প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হতে যা যা প্রয়োজন

টিউন বিভাগ ফ্রিল্যান্সিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 6
শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর

বর্তমান প্রযুক্তির যুগে ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে তরুনরা তাদের ক্যারিয়ারে এক নতুন অধ্যায় তৈরি করেছে। সুন্দর কণ্ঠস্বর ও গুছিয়ে কথা বলার যোগ্যতা থাকলে আপনিও পারবেন একজন প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হতে। সোস্যাল মিডিয়ায় পাবলিশ করার জন্য ভিডিও তৈরি, সংবাদ উপস্থাপনা, সিনেমায় ডাবিং করার জন্য, নাটক পাঠ, গল্প পাঠ, কবিতা আবৃত্তি সহ বিভিন্ন কাজের জন্য এখন ভয়েস আর্টিস্টদের উচ্চ চাহিদা রয়েছে। আর এই সেক্টরে কাজ পাওয়াটা এখন খুব কঠিন কিছু নয়।

একজন প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হতে চাইলে আপনার সুন্দর কন্ঠ ও উপস্থাপনার পাশাপাশি কিছু সরঞ্জাম প্রয়োজন। বিশেষ করে যারা বাড়িতে বসেই ভয়েস ওভারের কাজ করতে চান তাদের জন্য কয়েকটি সরঞ্জাম একদমই আবশ্যক। আজকের টিউনের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো একজন ভয়েস আর্টিস্ট হতে চাইলে প্রাথমিক পর্যায়ে আপনার কোন কোন জিনিসগুলো সংগ্রহ করতে হবে।

১. স্মার্ট ফোন অথবা কম্পিউটার

ভয়েস ওভারের জন্য প্রয়োজনীয় ডিভাইস

ভয়েস আর্টিস্ট হতে চাইলে প্রথমেই ক্লায়েন্টের সাথে যোগাযোগের জন্য আপনার একটি ডিজিটাল ডিভাইস থাকতে হবে। হতে পারে সেটা স্মার্ট ফোন, কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ। যে কোনো একটি ডিভাইস থাকলে এর মাধ্যমে আপনি ভয়েস রেকর্ড, ভয়েস এডিটিং ও ভয়েস শেয়ার করতে পারবেন। এছাড়া কাজ খুঁজে পেতে হলেও যে কোনো একটি ডিজিটাল ডিভাইসের সাহায্যে আপনাকে অনলাইনে সংযুক্ত থাকতে হবে। তাই ভয়েস আর্টিস্ট পেশায় যুক্ত হতে চাইলে প্রথমেই একটি ভালো মানের স্মার্টফোন বা ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার সংগ্রহে রাখুন।

২. মাইক্রোফোন

ভয়েস ওভার কাজের জন্য মাইক্রোফোন

আমরা জানি হাতে থাকা যোগাযোগ মাধ্যমের ডিভাইসটি দ্বারা খুব সহজেই অডিও রেকর্ডিং এর কাজ করা যায়। কিন্তু ভয়েস ওভারের জন্য ডিভাইসে থাকা সাধারণ মাইক্রোফোনটি খুব বেশি উপযুক্ত নয়। প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে আপনার অবশ্যই ভালো মানের একটি মাইক্রোফোন সংগ্রহে রাখতে হবে। ফলে আপনার ভয়েস মাধুর্যযুক্ত হবে এবং মার্কেটে খুব সহজেই জায়গা করে নিতে পারবেন।

মোটামুটি বাজেটের মধ্যে ভালো মানের মাইক্রোফোন হিসেবে BOYA MM1, FiFine K669B কিংবা 4.BM-100FX এই তিনটির মধ্যে যে কোনো একটি বেছে নিতে পারেন। অথবা আপনার পছন্দের যে কোনো ভালো মানের একটি মাইক্রোফোন সংগ্রহ করতে পারেন। তবে আমি বলবো যে কোনো মাইক্রোফোন কেনার আগে গুগল সার্চ করে অবশ্যই এর রিভিউ দেখে নেয়া উচিত।

৩. অডিও এডিটিং সফটওয়্যার

ভয়েস এডিট করার জন্য এডিটিং সফটওয়্যার

আপনি যতো ভালো মানের ভয়েস আর্টিস্ট হোন না কেন এবং আপনার সংগ্রহে যতো ভালো মানের মাইক্রোফোন থাকুক না কেন আপনার ভয়েস কিছুটা হলেও এডিট করে নেয়া উচিত। বিশেষ করে side noise অডিও রেকর্ডের মাধুর্য নষ্ট করে দেয়। তাই একটি ভয়েস ওভারের কাজ করার পরে side noise সরিয়ে দেয়া প্রয়োজন হয়। এক্ষেত্রে একটি অডিও এডিটিং সফটওয়্যার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এছাড়াও অডিও crop করতে কিংবা বাড়তি কোনো side noise যোগ করতে চাইলে অডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে। তাই একজন প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে আপনার অডিও এডিটিং সফটওয়্যার সংগ্রহে রাখতে হবে। পাশাপাশি অডিও এডিটিং সফটওয়্যার কিংবা ওয়েবসাইটে কাজ করার জন্য যথেষ্ট পারদর্শী হতে হবে।

৪. ভালো মানের ইন্টারনেট সংযোগ

ভয়েস ওভার কাজের জন্য প্রয়োজন ভালো মানের ইন্টারনেট সংযোগ

বর্তমানে প্রাথমিক পর্যায়ে ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে যারা কাজ করে তারা অনলাইন মাধ্যমকে সবার আগে প্রাধান্য দিয়ে থাকে। কেননা অনলাইনের বিভিন্ন প্লাটফর্মে ভয়েস আর্টিস্টদের উচ্চ চাহিদা রয়েছে। তাই অনলাইনে ক্লায়েন্টের সাথে সম্পর্ক স্থাপন থেকে শুরু করে কাজ ডেলিভারি করা পর্যন্ত সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি ইন্টারনেট নির্ভর। আপনার ইন্টারনেট সংযোগ যদি ভালো না হয় তাহলে যোগাযোগ থেকে শুরু করে কাজ ডেলিভারি সব কিছুতেই ব্যাঘাত ঘটবে। তাই আপনি যদি চান একজন প্রফেশনাল ভয়েস আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করবেন, তাহলে প্রথমেই আপনার একটি হাই স্পিড ইন্টারনেট সংযোগের ব্যবস্থা থাকতে হবে। ফলে আপনার কাজের সময়ও তুলনামূলক অনেক কম লাগবে।

ভয়েস আর্টিস্ট পেশায় যারা একদমই নতুন কিংবা এই পেশায় যুক্ত হওয়ার পরিকল্পনা করছেন শুধুমাত্র তাদের জন্য এই টিউনটি করা হয়েছে। আমি আবারও বলছি যারা এই সেক্টরে অভিজ্ঞ তাদের হয়তো বিষয়গুলো খুব সহজ মনে হচ্ছে। তবে যারা একদমই নতুন আশাকরি তাদের জন্য আজকের টিউনটি একটু হলেও সহায়ক হবে। আপনার জীবনের নতুন এক ক্যারিয়ার অধ্যায়ের জন্য শুভকামনা রইল। ধন্যবাদ।

Level 6

আমি শারমিন আক্তার। শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 88 টি টিউন ও 29 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 6 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস