাউনলোড লিংক বা নির্মাতা/প্রকাশক বা নির্মাতা/প্রকাশক প্রতিষ্ঠানের দ্বারা সাবমিট কৃত মার্কেটপ্লেস বা ডাউনলোড পোর্টাল এর ডাউনলোড লিংক দিন। অর্থাৎ মূল নির্মাতা/প্রকাশক বা নির্মাতা/প্রকাশক প্রতিষ্ঠানের অফিসিয়াল ডাউনলোড পাতার লিংক দিন যেখানে গিয়ে টিউডার/টিউজিটর ডাউনলোড করতে পারে।

টেকটিউনস ‘ট্রাসটেড টিউনার’ দের টিউন ফলো করে টিউন করুন:

আদর্শ টিউন হিসেবে টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউনারদের ডাউনলোড টিউন গুলো ফলো করে টিউন করুন। টিউন করতে সবসময় টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউনারদের মত মৌলিক, অরিজিনাল, কপিপেস্টমুক্ত, দারুন ইমেইজ ও ছবি সমৃদ্ধ, টেকটিউনসের সঠিক ও সুন্দর স্ট্যান্ডার্ড টিউন ফরমেটিং গাইডলাইন মোতাবেক ফরমেটিং করে, যে কোন ধরনের অ্যাফিলিয়েট, রেফারাল লিংক মুক্ত, টিউডার/টিউজিটর ড্রাইভাট ও রিডাইরেক্ট মু্ক্ত অরিজিনাল ও ইউনিক টিউন করুন।

টেকটিউনসে কি ধরনের কোয়ালিটি টিউন কিভাবে করে নিজের ফলোয়ার ও জোসস বাড়াবেন তা প্র্যাকটিক্যালি শিখতে টেকটিউনস এর ‘ট্রাস্টেড টিউনারদের’ সকল টিউন গুলো দেখুন ও শিখুন এবং তাঁদের মত করে টিউন করুন।

  1. টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ১
  2. টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ২
  3. টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ৩
  4. টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ৪

আপনি যদি চান যে টিউডার/টিউজিটর আপনার ওয়েব সাইট ভিজিট করুক

আপনি যদি চান যে টিউডার/টিউজিটর আপনার ওয়েব সাইট ভিজিট করুক তাহলে প্রথমত ‘টেকটিউনস টিউন গাইডলাইন’ মেনে সম্পূর্ণ টিউন করুন।

এরপর নিজের সাইটের লিংক দেবার জন্য সম্পূর্ণ টিউনের শেষে ব্লককোট করে “সৌজন্যে:” লিখে সাইটের লিংক দিন এই টিউনটি মত করে যেখানে টিউডার ও টিউজিটরদের কোন প্রকার অযাচিত আকৃষ্ট না করে টিউনের শেষে; নিচে ব্লককোট করে “সৌজনে:” লিখে লিংক দেয়া হয়েছে।

এতে আপনার টিউনের টিউডার ও টিউজিটরা আপনার প্রতি পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করবে।