অতিরিক্ত মোবাইল চাপলে কি কি সমস্যা হতে পারে

Level 4
Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর

আসসালামু আলাইকুম। টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউনে আপনাকে স্বাগতম। আমি স্বপন আছি আপনাদের সাথে। আশাকরি সকলেই অনেক অনেক ভালো আছেন। তো বন্ধুরা আজকে আমরা অতিরিক্ত মোবাইল চাপার কুফল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো অথবা অতিরিক্ত মোবাইল চাপলে আপনার শারীরিক, মানষীক কি কি সমস্যা হতে পারে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

তো বন্ধুরা আজকের এই আলোচনার মূল বিষয় টি আপনাদের সবাইকে স্বাস্থ্য ঝুঁকি সম্পর্কে অবগত করা। কারণ আজকের ছোট্ট থেকে বড়ো সবার হাতেই স্মার্টফোন রয়েছে। আর এর মাত্রাধিক ব্যবহার ও লক্ষ করা যায়। কিন্তু আপনি কি জানেন এর ফলে আপনার কি কি সমস্যা হচ্ছে বা হবে৷ হয়ত জানেন না। আর জানলে আপনি নিশ্চিত চমকে উঠবেন। কারণ অতিরিক্ত মোবাইল ফোন চাপার কারণে আপনার আমার সবার শরীরে মারাত্মকভাবে ক্ষতি হচ্ছে। আপনি যদি আমার এই আজকের টিউন টি মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে অতিরিক্ত মোবাইল চাপার কুফল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। আর বিস্তারিত জানার পর আমি নিশ্চিত আপনিও আপনার হাতের ফোনটি অতিরিক্ত চাপা থেকে বিরত থাকবেন। তো চলুন আর বেশি কথা না বলে আজকের টিউন শুরু করা যাক ❝ অতিরিক্ত মোবাইল চাপালে কি কি সমস্যা হতে পারে

১. চোখের দৃষ্টিশক্তি কমে যাওয়া

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার সবার প্রথমে যে সমস্যা টি হবে পারে তা হলো চোখের দৃষ্টিশক্তি কমে যাবে। কারণ আপনি সারাক্ষণ মোবাইলের ডিসপ্লে লাইটের দিকে তাকিয়ে থাকবেন যার ফলে মোবাইল থেকে একপ্রকার আলোকরশ্মি সরাসরি আপনার চোখের রেটিনায় আঘাত করবে। আপনি হয়ত এই সমস্যাটি প্রথম কয়েকদিন বা কয়েকবছর বুঝতে পারবেন না তবে আস্তে আস্তে ঠিকই আপনার চোখের দৃষ্টিশক্তি কম হবে। সেটা আপনি সময়ের ব্যবধানে আস্তে আস্তে বুঝতে পারবেন। অনেকেই অল্প কিছুদিনের মধ্যই অনেক দূরের জিনিস বা অনেক কাছের জিনিস ভালো করে দেখতে পারবে না। ফলে তাদের চশমা ব্যবহার করতে হবে। এছাড়াও অনেক বেশি মোবাইল চাপার কারণে আপনার চোখের রেটিনা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। ফলাফল হিসাবে আপনি একদম চোখে নাও দেখতে পারেন। তাই নিজের চোখ কে ভালো রাখতে মোবাইল না চাপা বা প্রয়োজন ছাড়া মোবাইল না চাপার বিকল্প আর কিছু নাই।

২. নিয়মিত মাথা ঘোরা

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার নিয়মিত মাথা ঘোরার মতো সমস্যাও দেখা যেতে পারে। আপনি সারাদিন ফোন চাপেন এটিই মূলত আপনার ব্রেন কে প্রয়োজনের থেকে বেশি ক্ষয় করে ফেলবে। আপনার ব্রেনের যে পরিমাণ পুষ্টি বা নিদ্রা প্রয়োজন তা হবে না। যার ফল আপনার মাথা ঘোরার মতো চরম সমস্যা হতে পারে। মাথা ঘোরার একটি মূল কারণ হলো একই সময়ে অনেক বেশি চিন্তা করা, অনেক বেশি কিছু নিয়ে আলোচনা করা কিংবা একসাথে অনেক কিছু মাথার মধ্য ঘুরপাক করা যা আমরা ফোনের মাধ্যমে করে থাকি। এই সমস্যাগুলোর কারণে আমাদের মাথার উপর অনেক বেশি বা অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হবে। ফলাফল হিসাবে আমাদের নিয়মিত মাথা ঘোরা রোগে আক্রান্ত হবো।

৩. শারীরিক স্বাস্থ্য ঝুঁকি

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার শারীরিক স্বাস্থ্য ঝুঁকি হতে পারে। শারীরিক স্বাস্থ্য ঝুঁকি গুলোর মধ্য অন্যতম হলো চিকন হয়ে যাওয়া, খাবার কম খাওয়ার কারণে শরীর দুর্বলতা লাগা এমন কি শরীরের সাধারণ বিকাশ প্রভাবিত হয়ে যাবে। সঠিকভাবে মেধা বিকাধ হবে না। যার ফলে হাবা গোবা টাইপের আচরণ চলে আসবে। শরীরে বেশি বল শক্তি আসবে না। যার ফলে তারা ভারি কাজ করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলবে।

৪. পড়াশোনা মনে না থাকা

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার মেধা শক্তি হ্রাস পেতে পারে। অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার মেধা বিকাশ হবে না। আপনার মনোযোগ সবসময় ফোনের মধ্য থাকবে। তাই আপনার মন অনেকটা ভোলা ভালা টাইপের হয়ে যাবে। একটু আগেই কোথাও কিছু রাখলে একটু পরেই সেই জিনিস টা কোথায় রাখছিলেন সেটি আর মনে থাকবে না। শুধু জিনিস না এক্ষেত্রে আপনার পড়াশোনা মনে রাখার ক্ষমতাও আপনার মস্তিষ্ক হারিয়ে ফেলবে। যার ফলে একটু আগেই কি পরছিলেন একটু পর তা আপনি আর মনে করতে পারবেন না। আপনি যত জোনেই পড়ুন না কেনো কিংবা আপনি যত মনোযোগ দিয়েই পড়ুন না কেনো সেটি আপনার মনে থাকবে না। কারণ আপনার মেধা অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে বিকাশিত হচ্ছে না। যার ফলে আপনার মস্তিষ্ক ধারণ ক্ষমতা খুব কম। ফলে আপনার মনে না থাকার মতো চরম সমস্যা হতে পারে।

৬. চোখ লাল থাকা

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার চোখ সবসময় লাল হয়ে থাকতে পারে। কারণ অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে ফোনের উচ্চ আলোকরশ্মি সোজা আপনার চোখের রেটিনায় এসে আঘাত করতে ফলে আপনার চোখ আস্তে আস্তে লাল হওয়া শুরু করবে। যেমন নেশাগ্রস্ত মানুষের চোখ লাল থাকে ঠিক তেমন ভাবে আপনার চোখ ও সবসময় লাল হয়ে থাকতে পারে৷ এমন সমস্যা এড়াতে আমাদের সবসময় ফোন চাপা থেকে বিরত থাকতে হবে। নয়তো আমাদের চোখ লাল থাকার মতো জটিল সমস্যায় পরতে পারি৷

৭. চোখ দিয়ে অকারণে পানি পড়া

অতিরিক্ত ফোন চাপার ফলে আপনার বা আজকাল তরুণ কিংবা তরুণীদের সবচেয়ে বেশি কমন যে সমস্যাটি হয় তা হলো একটু পর পর অকারণে চোখ দিয়ে পানি ঝরে পড়া। প্রথমে আমরা ভাবি এটি মনে স্বাভাবিক কোন সমস্যা কিন্তু না। এটি একসময় মারাত্মক রূপ নিতে পারে। মোবাইলের উচ্চ আলোকরশ্মির কারণে আমাদের চোখের রেটিনা আস্তে আস্তে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। যা একসময় বেশি আলো আর সইতে পারে না। যার ফলে চোখে আলো লাগার কারণে আমাদের চোখ থেকে অকারণেই পানি ঝরতে পারে। এমন সমস্যা থেকে মুক্তির জন্য আমাদের অবশ্যই কম করে ফোন চাপতে হবে।

৮. কানের সমস্যা বা মাইগ্রেনের সমস্যা

অতিরিক্ত ফোনে কথা বলার ফলে আপনার কানের সমস্যা বা মাইগ্রেন এর মতো বিরাট সমস্যাও হতে পারে। কারণ আমরা যখন কারো সাথে ফোনে কথা বলি তখন আমরা ফোন কানের সাথে রেখে কথা বলি। তা ৫/১০ মিনিট এর জন্য স্বাভাবিক কিন্তু সেই কথা যদি ১/২ ঘণ্টার মতো দৃঘ্য সময় ধরে হয় তাহলে আমাদের কানে ব্যথা কানে কম শোনার মতো জটিল সমস্যা গুলো হতে পারে। এমনটি আমাদের এই কথাগুলো যদি প্রতিদিন হয় তাহলে মোবাইলের এই সাউন্ড সরাসরি আমাদের কান থেকে আমাদের মাথায় চাপ সৃষ্টি করবে। যার ফনে আমাদের মাইগ্রেন এর মতো যটিন রোগে আক্রান্ত হবো। এমন রোগ থেকে বাঁচতে হলে অবশ্যই আমাদের খুব কম করে মোবাইলে কথা বলতে হবে কিংবা খুব কম সময় মোবাইল চাপতে হবে।
তো বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের টিউন ❝ অতিরিক্ত মোবাইল চাপলে কি সমস্যা হতে পারে ❞ আশাকরি টিউন টি আপনাদের ভালো লেগেছে। প্রতিদিন টেকনোলজি বিষয়ক নতুন নতুন টিপস এন্ড ট্রিক নিয়ে আর্টিকেল পড়তে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইটে TrickNew দেখা হবে পরবর্তী টিউনে ততক্ষণ অবধি সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আর টেকটিউনস এর সাথেই থাকবেন। ধন্যবাদ।

Level 4

আমি স্বপন মিয়া। Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 67 টি টিউন ও 28 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

টেকনোলজি বিষয়ে জানতে শিখতে ও যেটুকু পারি তা অন্যর মাঝে তুলে ধরতে অনেক ভালো লাগে। এই ভালো লাগা থেকেই আমি নিয়মিত রাইটিং করি। আশা করি নতুন অনেক কিছুই জানতে ও শিখতে পারবেন।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস