নিজের কম্পিউটার নিজেই কিনি-শিখি [পর্ব-০৮] :: হার্ডওয়্যার – কোন ব্রান্ডের ডিভিডি রম ক্রয় করবেন?

নিজের কম্পিউটার নিজেই কিনি-শিখি

আসসালামু আলাইকুম।
সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি হার্ডওয়্যার বিষয়ক আজকের দিনের টিউন। সেই হিসাবে শিরোনাম অনুযায়ী আলোচনাতে থাকছে অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ তথা ডিভিডি রম/ডিভিডি রাইটার সম্পর্কে তথ্যাদি, কোন ড্রাইভগুলো ভাল হবে ইত্যাদি।

অপটিক্যাল ড্রাইভ কি?

কম্পিউটিংয়ে একটি অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ হল একটি ডিস্ক ড্রাইভ যা লেজার লাইট বা ইলেক্ট্রম্যাগণেটিক তরঙ্গ ব্যবহার করে দৃশ্যত আলোর বর্ণচ্ছটার কাছাকাছি বা মধ্যে অপটিক্যাল ডিস্ক পড়া বা লিখার ক্রিয়ার অংশ হিসেবে। কিছু ড্রাইভ ডিস্ক থেকে শুধু পড়তে পারে, কিন্তু সাম্প্রতিক ড্রাইভগুলো সাধারণত পড়া ও লিখা উভয় ক্ষমতার হয়ে থাকে যাকে বার্নার বা রাইটার নামেও ডাকা হয়। কম্পেক্ট ডিস্ক, ডিভিডি এবং ব্লু-রে ডিস্ক হল সাধারণ ধরনের অপটিক্যাল মিডিয়া যা এই সব ড্রাইভ দিয়ে পড়া এবং রেকর্ড করা যায়। অপটিক্যাল ড্রাইভ হল সামষ্টিক নাম ড্রাইভ বলতে বোঝানো হয় "সিডি" "ডিভিডি" বা "ব্লু-রে" যার সঙ্গে "ড্রাইভ" এবং "রাইটার" কথাটি যুক্ত করা হয়।

 অপটিক্যাল ড্রাইভের সাতকাহন

অপটিক্যাল ডিস্ক ড্রাইভ হল ভোক্তাদের ব্যবহৃত ব্যবহার সামগ্রী যেমন সিডি প্লেয়ার, ডিভিডি প্লেয়ার এবং ডিভিডি রেকর্ডারের অখন্ড অংশ। এগুলো কম্পিউটারে সাধারনভাবে ব্যবহার করা হয় সফটওয়্যার এবং ভোক্তাদের বন্টিত ডিস্ক পড়ার জন্য এবং তাদের প্রয়োজন অণুযায়ী ডাটা জমা, রেকর্ড এবং বিনিময় করার জন্য। ফ্লপি ডিস্ক ড্রাইভ যার সামর্থ্য ১.৪৪ মেগাবাইট অপটিক্যাল ড্রাইভের দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছে এদের কম দাম এবং উচ্চ ক্ষমতার কারনে। বেশিরভাগ কম্পিউটার এবং ভোক্তাদের হার্ডওয়্যারে অপটিক্যাল রাইটার রয়েছে। ইউএসবি ফ্ল্যাশ ড্রাইভ, উচ্চ ক্ষমতা, ছোট, এবং কম দামি ও বহনযোগ্য হওয়ায় পড়া ও লেখার সক্ষমতার জন্য প্রয়োজন হয়।

স্থানীয়ভাবে ব্যবহারের জন্য ও ডাটা বণ্টনের জন্য ডিস্ক রেকর্ডিং শুধু মাত্র যেসব ফাইল ভোক্তাদের গৃহস্থালি যন্ত্রপাতিতে চালানো যায় (মিডিয়া, সিনেমা, গান ইত্যাদি) এবং কম পরিমাণের (সাধারণ ডিভিডি ৪.৭ গিগাবাইট) তাতেই সীমাবদ্ধ। কিন্তু শুধু ছোট পরিমাণে, গণ-উৎপাদিত বিশাল সংখ্যক চিহ্নিত ডিস্ক কমদামি এবং দ্রুতগতির একক রেকর্ডিং থেকে।
অপটিক্যাল ডিস্ক কম পরিমাণের ডাটা ব্যাক আপ রাখার জন্য ব্যবহৃত হয়। কিন্তু অপটিক্যাল ডিস্ক দিয়ে পুরো হার্ড ডিস্ক ব্যাক আপ রাখা যাতে কয়েকশ গিগাবাইট তথ্য থাকতে পারে (২০১১ অনুসারে) বাস্তবসম্মত নয়। বড় ধরনের ব্যাকআপগুলো এক্সটার্নাল হার্ড ড্রাইভ দিয়ে করা হয় যেহেতু তাদের দাম কমে গেছে। আর পেশাদার পরিবেশে চৌম্বকীয় টেপ ড্রাইভ দ্বারা এই ব্যাক আপ রাখা হয়।

অপটিক্যাল ড্রাইভের প্রকারভেদ

হার্ডড্রাইভের মতই অপটিক্যাল ড্রাইভ দুই প্রকারের রয়েছে তথারুপঃ ইন্টারনাল ও এক্সটার্নাল। মূলত যে সকল  অপটিক্যাল ড্রাইভে শুধুমাত্র সিডি ডিভিডি ওপেন কিংবা রিড করা যায় সেটি হল ডিভিডি ড্রাইভ। অপরদিকে যে গুলোতে এই গুলো পাঠ করার সাথে অন্য কোন ডিস্কে রাইট করা যায় অর্থাত কপি করা যায় সেটি হল ডিভিডি রাইটার। অপটিক্যাল ড্রাইভগুলো কাজের গতি অনুযায়ী ০৮ এক্স হইতে ১২০ এক্স পর্যন্ত হয়ে থাকে।

অপটিক্যাল ড্রাইভের জনপ্রিয় ব্রান্ড সমূহ

বাজারে প্রচলিত অপটিক্যাল ড্রাইভের জনপ্রিয় ব্রান্ডসমূহ হচ্ছে Asus, Liteon, HP, LG, Samsung, BenQ, Philips, Sony। উল্লেখ্য এদের মধ্য শীর্ষ ও পৃথিবীর সর্ববৃহৎ মেনুফ্যাকচারার হচ্ছে Liteon. উল্লেখ্য Liteon অন্যান্য বিখ্যাত কোম্পানী যেমনঃ ডেল, এইচপির, সনির মনিটর প্রস্তুত করে দেয়। শুধুমাত্র নিজেদের নাম দিয়ে অপটিক্যাল ড্রাইভ তৈরি করে থাকে।

বাজারে বিদ্যমান সকল অপটিক্যাল ড্রাইভগুলো ১২ মাসের ওয়ারেন্টি প্রদান করা হয়ে থাকে।

ডিভিভি রম/রাইটারের যত্নআত্তি

শুধু ডিভিডি রম/রাইটার ক্রয় করে থাকলেই হবেনা। সাথে যত্ন-আত্তির ব্যাপার রয়েছে। কারন এটি অনেকটা সেনসেটিভ। তাই একটু যত্নবান না হলে আপনার সাধের জিনিসটি নষ্ট হতে বেশী সময় নিবেনা। কিভাবে ডিভিডি রমের যত্ন নিতে হয় এই সম্পর্কিত টিউন দেখুন এখানে

 শেষকথা

আলোচনার একদম শেষ পর্যায়ে। আশা করি, মনিটর বিষয়ক এই প্রকাশনাটি আপনাদের অনেকের উপকারে আসবে। এবং সেই সাথে এখন নিজেই নিজের পচ্ছন্দমতো ডিভিডি রম/রাইটার ক্রয় করতে পারবেন। তথাটি এই টিউন সম্পর্কে কোন রিভিউ থাকলে টিউমেন্ট করতে পারেন ও শেয়ার করুন সবার মাঝে। পরিশেষে আজকের মত এখানেই শেষ করছি। -আল্লাহ্ হাফেয-

(তথ্যসূত্রঃ উইকিপিডিয়া, কম্পিউটার বার্তা)

Level 1

আমি এএমডি আব্দুল্লাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 157 টি টিউন ও 1047 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

সম্মানীয় ভিজিটর বন্ধুগন! সবাইকে আন্তরিক সালাম ও ভালবাসা। আশা করি ভাল আছেন। পর সংবাদ যে, আমরা একটি ব্লগ সাইট তৈরি করেছি। সাইটটি সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম শিক্ষা ও প্রযুক্তি নির্ভর। প্রযুক্তি, শিক্ষা, কম্পিউটার বিষয়ক যেমনঃ অনলাইন ইনকাম, ফ্রিল্যান্স, টিউটোরিয়াল, মুভি, গেমস, সফটওয়্যার, ভ্রমন, ইতিহাস, ভূগোল, কার্টুন, ধর্ম, টেক সংবাদ, এবং সংবাদপত্র ফিউচার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

কপিপেষ্ট কন্টেন্ট থাকায় আপনার টিউন টি চেইন টিউন থেকে বাতিল করা হয়েছে।

    ধন্যবাদ। কোথা হতে কপি পেষ্ট করা হল তার লিংক দিলে বুঝতে পারতাম। তথাপি টিউনে রেফারেল লিংক, সূত্র উল্লেখ করেছি। অবশ্য টিউনে যে ইমেজগুলো ব্যবহৃত হয়েছে সেইআপলোডকৃত ইমেইজ গুলো আমার ব্লগ সাইটে ব্যবহৃত হয়েছে।

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি টেকটিউনস চেইন টিউন হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। অভিনন্দন আপনাকে!

টেকটিউনসে চেইন টিউন কীভাবে প্রক্রিয়া হয় তা জানতে টেকটিউনস সজিপ্র এর https://www.techtunes.io/faq “চেইন টিউন” অংশ দেখুন।

নিয়মিত চেইন টিউন করুন। এখন থেকে আপনার নতুন করা চেইন টিউন গুলো টেকটিউনস থেকে চেইন এ যুক্ত করা হবে। চেইন টিউনে যুক্ত হবার ফলে চেইনের প্রতিটি পর্ব একসাথে থাকবে।

চেইনে নতুন পর্ব যুক্ত হলে তা টেকটিউনসের প্রথম পাতায় দেখা যাবে এবং “সকল চেইন টিউনস” https://www.techtunes.io/chain-tunes/ পাতায় চেইন টিউনটি যুক্ত হবে।

নিয়মিত চেইন টিউন করে নতুন নতুন টিউন আপনার চেইনে যুক্ত করুন এবং অসম্পূর্ণ না রেখে আপনার চেইন টিউনে নিয়মিত পূর্ণাঙ্গ রূপ দিন। ধন্যবাদ আপনাকে।

মেতে থাকুন প্রযুক্তির সুরে আর নিয়মিত করুন চেইন টিউন!

প্রিয় টিউনার,

আপনাকে এই চেইনটি চলমান করার জন্য অনুরোধ করা গেল। দয়া করে আপনার চেইন টিউনটি নতুন পর্ব যুক্ত করুন এবং নিয়মিত আপডেট করুন। ধন্যবাদ।