সাবধান! হ্যাক হয়ে যেতে পারে আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলিও…

আসসালামু আলাইকুম! এবার আলোচনা করব হ্যাকিং সম্পর্কে। তার আগেই বলে রাখি হ্যাকিংটা কি! আপনার নিজস্ব কম্পিউটারে আপনি আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণ করে রেখেছেন, আপনি চান না যে কেউ আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানুক বা আপনার কোনো ক্ষতি করুক। কিন্তু আপনার অগোচরে কেউ একজন আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য কালেক্ট করে নিয়েছে, যা আপনি জানতেও পারলেন না। এইভাবে নিজের সংরক্ষণ করা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অতি গোপনে অন্য কেউ জেনে ফেলাকে হ্যাকিং বলা হয়। এবার আসুন আরেকটা উদাহরণ দিই। ধরুন আপনার নিজের একটা ওয়েবসাইট আছে, যেটা শুধুমাত্র আপনিই কন্ট্রোল করতে পারেন। এখন আপনি ছাড়া যদি অন্য কেউ আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে সাইটের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি পরিবর্তন – পরিবর্ধন করে ফেলে এবং পরে আপনি নিজেই আপনার ওয়েবসাইটটি কন্ট্রোল করতে পারছেন না। তো আপনার ওয়েবসাইটের কন্ট্রোল অন্যের অধীনে চলে যাওয়ার পদ্ধতিকেই হ্যাকিং বলা হয়।

দুনিয়ায় স্যোশাল মিডিয়ার মধ্যে জনপ্রিয় হলো “ফেসবুক”। কমবেশি এখন সবারই একটা ফেসবুক আইডি আছে। অনেক হ্যাকাররা আশায় আছে কি করে অন্যের তথ্য হাতিয়ে নেয়া যায়! এর জন্য ওরা ভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করে। যেমন ফেসবুক আইডি হ্যাক করার জন্য রয়েছে অনেক ফিশিং সাইট, যার সাহায্যে ওরা আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে নিতে পারে। বড় বড় ব্যাংক একাউন্ট থেকে মালিকের নজর পেড়িয়ে হ্যাকাররা বড় অঙ্কের টাকা হ্যাক করে নিচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে। একটা পত্রিকায় অনেক আগে দেখেছিলাম, বিদেশী এক হ্যাকার বিদেশে বসে আমাদের বাংলাদেশের ব্যাংক একাউন্ট থেকে বড় ধরনের টাকা হ্যাক করে নিয়েছে।

এটা ডিজিটালের যমানা, অনলাইনের যুগ। মানুষের হাতে হাতে এখন স্মার্টফোন। ওয়াইফাই ইন্টারনেটের সাহায্যে স্মার্টফোনে এখন অনেক কিছুই করা যায়। মানুষ এখন ওয়াইফাইও হ্যাক করার জন্য নানা অপকৌশল বের করে ফেলেছে। প্লে স্টোরে খুঁজলে এমন অনেক এপ্লিকেশনই পাবেন যার সাহায্যে খুব দ্রুত কোনো পাসওয়ার্ড ছাড়াই ওয়াইফাই কানেক্ট করা যায়। এরকম অপকৌশল শুধু হ্যাকাররাই হ্যাকিং করার জন্য বের করে থাকে। মালিকের অনুমতি ব্যতীত ওয়েবসাইট কন্ট্রোল করা, অনুমতি ব্যতীত লোকের তথ্য চুরি করা, অনুমতি বা পাসওয়ার্ড ব্যতীত ওয়াইফাই কানেক্ট করা ইত্যাদি সব অপকৌশল হ্যাকারদের কাজ। ও আরেকটি কথা! এবার তো আপনি অন্যের ওয়াইফাইয়ের পাসওয়ার্ড না জানা সত্ত্বেও জানতে পারবেন হ্যাকারদের অপকৌশল ব্যবহার করে। সবসময় সতর্ক থাকবেন যাতে, আপনার কোনো কিছুই যেনো হ্যাকাররা হ্যাক করতে না পারে। লেখাটা অনেক লম্বা হয়ে যাচ্ছে তাই পরবর্তী টিউনে আরো নতুন কিছু নিয়ে হাজির হবো ইনশাআল্লাহ্‌। জাযাকাল্লাহ…।

Level 0

আমি মোঃ রিজওয়ানুল ইসলাম রুমী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 5 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস