টেকনো স্পার্ক নাইন টিTecno Spark 9T আনবক্সিং: প্রথম ইমপ্রেশন-১৫০০০ হাজারে

টিউন বিভাগ মোবাইলীয়
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

তথ্য

আসসালামু আলাইকুম কি অবস্থা সবার নতুন আরো একটি টিউনে আপনাদেরকে স্বাগতম। আজকের টিউনে আমরা টেকনোর একটি ফোন নিয়ে কথা বলবো। এটা হলো টেকনো স্পার্ক নাইন টি একদমই ব্র্যান্ড নিউ একটা ফোন। এই ফোনের ডিসপ্লে হচ্ছে এইচডি প্লাস রেজুলেশনের ৫০০০ এম, এইচ ব্যাটারি আছে উইথ টাইপ সি পোর্ট। ৩০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা মেমোরি ফ্যাশন টেকনোলজি এবং আরো কিছু স্পেসিফিকেশন লেখা আছে।

১। ফোনটির আনবক্সিং

বক্সটি আনবক্স করার পর দেখি প্রথমেই মোবাইলটি। বক্সের একটা ছোট্ট ঢাকনা উঠালাম এখানে প্রথমে আমরা দেখতে পাচ্ছি ইউজার ম্যানুয়াল আছে। এখানে লেখা আছে টেকনোলজি ওয়ারেন্টি, টুয়েলভ ক্লাস ওয়ান মান্থ ওয়ারেন্টি। এখানে আমরা একটা ট্রান্সপারেন্ট সিপিইউ কেস দেখতে পাচ্ছি। বক্সের ভেতরে দেখতে পাচ্ছি প্রথমে চার্জিং অ্যাডাপ্টার। পরে দেখি একটা চার্জার অ্যান্ড ভেতরে ইউএসবি টাইপ সি। পাশাপাশি একটা ইয়ারফোন দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের প্রাইস নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪, ৯৯৯ টাকা বা ১৫, ০০০ টাকা এবং এটা হচ্ছে (৪ জিভি টু ১২৮ জিভি) ভেরিয়েন্টের। আমরা একটু পলিথিন থেকে ফোনটাকে বের করে ফেলি। টেকনো এই ফোনটার ডিজাইনটাও একটু হাইলাইট করেছে। আমরা একটু দেখি এই ফোনটার ডিজাইনটা কেমন।

ফোনটির পেছনের কালার কিছুটা ব্লু কালারের। আমার কাছে কিন্তু এই ফোনেরটার ফাস্ট ইম্প্রেশন লুকটা দারুন লেগেছে। গুড লুকিং একটা ফোন বলতেই হবে, বাজেট সেগমেন্টে। ভালই গ্লাসি ফিনিশ দেওয়া হয়েছে, আমার চেহারা একদম স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে আয়নার মতো। এখানে ইউজ করা হয়েছে পেছনে প্লাস্টিক উপরের দিকে ক্যামেরা হাউজটা দুইটা ক্যামেরা হাউস দেওয়া হয়েছে। তার উপরে প্রাইমারি ট্রেনিং নিচে একটা বড় গোল এর মধ্যে দুইটা ক্যামেরা রাখা হয়েছে এবং পাশে ফ্লাসলাইট আছে। এর উপরের দিকে টেকনো স্পার্ক লেখার, নিচের দিকে লেখা আছে স্টপ এট নাথিং। আমি দেখতে পাচ্ছি এটাতে সাইড  মাউন্ড ফিংকার স্ক্যানার রয়েছে। বাম পাশটায় সিমকার্ড দেওয়া হয়েছে। এবং ফোনটা একটু  রাউন্ডের আর একটু হালকা বক্স আকারের। এবং উপরের দিকে একটু নড্স আছে। ফোনটা নিচের দিকে আছে, আই ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট স্পিকার ৫ এম এম অডিও জেক।

২। ফোনটির ইসটোরেজঃ
ফোনটি অন করার সাথে সাথে  টেকনো লোগো টা দেখতে পাচ্ছি। এখন আমরা  হচ্ছে ফোনের সেটাপ এ চলে যাব। তার আগে বলে দেই, যে এই ফোনের এই যে কালার টাই  কিন্তু খুবই গর্জিয়াস একটা কালার ব্লু টাইপের একটা কালার। এই ফোনের যে স্পিসিফিকেশন গুলো আছে সেগুলো আমি আপনাদেরকে বলি। এটাতে যে প্রসেসর দেওয়া হয়েছে সেটা হচ্ছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৩৭ এবং রেম  হচ্ছে ৪জিবি সাথে আপনারা চাইলে আলো ৩জিবিঅ্যাক্সটেন্ড করে নিতে পারবেন।
৩ জিবি রেম আপনারা আরও এক্সট্রা অ্যাড করতে পারেন, মানে মোট ৭ জিবি রেম হবে এবং আপনার ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এটাতে পেয়ে যাবেন। এই ফোনের সামনের ক্যামেরা ৩০  মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। আমার মনে হয় এই বাজেটে এটাই ফোনের একটা বেস্ট ফিচার হতে যাচ্ছে। অন্যান্য ফিচার গুলো কেমন পারফরম্যান্স কেমন কিংবা  ক্যামেরা প্রাথমিক এবং এগুলো আমরা ফুল রিভিউতে বলবো।

লেখকের কথা

পরবর্তী টিউনের জন্য  ফলো করুন এবং টিউনটি ভালো লাগলে একটি জোস দিবেন। ধন্যবাদ।

আসসালামুআলাইকুম

Level 1

আমি মেহেদী হাসান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 মাস 4 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস