গুগল কিভাবে ইনকাম করে?

টিউন বিভাগ গুগল
প্রকাশিত

আমরা অনেকেই গুগল থেকে ইনকাম করার সপ্ন দেখি। আমরা কি জানি গুগল কিভাবে ইনকাম করে। আজকে আমরা আলোচনা করবো কিভাবে গুগল ইনকাম করে। দেরি না করে চলুন শুরু করি।

গুগলের ইনকাম সোর্স


১. এডসেন্সের মাধ্যমে


গুগলের ইনকামের প্রধান উৎস এডসেন্স। বিভিন্ন ধরনের ছোট বড় কোম্পানি তাদের পন্য প্রচারের জন্য গুগলের কাছে বিজ্ঞাপণ দেই। এর জন্য অবশ্যই গুগলকে অর্থ দেওয়া লাগে।

গুগল সেই বিজ্ঞাপণ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচার করে এবং যারা প্রচার করে তাদেরকে ৫৫% শতাংশ দিয়ে বাকি অর্থ গুগল রেখে দেই। এভাবেই মুলত গুগল ইনকাম করে। বর্তমানে হাজার কোম্পানি তাদের পন্য গুগলের মাধ্যমে প্রচার করে তাই গুগলের ইনকাম এডসেন্সের মাধ্যমে অধিকাংশ হয়ে থাকে।

২. ব্যবহারকারীর ডাটা বিক্রি করে


গুগলের আরেকটি ইনকাম সোর্স হলো ব্যবহারকারীর ডাটা বিক্রি করা। এডসেন্সের পরে গুগল এভাবেই বেশি টাকা ইনকাম করে। বর্তমানে পৃথিবীর বেশিরভাগ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী গুগলের সার্ভিস গুলো ব্যবহার করে।

সেই সার্ভিসের ব্যবহার করার সময় গুগল সেই ব্যবহারকারীর সব ডাটা নিজেদের সার্ভারে জমা রাখে। এবার সেই ডাটা বিভিন্ন ধরনের কোম্পানির কাজে লাগে। গুগল বিভিন্ন কোম্পানির কাছে গুগল ডাটা বিক্রি করে টাকা আয় করে।

এটি গুগলের ইনকাম সোর্স গুলোর মধ্যে অন্যতম। তবে এর একটি খারাপ দিকও আছে। ব্যবহারকারীরা গুগলে অনেক পার্সোনাল জিনিস লুকিয়ে রাখে। যদি সেগুলো কোনো খারাপ লোকের কাছে যায় তাহলে অনেক ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

তবে গুগলের উপর ভরসা রাখা যায়। যদি নিজের প্রাইভেসি নিয়ে অনেক সচেতন হয়ে থাকেন তাহলে অ্যাপেলের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারেন। অ্যাপেল একমাত্র কোম্পানি যারা ব্যবহারকারীর কোনো ডাটা বিক্রি করে না।

৩. প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে


গুগলের আরেকটি ইনকাম সোর্স হলো প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন। আপনি গুগলের সব সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন নেওয়া লাগবে। উদাহরণ হিসেবে ধরা যায় ইউটিউব। ইউটিউব থেকে আপনি সব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন না।

এর জন্য ইউটিউবের প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন নেওয়া লাগবে। আবার গুগল ড্রাইভে আপনি ফ্রিতে মাত্র ১৫ জিবি স্টোরেজ পাবেন। বাকি স্টোরেজ নিতে হলে আপনাকে কিনে নিতে হবে। আপনি যখন প্রিমিয়াম সাবস্ক্রিপশন কিনবেন তখন সব টাকা গুগলের কাছে যাবে। এভাবেই গুগল ইনকাম করে থাকে।

৪. গুগল পে প্লাটফর্মের মাধ্যমে


গুগলের একটি নিজস্ব ওয়ালেট আছে যার নাম গুগল পে। গুগল পে অর্থ লেনদেনের জন্য ব্যবহার করা হয়। আপনি যখন গুগলের মাধ্যমে অর্থ প্রেরন করেন তখন গুগল কিছু কমিশন রাখে।

এভাবেই গুগল তাদের নিজস্ব ওয়ালেটের মাধ্যমে ইনকাম করে। বর্তমানে লক্ষ লক্ষ মানুষ গুগল পে এর মাধ্যমে লেনদেন করে তাই গুগল মোটা কমিশন ইনকাম করে।

৫. সার্ভে


গুগলের একটি এপ্লিকেশন গুগল অপিনিয়ন রিওয়ার্ড। এখানে বিভিন্ন ধরনের সার্ভে পুরন করে ইনকাম করা যায়। বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি তাদের সার্ভে গুগল অপিনিয়ন রিওয়ার্ড এপ্লিকেশনে দিয়ে থাকে। এর জন্য গুগলকে অবশ্যই টাকা দেওয়া লাগে।

এরপর গুগল সেই সার্ভে ছেড়ে দেই এবং কিছু টাকা রেখে বাকি টাকা যারা সার্ভে পুরন করে তাদেরকে দিয়ে দেই। এভাবেই গুগল ইনকাম করে।

আজ এই পর্যন্তই। আরোও অজানা তথ্য নিয়ে আমরা আপনাদের মাঝে হাজির হবো। ততদিন আমাদের সাথে থাকুন।

ধন্যবাদ সবাইকে।

Level 2

আমি রায়হান মাহমুদ সাকিব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 মাস 1 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 14 টি টিউন ও 8 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Apple Inc. এর ডাটা বেচা লাগে না, তারা সরাসরি CIA, NSA এর কাছে ডাটা হস্তান্তর করে। তারা এমন আহামরি ভালো কোম্পানি না।

গুগল তো জারজ ইহুদি পলিসি নিয়ে চলে, তাই ডাটা বেচে কামাই করে।