কি কি থাকছে নোকিয়া ৮ এ? জেনে নিন নোকিয়া ৮ এর অজানা সব ফিচার যেগুলো দেখে আপনিও চমকিয়ে উঠবেন

নোকিয়া ৮ হতে যাচ্ছে নোকিয়া ব্রান্ড এর সর্বপ্রথম ফ্লাগশিপ স্মার্টফোন। নোকিয়া ৮ এর ক্যামেরার উপর বিশেষ জোড় দেয়া হয়েছে। কারণ এতে দেয়া হয়েছে একটি ডুয়াল সেন্সর বিশিষ্ট ক্যামেরা যেটি দিয়ে আপনি বোকেহ ইমেজ ক্যাপচার করতে পারবেন।

অর্থাৎ ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড ঘোলা করে ছবি তুলতে পারবেন। এছাড়াও নোকিয়া ৮ এর ক্যামেরা লো লাইট অর্থাৎ কম আলোতে ভাল ছবি তুলতে পারবে। নোকিয়া তাদের এই ফ্লাগশিপ নোকিয়া ৮ এ এমন সব ফিচার দিয়েছে যেগুলো স্যামসাঙ এবং অ্যাপেল এর ফ্লাগশিপ ফোনগুলোর সাথে সহজেই পাল্লা দিতে পারবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

নোকিয়া ৮ এর ডিজাইন এবং ডিসপ্লে

নোকিয়া ৮ হতে যাচ্ছে নোকিয়ার তৈরি সবচেয়ে সুন্দর ডিজাইন এর স্মার্টফোন। এর বডি তৈরি করা হয়েছে এলুমিনিয়াম দিয়ে। এছাড়াও এই ফোন এর এজ এবং পিছনেও মেটাল ব্যবহার করা হয়েছে। নোকিয়া ৮ এর ডিজাইন এক কথায় অসাধারণ। নোকিয়া ৮ খুবই চিকন। কারণ এটি মাত্র ৭.৯মিমি পুরু। এবং এই ফোন এর কোনাগুলো গোল। তাই দেখতে অনেক সুন্দর। আবার যাদের হাত ছোট তারাও এই ফোন এর ডিজাইন উপভোগ করতে পারবেন। কারণ আপনার হাত যেমনই হোক না কেন এই ফোন আপনার হাতে মানাবেই।

নোকিয়া ৮ এর ডিসপ্লে ৫.৩ ইঞ্চি। এবং এটি একটি এল.সি.ডি প্যানেল। এবং এর স্ক্রীন যথেষ্ট ব্রাইট কারণ ফুল ব্রাইটনেসে আপনি সূর্যের আলোর নিচেও ফোন খুব ভালভাবেই অপারেট করতে পারবেন। এছাড়াও নোকিয়া ৮ এর ডিসপ্লে তে মুভি বা ভিডিও ভালভাবেই উপভোগ করতে পারেন। এই ডিসপ্লেটি ৫৫৪ পি.পি.আই তাই যেকোনো ভিডিওই খুব শার্প দেখায়।

নোকিয়া ৮ এ আছে একটি হাই একুরেট ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। এটি ডিসপ্লে এর নিচের দিকে দুইটি বাটন এর মাঝখানে। তাই আপনি খুব সহজেই ফোন আনলক করতে পারবেন। স্যামসাঙ গ্যালাক্সি এস ৮ এর মত নোকিয়া ৮ ওয়াটার প্রুফ না। কিন্তু এটি আই.পি৫৪ স্প্লাস রেসিসন্ট্যান্ট। তাই এটি বৃষ্টির মধ্যে ব্যবহার করা যাবে।

ব্যাটারি

নোকিয়া ৮ এর ব্যাটারি হল ৩০৯০ এম.এ.এইচ এর। এম.এ.এইচ কম বলে ভাবার কিছু নেই। কারণ এই ব্যাটারি দিয়েই নোকিয়া ৮ প্রায় সারাদিন আপনাকে সার্ভিস দিয়ে যেতে পারবে। এবং এর কোয়াড এইচ.ডি ডিসপ্লের মজা আপনি সারাদিন নিতে পারবেন। আর যেহেতু এটি কোয়ালকম ৮৩৫ চিপ রান করে তাই এটি খুব ভালভাবেই পাওয়ার হ্যান্ডল করতে পারবে।

আর নোকিয়া এই ফোন দিয়ে তাদের নতুন লিকুইড কুলিং সিস্টেম, তাই ফোনকে ভালভাবেই ঠাণ্ডা রাখতে পারে। এই ফোন দেয়া হয়েছে ইউএসবি-সি। এবং এটি কুইক চার্জার ৩ এনাবেলড। যদিও এতে ওয়ারলেস চার্জিং নেই। তবে তে খুব বেশি সমস্যা হবে না।

ক্যামেরা

নোকিয়া এবার তাদের নোকিয়া ৮ এর ক্যামেরাতে বিশেষ জোর দিয়েছি। তাই এতে ব্যবহার করা হয়েছে ডুয়াল সেন্সর বিশিষ্ট ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এই দুইটি সেন্সর এর একটিতে দেয়া হয়েছে আরজিবি লেন্স আরেকটি হল মনক্রোম শুটার সেন্সর। আর এই দুই সেন্সর মিলে নোকিয়া ৮ এর ক্যামেরা লো লাইটে অনেক সুন্দর ছবি তুলতে পারবে। এবং আপনি এই ক্যামেরা দিয়ে আসল সাদাকালো ছবি তুলতে পারবেন।

সাধারণ ক্যামেরা যেগুলোতে একটি সেন্সর থাকে সেগুলো সূর্যের আলোতে ভাল পারফর্ম করলেও লো-লাইটে খুব খারাপ ছবি তুলে। আর এই সমস্যা দূর করতে নোকিয়া ৯ ব্যবহার করেছে ডুয়াল সেন্সর বিশিষ্ট ক্যামেরা। এছাড়াও নোকিয়া ৮ এর ফ্রন্ট ক্যামেরাও ১৯ মেগাপিক্সেল এর। তাই আপনি নোকিয়া ৮ দিয়ে খুব সুন্দর সেলফি তুলতে পারবেন।

নোকিয়া ৮ এর অসধারণ সব ফিচার

নোকিয়া ৮ এ দেয়া হয়েছে স্নাপড্রাগন ৮৩৫ প্রসেসর। এই প্রসেসরটিই দেয়া হয়েছিল স্যামসাঙ গ্যালাক্সি এস৮ এ। আর স্নাপড্রাগন অনেক অনেক বেশি অপটিমাইজড তাই যখন ফোনএ কোন কাজ করা হবে না তখন পাওয়ার খুব কম ব্যবহার করবে। তাই নোকিয়া ৮ এর ব্যাটারি লাইফ ভাল পাওয়া যাবে।

নোকিয়া ৮ বাজারে ৪ জিবি র‍্যাম সহ ছাড়া হবে। তবে কিছু কিছু জায়গায় ৬ জিবি এডিশন পাওয়া যাবে। তবে আমার মনে হয় নোকিয়া ৮ এর জন্য ৪ জিবি র‍্যাম এনাফ। কারণ বিভিন্ন পরিক্ষায় দেখা গেছে নোকিয়া ৪ জিবি র‍্যাম দিয়ে সব কাজ ঠিকভাবে করতে পারছে।

ছাড়াও আপনি যদি স্মার্টফোন দিয়ে গেম খেলতে পছন্দ করেন তাহলে নোকিয়া ৮ হতে পারে আপনার নতুন গেমিং স্টেশন। কারণ নোকিয়া ৮ সব ধরনের গেম খুব ভালভাবে রান করতে পারে। নোকিয়া ৮ এ স্টোরেজ থাকছে ৬৪ জিবি। এবং সিস্টেম ফাইল ১৪ জিবি পর্যন্ত নিতে পারে। তাই আপনি ৫০ জিবি এর মত স্টোরেজ ফাকা পাবেন। ছবি রাখার জন্য এটা যথেষ্ট। তবে যদি আপনার আরো স্টোরেজ দরকার পরে তাহলে আপনি নোকিয়া ৮ এ ২৫৬জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এস.ডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

নোকিয়া ৮ স্টক আন্ড্রয়েড ৭ ব্যবহার করবে। অর্থাৎ গুগল যেভাবে আন্ড্রয়েড ৭ কে সাজিয়েছে আপনি নোকিয়া ৮ এ সেভাবেই দেখতে পাবেন। নোকিয়া ৮ এর অপারেটিং সিস্টেমে যদিও কিছু বাগ আছে। তবে আশা করা যায় সফটওয়্যার আপডেট এর মাধ্যমে নোকিয়া তা ঠিক করে ফেলবে।

নোকিয়া ৮ এর স্পিকার এর অডিও কোয়ালিটি যথেষ্ট ভাল। তবে অন্যান্য হাই এন্ড স্মার্টফোন এর তুলনায় একটু খারাপই বলা চলে। তবে খুব কম মানুষই স্মার্টফোন এর স্পীকার দিয়ে গান শোনে। তাই হেডফোন ব্যবহার করার জন্য নোকিয়া ৮ এর উপরে আছে ৩.৫ মিমি হেডফোন। নোকিয়ার জন্য একটি প্লাস পয়েন্ট কারণ তারা হেডফোন জ্যাক এখনো বাদ দেয়নি।

নোকিয়া ৮ যদিও বাজারের সবচেয়ে শক্তিশালী ফোন না তারপরেও নোকিয়া ৮ এ আছে বাজারের সেরা কিছু ফিচার। এবং যেহেতু এটি নোকিয়া ব্রান্ড এর ফ্লাগশিপ তাই আমরা এই ফোন এর উপর বিশ্বাস রাখতেই পারি।

নোকিয়া ৮ কি আপনার কেনা উচিত?

আপনি যদি নোকিয়ার অন্ধ ভক্ত হন তাহলে নোকিয়া ৮ কিনতে পারেন। কিন্তু যদি এই ফিচারগুলোর জন্য নোকিয়া ফোন কিনতে চান তাহলে ওয়ানপ্লাস ৫ একটি ভাল চয়েস হতে পারে। কারণ ওয়ানপ্লাস ফাইভ আপনি একি ফিচার নোকিয়া ৮ এর তুলনায় কম দামে পাচ্ছেন। আবার নোকিয়া ৮ বাজারের সবচেয়ে ভাল ফোন না হলেও নোকিয়া ৮ এর ফিচারগুলো আসলেই কাজের।

যাই হোক। টিউনটি সময় নিয়ে পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। টিউনটি কেমন হল তা অবশ্যই জানাবেন। আর কোন বিষয় বুঝতে সমস্যা হলে টিউমেন্ট করুন। আমি আপনাদের সমস্যার সমাধান দেয়ার চেষ্টা করব। সবাই ভাল থাকবেন। সুস্থ থাকবেন।

Level 0

আমি আশরাফুল ফিরোজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 77 টি টিউন ও 35 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

নোকিয়া ৫-৬-৮ একটাও কাজের না।আমরা হতাশ।সে তুলনায় একই দাম দিয়ে অনেক বেশি ফিচারস সহ আরো অনেক মোবাইল কিছু কিনতে পারবেন।

    একি দামে অন্য স্মার্টফোনগুলোর তুলনায় আসলেই আমি নোকিয়ার উপর হতাশ। তবে আশা করি নোকিয়া ৮ অনেক বড় সাকসেস হবে।