ডাটা এন্ট্রি কী? এবং কীভাবে ডাটা এন্ট্রি করে ইনকাম করা যায়?

টিউন বিভাগ ফ্রিল্যান্সিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 4
Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর

আসসালামু আলাইকুম। টেকটিউনস এর নতুন আরো একটি টিউনে আপনাকে স্বাগতম। আমি স্বপন আছি আপনাদের সাথে, আশাকরি সকলেই অনেক ভালো আছেন। বন্ধুরা বর্তমানের সেরা আর অনেক লম্বা সময়ের কিছু অনলাইন আর্নিং সিস্টেম এর মধ্য সেরা আর জনপ্রিয় একটি আর্নিং পদ্ধতি হলো ডাটা এন্ট্রি কাজ। বর্তমানে ডাটা এন্ট্রি বিষয়ে ফ্রিলান্সিং করে অনেক মানুষ হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছে। হ্যাঁ বন্ধুরা আমরা আজকের টিউনে ডাটা এন্ট্রির ফ্রিলান্সিং কাজ করে কীভাবে টাকা ইনকাম করবেন সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

বন্ধুরা আজকের পোস্টটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি টিউন হতে চলেছে। আপনি যদি ডাটা এন্ট্রির কাজ নিয়ে গুগলে সার্চ করে থাকেন, ডাটা এন্ট্রি কী? কীভাবে ডাটা এন্ট্রি করতে হয়? ডাটা এন্ট্রি করে কীভাবে ইনকাম করা যায় ইত্যাদি তাহলে আজকের টিউন টি আপনার জন্য হবে সেরা একটি ডাটা এন্ট্রি টিউন। আজকের টিউনে আমরা ডাটা এন্ট্রির কাজ নিয়ে ধারাবাহিক ভাবে বিস্তারিত অনলাইন ইনকামের কিছু সেরা উপায় আলোচনা করবো। আজকের আলোচনায় থাকবে -

  1. ডাটা এন্ট্রি কী?
  2. ডাটা এন্ট্রি করে মাসে কেমন ইনকাম করতে পারবেন?
  3. ডাটা এন্ট্রি করতে হলে আপনার কোন জিনিসগুলো প্রয়োজন হবে?
  4. কীভাবে ডাটা এন্ট্রি করতে হয়?
  5. কোথা থেকে ডাটা এন্ট্রির কাজ করবেন?
  6. ডাটা এন্ট্রি কাজ করে মার্কেটপ্লেস ছাড়াও কীভাবে ইনকাম করবেন?

বন্ধুরা আপনি যদি উপরের বিষয়গুলো নিয়ে কখনো ভেবে থাকেন কিংবা ডাটা এন্ট্রি কাজ করতে আগ্রহী তাহলে উপরের বিষয়গুলো আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তো চালু আর কথা না বাড়িয়ে আমরা উপরের বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই।

ডাটা এন্ট্রি কী?

ডাটা মানে তথ্য আর এন্ট্রি মানে সংগ্রহ। ডাটা এন্ট্রির সম্পূর্ণ মানে হলো তথ্য সংগ্রহ করা। প্রতিটি ডাটা এন্ট্রির লোককে তাদের টার্গেট অনুযায়ী বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করতে হয়। এই তথ্য সংগ্রহ করাকে ডাটা এন্ট্রি বলা হয়। অনেকদিন ধরে কোন তথ্য সংগ্রহ করার জন্য বিভিন্ন খাতায় লেখা হয়ে থাকে। একেও বলে ডাটা এন্ট্রি। অনেক বড়ো বড়ো মালিকানা প্রতিষ্ঠান নিয়মিত তাদের কাজের ডাটা এন্ট্রি করে থাকে যাতে তাদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো সুরক্ষিত থাকে। ডাটা এন্ট্রি হলো কোন একটি তথ্যের কপি সংগ্রহ করা। আর এই তথ্যগুলো যারা সংগ্রহ করে তাদের বলে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর। আজ আমরা যারা ডাটা এন্ট্রির কাজ শিখবো বা শিখার পর ডাটা এন্ট্রি কাজ করবো তারা সবাই ডাটা এন্ট্রি অপারেটর।

ডাটা এন্ট্রি করে মাসে কেমন টাকা ইনকাম করা সম্ভব?

ডাটা এন্ট্রি করে মাসে কত ইনকাম করবেন তা আপনার কাজের উপর নির্ভর করবে। আপনি যত বেশি কাজ পাবেন বা আপনি যত বেশি কাজ করবেন আপনার ইনকাম ততো বেশি হবে। এছাড়াও আপনার ভালো দক্ষতা হলে আপনার প্রতি বায়ারের চাহিদা অনেক বেশি হবে। যার ফলে আপনি কাজ অনেক বেশি পাবেন, আর কাজ বেশি পাওয়া মানে আপনার ইনকাম বেড়ে যাওয়া। তবে বেশি ইনকাম এর বিনিময়ে আপনাকে অনেক বেশি পরিশ্রম অনেক বেশি সময় আর অনেক বেশি ধৈর্য দিতে হবে।

এছাড়া আপনি যদি এখানে অনেক সময় না দিতে কিংবা অনেক বেশি পরিশ্রম করতে না চান তাহলে এখানে আপনি শুধুমাত্র আপনার হাত খরচ চালানোর জন্যও কাজ করে সামান্য ইনকাম করতে পারবেন। এতে আপনি অল্প সময়ের ট্যাক্স বা ছোট ছোট সার্ভে গুলো কমপ্লিট করেও অল্প অল্প ইনকাম করতে পারবেন। অনেক সময় দেখা যায় কোন একটি সার্ভে করতে আপনার স্কিল অনেক বেশি লাগতে পারে। এই ধরনের সার্ভে গুলো কমপ্লিট করলে ইনকামের পরিমাণ একটু বেশিই থাকে।

ডাটা এন্ট্রির কাজগুলোতে আপনার মাসে কোনো নিদিষ্ট ইনকামের সংখ্যা নেই। আপনি এখানে আপনার অভিজ্ঞতা, স্কিল, সময়, শ্রম কাজ লাগিয়ে যত বেশি কাজ করতে পারবেন আপনার ততো বেশি ইনকাম হবে। আপনি যদি একজন ভালো অভিজ্ঞতা, স্কিল, শ্রম সম্পূর্ণ ব্যক্তি হোন তাহলে মাস শেষে আপনার 30K এর বেশি ইনকাম আসতে পারে।

ডাটা এন্ট্রি করতে হলে আপনার কোন জিনিসগুলো প্রয়োজন হবে?

ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো করতে হলে আপনাকে অবশ্যই লেখালেখিতে এক্সপার্ট হতে হবে। এছাড়াও আপনাকে কম্পিউটার টাইপিং এর ক্ষেত্রে, গুগল ডক্স এ টাইপিং, গুগল শিট টাইপিং, মাইক্রোসফট সম্পর্কে অনেক ভালো জ্ঞান সহ এক্সেল পারদর্শী হতে হবে। এই কাজগুলো আপনি কোন একটি অনলাইন কোর্স এর মাধ্যমে বা ইউটিউব দেখেও খুব সহজেই শিখে নিতে পারবেন।

তবে ডাটা এন্ট্রি কাজের জন্য এই বিষয়গুলোতে অবশ্যই পারদর্শী হতে হবে। ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো করার জন্য আপনার যা যা প্রয়োজন -

  • মাইক্রোসফট ওয়ার্ল্ড পূর্ণ জ্ঞান
  • কম্পিউটার টাইপিং দক্ষতা
  • গুগল ডক্স দক্ষতা
  • গুগল শিট দক্ষতা
  • এক্সেল সম্পর্কে পূর্ণ জ্ঞান

এছাড়াও আপনাকে একজন বায়ার হায়ার করার পর তার নিদিষ্ট কাজের জন্য বলতে পারে একটি পিডিএফ ফাইল আছে তা এডিট করে লিখে দিতে কিংবা কোনো একটি অফিসিয়াল ফাইল আছে তা আপনাকে মাইক্রোসফট ওয়ার্ল্ডে ডেটা হিসাবে সংরক্ষণ করে দিতে হবে। এছাড়া আপনাকে কোনো কপি শিট দিয়ে বলতে পারে এগুলো তাকে নোটপ্যাডে টাইপিং করে দিতে। তাই এসব বিষয়ে অবশ্যই পরিপূর্ণ জ্ঞান থাকা দরকার।

ডাটা এন্ট্রির কাজ কত প্রকার ও কী কী?

শুরুতেই জেনে নেওয়া ভালো যে, সব ধরনের তথ্য সংগ্রহ করা আসলে ডাটা এন্ট্রি কাজ নয়। আপনি কোন একটি বিষয়ে ডাটা সংগ্রহ করলেই তা ডাটা এন্ট্রির কাজের মধ্য পরবে না বা আপনার নিদিষ্ট চাহিদা মোতাবেক কাজের মধ্যে পরবে না। ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো মূলত 2 ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

  1. ‌ অনলাইন ডাটা এন্ট্রি
  2. অফলাইন ডাটা এন্ট্রি

তো আমরা যেহেতু আজকে অনলাইন ইনকামের বিষয় নিয়ে আলোচনা করবে সেহেতু আজকে আমরা অনলাইন ডাটা এন্ট্রির বিষয়েই আলোচনা করবো। অনলাইন ডাটা এন্ট্রির কাজগুলোর মধ্য পড়বে।

  1. অনলাইন কপি পেস্ট টাইপিং করা।
  2. লিড জেনারেট করে।
  3. অনলাইন বিভিন্ন ফর্ম পূরণ করা।
  4. ক্যাপচা এন্ট্রি বা টাইপিং করা।

উপরে আমিরা যে ৪ টি কাজের কথা উল্লেখ করলাম এই কাজগুলো করতে হলে আপনাকে অবশ্যই অনলাইন বা ডাটা কানেকশন অন করে এই কাজগুলো করতে হবে। তাই আমরা এই কাজগুলোকে অনলাইন ডাটা এন্ট্রি কাজ বলতে পারি।

কোথায় থেকে ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো করবেন?

ডাটা এন্ট্রি কাজগুলো করার জন্য আপনি অনলাইনে অনেক মার্কেট প্লেস পেয়ে যাবেন। আপনার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অনেক ভালো হলে আপনি খুব সহজেই কাজ পেয়ে যাবেন। অনলাইন প্লাটফর্মে প্রথম কাজ পাওয়া একটু মুশকিল তবে কাজ পাওয়ার পর আপনার কাজের দক্ষতা ভালো হলে ইউজার রেটিং ভালো হবে। আর ইউজার রেটিং অনেক বেশি হলে আপনার কাজ পাওয়া অনেক বেশি সহজ হবে।

অনলাইনে ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো করার জন্য সেরা আর জনপ্রিয় কয়েকটি ওয়েবসাইট হলো -

  • ফাইবার
  • ‌আপ-ওয়ার্ক
  • কে-ওয়ার্ক
  • ফ্রিল্যান্সার

উপরের এই ৪ টি ওয়েবসাইট বর্তমানে অনলাইন ইনকামের জন্য সেরা ওয়েবসাইটগুলোর তালিকায়। তবে আপনি ডাটা এন্ট্রির কাজগুলো অনেক বেশি পাবেন ফাইবারে। তারপরেও বাকি ওয়েবসাইটগুলোতে আপনি অ্যাকাউন্ট করে আস্তে আস্তে কাজ করতে থাকবেন। এতে সবদিক থেকেই আপনার ইনকাম আসতে পারে।

ডাটা এন্ট্রি কাজ করে মার্কেটপ্লেস ছাড়াও কীভাবে ইনকাম করবেন?

ডাটা এন্ট্রির কাজ শিখে আপনি সর্বপ্রথম মার্কেটপ্লেসে আপনার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতাকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করবেন। তবে অনেক সময় দেখা যায় সবার ভাগ্য এক হয় না। অনেকে কাজ না পেয়ে হতাশ হয়ে যান। নিজের ভালো দক্ষতা ভালো জ্ঞান থাকার পরেও মার্কেট প্লেসে কাজ পান না। তবে আপনারা চাইলে মার্কেট প্লেসের বাহিরেও আপনার ইনকামের সোর্স তৈরি করতে পারবেন। বড়ো বড়ো অনলাইন ইনকামের মার্কেটপ্লেসগুলো ছাড়াও অনলাইন থেকে ইনকামের সেরা কিছু উপায় নিচে তুলে ধরা হলো -

  • আপনার প্রিয় কোন মুহূর্ত কিংবা সুন্দর কোনো জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার অনুভূতি নিয়ে সুন্দর গল্প আকারে বই তৈরি করে তা অনলাইনে বিক্রি করেও ইনকাম করতে পারবেন।
  • আপনার অনেক ভালো অভিজ্ঞতা আছে অনেক ভালো দক্ষতা আছে আপনি সেই ভালো অভিজ্ঞতা ভালো দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে অন্যকে শেখানোর জন্য কোর্স তৈরি করুন আর সেই কোর্স বিক্রি করেও আপনি ইনকাম করতে পারবেন।
  • আপনি অনলাইনে প্রডাক্ট সেলিং ব্যবসার লিস্ট তৈরি করুন। প্রডাক্ট সেল করুন। এতে আপনার ইনকাম তুলনামূলক অনেক বেশি হবে।
  • ‌অনলাইনে কন্টেন্ট লেখার বিনিময়ে অনেক ওয়েবসাইট পেমেন্ট বা অর্থ প্রদান করে থাকেন। সেসব ওয়েবসাইটে আপনার অভিজ্ঞতা সবার সামনে কন্টেন্ট আকারে তুলে ধরেও আপনি কন্টেন্ট লেখার বিনিময়ে ইনকাম করতে পারবেন।

শেষ কথা

আমার শেয়ার করা এই উপায়গুলো আপনাকে ডাটা এন্ট্রি কাজের বাহিরেও আপনার ইনকামের সুযোগ করে দিবে৷ আপনি চাইলে আজকের টিউনে আলোচনা করা বিষয়গুলো আপনার কাজের মাঝে প্রয়োগ করতে পারেন। এতে আস্তে আস্তে আপনার ইনকাম বৃদ্ধি হবে। আশাকরি আজকের টিউনটি পড়ে সে অনুযায়ী আপনি ডাটা এন্ট্রি কাজের জন্য চেষ্টা করলে আপনার সফলতা প্রায় ৯৯.৯৯% ইনশাআল্লাহ। তবে অনলাইন থেকে ইনকাম করার স্বপ্ন পূরণের যাত্রায় মনে রাখবেন অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাইলে আপনাকে অনেক ধৈর্যশীল মানুষ হতে হবে। তবেই আপনি সফল হবেন। হাল ছাড়বেন না। অন্যদের মতো শক্ত করে আঁকড়ে ধরে রাখবেন। সবসময় ভাবতে থাকবেন অন্য আর ১০ জন পারলে আপনি কেনো পারবেন না?

তো বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের টিউন, ডাটা এন্ট্রি কী? এবং কীভাবে ডাটা এন্ট্রি করে ইনকাম করা যায়? আশাকরি টিউন টি আপনাদের একটু হলেও হেল্পফুল হবে। আজকের মতো এখানেই বিদায় নিচ্ছি, দেখা হবে পরবর্তী টিউনে নতুন কোনো বিষয় নিয়ে। ততক্ষণ অবধি সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং টেকটিউনস এর সাথেই থাকবেন।

Level 4

আমি স্বপন মিয়া। Sonic টিউনার, টেকটিউনস, গাইবান্ধা, রংপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 66 টি টিউন ও 28 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

টেকনোলজি বিষয়ে জানতে শিখতে ও যেটুকু পারি তা অন্যর মাঝে তুলে ধরতে অনেক ভালো লাগে। এই ভালো লাগা থেকেই আমি নিয়মিত রাইটিং করি। আশা করি নতুন অনেক কিছুই জানতে ও শিখতে পারবেন।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস