জীবন থেকে নেওয়া [পর্ব-২] :: FPS Drop, Stuttering, Lagging

টিউন বিভাগ গেমস
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

গেমিং করার সময়ই আমরা মাঝে মাঝে Poor FPS অথবা late response time দেখে থাকি। এর কারণ আসলে অনেকে bottleneck বললেও মূলত বিষয়টা তেমন নয়। Bottleneck বিষয়টা আমি ধারণা দিচ্ছিঃ 'ধরি, একটি গাড়িতে আপনি accelerator চেপে ধরেছেন, আর এতে Engine প্রচুর আওয়াজ করে গতি বাড়ানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু, আপনার Fuel tank এর piston খুবই সরু, আর এর ফলে এতো ভালো Engine হওয়ার পরও, গাড়ির গতি বাড়ছে না;সোজা কথায়, পরিমাণমতো Fuel যদি Engine এ যেতে পারে, তখনই Engine এর সর্বচ্চো শক্তি এখানে ব্যবহার করতো। কিন্তু আপনি তো জানেন যে আপনার পিসির CPU ও GPU bottleneck ছিলই না, তাহলে বিষয়টা কেমন হয়ে দাঁড়ায়? এখন নিশ্চিত হওয়ার জন্য প্রাথমিক ভাবে যা করা যায় তা হচ্ছে, যদি দেখেন যে, আপনার GPU usage প্রায় গেমেই খুব কম, এবং Core voltage limitation স্বাভাবিক, তাহলে আপনাকে Windows defender থেকে দূরে সরে আসতে হবে, এবং অন্য কোনো ভালো Anti-Malware Software এর দিকে ঝুঁকতে হবে। কারণ, আপনার GPU টি যেকোনো ভাবে Mining virus দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে। আর এতে আক্রান্ত হলে আপনি যতই GPU driver install, reinstall করুন না কেন, কোনো পরিত্রাণ আসবে না।

Illustration of Mining virus (Miniature)

সুতরাং, আপনি আপনার system partition drive C scan করে দেখতে পারেন আদোও এমন virus আছে কিনা। এক্ষেত্রে windows defender কিছুই করতে পারে না। এক্ষেত্রে Malwarebytes, ESET nod internet security, ব্যবহার করে ভাইরাস permenantly remove করে দেওয়া যায়। এরপরও যদি performance এ কোনোপরিবর্তন না হয়, তবে আপনাকে Ram upgrade করতে হবে। (Yet, removing mining viruses will result in a significant performance gain), এখানে Ryzen series হলে Ram matter হবে। (আমার আগের Tune-এ এই বিষয়ে বিস্তারিত রয়েছে)। পরবর্তীতে, আপনি যা করতে পারেন সেটা হলো Dual channel এ Ram ব্যবহার করা, যা CPU এর L3 cache কে optimized করে দ্রুততর response time নিশ্চিত করে। এরপরও গেমিং boost দরকার হলে আপাকে দেখতে হবে Os এর কিছু ভিতরের খুটিনাটি। যেমনঃHigh precision event timer(HPET) System Driver টি যদি আপনি device manager থেকে disable করে দেন, তবে সামান্য performance gain হবে। আর Ryzen series এর SMT(Simultaneous Multi Threading) option টি bios অথবা Ryzen master utility থেকে disable করে দিলেও CPU bottleneck কমে আসবে। তবে গেমিং শেষে যেকোনো workstation এর জন্য আবার SMT enable করে ফেলতে হবে। (SMT enables the CCX2 Cores in AMD ryzen series processors which are secondary logical cores. Turning off the extra logical cores may result in significant performance loss in multi tasking and threading operations) আরেকটি বিষয় হচ্ছে, আপনার GPU এর power usage দেখা। কারণ, GPU কম power পেলে বা Cable এ ত্রুটি থাকলেও এমন হয়। তাই, উচিত হবে GPU PCIe-x16 এ ভালোমতো attached হয়েছে কিনা আর cable ঠিকাছে কিনা তা লক্ষ্য করা। এক্ষেত্রে Non moduler PSU user হলে আপনাকে warranty claim করতে হবে যদি কোনো physical harm না হয়ে থাকে তো। গেমিং এ যেন কোনো সমস্যা না হয়, সেক্ষেত্রে system managed page file পরিবর্তন করা থেকে দূরে থাকুন, (Win10, Win11), আর SSD user হলে তো কথাই নেই। SSD এর speed তুলনামূলক কম করে দিতে অনেকসময় এই page file এর custom value/user preferred value ই দায়ী। আর প্রতি মাসে একবার হলেও PC পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করবেন। কেননা, আপনি CPU, GPU এর Temperature monitor করলেও, casing এর mobo vrm temp monitor করছেন না যা ultimately perfomance loss করার কারণ হয়ে দাড়াতে পারে।

Case Temperature Monitoring tool

কিছু tips দেওয়া হলো গেমিং এর সময় সর্বচ্চো performance নিশ্চিত করার জন্যঃ
১. 1080p monitor use করাঃবেশিরভাগ GPU 1080p optimistic. তাই, lower resolution এ High end এর GPU use করলে আপনি poor FPS পাবেন। আর যারা entry-level এ use করছেন, তারাও 1080p (1920x1080) তে গেমিং settings up down করে mixed করে দেখতে পারেন। (Nvidia users: Get the optimistic settings via Geforce experience)
২. Thermal Paste: PC usage যদি ১ বছর হয়ে যায়, আর যদি performance এ কমতি নজর আসে, তবে বুঝতে হবে CPU temp ই কিছু করছে। এতে আরেকবার monitor করে temp check করতে পারেন। আর, যদি temp বেশি হয়, তবে আপনাকে অবশ্যই thermal paste change করতে হবে।
৩.Bios tweak: Bios থেকে PCIe-express সর্বদাই auto থেকে max gen এ দিয়ে রাখবেন। এখন gen 3 পর্যন্ত রয়েছে যদিও gen 4 support করবে এমন GPU এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।
৪.Temporary file: Cache, Temporary আর prefetch file গুলো delete করে দেওয়া। অনেকসময় PC slow হওয়ার পেছনে এগুলো যেমন দায়ী থাকে, তেমনি গেমিং এও একইভাবে প্রভাব ফেলে।
৫.OverClock: Ryzen CPU হলে আপনি OC করে কিছুটা boost পেতে পারেন। তবে GPU এর ক্ষেত্রে OC করলে যে পরিমাণ performance boost হয়, CPU এর বেলায় তা হয় না। তবে, GPU OC করার সময় খেয়াল রাখবেন যেন Screen pixelated বা shred না হয়ে যায়। যদি হয়, তবে সাথে সাথেই core clock কমিয়ে আনতে হবে। (Stock GPU settings will still result in an optimized experience where Overclocking may not come in handy or void warranty)

Extra biased tips:
1. GPU power %: MSI after burner দিয়ে আপনি আপনার GPU power usage unlock এবং maximum করতে পারবেন। এতে 5~6FPS boost হবে। আর Power limitation GPU থেকে GPU এ ভিন্ন হয়ে থাকে।
2. Ram OC: Ram OC করাটা বোকামো হবে, তা কিন্তু নয়। আর যদি Ram stable না হয়, তবে চিন্তার বিষয় নেই। আপনি সর্বনিম্ন 1.35V এ 3000MHz পর্যন্ত যেকোনো Certified DDR4 Ram OC করতে পারবেন। আর যদি oc করতে সমস্যা হয়, তবে নিচে উল্লেখ করতে পারেন। ¹
3. Unwanted Drivers: যেসব driver pc তে দরকার হয় না, সেগুলো uninstall করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে Software এর সাহায্য নেওয়া ঠিক হবে।
4. Nvidia Control Panel:এখানে আপনি কিছু Option change করতে পারেন। মূলত এখান থেকেই আপনি আপনার GPU control করতে পারবেন। মানে এটি কীভাবে কি কাজ করবে। এখানে যা যা change আপনি করতে পারেন নতুন driver install করার পর।
1/ FXAA: Off(Turn it on when playing older titles, that weren't optimized with DX11/12 SDK)
2/ CUDA GPU: All
3/ MFAA: off(enable it to gain some performance. But u would see some image or texture blurring)
4/ Power Management mode: Prefer Max. performance
5/ Shader Cache: HDD users may put the limit to Unlimited so that each time the shaders get stored in the physical hard drive, they don't get removed in the next operation or playing games. This will reduce loading times and sudden stuttering.
6/ Texture Filtering quality: High Performance
7. Threaded optimization: Keep it on or simply auto.

আশাকরি এগুলো কোনোভাবে কাউকে সাহায্য হলেও করতে পারে যদিও সবাই এখন অনেক কিছুই বুঝি। ধন্যবাদ সবাইকে সাথে থাকার জন্য।
সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন। আসসালামু আলাইকুম।

Level 1

আমি মোঃশাহরিয়ার আহম্মেদ সাকিব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

Technology, a word of 10 and me a human;these both are true only because of the Almighty.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস