কম্পিউটার কেনার পূর্বে যে ৫টি অবশ্যই চিন্তা করে কম্পিউটার কিনতে হবে

টিউন বিভাগ হার্ডওয়্যার
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

স্মার্টফোন এবং টেবলেট গুলোর ব্যবহার অনেক বেড়ে গেলেও প্রায় সবাই ল্যাপটপ বা ডেক্সটপ কেনে প্রফেশনাল কাজ করার জন্য। আবার যারা গেম খেলতে অভ্যস্ত তাদের দরকার মোটামুটি হাই কনফিগের কম্পিউটারের দরকার হয়। আবার অনেকেই এখন পুরানো কম্পিউটারের পরিবর্তে নতুন কম্পিউটার কিনতে চাচ্ছেন। যে কারণেই কম্পিউটার কেনেন না কেন? আপনাকে কম্পিউটার কেনার পূর্বে কিছু বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে। না হলে পরে দেখা যাবে যে কাজের জন্য কম্পিউটার কিনেছেন তাই করতে পারছেন না। এতে কোন লাভ হলো না।

আবার অনেকেরই দেখা যায় একটি কম্পিউটার কিছুদিন ব্যবহার করার পরেই তা আর ব্যবহারের উপযোগী থাকে না। কারণ দিন দিন বিভিন্ন বড় বড় সফটওয়্যার গুলো চালানোর জন্য আর বেশি ক্ষমতা সম্পন্ন কম্পিউটার দরকার। তাই যারা নির্দিষ্ট কোন কাজের জন্য কম্পিউটার কিনবেন তাদের অবশ্যই মাথায় তা মাথায় রেখে কম্পিউটার কিনতে হবে। তাই আমি আজকে আপনাদের ৫টি বিষয় সম্পর্কে বলব যেগুলো কম্পিউটার কেনার পূর্বে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে।

ডেক্সটপ নাকি ল্যাপটপ?

যারা নতুন কম্পিউটার কিনছেন তাদের এই প্রশ্নটি সবচেয়ে বেশি থাকে। কারণ এখনকার ল্যাপটপগুলো যথেষ্ট শক্তিশালী। তাই ল্যাপটপ নাকি ডেক্সটপ কিনবেন তা ঠিক করার জন্য আপনাকে ভাবতে হবে আপনি আসলে কোন ধরনের কাজ করবেন? আপনি কি সবসময় একটি নির্দিষ্ট জায়গায় বসে কাজ করেন? নাকি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেরান? কম্পিউটারটি কি বাসার জন্য ব্যবহার করবেন নাকি অফিসে কাজের জন্য ব্যবহার করবেন?

এই প্রশ্ন গুলো নিজেকে করবেন। যদি আপনি একজন গেমার হয়ে থাকেন তবে আপনার জন্য ডেক্সটপ কেনাই ভাল। কারণ ডেক্সটপ কিনলে আপনি যেকোনো সময় নতুন নতুন হার্ডওয়্যার আপগ্রেড করতে পারবেন। আবার আপনি যদি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেরান। তাহলে আপনার জন্য ল্যাপটপ কেনাই ভাল। আবার আপনি যদি অফিসে কাজ করার জন্য কম্পিউটার কেনেন তাহলেও আমি বলব আপনার ল্যাপটপ কেনা উচিত। আর যদি আপনি কম্পিউটারকে বাসায় রাখতে চান তবে আপনি ডেক্সটপ কিনতে পারেন।

ডেক্সটপের দাম ল্যাপটপ থেকে তুলনামূলক কম। তাই আপনার বাজেট যদি কম থাকে তাহলে ডেক্সটপ কেনা ভাল। আর যদি আপনি কম্পিউটারকে বিভিন্ন জায়গায় সাথে নিয়ে যেতে চান তপে ল্যাপটপ কিনুন।

ম্যাক নাকি পিসি?

আপনার যদি এটাই প্রথম কম্পিউটার হয় এবং যদি আপনার বাজেট কম হয় তাহলে কিছু চিন্তা না করে উইন্ডোজ কম্পিউটার কিনুন। কারণ ম্যাক এর দাম সাধারণ উইন্ডোজ পিসি থেকে অনেক বেশি। আপনি একটি ম্যাক কিনতে যেই টাকা খরচ করবেন সেই টাকা দিয়ে অনেক ভাল কনফিগের হাই এন্ড কম্পিউটার কিনতে পারবেন।

আর আপনি যদি গেম খেলার জন্য কম্পিউটার কিনতে চান তাহলে ত কথাই নেই কারণ ম্যাকের জন্য বলতে গেলে কেউ গেম তৈরি করে না। তাই আপনি গেমার হলে উইন্ডোজ পিসি কেনাই ভাল। আর আপনার হাতে যদি ম্যাক কেনার মত টাকা থাকে এবং আপনি অফিসিয়াল কাজের জন্য কম্পিউটার কিনতে চান এবং ভাল ব্যাটারি ব্যাকআপ চান তাহলে ম্যাক আপনার জন্যই। তবে আমি বলব আপনি উইন্ডোজ পিসি কিনুন।

কম্পিউটারের জন্য কোন প্রসেসরটি নিবেন?

আপনি যদি কম্পিউটারের বিভিন্ন কম্পোনেন্ট সম্পর্কে অভিজ্ঞ না হন তাহলে আপনার জন্য একটু সমস্যা হবে। কারণ আপনি যদি প্রসেসর না দেখে কেনেন, পরে দেখবেন যে আপনি ভালভাবে কোন কাজ করতে পারছেন না। তবে একটি একটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখবেন যে কম্পিউটার কেনার সময় নতুন টেকনোলজি দেখে কিনবেন। অর্থাৎ নতুন যেসব প্রসেসর বাজারে এসেছে সেগুলো দিয়ে ডেক্সটপ তৈরি করতে পারেন। অথবা এই প্রসেসর আছে এমন ল্যাপটপ কিনতে পারেন।

তবে একই প্রসেসর ডেক্সটপে যেগুলো ব্যবহার করা হয় সেগুলো ল্যাপটপের গুলো থেকে বেশি ফাস্ট।আবার আপনি যদি একসাথে অনেক কাজ করতে চান কম্পিউটারে তবে আপনাকে প্রসেসরের কোর সংখ্যা এবং কোর স্পিড মাথায় রাখতে হবে। তবে আপনি এসব বিষয়ে না বুঝলে অবশ্যই অভিজ্ঞ কারও সাহায্য নিন।

কম্পিউটারের জন্য র‍্যাম কত জিবি নিবেন?(ডি.ডি.আর-৪ নাকি ডি.ডি.আর-৩?)

আপনার কত জি.বি র‍্যাম প্রয়োজন তা আপনার কাজের অপর নির্ভর করে। আপনি যদি একসাথে অনেক কাজ করেন যেমন গুগল ক্রোম এ অনেক ট্যাব একসাথে ওপেন করে রাখেন তবে আপনার র‍্যাম অনেক লাগবে আবার যদি সিম্পল সিম্পল কাজ করেন তবে র‍্যাম ৪ জিবি হলেই হবে। র‍্যামগুলো ৪, ৮, ১৬ জিবি পর্যন্ত সাধারণত বাজারে পাওয়া যায়।

আপনি চাইলে দুইটা ১৬ জিবি র‍্যাম একসাথে লাগিয়ে ৩২ জিবি করে নিতে পারেন। আপনার কতটুকু র‍্যাম প্রয়োজন পুরটাই আপনার প্রয়োজন এর উপর নির্ভর করে।  আবার আপনার কম্পিউটার কোন ধরনের র‍্যাম সাপোর্ট করে সেই অনুযায়ী র‍্যাম নিবেন। অর্থাৎ র‍্যাম কম্পিউটার ডি.ডি.আর ৩ নাকি ৪ র‍্যাম সাপোর্ট করে তা দেখে নিবেন। আর র‍্যাম এর বাস স্পিড কতো তাও ভালভাবে দেখে কিনতে হবে।

আপনার কতটুকু স্টোরেজ স্পেস দরকার?

হার্ড ডিস্কেই আপনার সব ফাইলগুলো স্টোর করে রাখা হয়। অর্থাৎ আপনি কম্পিউটারে যত ফাইল রাখবেন তা এই হার্ড ডিস্কেই জমা হবে। আপনি যখন কোন সফটওয়্যার ওপেন করেন তাও ক্যাশ ফাইল আকারে কম্পিউটারে জমা হয়। আপনি যদি নতুন কম্পিউটার কেনেন তবে ১ টেরাবাইটের একটি হার্ড ডিস্কে আপনার সব কাজ হয়ে যাবে। তবে আপনি যদি অনেক ফাইল রাখতে চান তবে আপনার আরও বেশি সাইজের হার্ড ডিস্কের দরকার হবে।

আবার আপনি যদি অনেক ফাস্ট স্টোরেজ চান তবে এইচ.ডি.ডি এর বদলে এস.এস.ডি নিতে পারেন। তবে ১ টেরাবাইট একটি হার্ড ডিস্কের দাম ১২৮ জিবি একটি এস.এস.ডির দামের প্রায় সমান। অনেকেই নতুন কম্পিউটার কিনে কয়েকদিন পর দেখেন যে তার কম্পিউটারে যথেষ্ট জায়গায় নাই। এমন পরিস্থিতিতে যেন না পরতে হয় তাই আগে থেকেই চিন্তা করে হার্ড ডিস্ক কেনা উচিত। তবে আপনি চাইলে একটি এস.এস.ডি কিনে তাতে অপারেটিং সিস্টেম ইনস্টল দিতে পারেন এবং সাথে একটি হার্ড ডিস্ক কিনতে পারেন আপনার বাড়তি ফাইল সংরক্ষণ করার জন্য।

এসব বিষয়গুলো একবারেই প্রাথমিক বিষয়। আপনি যদি ডেক্সটপ বানাতে চান তবে আপনাকে আরো গভীর ভাবে চিন্তা করতে হবে এবং বিভিন্ন জায়গা খুঁজে বের করতে হবে যে আপনার কোন ধরনের কম্পিউটার দরকার এবং আপনি যে হার্ডওয়্যার দিয়ে কম্পিউটার বানাবেন তা একে অপরের সাথে মেলে কিনা। আর অবশ্যই একটি কম্পিউটার কেনার পূর্বে অনেক ভেবেচিন্তে কিনবেন। প্রয়োজন হলে কম্পিউটার বিষয়ে অভিজ্ঞ এমন কারো সাহায্য নিবেন।

টিউনটি কেমন লাগল? এই টিউন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকলে টিউমেন্ট এর মাধ্যমে জানাবেন। তাহলে আশা করি আপনাদের সাহায্য করতে পারব। সবাই ভাল থাকবেন। সুস্থ থাকবেন।

Level 1

আমি আশরাফুল ফিরোজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 77 টি টিউন ও 35 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 6 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস