কেন ব্ল্যাকবেরি মোবাইল বর্তমানে ব্যবহার হচ্ছে না?

আমরা যদি পনেরো বছর পেছনের দিকে যাই টেকনোলজির দুনিয়াতে ব্লাকবেরি তখন একটা প্রতিষ্ঠিত জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে। স্মার্ট ফোন দুনিয়াতে ব্ল্যাকবেরি একটি চমক এনেছিল। ব্ল্যাকবেরি তখন মানুষের কাছে এতটাই জনপ্রিয় হয়েছিল যে আমেরিকান মার্কেটে ৫০% শেয়ার হোল্ডার দখল করেছিল এবং ২০% শেয়ার হোল্ডার দখল করেছিল পুরো দুনিয়াতে এই ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন। ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন এই পরিবর্তনটা এনেছিল মাত্র এক বছরের মধ্যে। এত পপুলারিটির পরেও বর্তমানে ব্ল্যাকবেরি মাত্র ১% এবং তার থেকেও কম শেয়ার হোল্ড করে স্মার্টফোন দুনিয়াতে।

তাহলে চলুন আমরা জানি কি এমন হয়েছিল যার কারনে ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন এর অধঃপতন হল।

ব্ল্যাকবেরি কোম্পানি অতীত

 

ব্ল্যাকবেরি কোম্পানি ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় তখন তারা মডেম আর পেজেস উৎপাদন করত কিন্তু ২০০০ সালে তারা প্রথম লঞ্চ করে ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন উইথ কিপ্যাড। ব্ল্যাক বাড়ির প্রথম ফোনটি ছিল ব্ল্যাকবেরি ৯৫৭। এই স্মার্টফোনটিতে স্পেশাল কিছু বৈশিষ্ট্য ছিল যার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ছিল কাস্টমারের সিকিউরিটি, পুশ ম্যাসেজ আর ইন্টারনেট ব্রাউজিং। এরা সিকিউরিটি এতটাই প্রাধান্য দিতে যে এই ফোনটি তারা শুধু তখনকার আমেরিকার কর্পোরেট লেভেলের লোকজনের জন্য তৈরি করত স্মার্টফোনগুলি। আর ঠিক এই সময়টাতে ব্ল্যাকবেরি কোন কম্পিটিশন ছিল না মার্কেটে ২০০৭ সাল পর্যন্ত। ২০০৭ সাল যখন অ্যাপল তাদের প্রথম স্মার্ট ফোন লঞ্চ করে এবং ২০০৮ সালে প্রথম অ্যান্ড্রয়েড বের হয়। তখন পর্যন্ত কেউ ভাবেনি ব্ল্যাকবেরিয়ের এতটা অধঃপতন হবে কিন্তু ব্ল্যাকবেরি ২০১০ সাল পর্যন্ত আমেরিকান মার্কেটে ৪০% শেয়ার হোল্ড করে রেখেছিল এবং গ্লোবালি পুরো পৃথিবীতে তারা ২০% শেয়ার হোল্ড করেছিল।

কেন ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোনের এই পতন

ব্ল্যাকবেরি কোম্পানির এক্সিকিউটিভ যে ভুলটা করে সেটা হচ্ছে মার্কেট এনালাইসিস না করা। কারণ যখন প্রথম টাচস্ক্রিন ফোন অ্যাপেল রিলিজ করে ইউএস মার্কেটে তখন তারা বাটন ফোনের উপরেই বেশি নির্ভরশীল ছিল। তবু তারা বুঝতে পারে যে টাচস্ক্রিন ফোনের একটা চাহিদা ইউএস মার্কেটে বৃদ্ধি পাচ্ছে সেই অনুযায়ী ব্ল্যাকবেরি তাদের প্রথম টাচ স্ক্রিন ফোন উৎপাদন করে এবং মার্কেটে রিলিজ করে সেটার নাম হচ্ছে ব্ল্যাকবেরি স্ট্রম।

কিন্তু ব্ল্যাকবেরি তখনো পর্যন্ত বাটন ফোন কি বেশি প্রাধান্য দিচ্ছিল টাচস্ক্রিন ফোন উৎপাদন করার পরেও বাটন ফোনের প্ বেশি মার্কেটিং করত কিন্তু এদিকে অ্যাপেল এবং অ্যান্ড্রয়েড নতুন নতুন টাচ স্ক্রিন ফোন উৎপাদনের দিকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছিল। এই স্লো মার্কেট রিএকশন এর কারণেই ব্ল্যাকবেরি অনেকটা পিছিয়ে পড়ে টাচস্ক্রিন ফোনের দুনিয়া থেকে।

দ্বিতীয় যে বড় ভুলটি করে সেটা হচ্ছে ব্ল্যাকবেরি শুধুমাত্র কর্পোরেট লেভেলের লোকজনের জন্যই তাদের ফোন উৎপাদন করত কিন্তু ঠিক অপরদিকেই অ্যাপেল এবং অ্যান্ড্রয়েড তাদের টাচস্ক্রিন ফোনগুলো যাতে প্রত্যেকটি মানুষ ব্যবহার করতে পারে সেই দিকে পদার্পণ করছিল। এপল এবং অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলি যাতে প্রত্যেকটা মানুষ ব্যবহার করতে পারে এবং দামেও কম হয় সস্তা এবং অনেক ইউজার ফ্রেন্ডলি হয় সেদিকে নজর দাড়িটা বেশি ছিল কিন্তু ব্ল্যাকবেরি যেহেতু অনেক বছর যাবত মার্কেটে ছিল তাদের সিকিউরিটি এবং মেসেজিং সিস্টেমের কারণে সেজন্য তারা সেই দিকটাতেই বেশি ফোকাস করে মার্কেটে কাস্টমার ধরার চেষ্টা করতেছিল। যার জন্য ব্ল্যাকবেরি স্মার্টফোন দুনিয়া থেকে অ্যাপেল এবং অ্যান্ড্রয়েডের কম্পিটিশন থেকে বের হয়ে পড়ে এবং দুর্বল মার্কেট এনালাইসিসের কারণে তারা কাস্টমার মেইন ফোকাস থেকে সরে আসে।

তৃতীয় যে ভুলটা করে তা হচ্ছে তাদের অ্যাপ টাকে ওপেন সোর্স না করা যা সবাই ডেভেলপমেন্ট করতে পারে। ব্ল্যাকবেরি আসলে অ্যাপ উপরে নির্ভরশীলতা আনতেই চাচ্ছিল না যার কারণে মানুষের কাছে স্মার্টফোনটা অনেক ইউজার ফ্যামিলি হয় এন্টারটেইনিং হয় এবং কাস্টমআইজেবল হয়।

Realme Earbuds Samsung Buds Portable Monitor Gaming Laptop

Level 2

আমি আসিফ বিল্লাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 15 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস