PTC হল প্রতারককে সাহায্য করা – ভুল বললে শুধরিয়ে দিন

এখানে PTC বা Pay to Click নিয়ে পোস্টের ছড়াছড়ি দেখে খারাপ লাগে। পিটিসি টাকা ইনকামের কোন সম্মানজনক পদ্ধতি বলে মনে হয় না কখনই। এটা সংঘবদ্ধ প্রতারককে সহযোগীতা করার একটা পদ্ধতি ছাড়া কিছুই না।

কিছুদিন আগে আমাদের দেশে বেশ কিছু কাজ আসতো, ছবি দেখে ওখানে যা লেখা আছে তা টাইপ করার কাজ। ছবির লেখাগুলো খুব সাধারণ আর দৈর্ঘ্যও খুব বেশি না - একটা কি দুইটা শব্দ। পাবলিক তো ভাবলো, আহ্ কি সহজ কাজ -- টাকাও কামাইলো। কিন্তু ফলাফল হল বাংলাদেশের অনেক আইএসপি এখন ব্ল্যাক লিস্টেড এই কারণে। কারণটা কী? জানতে চান?

কারণ - এগুলো ছিল ক্যাপচা পূরণের কাজ। বিভিন্ন সাইটে রেজিস্ট্রেশন বা পোস্ট করার জন্য স্প্যাম ঠেকানোর জন্য ক্যাপচা দেয়া হয়। উদ্দেশ্য হল অটোমেটিক কোন স্ক্রিপ্ট দিয়ে এখানে তাহলে স্প্যামারটা কিছু পোস্ট করতে পারবে না - কারণ অটোমেটিক স্ক্রিপ্ট এই ক্যাপচা পূরণ করতে অক্ষম। দুষ্টু স্প্যামাররা তখন সেই কাজ করার জন্য এই কাজ আউটসোর্সিং করলো। ওদের স্ক্রিপ্ট একটা করে ক্যাপচা নিয়ে আসে আর এখানকার লোক টাকার জন্য সেটা পূরণ করা মাত্র ওদের স্ক্রিপ্ট ওখানে একটা স্প্যাম পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু দোষ হয় এখানকার আইপি'র। কারণ ওখানকার এডমিনরা দেখে যে, এখানকার আইপি থেকে এই ক্যাপচা পূরণ করে স্প্যাম পোস্ট করা হয়েছে।

এবার আসি পিটিসির ব্যাপারে। অ্যাডসেন্স কিভাবে কাজ করে সেটা বুঝতে হবে এজন্য। ইন্টারনেটে কোনো কম্পানি বিজ্ঞাপন দিলে সেটার জন্য পেমেন্ট দেয়ার সিস্টেমটা বেশ সুন্দর। তবে সেটা বলার আগে ইন্টারনেটের বদলে বাইরের বিজ্ঞাপনের কথা বলি .... ... একটা বিলবোর্ডে বিজ্ঞাপন দিলে সেটার ভাড়া স্থানভেদে ভিন্ন হয়। ঢাকার ফার্মগেটের মত জায়গায় যেখানে প্রচুর লোক এই বিজ্ঞাপন দেখে সেখানে বড়সড় একটা বিলবোর্ডের ভাড়া মাসে লাখটাকার মত, আর একই বিলবোর্ড মিরপুর বা অন্য জায়গায় হলে সেটার ভাড়া ত্রিশহাজার টাকার মত। ভাড়ার এই তারতম্যের কারণ হল এই বিলবোর্ড কতজন সম্ভাব্য কাস্টমারের কাছে পণ্যটার কথা পৌঁছে দিচ্ছে সেটা। বেশি কাস্টমারের কাছে পৌঁছে দিলে চার্জ বেশি, আর কম কাস্টমারে চার্জ কম। একই কারণে বেশি প্রচারসংখ্যার পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের চার্জ বেশি (বেশি লোকের কাছে পণ্যের বিজ্ঞাপন পৌঁছাচ্ছে)। প্রথম আলোর মত পত্রিকার প্রথম পাতায় একবার (অর্থাৎ ১ দিন) ৩*৫ বর্গইঞ্চি বিজ্ঞাপনের চার্জ লাখটাকা, কিন্তু একই বিজ্ঞাপন ৭ নম্বর পাতায় দিলে সেটার চার্জ ২০ হাজার -- কারণটা একই ... প্রথম বা শেষ পাতার বিজ্ঞাপন বেশি লোক দেখে, ভেতরের পাতার বিজ্ঞাপন দেখে কম মানুষ।

ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে এই বিজ্ঞাপনের রেট আরো বেশি যুক্তিসংগত করা গেছে। শুধুমাত্র সম্ভাব্য কতজন ক্রেতা সেই বিজ্ঞাপন দেখছে সেটার উপর ভিত্তি করে এখানেও ভাড়া বা মূল্য পরিশোধ করা হয়। একটা বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে এটা সম্পর্কে আরেকটু ডিটেইলস খোঁজ খবর নেবে শুধুমাত্র আগ্রহী ক্রেতা, অন্যরা এই ব্যাপারে আগ্রহী না হলে এটাতে ক্লিক করার মত কাজ করে সময় নষ্ট করবে না। যেমন: আমি যখন ক্যামেরা কেনার কথা চিন্তা করি তখনই শুধু বিভিন্ন ক্যামেরার বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে স্পেসিফিকেশন দেখবো, কেনার চিন্তাভাবনা না থাকলে শুধু শুধু ক্লিক করে সময় ও ব্যান্ডউইড্থ নষ্ট করবো না। আবার, কখনো দেখা যায় ভুল ক্রমে কেউ একটা বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে ফেলেছে - তখন দ্রুত সে ঐ সাইট থেকে বেরিয়ে যায়, বিজ্ঞাপনে কী লেখা আছে সেটা পড়ার দরকার বোধ করে না।

তাই ইন্টারনেটে বিজ্ঞাপন দাতাগণ এখানে বিজ্ঞাপনে কতগুলো ক্লিক হয়েছে সেটার উপর ভিত্তি করে বিজ্ঞাপন প্রকাশের সাইটকে মূল্য পরিশোধ করে। তবে আগ্রহী ক্রেতা তারাই যারা অন্তত ৩০ সেকেন্ড ঐ বিজ্ঞাপনটা দেখেন, এর চেয়ে কম দেখলে তিনি আসলে আগ্রহী ক্রেতা নন, ভুলক্রমে ঐ সাইটে ক্লিক করে ঢুকেছিলেন বলে ধরা হচ্ছে।

এইখানেই পিটিসি সাইটগুলো চিট করে। আপনি ক্লিক করে ঢুকছেন, ৩০ সেকেন্ড থাকছেন --- কাজেই আপনি সম্ভাব্য ক্রেতা। এই ক্লিকের জন্য বিজ্ঞাপনদাতা সাইটকে পে করবে। আর সাইটওয়ালা আসলে অসৎ ... ... কারণ তার সাইটে আসলে জেনুইন ক্রেতা ক্লিক করে নাই, করেছে ভাড়া করা ক্রেতার অভিনেতা (আপনি)। তাই তার ইনকাম থেকে কিছু অংশ আপনার অভিনয়ের চার্জ হিসেবে দিয়ে দিচ্ছে।

একই কারণে একই বিজ্ঞাপনে একাধিকবার ক্লিক করা নিষেধ। কারণ সেখানে মূল বিজ্ঞাপনদাতার একজন সম্ভাব্য ক্রেতার জন্য একবারই মূল্য পরিশোধের কথা। আপনি একাধিকবার ক্লিক করলে সেটার জন্য সাইটওয়ালা চার্জ করবে এতে সাইটওয়ালাকে বিজ্ঞাপনদাতা এর জন্য টাকা তো দেবেই না উল্টা মিথ্যাবাদী বলবে আর ভবিষ্যতে বিজ্ঞাপনও দেবে না। তাই সাইটওয়ালারা এই অভিনেতা ক্রেতা আনার ব্যাপারে খুবই সতর্ক। একাধিক ক্লিক করলে পিটিসি একাউন্ট বাতিল ... .... .... মিয়া প্রতারণার সহযোগী হতে হলে আরো স্মার্ট হতে হবে - সহযোগীতা করতে গিয়ে ওস্তাদরে ফাঁসায় দিবেন নি - আপনি বাতিল!

এই হইলো কাহিনী।

পুরাটা আমার কমনসেন্স থেকে লিখেছি। ভুল থাকতে পারে। থাকলে ধরিয়ে দিবেন আশা করছি ... ... আর সিদ্ধান্ত নিবেন - এই প্রতারণার সহযোগী হবেন কি না।

Level 0

আমি শামীম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 14 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 36 টি টিউন ও 449 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

গুগল আমার সম্পর্কে জানে, কাজেই জানতে চাইলে আমার নাম বা ইউজার নামটা দিয়ে গুগল করুন ... :D


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

Excellent @@@

    Level 0

    তথ্য বহুল টিউন এর জন্য ধন্যবাদ ।

    ফেসবুকে দৈনিক ৫০০ ডলার আয় করার উপায়

    এখন আপনি ইচ্ছে করলেই প্রতিদিন ৫০০ ডলার আয় করতে পারবেন ফেসবুকের মাধ্যমে।
    এবার নিচের পদ্ধতিটি অনুসরন করুন।
    http://www.earntips24.co.cc

    usa2020: আপনাকে তো নোবেল প্রাইজ দেয়া উচিত। বাংলাদেশের মানুষের গড় বাৎসরিক আয় ৫০০ ডলারের মত, আর আপনে প্রতিদিন ৫০০ ডলার আয় করানোর রাস্তা দেখাইলেন। আপনার মত লুক থাকতে বাংলাদেশ এ্যাত গরীব ক্যানু – জাতির বিবেকের কাছে প্রশ্ন থাকলো! – কেনু কেনু কেনু???

    প্রতিদিন ৫০০ মানে মাসে ছুটির দিন বাদে অন্তত ১২৫০০ ডলার … … বা মাসে ৯ লাখ টাকার বেশি, মানে বছরে কোটি টেকার উপরে — এইটা আম্রিকার যে কুনো চাকরীর চাইতে ভালা …. এমনকি আম্গো ডেসটিনির চাইতেও বালা উপায় …….. …… লেখাপড়া বাদ দিয়া জনগণকে আপনার মত হইতে বলা দরকার … … আপনি যদি অবিবাহিত হন যোগাযোগ রাইখেন। পকেট মোটা লুকজন পাত্র হিসেবে খ্রাপ না। আমি যাই বড় বড় কন্টেইনারের ব্যবস্থা করি, কারণ ব্যাংক এই ট্যাকা রাইখা কুলাইতে পারবো না …. আমাগোরেই ট্যাকা কন্টেইনারে ভইরা রাখতে হইবো!

    Level 0

    এক্কেরেবারেই সত্য কথা!!!! ক্যাপচার ব্যাপারটা ঠিক বলেছেন। টিউনটা স্টিকি করা দরকার।

    good done…………….

    Yahoo থেকে দৈনিক ১০০ ডলার আয়ের উপায়

    এখন আপনি শুধু Yahoo মাধ্যমে বন্ধুই খুজবেন না টাকাও আয় করবেন। এখন যেকোন Yahoo ইউজার ইচ্ছে করলেই Yahoo মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা আয় করতে পারবে। না এটা কোন ধোকা নয়। এটা সত্যিই সত্যি।
    http://www.techtunes24.co.cc

Level 0

তথ্য বহুল টিউন এর জন্য ধন্যবাদ ।

Level 0

খাটি কথা আমি আপনার সাথে একমত

ভাল বলেছেন।

HTML বা পিএইচপি শিখতে হবে

এক্কেরেবারেই সত্য কথা!!!! ক্যাপচার ব্যাপারটা ঠিক বলেছেন। টিউনটা স্টিকি করা দরকার।

জটিল বক্তব্য। প্রিয়তে রাখলাম।

Level 0

রাইট, স্টিকি করা হোক অবশ্যই।

Level New

জীবনে এই প্রথম পিটিসি নিয়ে সোজাসাপ্টা সত্য টিউন পাইলাম। আমার মনে হয় যারা পিটিসি পিটিসি করে তাদের এইটা না বুঝার কিছু নাই। প্রতারণা বা ধোঁকাবাজি ছাড়া কেউ কাউকে ৩০ সেকেন্ড করে সাইট দেখার জন্য টাকা দিতে পারে না, এতোটুকু জ্ঞান-বুদ্ধি আমাদের থাকা উচিত।

পিটিসির টিউনগুলোতে আমাদের কমেন্ট হউক – "ভাই, এই প্রতারণার কৌশল না শিখিয়ে পারলে হালাল রুজি করার উপায় জানান।'

Level 2

original kotha bolsen.

আপনার সাথে একটু ভিন্নমত পোষন করছি, আপনি যে সম্ভাব্য ক্রেতার বিষয়টি ব্যাখ্যা করলেন তার মানে আপনি কি বলতে চান যে যারা পিটিসি সাইটে বিজ্ঞাপন দেয় তারা পিটিসি সাইটের কার্যকলাপ সম্পর্কে কিছুই জানে না?

তারা পিটিসি সাইট সম্পর্কে সবই জানে এবং সব জেনে শুনেই বিজ্ঞাপন দেয় এবং যাদের বিজ্ঞাপনের বাজেট কম তারাই শুধু পিটিসি সাইটে বিজ্ঞাপন দেয়। যাদের বিজ্ঞাপনের বাজেট বেশি তারা কখনই পিটিসিতে বিজ্ঞাপন দিবে না। আপনি যে ব্যাখ্যাটি দিলেন সেটি নরমাল সাইটের বিজ্ঞাপনের জন্য প্রযোজ্য কিন্তু পিটিসি সাইট গুলোর জন্য নয় কারন বিজ্ঞাপনদাতা এখানে ভালো ভাবেই জানে যে কারা, "পিটিসি" সাইটে তার এড টি দেখবে। সে এ ও ভালোভাবে জানে যে, তারই বিজ্ঞাপনের জন্য দেওয়া টাকার একটা অংশের বিনিময়ে পাবলিক তার এড গুলো দেখছে।

তবুও তারা এড দেয় কারন ২০০জন দেখলে হয়তো সে ৩-৪জন ক্রেতাও পেতে পারে, একারণেই আপনি দেখবেন যে পিটিসি সাইট গুলোতে ম্যাক্সিমাম বিজ্ঞাপন থাকে, অন্য পিটিসি সাইট গুলোর অথবা কোন ব্যাক্তির কতগুলো পিটিসি সাইটের রেফারেলের। কারন যে পিটিসি সাইটে কাজ করবে তার আগ্রহ স্বভাবতই অন্য ভালো পিটিসি সাইটের দিকে থাকবে। পন্যের বিজ্ঞাপন তাই এখানে খুব কমই দেখা যায়।

প্রতারনা আপনি তখন বলতে পারেন যখন কোন একটি কাজ এক পক্ষের কাছে স্পস্ট এবং অন্য পক্ষের কাছে অস্পস্ট কিন্তু এখানে জেনে শুনে সব কাজ কারবার হচ্ছে মানে দুই পক্ষের কাছেই কাজটি স্পস্ট তাই এটিকে তো আপনি প্রতারনা বলতে পারেন না।

আপনি যে বললেন,
"আমি যখন ক্যামেরা কেনার কথা চিন্তা করি তখনই শুধু বিভিন্ন ক্যামেরার বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে স্পেসিফিকেশন দেখবো, কেনার চিন্তাভাবনা না থাকলে শুধু শুধু ক্লিক করে সময় ও ব্যান্ডউইড্থ নষ্ট করবো না।"
পাবলিক পিটিসির লিঙ্ক গুলোতে ক্লিক করে টাকার জন্য তা না হলে শুধু শুধু ক্লিক করে সময় ও ব্যান্ডউইড্থ নষ্ট করবে কেন?

হ্যাঁ এটা মানি যে ম্যাক্সিমাম পিটিসি সাইট গুলো চিটিং করে পাবলিকের টাকা মেরে দেয়, আমি সেই ধরনের সাইটের বিপক্ষে কিন্তু যে সাইট গুলো আমাকে স্টিল নাও পে করছে সেগুলোকে আমি প্রতারক বলবো কেন?

আর বিজ্ঞাপন দেখাও তো একপ্রকার কাজ, এখানে পাবলিক তার শ্রম, ধৈর্য, কস্ট এবং ব্যান্ডউইড্থ ব্যয় করছে এবং তার বিনিময়ে কিছু টাকা পাচ্ছে, ইকোনোমিক্সের একটা কমন এবং পুরানো থিম এর মাঝে আপনি হারাম রুজির কি দেখলেন?

ধন্যবাদ।

    আপনার ভিন্নমতের জন্য ধন্যবাদ।

    আপনার মন্তব্যের সাথে বাজেটের একটা তুলনা দিলে আরো চমৎকার হত। কিংবা যদি পিটিসি সাইটে বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য কোনো ঠিকানা বা পদ্ধতি নিয়ে টিউন করেন তাহলেও ভিন্নমতের যুক্তিটা আরও শক্ত হয়। কারণ আমরা বুঝতে পারতাম যে কেন আমার নিজের একটা প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন দেয়া এখানে ভাল হবে – খরচ কত কম এবং সেই তুলনায় ক্রেতা আসার সম্ভাবনা কতটুকু কম আমি মেনে নিচ্ছি। (ট্রেড-অফ অ্যানালাইসিস বলে নাকি এটাকে?) — জেনে শুনে যারা পিটিসিতে বিজ্ঞাপন দিচ্ছে তাদের নিয়েও আলোচনা করতে পারেন; এতে যারা পিটিসি নিয়ে এখন দ্বিধান্বিত তারাও ভাল বোধ করবে।

    ইকনোমিক্স নিয়ে যখন টান দিলেন, তখন বিনয়ের সাথে জানাতে চাই, এই জটিল বিষয়টা আমি তেমন একটা বুঝি না। তাই তত্বগুলো উদাহরণ সহ ব্যাখ্যা করলে সুবিধা হত। তবে তত্বগুলোর নাম দিলেও হয়তো খোঁজ খবর নিতে পারবো – মরহুম বাবা ইকনোমিক্সে মাস্টার্স ছিলেন কিন্তু এখন তো উনি নাই, তাই ইকোনমিক্সের প্রফেসর শাশুড়ির কাছেই নাহয় যাব।

    আকাশ ভাই সাথে সহমত পোষণ করছি।

    ইকনোমিক্স আমিও এতটা বুঝি না কারন আমি সায়েন্সের স্টুডেন্ট। আর কোন বিষয় ডিপলি আমি কোন সময়ই ভাবি না। সহজ ভাবে ভাবতে ভালোবাসি। আর আমি এখানে কোন ভিন্নমতের যুক্তি প্রমান করতে আসিনি। আমার কাছে যেটা মনে হয়েছে আমি সেটাই বলেছি মাত্র। তার মানে কিন্তু এটা নয় যে আমি সঠিক আর আপনি ব্যাঠিক অথবা আমি ব্যাঠিক আর আপনি সঠিক। সবার মত কোন সময়ই এক হয় না। আমার কথা হল আমি কস্ট করে কাজ করছি তার বিনিময়ে টাকা পাচ্ছি এটাই যথেস্ট, পিটিসি এখানে কি করছে না করছে সেটা আমার দেখার বিষয় নয় কারন আমি এখানে কোন অন্যায় করছি না। ধন্যবাদ।

    আকাশ ভাইয়ের সাথে সহমত

সাবাশ !!!! (হাত তালির ইমো হবে)
এই পোস্টটিকে স্টিকি করা উচিত , আর অন্য সব বাংলা ব্লগ কমিউনিটিতেও এটা পোস্ট করা উচিত । আর আপনার টাইম না থাকলে আমাকে জানান আমি কপি পেস্ট করে দিব । আর হ্যা আপনার লিংক দিতে ভূল হবে না ।

একশত ভাগ সত্য কথা… একমত পোষণ করছি আপনার সাথে।

Level New

ভাই আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আপনার সুচিন্তিত মতামতের জন্য ।
কিন্তু আমার কিন্চিৎ মনে হচ্ছে আপনি আ্যডসেন্স ও পিটিসির আ্যড দুটি বিষয় নিয়ে খিচুড়ি পাকিয়ে ফেলেছেন ।পিটিসির ব্যাপারটা আ্যডসেন্স এর মতো নয় ।পিটিসিতে যারা বিজ্ঞাপন দেয় তারা নিশ্চিতভাবে জানে যে এই বিজ্ঞাপনগুলো ১৫/৩০ সেকেন্ডের হবে এবং বিজ্ঞাপনটিতে সম্ভাব্য ক্রেতা সাড়া নাও দিতে পারে ।তারপরও তারা বিজ্ঞাপন দেয় কারন পিটিসি ছাড়া এত কম খরচে অধিক মানুষের কাছে এবং পৃথিবীব্যাপী বিজ্ঞাপন পৌছে দেয়ার পদ্ধতি আর নেই ।একটি উদাহরন দেওয়া যেতে পারে,
ধরুন আমি একটি অনলাইন গেমস এর সাইট চালু করেছি ।এবার অবশ্যই আমি আমার সাইটে ট্রাফিক + মেম্বার চাইবো ।কিন্তু আমারতো বাজেট কম ।তখন আমি একটি পিটিসি সাইট থেকে ১০০০ ক্লিকের একটি প্যাকেজ কিনলাম ১০ ডলার দিয় ।পিটিসি এডমিন ওখান থেকে তার ইচ্ছা অনুযায়ী ২ ডলার লাভ রেখে দিয়ে হিসাব করে দেখল ১০০০ বিজ্ঞাপনে ৮ ডলার দিয়ে ক্লিক করাতে মেম্বারশীপভেদে (জেনারেল,গোল্ড,প্রিমিয়াম) প্রতি ক্লিকে কতো খরচ হচ্ছে ,সেই অনুযায়ী তিনি প্রতিক্লিকে মেম্বারদের দিয়ে দিলেন ।আমিও কাঙ্খিত ভিজিটর পেয়ে গেলাম ।
আমি কিন্তু সবকিছু জেনেশুনেই বিজ্ঞাপন দিয়েছিলাম ।
তো এবার আপনি বলেন এখানে প্রতারনার ও অসন্মানের কি দেখলেন ?
একথা স্বীকার করতেই হবে অনেকেই পিটিসিতে কাজ করে ঠকেছেন ।কিন্তু এই দোষতো পৃথিবীশুদ্ধ সব পিটিসির না ।আমি বা অন্য কোন টিউনার যদি এখন একটি পিটিসি তৈরী করি এবং ঠিকমতো পে করি ওটাকেও কি আপনি একই রকম বলবেন ।এমনওতো সাইট আছে যারা ৬/৭ বছর ধরে কোন রকম ঝামেলা ছাড়া সময়মতো টাকা দিয়ে যাচ্ছে ।আর একটা কথা হল পিটিসি তৈরী ও মেইনটেইন করার কিছু হিসেব আছে যা এক দুইটা কথাতে বোঝানো যায় না ।এই নিয়ে আমি একটু লেখালেখি করেছি চাইলে দেখতে পারেন – http://www.elogbd.blogspot.com
দয়া করে আমাকে আপনার প্রতিপক্ষ ভাববেন না ।
ভালো থাকবেন ।

    আপনি ঠিকই ধরেছেন। আমি অ্যাডসেন্সের বিষয়টা জেনে কমন সেন্স থেকে এটা লিখেছি। নিঃসন্দেহে পিটিসির জন্য একটা নতুন ধরণের বিজনেস মডেল আছে। তবে ক্যাপচা পূরণের ব্যাপারটার পর সবকিছুতেই ভয় হয়।

    বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি হল, একটা অনুসিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু করা। আমি এই টিউনের ধারণাটা দিয়ে শুরু করলাম। এটাকে বিভিন্ন রকম ভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বাতিল বা গ্রহণ করা যেতে পারে … … এটা একটা চলমান প্রসেস। আপনার মন্তব্যটা খুবই সুন্দর একটা যুক্তি তুলে ধরেছে। তবে, যে লোক ১ সেন্ট (প্রায় ৭৫ পয়সা) উপার্জনের জন্য গড়ে ১.২৫টা করে ক্লিক করবে (৮ ডলার বা ৮০০ সেন্ট পাবে ১০০০ ক্লিকে), সেখান থেকে টাকা তুলতে খরচও করবে, তার পক্ষে আবার টাকা খরচ করে বিজ্ঞাপনের সেই পণ্য কেনাটা আমার কাছে একটু উচ্চাশা মনে হয়। কারণ ক্লিক করে ইনকামের পেশাদারগণ সেইরকম ক্রয়ক্ষমতাসম্পন্ন ক্রেতা হতে পারে বলে মনে হয় না — অবশ্য আমার মনে হওয়া ঠিক হতে হবে এমন কোন কথা নাই।

    ওপেনসোর্স সম্পর্কেও মানুষ প্রশ্ন করে – কারণ ফ্রীতে কেন মানুষ উন্নতমানের কাজ করে দেয় এটা অনেকেই বুঝতে পারে না। নিজে মজিলা ফায়ারফক্স কিংবা উইকিপিডিয়া ব্যবহার করে কিন্তু তারপরেও ওপেনসোর্সের ক্ষমতা সম্পর্কে সন্দেহ/ দ্বিধা করে — এর বিজনেস মডেলটা অন্যরকম যা অনেকেই জানেনা। সেরকমভাবে পিটিসির একটা বিজনেস মডেল থাকা স্বাভাবিক।

    পিটিসিতে কাজ করে মানুষ ঠকেছে – এই ব্যাপারটা অবশ্য আমার টিউনের উদ্দেশ্য ছিল না। আমি এর বিজনেস মডেলটা জানিনা দেখেই এমন টিউন করেছি।

    আপনার ব্লগটা এক ঝলক দেখে ভাল লাগলো। সময় নিয়ে বিস্তারিত ভাবে পড়বো। বিজ্ঞাপনদাতাদের পয়েন্ট অব ভিউটাই জানা দরকার।

    ঠিক আমার কথাটাই রাখাল ভাই এখানে সুন্দর ভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

    @আকাশ:
    ঠিক বলেছেন।

    Level New

    শামীম ভাই এবং আকাশ ভাই দুজনকেই অনেক অনেক ধন্যবাদ ।

এখন যে অবস্থা ১সেন্ট বা ২ সেন্ট ইনকামের জন্য কতকিছূ । এগুলো আসলে বেকার লোকদের কাজ কারবার।এর চেয়ে রিকসা চালানোও ভালো।

    Level New

    তা অবশ্য ঠিক।এখন যে অবস্থা পিটিসিতে কাজ না করে চুপচাপ বসে থাকাই ভালো।

এই মুহূর্তে আমার মাথায় একটা চিন্তা আসতেছে । কার এই দুঃসাহস আছে যে এখন কেউ পিটিসি সাইটের লিঙ্ক দিল আর কয়েকটা অ্যাডএফ এলওয়াই এর লিঙ্ক দিয়ে বলল ঃ

" টাকা আয় করে ওবামা এবং বুশকে দিয়ে পালা করে জুতা সাফ করান " কিংবা " লাদেনের মেশিনগানটা বিক্রি করতে চাই , মাত্র দুই টাকা " 😀

পিটিসি তে কাজ করার চেয়ে ফার্মগেট এ ভিক্ষা করা অনেক ভাল । পিটিসি থেকে আমরা পাই দৈনিক ৫/১০ সেন্ট কিন্তু ফার্মগেট এ ভিক্ষা করলে দৈনিক পাব কম করে হলেও ৩০০/৪০০ টাকা । তাই পিটিসি বাদ দিয়ে ভিক্ষা করুন। লাভ হবে।
ধন্যবাদ ।

Level 0

ইয়ো মামু,
ভাবতাছি সামনের মাসে আর একখান রিক্সা কিনমু !
পিটিসি-মিটিসি অনেক ধান্দাবাজী করছে আমুগে সাথে,
অগুলো বাদ দিসি, এখন মনের সুখে রিক্সা চালাই,
delivery শেষে পেমেন্ট পাই-
অঃ আর একখান কথা কই- যারা ভাবতাসেন পিটিসী কইরা গরিব্বুল্লা(বিল গেটস) হইবেন তারা পছতাইবেন,
বরং আমাগ সাথে delivery দিতে পারেন, কোন ডান-বাম(চেইন-সিস্টেম) হাতের কারবার নাইগা, আর রেফারালও লাগবো না,
delivery দিবেন আর পকেটে পয়সা(সরিঃ) টাকা ডুকাইবেন।

    ইয়ো …. মতামতের জন্য ধন্যবাদ।

Level 0

দারুন! দারুন! দারুন! 😛 😛

অসাধারন পোস্ট।নতুন যারা ইন্টারনেটের সাথে পরিচয় হয় তারা অনেকেই মনে করে পিটিসি বোধহয় সোজা এবং সৎভাবে আয় করার সবচেয়ে ভাল উপায় (আমার কাছে ফোন করা কয়েকজনের কথা শুনে মনে হল)।প্রথম প্রথম আমি নিজেও ভাবতাম।পরবর্তীতে বুঝলাম পিটিসি কি জিনিস!!!! ধন্যবাদ অসাধারন একটি পোস্ট উপহার দেয়ার জন্য।

সব ডেসটিনি মার্কা. শুদু রেফারেলস বাডান আর টাকা কামান হয়ে যান কোটি পতী। খুব ভালো লাগলো টিউন টি।

খাটি কথা………

Shamim vai, apnake 9 on 10 dilam. Ar ha! Amar Abbazan o economy te DU theke M. A. passed….tai uncle (apnar baba) er Atmar magfirat kamona korsi…

ধন্যবাদ সুন্দর পোষ্ট করার জন্য । কিন্তু আপনি adsense আর PTC গুলিয়ে পেলেছেন । Adsense, পিটিচি এবং ট্রাফিক জেনারেটিং সাইট সাপোর্ট করে না । কেউ যদি এগুলোর সাহায্যে ট্রাফিক আনে তার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ হবে ।

    তাহলে তো খুব ভাল কথা। এ সংক্রান্ত তথ্য প্রমাণ সহ একটা টিউন করলে আরও কনফিডেন্স পেতাম।

    আমার মাথায় কিন্তু এখনও একটা কথা কিছুতেই ঢুকছে না:
    যে সম্ভাব্য ক্রেতা, সে পিটিসির জন্য একাউন্ট বানিয়ে তারপর ১ সেন্টের জন্য ক্লিক করে এ্যাড দেখবে না। আর যারা নিয়মিত ভাবে এ্যাড দেখবে তাদের ক্রয়ক্ষমতা খুবই সীমিত বিধায় (নাইলে কি আর ৭৫ পয়সার জন্য ক্লিকায়) ক্রেতা হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় শূণ্য। তাহলে আপনাদের কথামত শুধুমাত্র পিটিসি জেনে (=ক্রেতা পাবে না) যারা ওখানে বিজ্ঞাপন দেয় তাঁদের লাভটা কি?

    এছাড়া সম্ভাব্য ক্রেতা কিন্তু কয়েকবার একটা বিজ্ঞাপনে ঢুকতে পারে, এবং এইটাই স্বাভাবিক। কারণ ধরুন আমি একটা ক্যামেরা কেনার জন্য একটা এ্যাড ক্লিক করে দেখলাম। তাতেই তো আর কিনবো না … … যাচাই বাছাই, তুলনা করার জন্য অন্য ক্যামেরার বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবো। দুই দিন পর হয়তো আবার ঐ দুইটা এ্যাডেই ঢুকে তুলনা করবো; দোকানের ফোন নং টুকবো ইত্যাদি। তাহলে পিটিসিতে কোন যুক্তিতে একাধিকবার ক্লিক করলে একাউন্ট বাতিল হয়??

    আমার তাই এখনো মনে হয়: ঝালেমা আছেই –
    যেহেতু পিটিসিতে তারা ক্রেতা পায় না তাহলে কোন স্বার্থে গাঁটের পয়সা খরচ করে আপনাকে দিয়ে ক্লিক করাবে?? এখনতো আরো জোড়ালোভাবে মনে হচ্ছে পিটিসির অন্তরালে স্প্যামিং হয় — এটা ক্যাপচা পূরণের সেই স্প্যামারদের কোনো সুক্ষ্ণ কৌশল —— —– কারণ এর আগে আকাশ ভাইয়ের একটা টিউনে দেখেছিলাম যে অনেক সময় ক্লিক করার সময় ক্যাপচাও পূরণ করতে হয়। আর পিটিসি সাইট বানানোর যে স্ক্রিপ্ট পাওয়া যায় সেগুলো শুধুমাত্র মানুষের চোখে ধুলা দেয়ার জন্য।

অনেক দিন পর একটা মনের মত পোস্ট পেলাম।

Level 2

অনেকদিন পর কোন লেখার সম্পূর্ণ কমেন্টস গুলো পড়লাম। সত্যি অসাধারণ হয়েছে।

Level 0

Baki shob point e thik achay, but akta point a ami akmot hotay parlam na. PTC is not professional earner. This is only an extra source of income. So in my point of view, people who take this industry as professional earning source, they are actually wasting their time. And product kotha bolsen jehutu shehetu akta kotha na bollei noy. PTC ta mainly akta website a traffic anar jonnoi muloto advertiser ra use koray (cheap price). Ami aj porjonto akta adds to dekhlam na jetatay product sell korar jonno advertise kora hoisay. Don't think I'm criticizing you, this is just my point of view.
Thanks for this tune.

    @salmanshah: হোয়াই দে নিড দ্যাট ওয়েব ট্রাফিক? টু ইনক্রিজ পেজ ড়্যান্ক? সো দ্যাট দে গেট আদার অ্যাডসেন্স? — ইফ নট, ইট ডাজন্ট মেইক এনি সেন্স টু ইনক্রিক দ্যা ব্যান্ডউইড্থ ইউজ।

    দেয়ারফোর, ইফ দে যাস্ট ডু দিস টু ব্রিঙ্গ ট্রাফিক টু এ সাইট – স্টিল ইট ইজ ব্যাড। বিকজ দোজ ট্রাফিক আর নট জেনুইন ট্রাফিক, দে আর জাস্ট রেন্টাল ট্রাফিক হু জাস্ট ভিজিট দেয়ার টু আর্ন এ সেন্ট। সো ইওর পয়েন্ট একচুয়ালি সাপোর্টস মাই টিউন টু সে ইট চিট … …


    যদি শুধু এ্যাড ক্লিক করতে ঢুকে তাহলে তো আর জেনুইন ট্রাফিক হইলো না — মিথ্যামিথ্যি ট্রাফিক এনে পেজ ড়্যাঙ্ক বাড়ালেও তো যেই লাউ সেই কদুই থাকলো। এক প্রকার প্রতারণাই থাকলো।

Level 0

Amar kasay monay hoy na eta cheating. Traffic dorkar so shay taka diye traffic antesay. Eta advertiser'r nijessho bepar. Eta to ar clicker der dekhar bishoy na.

    আচ্ছা সহজ ভাবে শুরু করি।

    বলুন তো ট্রাফিক দরকার কেন?
    এই ট্রাফিক বেশি তথ্যটা কোথায় কাজে লাগাবে?

    অন্যভাবে আরেকটা উদাহরণ দেই:
    আপনি যখন জানবেন কোকাকোলার লাভ থেকে ইসরাইলে সাহায্য যায় তখন সেটা ব্যাপার হয় নাকি হয় না?

ভাল পোষ্ট। ধন্যবাদ।

ভাই অন্য কোনো কাজের কথা থাকলে বলেন।

"সীতা কার বাপ!'

ভাইজান কি পোস্টের টাইটেল দেখেন নাই? 🙄