অনলাইন সার্ভে কাকে বলে এবং কিভাবে আপনি অনলাইন সার্ভে থেকে আয় করতে পারবেন

  • অনলাইন সার্ভে কাকে বলে?

 

    • বিশ্বায়নের এ যুগে মানুষকে প্রতিটি ক্ষেত্রে

 

    • প্রতিযোগিতা করে এগিয়ে যেতে হচ্ছে। তাই

 

    • বিভিন্ন কোম্পানীকে তাদের ব্যবসা প্রসারের

 

    • জন্য তাদের পণ্য সম্পর্কে সাধারন মানুষের

 

    • মতামত গ্রহণ করে সে অনুযায়ী ব্যবসায়িক পলিসি

 

    • নির্ধারন করতে হয়। সাধারন মানুষের মতামত

 

    • গ্রহণের জন্য কোম্পানী গুলোকে বিভিন্ন

 

    • ধরনের জরিপ পরিচালনা করতে হয়। তাদের

 

    • পন্যের অবস্থান, প্রতিদ্বন্দি অন্য কোন পন্য

 

    • কেমন ব্যবসা করছে, সেগুলি কেন জনপ্রিয়তা

 

    • পাচ্ছে, মানুষ কি দেখে পন্য পছন্দ করে,

 

    • কিভাবে পন্যের কথা জানে ইত্যাদি তথ্য সংগ্রহ

 

    • করে তার ভিত্তিতে নিজেদের পরিকল্পনা ঠিক

 

    • করে। একাজ অনলাইনে করা তুলনামুলক সহজ। পিটিসি

 

    • সাইটের মত সার্ভে কাজে সহযোগিতা করার

 

    • জন্যও রয়েছে অনেক প্রতিষ্ঠান। তাদের সাথে

 

    • চুক্তি করলে তারা প্রশ্ন তৈরী করে সেগুলোর

 

    • মাধ্যমে অনলাইনে জরিপ পরিচালনা করে। আর এ

 

    • জরিপ কাজে যে সকল ব্যক্তি তাদের সুচিন্তিত

 

    • মতামত প্রদান করে, সার্ভে কোম্পানীর

 

    • মাধ্যমে তাদের পেমেন্ট প্রদান করা হয়।

 

    • কাদের জন্য সার্ভে কাজ?

    • যারা প্রতিদিন ১০০ ডলার আয় করতে
      চান।
    • যারা কষ্ট না করে খুব সহজে আয়
      করতে চান।
    • যারা বেকার- আয়ের পথ খুজছেন।
    • অফুরন্ত অবসর আর এই অবসর
      কাটানোর জন্য।
    • আরও অনেক ধরনের মানুষ যারা আয়
      করতে চান।

সহজে ইন্টারনেটে আয়ের জন্য অনলাইন
সার্ভে
ইন্টারনেটে আয়ের জন্য পিটিসি সম্ভবত
সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। তাদের সাইটে গিয়ে
নির্দিষ্ট লিংকে ক্লিক করলে সেই লিংকের
বিজ্ঞাপণ ওপেন হবে। আপনি সেই বিজ্ঞাপণ
দেখেছেন একারনে আপনাকে টাকা দেয়া
হবে। তাদের বিজ্ঞাপণ দেয়া উদ্দেশ্য, যদি সেই
বিজ্ঞাপণে সাড়া দিয়ে আপনি তাদের ব্যবসায়
সহযোগিতা করেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই
সেখানে সহজে টাকা আয়ের কথা বলা থাকে। তারা
ধরেই নেন পিটিসি সাইট যারা ব্যবহার করেন তারা
ক্লিক করার মত সহ পদ্ধতিতে আয় করতে চান।
পিটিসিতে বিজ্ঞাপণ দেখে আপনি বেশি উপার্জন
করতে পারেন না। কারন বিজ্ঞাপনদাতার সাথে
তাদের চুক্তি হয় প্রতি ডলারের জন্য কয়েকশত
থেকে কয়েক হাজার ক্লিক হতে হবে।
আপনাকে সেই ডলার আয়ের জন্য কয়েকশত
থেকে কয়েক হাজার ক্লিক করতে হবে।
সে তুলনায় অনলাইন সার্ভে থেকে আয়ের
সুযোগ বেশি। কাজটিও কিছুটা কঠিন, শুধুমাত্র ছবি
মিলিয়ে ক্লিক করলেই কাজ শেষ হয় না।
সাভে©তে কাজ করতে হলে বিভিন্ন ধরনের
প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। ক্ষেত্র বিশেষ এ
কোন পন্য বা সেবার উপর সুচিন্তিত মতামত প্রদান
করতে হয়। অনলাইন সার্ভে বলতে ঠিক কি বুঝায়,
কিভাবে করতে হয় একটি উদাহরনের মাধ্যমে
জেনে নেওয়া যাক।

কিছু উদাহরন দেখা যাক।

ধরুন কোন প্রসাধনীর জরিপ আপনার সামনে।
সেখানে প্রথম প্রশ্ন, আপনি কি সেই প্রসাধনি
ব্যবহার করেছেন? যদি করে থাকেন তাহলে
সেটা সম্পর্কে জেনেছেন কিভাবে (কয়েকটি
উত্তর দেয়া থাকবে), যদি না করেন তাহলে এর
বদলে কি ব্যবহার করেন ইত্যাদি ইত্যাদি। কাজেই যদি
এমন হয় যে বিষয়ে জরিপ করা হচ্ছে সেই পন্য
বা সেবা আপনার অপরিচিত তাহলেও ভয়ের কারন
নেই। কারন প্রশ্ন করা হবে আপনি তার সাথে কতটা
সম্পৃক্ত। আপনি যদি গাড়ি ব্যবহার না করেন তাহলে
আপনাকে গাড়ির কোম্পানী, মডেল ইত্যাদি
প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে না, হয়ত শেষ একটি
প্রশ্নের উত্তর দিলেই চলবে।

কিভাবে কাজ পাবেন?
অধিকাংশ অনলাইন সার্ভেতে বিনামুল্যে সাধারন সদস্য
হওয়া যায়। টাকা দিয়ে সদস্য হলে বেশি আয় করা যায়।
অনলাইনে ভুয়া ব্যবসার অভাব নেই, কাজেই
সবচেয়ে ভাল হয় প্রথমে বিনামুল্যে সদস্য হয়ে
কিছুদিন কাজ করে তাদেরকে যাচাই করা।
অনলাইন সার্ভে বা এ ধরনের কিছু লিখে গুগলে
সার্চ করলে বহু সাইটের ঠিকানা পাবেন। তাদের
সম্পর্কে রিভিউ, তাদের নিয়ম, টাকা দেয়ার পদ্ধতি
ইত্যাদি পড়ে বাছাই করুন কোথায় কাজ করতে চান।
image.
কিভাবে কি করতে হবে, আপনি তা নিয়ে ভাবছেন?
পেইড সার্ভে সাইটগুলোতে বিভিন্ন বিষয়ের
উপরে জনমত সংগ্রহের জন্য জরিপ চালানো হয়।
এই উদ্দেশ্যে প্রতিদিন অসংখ্য সার্ভে এখানে
জমা পড়ে। সেই অসংখ্য সার্ভে থেকে কিছু
সংখ্যক পূরণ করে আপনি ঘরে বসে বাড়িয়ে নিতে
পারেন আপনার আয়। সার্ভের প্রশ্নগুলো
যথেষ্ট সহজ এবং আপনি স্বাচ্ছ্যন্দের সাথেই
পূরণ করতে পারেন। এইসব সাইটে সাধারণত দুই
ধরনের সার্ভে দেখা যায়। কিছু সার্ভে আছে
যেখানে শুধু হ্যাঁ বা না এর মাধ্যমে প্রশ্নের
উত্তর দিতে হয়। এইসব সার্ভে পূরণ করতে ৫
থেকে ১০ মিনিটের বেশী সময় প্রয়োজন হয়
না। আর কিছু সার্ভে আছে যেগুলোতে
আপনাকে যে কোন একটি পণ্য বা যে কোন
বিষয়ের ব্যাপারে নিজস্ব মতামত জানাতে হয়। এই
ধরনের সার্ভে সাধারণত ১৫ থেকে ৩০ মিনিটে
পূরণ করা যায়। বিভিন্ন ধরনের সার্ভের জন্য বিভিন্ন
ধরনের পেমেন্ট রেট আছে। সাধারণত,
একেকটি সার্ভের জন্য আপনি পেতে পারেন
১ডলার থেকে শুরু করে ১৬ডলার পর্যন্ত। আর
ঠিক পিটিসি সাইটগুলোর মতই, একটি বড় ও সচল
রেফারেল আপনার আয় বাড়িয়ে দেবে
কয়েকগুণ।

আপনি কি নিয়ম মেনে চলবেন?
অনেক বেশি আয় হবে এ ধরনের কথা শুনে
কাউকে টাকা দিয়ে সদস্য হবেন না। তারা সবাই ভুয়া
এমন হয়ত না। বিনা টাকায় কাজ করার সুযোগ যদি থাকে
তাহলে টাকা খরচ করবেন কেন?
জরিপের প্রশ্নগুলি করা হবে ইংরেজিতে।
প্রশ্নগুলি পড়ে বোঝার মত ইংরেজি জানতে
হবে। আপনাকে টাকা দেয়া হচ্ছে বিশেষ একটি
কাজের জন্য, আপনি নিশ্চয়ই না বুঝে কোনমতে
ক্লিক করে দায় শেষ করতে পারেন না। অনেক
জরিপ সমাজের উপকারের জন্য। যতটা সম্ভব
দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে সঠিক উত্তর দিতে
চেষ্টা করুন।
সাধারনত টাকা দেয়ার জন্য পেপল, এলার্ট-পে,
পেইজা, ব্যাংক চেক ইত্যাদি মাধ্যম ব্যবহার করা হয়।
আপনার জন্য সুবিধাজনক পেমেন্ট সিস্টেমে
পেমেন্ট নিন। বাংলাদেশে এলার্ট-পে ব্যবহার করা
যায়, ব্যবহার সহজ।
আপনি যদি পিটিসি ব্যবহার করেন তাহলে নিশ্চয়ই
জেনেছেন পিটিসি সম্পর্কে যতটা বলা হয়
বাস্তবে ততটা আয় করা যায় না। সে তুলনা অনলাইন
সার্ভে কিংবা এ ধরনের কাজে আয় অনেক বেশি।
ক্রমে বড় কাজের দিকে যেতে চেষ্টা করুন,
একসময় একেই পুরোপুরি পেশা হিসেবে ব্যবহার
করা সম্ভব হবে।

তাহলে আজ এ পর্যন্তই। দেখা হবে অন্য কোন
টিউনে। আশা করি আপনারা আমাদের এভাবেই
সাপোর্ট দিয়ে আমাদের সাথেই থাকবেন। আর
আমরাও আপনাদের নতুন নতুন টিউন উপহার
দেওয়ার চেষ্টা করব।

priyobe.com এই সাইটে রেজিস্ট্রেশন করলেই
Author আর প্রতি টিউনের জন্য 5-10 টাকা করে
দেওয়া হয়. তাহলে আর দেরি কেন এখনি
রেজিস্ট্রেশন করুন আর টিউন করা শুধু করুন

Level 0

আমি নাদিম মাহমুদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 2 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস