স্মার্টফোন অতিরিক্ত গরম হওয়ার 10 টি কারণ

Level 1
১ম বর্ষ, সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ, নবাবগঞ্জ

আপনার স্মার্টফোন কি অতিরিক্ত গরম হয়ে যাচ্ছে? গেম খেলার সময়, চ্যাটিং করার সময়, বা কথা বলার সময় ফোন কি অস্বাভাবিকভাবে উত্তপ্ত মনে হচ্ছে? প্রায় সব মোবাইল ফোন ইউজারকেই কোনো না কোনো সময় স্মার্টফোনে হিটিং সংক্রান্ত সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। গ্রীষ্মের প্রখর রোদে তাপমাত্রা যখন ৪০ ডিগ্রি ছুয়ে যায়, তখন এই হিটিং সংক্রান্ত সমস্যা জেনো আরও বেড়ে যায়।

তবে এই হিটিং সংক্রান্ত সমস্যার আপনার কি মনে হয়! এটি স্বাভাবিক?

না, মোটেও এটি স্বাভাবিক নয়! বরং, এটি একটি গুরুতর সমস্যা যা ফোনের কর্মক্ষমতা এবং দীর্ঘস্থায়িত্বকে বিরূপভাবে প্রভাবিত করতে পারে। এই টিউনে, আমি স্মার্টফোন গরম হওয়ার ১০ টি কারণ, সম্ভাব্য ক্ষতি এবং এর সহজ সমাধান সম্পর্কে আলোচনা করবো। আসুন বিস্তারিত শুরু করি।

১. দীর্ঘ সময় ব্যবহার:

একটানা গেমিং, ঘন্টার পর ঘন্টা স্ট্রিমিং, অথবা কাজের জন্য নিরবচ্ছিন্দে ব্যবহার - এই সব কার্যকলাপ ফোনের প্রসেসরকে কঠিন হার্ড ওয়ার্ক করতে বাধ্য করে। ফলে ফোনের তাপ উৎপাদন বেড়ে যায় এবং ফোন গরম হয়ে যায়। এটা অনেকটা আমাদের শরীরের মতোই। যখন আমরা দৌড়াই বা ব্যায়াম করি, তখন আমাদের শরীরের তাপমাত্রা অনেক বেড়ে যায়। ঠিক তেমনি, ফোনও যখন অতিরিক্ত হার্ড ওয়ার্ক করে, তখন তার তাপমাত্রাও অনেক বেড়ে যায়।

দীর্ঘ সময় ব্যবহারের পাশাপাশি, ব্যবহারের ধরনও অনেক গুরুত্বপূর্ণ। উচ্চ-গ্রাফিক্স গেম খেলা বা ভারি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করার কারনে ফোনের প্রসেসরকে আরও বেশি চাপ দেয়, যার ফলে তাপ ফোনের আরও বেড়ে যায়।

তাহলে এই তাপ কমানোর উপায় কি? মোবাইল ফোন গরম হওয়ার সমস্যা এড়াতে ফোনকে কিছুক্ষণ বিশ্রাম দিন। গেমিং বা স্ট্রিমিংয়ের মধ্যে বিরতি নিন। ফোনের ব্রিগটনেস কমান এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান অপ্রয়োজনীয় অ্যাপগুলো বন্ধ করে দিন। এতে ফোনের প্রসেসরের চাপ কমবে এবং তাপমাত্রা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।

২. চার্জিং:

স্মার্টফোন গরম হওয়ার কারণ

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ গুলির মধ্যে অন্যতম একটি কারণ হলো চার্জিং। চার্জিংয়ের সময় ফোন গরম হওয়া স্বাভাবিক, কিন্তু অতিরিক্ত গরম হওয়া চিন্তার কারণ।

চার্জিংয়ের সময় ফোনের ব্যাটারি তড়িৎ শক্তিকে রাসায়নিক শক্তিতে রূপান্তর করে। এই রূপান্তর প্রক্রিয়ায় কিছু তাপ উৎপন্ন হয়, যা ফোনকে সামান্য গরম করে তোলে। তবে, কিছু কারণে এই তাপ অস্বাভাবিক মাত্রায় বেড়ে যায়।

যেমন, নকল চার্জার ব্যবহার করলে ফোন অতিরিক্ত গরম হতে পারে। নকল চার্জারগুলো সঠিক ভোল্টেজ এবং অ্যাম্পিয়ার সরবরাহ না-ও করতে পারে, ফলে ফোনের ব্যাটারি অতিরিক্ত চাপে পড়ে এবং তাপ বেড়ে যায়। এছাড়াও, ফাস্ট চার্জিং ব্যবহার করলেও ফোন বেশি গরম হতে পারে। ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি দ্রুত চার্জ দেয় ঠিকই, কিন্তু তা ব্যাটারিকেও বেশি চাপ দেয়, ফলে ফোনের তাপ বৃদ্ধি পায়। যা ফোনের ব্যাটারি ব্লাস্ট হওয়ার মতো পরিস্থিতিতে পৌঁছে যায়।

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার সমস্যা এড়াতে সর্বদা আসল চার্জার ব্যবহার করুন। ফোন চার্জ হওয়ার সময় ফোন ব্যবহার না করাই ভালো। বিশেষ করে গেম খেলা, ভিডিও দেখা ইত্যাদি থেকে এড়িয়ে চলুন। ফোনকে ঠান্ডা রাখার জন্য চার্জিংয়ের সময় ফ্যান ব্যবহার করতে পারেন। মনে রাখবেন, সঠিক চার্জিং অভ্যাস আপনার ফোনের স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৩. দীর্ঘক্ষণ গেম খেলা:

স্মার্টফোন গরম হওয়ার কারণ

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ হিসেবে দীর্ঘক্ষণ গেম খেলার বিষয়টি অবহেলা করা যাবে না। যে কোনো গেমারের কাছেই এটি সুপরিচিত একটি সমস্যা, কিন্তু কেন এমন হয়, তা জানাও কিন্তু জরুরি।

আসলেই, গেম খেলার সময় ফোনের প্রসেসর এবং গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট (GPU) খুব ব্যস্ত হয়ে পড়ে। উচ্চ-রেজোলিউশনের গ্রাফিক্স, জটিল গেম মেকানিক্স, এবং দ্রুত গতির ইন্টারনেট সংযোগ - এই সবকিছু মিলে ফোনের ভেতরে তৈরি হয় এক তীব্র তাপমাত্রার ঝড়। ফলে, ফোন তার অভ্যন্তরীণ তাপ ঠিকমতো বাইরে বহিষ্কার করতে পারে না, আর তাই বাইরে থেকে আমরা এর উত্তাপ অনুভব করি।

এই সমস্যা এড়ানোর বেশ কিছু উপায় আছে। কয়েক মিনিট পরপর গেম খেলা বন্ধ করে ফোনকে কিছুটা বিশ্রাম দিন। ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস বন্ধ করে ফোনের প্রসেসরের চাপ কমান। আরও ভালো হবে, গেম খেলার সময় গ্রাফিক্সের সেটিংস কমিয়ে রাখুন। এছাড়াও, ফোনকে সরাসরি রোদে রাখে গেমস খালা থেকে বিরত থাকুন।

৪. অতিরিক্ত সূর্যালোক:

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ হিসেবে আমরা সবসময় অভ্যন্তরীণ কারণগুলো নিয়েই বেশি চিন্তা করি। কিন্তু ফোনের বাইরে থেকে আসা একটি বিপদ আমাদের অজান্তেই ফোনের স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হয়ে উঠে, আর সেটি হলো অতিরিক্ত সূর্যালোক মানে সূর্যের তাপ।

সূর্যের তাপের তীব্রতা ফোনের বাইরের শেলকে অনেক উত্তপ্ত করে। এই তাপ ফোনের ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং অভ্যন্তরীণ উপাদান, বিশেষ করে ব্যাটারি, প্রসেসর এবং গ্রাফিক্স চিপকে অনেক প্রভাবিত করে। ফলে, ফোন অনেক বেশি গরম হয়ে যায়।

এই সমস্যা এড়াতে সরাসরি সূর্যের আলোয় ফোন রাখবেন না। কোনো একটি ছায়ায় গিয়ে ফোন ব্যবহার করুন। এছাড়াও, গরমের দিনে অতিরিক্ত গেম খেলা, ভিডিও দেখা ইত্যাদি থেকে এড়িয়ে চলুন, কারণ এতে ফোন আরও বেশি গরম হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৫. খারাপ ফোন কভার:

খারাপ ফোন কভারের কারণেও ফোন গরম হোটে পারে। বাজারের কিছু সস্তা ফোন কভার অতিরিক্ত মোটা হয় বা তৈরি করা হয় এমন উপাদান দিয়ে যা তাপ সঞ্চালন করতে পারে না। ফলে, ফোনের অভ্যন্তরে তাপ উৎপন্ন হলে, সেই তাপ বাইরে বের হতে পারে না, ফলে ফোন আরও বেশি গরম হয়ে যায়।

এই সমস্যা এড়াতে সবার আগে, ফোনের জন্য ফিট-টু-ফর্ম কভার বেছে নিন। এতে ফোন আরামে থাকবে এবং তাপ সহজে বের হতে পারবে। দ্বিতীয়ত, যেসব কভার তৈরি হয়েছে তাপ সঞ্চালনকারী উপাদান, যেমন সিলিকন বা কার্বন ফাইবার, সেগুলো ব্যবহার করুন। আর হ্যাঁ, মাঝে মাঝে ফোন থেকে কভার খুলে ফেলুন, যাতে ফোন একটু নিঃশ্বাস নিতে পারে!

৬. ম্যালওয়্যার:

স্মার্টফোন গরম হওয়ার কারণ

মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ খুঁজতে খুঁজতে আপনি কি কখনো অস্বাভাবিক কিছু লক্ষ্য করেছেন? ফোন হঠাৎ গরম হয়ে যাচ্ছে, ব্যাটারি দ্রুত শেষ হয়ে যাচ্ছে, অথবা ফোন অনেক ধীর গতিতে চলছে? আপনার ফোনে এমন সমস্যা সাধারণত একটি অদৃশ্য শত্রুর কারণে হয়ে থাকে, আর সেটি হলো ম্যালওয়্যার।

কিন্তু কীভাবে ম্যালওয়্যার ফোন গরম করে? ম্যালওয়্যার সাধারণত ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে অবাঞ্ছিত কিছু কার্যকলাপ চালায়, যেমন অপ্রয়োজনীয় ডেটা প্রক্রিয়াকরণ, অস্বাভাবিক নেটওয়ার্ক ট্রাফিক, এমনকি ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং। এই কার্যকলাপগুলি ফোনের প্রসেসরকে অতিরিক্ত চাপ দেয়, ফলে ফোন দ্রুত গরম হয়ে যায়। ফোন গরম হওয়ার এই ১০ টি সমস্যার মধ্যে ম্যালওয়্যার এর সমস্যা সবথেকে ভয়ংকর কারণগুলির মধ্যে একটি।

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে সবসময় বিশ্বস্ত উৎস থেকেই অ্যাপ ডাউনলোড করবেন। দ্বিতীয়ত, একটি ভালো অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ ব্যবহার করবেন এবং নিয়মিত বিভিন্ন স্ক্যানার দিয়ে ফোন স্ক্যান করবেন। সন্দেহজনক ইমেইল বা লিংকে ক্লিক করা থেকে এড়িয়ে চলবেন এবং অজানা উৎস থেকে কোনো অ্যাপ ইনস্টল করা থেকে বিরত থাকবেন।

৭. অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ:

আপনি কি ঠিক জানেন আপনার ফোনে কতগুলি অ্যাপ আছে? প্রতিটি অ্যাপেরই কি আপনি ব্যবহার করেন? হয়তো না। আর এই অপ্রয়োজনীয় অ্যাপগুলোই হতে পারে মোবাইল ফোন গরম হওয়ার অন্যতম কারণ!

মূলত আপনার ফোনের প্রতিটি অ্যাপই কিছু না কিছু রিসোর্স ব্যবহার করে, যেমন মেমোরি, প্রসেসর, ব্যাটারি ইত্যাদি। কিন্ত আপনার ফোনে থাকা অব্যবহৃত অ্যাপগুলি ব্যাকগ্রাউন্ডে চলার কারনে ফোনের অপ্রয়োজনীয় ডেটা আপডেট করে এবং তা করতেই থাকে, এবং বার বার নোটিফিকেশন স্পাম করে। এই কার্যক্রমগুলি ফোনের রিসোর্সকে ধীরে ধীরে ক্ষয় করে, ফলে ফোন ধীর গতিতে চলে এবং বেশি গরম হয়ে যায়।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিতভাবে আপনার ফোন স্ক্যান করুন এবং ব্যবহার না করা অ্যাপগুলিকে আনইনস্টল করুন। অটো-স্টার্ট এবং ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাক্টিভিটি বন্ধ করে দিন। এছাড়াও, অপ্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন বন্ধ করে রাখুন।

৮. দুর্বল নেটওয়ার্ক:

কখনো লক্ষ্য করেছেন যে, দুর্বল নেটওয়ার্কের জোনে থাকাকালীন আপনার ফোন অস্বাভাবিকভাবে গরম হয়ে যাচ্ছে। এটা কোনো কাকতালীয় ঘটনা নয়! আসলে, মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ হিসেবে দুর্বল নেটওয়ার্ককেও অন্যতম একটি কারণ।

মোবাইল নেটওয়ার্কের সাথে সংযোগ স্থাপন বজায় রাখার জন্য ফোনের রেডিও চিপ ক্রমাগত কাজ করে। দুর্বল নেটওয়ার্কের ফলে এই চিপকে আরও বেশি শক্তি ব্যবহার করতে হয়, যার কারণে এটি সংকেত খুঁজে পেতে ও ধরে রাখতে আরও বেশি চেষ্টা করে। ফলে, চিপ গরম হয়ে যায়, এবং এই তাপ সারা ফোনে ছড়িয়ে পড়ে।

এই সমস্যা এড়াতে শক্তিশালী নেটওয়ার্কের জোনে থাকার চেষ্টা করুন। যদি দুর্বল নেটওয়ার্ক এড়িয়ে যাওয়ার উপায় না থাকে, তাহলে ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান অপ্রয়োজনীয় অ্যাপগুলি বন্ধ করে দিন এবং ডেটা ব্যবহার কমিয়ে দিন। এতে ফোনের রেডিও চিপকে কম কাজ করবে এবং ফোন কম গরম হবে।

৯. ব্যাটারির সমস্যা:

আপনার ফোন কি দ্রুত চার্জ হচ্ছে কিন্তু দ্রুতই ফুরিয়ে যাচ্ছে? এটি মোবাইল ফোন গরম হওয়ার অন্যতম একটি। একটি নষ্ট ব্যাটারি মূলত ফোনের স্বাভাবিক কার্যকলাপে বাধা সৃষ্টি করে। মূলত, দুর্বল বা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাটারি সঠিক ভাবে ফোনের মধ্যে ভোল্টেজ সরবরাহ করতে পারে না। ফলে ফোন অস্বাভাবিক ভাবে গরম হয়ে যায়।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রথমত, আপনার ফোনের ব্যাটারি স্বাস্থ্য পরীক্ষা করুন। যদি ব্যাটারি 80% এর নিচে স্বাস্থ্য দেখায়, তাহলে এটি প্রতিস্থাপন করে নিন। দ্বিতীয়ত, আসল চার্জার ও ক্যাবল ব্যবহার করুন। নকল চার্জার ব্যাটারিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। যা ফোন গরম হওয়ের অন্যতম একটি কারণ।

১০. হার্ডওয়্যার সমস্যা:

আপনার ফোনের অন্য সব কারণ খতিয়ে দেখার পরেও যদি অস্বাভাবিকভাবে গরম হয়, তাহলে সমস্যাটি ফোনের গভীরে হার্ডওয়্যারের মধ্যে লুকিয়ে আছে।

ফোনের ভিতরে থাকা বিভিন্ন যন্ত্রাংশ, যেমন প্রসেসর, গ্রাফিক্স চিপ, এবং ব্যাটারি, সময়ের সাথে সাথে পুরনো হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যায়। এই ক্ষতিগ্রস্ত যন্ত্রাংশগুলি অতিরিক্ত তাপ উৎপন্ন করে, যা ফোনকে অস্বাভাবিকভাবে গরম করে দেয়।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে দুর্ভাগ্যবশত, সফ্টওয়্যার আপডেট বা সেটিংস পরিবর্তন করে সমাধান করা যায় না। আপনাকে অবশ্যই একজন বিশেষজ্ঞ টেকনিশিয়ানের কাছে ফোনটি দেখাতে হবে। তারাই একমাত্র হার্ডওয়্যার সমস্যা নির্ণয় করে প্রয়োজনীয় মেরামত করতে পারবেন।

শেষ কথা

ফোন অতিরিক্ত গরম হওয়া ১০ টি কারণ লিখতে লিখতে রীতিমত হাফিয়ে উঠেছি। উপরে উল্লেখিত কারণগুলো জেনে সঠিক সমাধান গ্রহণ করলে আপনি আপনার ফোনকে গরম হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারবেন।

মনে রাখবেন, ফোন গরম হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি। দীর্ঘ সময় ধরে ফোন গরম থাকলে ফোনের ব্যাটারি, প্রসেসর এবং অন্যান্য হার্ডওয়্যারের ক্ষতি হতে পারে। এমনকি ফোন ব্লাস্ট হওয়ারও সম্ভাবনা থাকে।

আশাকরি এই টিউনটি আপনার জন্য সহায়ক হবে। ধন্যবাদ!

Level 1

আমি ইমন সিকদার। ১ম বর্ষ, সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ, নবাবগঞ্জ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 11 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস