রিভিউঃকল অব ডিউটি মডার্ন ওয়ারফেয়ার ৩।এইবারও বাজিমাত!!!

টিউন বিভাগ গেমস
প্রকাশিত

এই গেমটি নিয়ে দেখি কেউ রিভিউ দিল না।পরে ঠিক করলাম আমি নিজেই দিয়ে দেই।সারাটা বছর এই গেমসটার জন্য অপেক্ষা করেছি।আমার মত অনেকেই এই গেমটার জন্য অপেক্ষা করেছে।গেমসটির নাম CALL OF DUTY:MODERN WARFARE 3 এই সিরিজের ব্লকবাস্টার শুটিং গেমস MODERN WARFARE 2 এর সিকুয়েল এই গেমটি।সারা পৃথিবীর অনেক ভক্তদের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে এই মাসের ৮ তারিখ গেমটি রিলিজ হয়।এই পর্যন্ত এই গেমসটি সবচাইতে বেশি প্রিঅর্ডার করা হয়েছে।এই গেমসটি পাবলিশ করেছে ACTIVISION এবং ডেভেলপ করেছে যথাক্রমে infinity ward ও sledgehammer games.

গেমসটি ৪টি প্লাটফর্ম এর জন্য রিলিজ হয়েছে।PC,XBOX360,PS3,Wiiআমি আজকে এর পিসি প্লাটফর্মের রিভিউ দিব।

গেমসটি চালু হবার পর মেইন মেনুতে আসবে।মেইন মেনুতে অনেকটাই MW2 এর মেইন মেনুর সাথে মিল রাখা হয়েছে।যেখানে রয়েছে

1.SPECIAL OPS
2.CAMPIGM
3.MULTIPLAYER

1.SPECIAL OPS

এই মোড আপনার দক্ষতা যাচাই করতে পারবেন।ধীরে ধীরে আপনার দক্ষতা বৃদ্ধি পেতে থাকলে আপনার লেভেল বাড়বে।এর সাথে সাথে আপনার স্কোর ও বারবে।আপনি অনেক নতুন ধরনের অস্ত্র আনলক করতে পারবেন।এই মুডে আপনি আপনার বন্ধুদের সাথেও খেলতে পারবেন।অনলাইনে আপনার স্কোর শেয়ার করা বন্ধুদের সাথে পাল্লা দিয়েও খেলতে পারবেন।

2.CAMPIGN
Single player এর পাশাপাশি অনলাইন বন্ধুদের সাথে নিয়েও আপনি এই গেমস এর স্টোরি কমপ্লিট করতে পারবেন।MW2 এর ঠিক যেখান থেকে স্টোরি কমপ্লিট হয় সেখান থেকে এই গেমস এর স্টোরিলাইন শুরু হয়।মোট ১৬ টা লেভেল রয়েছে।যা মোটামুটি ৬ ঘন্টায় শেষ করা যায়।
3.MULTIPLAYER
এই গেমস এর মাল্টিপ্লেয়ার মুডে একসাথে ১৬জন খেলা যাবে।বেশ কিছু ম্যাপ রয়েছে।এখন ও আমি এই মুডে গেমসটি খেলিনি।লিগ্যাল কপি আমার কাছে নেই।

STORYLINE

আগেই বলেছি MW2 এর পরের থেকেই এর কাহিনি শুরু হয়।শেফার্ড কে মারার পর শোপ এবং প্রাইস নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে যায়।এইদিকে শোপের অবস্থা খুবই খারাপ।কারন শেফার্ড এর সাথে মারামারি করার সময় শেফার্ড শোপের বুকে চাকু ঢুকিয়ে দিয়েছিল।কিন্তু নিরাপদ জায়গায় গিয়েও তাদের কোন সুবিধা হয় না।ম্যাকারভ এর নির্দেশে একটা আর্মি এসে পড়ে শোপ আর প্রাইসকে মারতে।এইদিকে ম্যাকারভ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ও তার মেয়েকে কিডন্যাপ করে রাশিয়ার নিউক্লিয়ার বোম এর কোড জানার জন্য।তার উদ্দেশ্য থাকে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত করবার।ম্যাকারভের প্লান নষ্ট করে দিতে শোপ এবং প্রাইস বিভিন্ন মিশনে যায়।এইভাবে গেমসের কাহিনী এগিয়ে যায়।গেমসের শেষদিকে শোপ মারা যায়।এবং শোপ এর মৃত্যুর প্রতিশোধ নেয়ার জন্য প্রাইস এবং ইউরি মিলে ম্যাকারভকে হত্যা করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়।

নিঃসন্দেহে গেমস এর কাহিনীটা অসাধারন হয়েছে।তবে শোপের মারা যাওয়াটা অনেক কষ্ট লেগেছিল।যেমনটা BLACK OPS এ রেজনোভ আর উডস এর জন্য লেগেছিল। গেমসের আবহটি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের ধারনা নিয়েই বানানো।আমার কাছে তো সেরকমই লেগেছে।গেমসের কাহিনির প্রয়োজনে আপনাকে জার্মান,প্যারিস,আফ্রিকায় যেতে হবে।

GAMEPLAY

অসাধারন গেমপ্লে যা লিখে প্রকাশ করা যাবে না।যারা কখন ও এই ধরনের ফার্স্টপার্সন গেম খেলেনি তারা কিছুক্ষনের জন্য যদি এই গেমস খেলে,নিমিশেই ভক্ত হয়ে যাবে।COD সিরিজের গেমসগুলো এরকম ভাবেই বানানো।যদি কেউ খেলে তার কাছে গেমস এর সবকিছু অন্যরকম মনে হবে।গেমস এর ডায়লগ,সবার কথা বলার ধরন,যেরকম আবহ তৈরি করা হয়,যেরকম ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক বাজানো হয়,যেরকম অভিজ্ঞতা হয় তা অন্য কোন গেমস এ সহজে পাওয়া যায় না।এবং অন্য যে কোন গেমস এই ধরনের অভিজ্ঞতা দিতে ব্যর্থ।এইবারের গেমপ্লেও খুব ভাল করা হয়েছে।

তবে বিভিন্ন চরিত্রের মুভমেন্ট আরো বাস্তব করা হলে ভাল হত।কিন্তু তা করা হয় নি।

সাইন্ড কোয়ালিটি ভালোই।বিভিন্ন ভোকালের ডায়লগ শুনলে ঘাড়ের লোম শিহরণে দাঁড়িয়ে যায়।না ভয়ে না।অন্যরকম একটা অনুভুতি আসে।যা অতি বাস্তব মনে হয়।বাস্তবের থেকে কিছু বেশি।

SCREENSHORT

এইবার গেমস এর কিছু চরম মুহূর্তের স্ক্রিনশর্ট দেখা যাক।

কাহিনীর প্রয়োজনে আপনাকে বিভিন্ন চরিত্রে খেলতে হবে।গেমস এর যে জিনিসটা সবচেয়ে ভাল লেগেছে তা হল আধুনিক সব অস্ত্র ব্যবহারের সুযোগ।আপনি রিমোট কন্ট্রোল মিনিগান ব্যাবহার করতে পারবেন।ট্যাবলেট কম্পিউটার এর মত একটা ডিভাইস আছে যা দিয়ে আপনি হেলিকপ্টার দিয়েই শত্রুপক্ষকে ঘায়েল করতে পারবেন।আর এই ছাড়াও আগের মত অনলাইন মিসাইল তো আছেই।আপনি একটা লেভেলে জিরো গ্রাভিটিতে ফায়ারিং এর একটা মিশন পাবেন।এই ছাড়াও একেক লেভেলে একেক রকম অভিজ্ঞতা আপনি অর্জন করবেন।

GRAPHICS

এই জিনিসটার ব্যাপারে এখন আসার কারন একটাই।গেমসের যদি কোন একটা জিনিস কাজ না করে তাহলে তা একটাই।আর তা হল এই গেমস এর গ্রাফিক্স।আমি খুব-ই হতাশ হয়েছি।আগেও ছিলাম।কিন্তু এতটা হতাশ হতে হবে ভাবিনি।এমনিতে যখন আপনি গেমসটি খেলবেন গেমসের গ্রাফিক্স মোটামুটি ভালই লাগবে।কিন্তু যখন সুক্ষভাবে দেখবেন তখন আসল জিনিস চোখে পড়বে।যেমন পানি,আগুন,বিভিন্ন অবজেক্ট,গাড়ির অবস্থা ভাল না।অথচ অন্যান্য গেমসগুলো সবসময় ভালো গ্রাফিক্স দেয়ার চেস্টা করে।কিন্তু সত্যি কথা বলতে কি আগের MW2 এর সাথে এই গেমস এর গ্রাফিক্স এর খুব বেশি একটা পার্থক্য আমি পাই নাই।নিচে এই গেমসের কিছু স্ক্রিনশর্ট দিলাম যেখানে এই গেমসের গ্রাফিক্সের খারাপ অবস্থা বুঝা যায়।

দেখুন।আগুনের কি অবস্থা।

গাড়ি ভেঙ্গে গিয়েছে তো কি হয়েছে?তাই বলে কি গ্রাফিক্সের অবস্থা এত খারাপ হবে?

ঘাসের অবস্থা শোচনীয়।১০ বছর আগের গেমসের ঘাস। 🙁

এইটা কি পানি নাকি দুধ?এমন কেন করল?

আমার সবচাইতে প্রিয় গেমসের এই হল অবস্থা।অনেক সমলোচক,গেমারদের একই অভিযোগ।যেইখানে সব গেম কোম্পানিরা চেস্টা করছে তাদের গেমসের গেমপ্লে এবং গ্রাফিক্স আরো উন্নত করার জন্য সেইখানে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত গেমসের অবস্থা কেন এরকম?

যেকোন গেমসের গ্রাফিক্স থেকে গেমপ্লে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ।কিন্তু সবসময় এই কথাটা খাটে না।যেমন ধরুন ASSASSINS's CREED 1,2,3 গেমগুলোর গ্রাফিক্স আমার কাছে সবকয়টা একই রকম লেগেছে।এইসব সিকুইয়েলে শুধু ম্যাপ,কাহিনী,আর গেমপ্লে এর উন্নতি হয়েছে।এবং UBISOFT চেস্টা করেছে তাদের নতুন গেমস REVELATION নতুন কিছু আনার জন্য।

কিন্তু ACTIVISION এখন ও সেই আগের জিনিসই সবাইকে দিচ্ছে।অনেকেই এই কারনে তাদের উপর অসন্তুস্ট।

যাই হোক।আমার আরো কিছু মতামত দিলাম। যা এই গেমসে থাকার দরকার ছিল বা থাকলে সম্পূর্ণ হত।

১।নতুন ধরনের গ্রাফিক্স নিয়ে আসলে,বা আগের গ্রাফিক্সটা যদি আরো ভাল করে দেখান হত।

২।গেমপ্লে ঠিকই ছিল।তবে আরো ভালো করা যেত।প্লেয়ারদের মুভমেন্ট আরো বাস্তবসম্মত করা উচিত ছিল।

৩।বিভিন্ন ভেহিকেল যেমন ট্যাঙ্ক,বিমান,গাড়ি চালানোর সিস্টেম থাকা দরকার ছিল।

৪।এই গেমসের ডিএলসি যেন বিনামূল্যে পাওয়া যায় সেইদিকে যেন ACTIVISON খেয়াল রাখে।আমার মনে হয় না তারা জিনিসটা নিয়ে চিন্তা করবে।

SYSTEM REQUIREMENTS

এই আরকি।এইবার এক নজরে দেখে নেই গেমসটি খেলতে গেলে কি কি লাগবে আপনার কম্পিউটারে।

মিনিমাম সিস্টেম রিকুয়ারমেন্টস
ডুয়াল কোর প্রসেসর
১জিবি রাম
৫১২ এমবি গ্রাফিক্স কার্ড পিক্সেল শেডার ৩
১২ জিবি হার্ড ড্রাইভ।

রিকমান্ডেড সিস্টেম রিকুয়ারমেন্টস
কোর ২ ডুয়ো প্রসেসর
২ জিবি রাম
১ জিবি গ্রাফিক্স কার্ড পিক্সেল শেডার ৪
১২ জিবি হার্ড ড্রাইভ।

এই গেমসটি খেলতে গেলে খুব বেশি ভাল গ্রাফিক্স কার্ড এর প্রয়োজন নেই।নরমাল গ্রাফিক্স কার্ড এ মোটামুটি ভাবে খেলা যাবে তবে খেয়াল রাখতে হবে গ্রাফিক্স কার্ডটি পিক্সেল শেডার ৩ সাপোর্ট করে।১ জিবি গ্রাফিক্স কার্ড হাই করে খেলা যাবে। রিকুয়ারমেন্টস গুলো নিজের মত করেই দিলাম।তবে আমি নিশ্চিত এইগুলোই পারফেক্ট।

MODERN WARFARE 3 এইবারো একদিনে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত গেমসের নতুন রেকর্ড করেছে।অনেকে ধারনা করছেন সবদিক থেকে আবারো নতুন রেকর্ড করবে গেমসটি।এই কারনে ACTIVISION এর CEO নিশ্চিত করেছেন আগামি বছর অর্থাৎ ২০১২ সালে নতুন একটি কল অব ডিউটি বের করার।আমি আশা করি এইবার যেন তারা গেমসটি ভাল ভাবে বানায়।

গেমসে সম্পর্কে আমার মোটামুটি ভালো ধারনা রয়েছে।আমি গেমস বিষয় সম্পর্কে কিছু টিউন করে আপনাদেরকে আমার ধারনাগুলো শেয়ার করতে চাই।আপনাদের সম্মতি পেলে আমি সেই বিষয়গুলো নিয়ে টিউন করব।তবে আমার টিউনগুলো শুধু রিভিউ এর মাঝে সীমাবদ্ধ থাকবে না।

রিভিউ এর বাইরে ভিডিও গেমস সম্পর্কে অনেক কিছু জানার রয়েছে।আমি চেস্টা করব আমার সামনের কিছু টিউনে সেগুলো সম্পর্কে বলার।যেমন গেমিং ইন্ডাস্ট্রি,কনসোল জিনিসগুলো নিয়ে।যদিও আমি টিউন খুব একটা পারি না। নিচে কিছু আপকামিং গেমসের ট্রেইলার দিলাম।অনেক মানুষ এই গেমসগুলোর জন্য অপেক্ষা করছে।আশা করি ভাল লাগবে।ধন্যবাদ।

রকস্টার এর দুনিয়া কাঁপানো GTA5 এর ট্রেইলার। ক্লিক

রকস্টার জনপ্রিয় শুটিং গেমস এর সিকুয়েল MAX PAYNE 3 এর ট্রেইলার । ক্লিক

Crytek এর পরবর্তী গেমস UBI SOFT এর FARCRY 3 এর ট্রেলার। ক্লিক

HITMAN TRAILER ক্লিক

Level 0

আমি শরীফ আহমেদ জনম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 12 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 6 টি টিউন ও 288 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি এইবার বীরেশ্রষ্ঠ মুণ্সী আব্দুর রউফ রাইফেলস কলেজ থেকে কমারস ssc পরিক্ষা দি্যেছি।কম্পিউটার আমার জীবন সঙ্গী।এর সাথে বলতে গেলে আমার বিয়ে হয়েছে।জীবনে সংগ্রাম করার সময় আমি কম্পিউটারকে কাছে পেয়েছিলাম।ওকে ভাল করে জানার জন্য আমার অনেক চেস্টা আর আগ্রহ।তারই মাঝে এক্তা হল TechTunes-এ আসা।জানব,শিখব যা জানি সাধ্যমত হলে সবার সাথে শেয়ার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

খুবই সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন। আমারও ইচ্ছা আছে এই গেম খেলার তবে গ্রাফিক্স কার্ড নাই, কেনার পর এই গেম সবার আগে খেলব, ইনশাল্লাহ।

Game ta khelechi osadharon story c lo tobe gfx ta asolei hotash kore dise. .bf3 k j again mw3 bash dilo aita sudhui story er jonnei. . .apnar review sundor hoise chalia jan

Bishal jayga ! 🙁
tai download ekhono korte pari nai 🙁

Level 0

vai amarkace ei game tace but serial key sasse za amar kace nai,,,,,,,,,,kindly serial key ta den

    @phrumel:

    ভাই।যতটুকু মনে হয় আপনি ফেক সিরিয়াল দিয়ে খেলতে পারবেন না।টরেন্ট এ এই গেমসের ক্রেক খুজে দেখেন কাজ হয় নাকি।সবচেয়ে ভালো হয় নেট থেকে ডাউনলোড করে নিলে অথবা মার্কেট থেকে কিনে নিলে।

ভাই কি সব দেন লোভে তো মইরা যাই । জেমস বন্ড এর একটা গেম পইরা রইছে খেলতে পারছি না গ্রাফিক্স এর জন্য । বিল্ড ইন গ্রাফিক্স দিয়া খেললে ময় চা নাস্তা কইরা খেলতেছি । খুব সমস্যায় আছি একটা গ্রাফিক্স কাড কিনতেই হইব যা দেখতেছি । আচ্ছা ভাই বিল্ড ইন গ্রাফিক্স এর পিক্সেল শেডার কত কিভাবে দেখা যাবে? আমার মাদার বোড গিগাবাইটের G41MT-D3V এবং র‍্যাম ৪ গিগা শেয়ার করে গ্রাফিক্স ১ গিগা । আমি কিভাবে বুঝবো কোন কোন গেম খেলতে পারবো ? জানলে খুব খুশি হতাম । আর টিউন খুব সুন্দর হইছে । সুন্দর না হইলে কি গ্রাফিক্স কাড কিনতে চাই ?

    @রাজিব:

    হেঃ হেঃ হেঃ

    পিক্সেল শেডার বুঝার সবচেয়ে সহজ উপায় হল আপনার মাদারবোর্ডের গ্রাফিক্স চিপ ডাইরেক্ট এক্স এর কোন ভার্সনটি সাপোর্ট করে।

    ডাইরেক্ট এক্স ৯ = পিক্সেল শেডার ৩
    ডাইরেক্ট এক্স ১০ = পিক্সেল শেডার ৪
    ডাইরেক্ট এক্স ১০.১ = পিক্সেল শেডার ৪.১
    ডাইরেক্ট এক্স ১১। = পিক্সেল শেডার ৫

    আপনার মাদারবোর্ড এ বাক্সে লেখা আছে যে এই বোর্ডের গ্রাফিক্স চিপ ডাইরেক্ট কত সাপোর্ট করে।নেট থেকে দেখলাম ডাইরেক্ট এক্স ১০।সুতরাং আপনারটি পিক্সেল শেডার ৪।

    মোটামুটি কনফিগারেশনে খেলার জন্য এখন বাজারে খুব কমদামে ওয়ারেন্টিসহ গ্রাফিক্স কার্ড পাওয়া যায়।আপনি সেইগুলা ট্রাই করে দেখতে পারেন।

    ধন্যবাদ।

গেমের শুরুর গ্রাফিক্স দেখে আমিও হতাশ হয়েছিলাম…
রেজুলেশন হাই করার পরও ঐ অবস্থা দেখে ভাবছিলাম আমার গ্রাফিক্স কার্ডের সমস্যা….. 😛

তাও যদি আমার কম্পিউটারে চলতো। 🙁

vai, eta ki XP te cholbe?
amar pc:
Dual core 2.20GHz
1 GB graphics
2 GB RAM

আজকেই কিনবো এইটা। তবে আমি সিওর না এইটা চলবে কিনা 🙁 …

vai ami bujhte partasi na kunda kinmu? msi n580gtx lightning naki sapphire 7970.ucc theke kinmu naki?oder after sales service naki kharap?

    @মুন্না:

    ভাই।চোখ বুইজা n580gtx কিনেন।NVIDIA বেস্ট। দাম দিয়ে ATI এর ফালতু কার্ড কেনার কোন মানে নাই।আপনার যদি UCC ভালো না লাগে তাহলে Smart থেকে কিনতে পারেন।ওরা gigabyte এর Nvidia কার্ড বিক্রি করে।

but ekhon smart er kase gtx 580 nai.ar vai amd faltu keno bolben ?amar total 80,000tk bg ase computer upgrading er jonno.er moddhe gpu+psu 70,000 ar casing nimu 10,000.inwin dragon rider casing.kintu jhamela lagse gpu niya.gtx 580+750w psu ar 7970+600w psu.

o arekta kotha.7970 naki directx 11.10 support kore.ja abar naki ekmatro w8 thakbo.kotha ki sotto?

    @মুন্না:

    ওরে ভাই আপনারে কি কমু?কিসু মনে নিয়েন না।

    ATI 3000 সিরিজের কারড গুলো ডাইরেক্ট এক্স ১০ মানে পিক্সেল শেডার ৪ সাপোরট করত।অই সময় পিক্সেল শেডার ৪ এর কোন গেম ছিল না।এখন অবশ সব গেমসই মোটামুটি পিক্সেল শেডার ৪ চায়।তারপরের বছর ATI আনে 4000 সিরিজের গ্রাফিক্স কারড।যাতে আপনার ডাইরেক্ট এক্স ১০.1 মানে পিক্সেল শেডার ৪.১ সাপোরট করত।কিন্তু পিক্সেল শেডার ৪.১ এর কোন গেমস এই পর্যন্ত বের হয় নাই।সব গেমস পিক্সেল শেডার ৪ এর জন্য ডিজাইন করা হবে।এমনকি পিক্সেল শেডার ৫ এর গেম ও আসবে কয়দিন পর।অবশ বের হয়েছে ২-১টা।কিন্তু পিক্সেল শেডার ৪.১ এর কোন কাহিনী আর আগে যায় নাই।ঠিক একি কাহিনি এই 7000 সিরিজের গ্রাফিক্স কারড এ করা হচ্ছে।আবার নতুন ফিচার যোগ হয়েছে HDMI(3D).কিন্তু 3D এর জন্য বেস্ট NVIDIA

    ATI কে ফালতু বলা আমার উচিত হয়নি।বাজারে সব গ্রাফিক্স কারড ই ভাল।আমি মোটামুটি সব কারড এ গেম খেলেছি।তবে NVIDIA তে খেলে আমার বেশি ভালো লেগেছে।আপনি যদি গেম খেলে থাকেন তাহলে খেয়াল করবেন সব গেমসই NVIDIA এর সাজেস্ট করে থাকে।আর PS3 তে যদি গেম খেলে থাকেন তাহলে এর যাদুকরি গ্রাফিক্স তো দেখেছেনই…!!এই PS3 এর গ্রাফিক্স চিপসেট হল NVIDIA এর।

    ভালো দেখে একটা কারড নেন।পারলে NVIDIA নেন।UCC থেকে Smart থেকে নেওয়াটাই ভাল।আর মনিটর এ HDMI পোরট থাকলে সেইতা ব্যবহার করুন।আর একটা 3D গ্লাস কিনতে ভুলবেন না।দাম ১০০০টাকা মাত্র। 😉

    বেস্ট অব লাক।

ভাই আমি Call of Duty 1 , 2 খেলেছি । এই গেমটি খেলতে হলে আমার পিসির কনফিগারেশন অনেক লো … আমার মাদার বোর্ড Gigabyte G31M-ES2C DirectX 9.0 (Shader 2.0), has only two pixel shader units and no vertex shader units এবং র‍্যাম ২ জিবি এখন গ্রাফিক্স কার্ড ৫১২ এমবি গ্রাফিক্স কার্ড পিক্সেল শেডার ৩ কি এই মাদার বোর্ডে যুক্ত করা যাবে কিনা এবং যুক্ত হলে কি গ্রাফিক্স কার্ড কিনব ? উল্লেক্ষ কয়দিন আগে Call of Duty Black Ops এর ডিভিডি কিনে চালাতে পারিনি হয়তো গ্রাফিক্স কার্ড নেই বলে 🙁

    Dual core 2.60GHz
    2 GB RAM
    Gigabyte G31M-ES2C

      @শরীফ আহমেদ জনম:

      ভাল কথা জিজ্ঞাসা করেছেন।
      না ভাই,বিল্ট ইন দিয়ে এই গেমস যদি খেলেন আত্মায় শান্তি পাবেন না।
      ৫১২এমবি না কিনে ১ জিবির অনেক ভাল গ্রাফিক্স কার্ড আছে বাজারে ২-৩ বছরের ওয়ারেন্টি সহ।
      মোটামুটি সব গেম খেলার জন্য ৫৫০০-৬৫০০ টাকার ডিডিআর৩ ভাল কার্ড দেখতে পারেন মাল্টিপ্লান এ।

Level 0

game ta install kore 20% er moto complete korsi…erpor error dekhachche-” reliable command overflow”.
processor- corei5(2.67ghz)
graphics memory(intel hd)-1.5gb, dx11
ram-4gb