বিগিনার হিসেবে যেভাবে শুরু করতে পারেন ফ্রিল্যান্সিং 

টিউন বিভাগ ফ্রিল্যান্সিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

ফ্রিল্যান্সিং কি

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে ইন্টারনেটে কোন কন্ট্রাক্ট এর কাজকে করে দেয়া। ইন্টারনেটে বেশ কিছু মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেগুলোতে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান তাদের কাজ টিউন করে এবং ফ্রিল্যান্সাররা এ কাজগুলোকে নিজেদের মতো করে কমপ্লিট করে দেয়।

কাজগুলো বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে বিষয়ভিত্তিক ভাবে আলাদা আলাদা করা থাকে। আপনি ফ্রীল্যান্সার হিসেবে আয় করতে চাইলে এসব মার্কেটপ্লেসে প্রথম রেজিস্ট্রেশন করে কাজ পাওয়ার জন্য এপ্লিকেশন করতে হবে। কিন্তু আবেদন করলেই সাথে সাথে কাজ পাওয়া যাবে বিষয়টা এমন নয় এক্ষেত্রে আপনার কাজের দক্ষতা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চাইলে আপনাকে প্রথমেই নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে। প্রথমে কোন প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হবার চাইতে নিজে থেকেই ইন্টারনেটে সার্চ করে শেখার চেষ্টা করতে পারেন। আপনার ইংলিশ স্কিল ডেভেলপ করা খুবই প্রয়োজন। কারণ অধিকাংশ বায়াররা তাদের কাজের বিস্তারিত ইংরেজিতে দিয়ে থাকেন।

বর্তমান সময়ে ম্যাক্সিমাম মানুষ ফ্রিল্যান্সিং করতে খুবই আগ্রহী। কিভাবে শুরু করতে পারি? আর এই ব্যাপারে আপনি আমাকে কী কী সাহায্য করতে পারেন?
আপনি ফ্রিলান্সিং করে আয় করতে চান, বেসিক্যলি আপনি অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে চান। অনলাইন থেকে টাকা আয়ের অনেক মাধ্যম আছে, ফ্রিলান্সিং কাজের ভিতর আছে:

  • ওয়েব ডেভলপিং
  • গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • ডিজিটাল মার্কেটিং
  • ডাটা এন্ট্রি
  • আর্টিকেল রাইটিং
  • অ্যাপস ডেভলপিং
  • অ্যাপস মার্কেটিং।

ফ্রিলান্সিং এর বাইরে আছে (পন্ডিতেরা ভুল ধরতে পারে):

  • ইউটিউবিং
  • ব্লগিং
  • এফেলিয়েট মার্কেটিং
  • সিপিএ মার্কেটিং
  • ইনফ্লুয়েন্সা মার্কেটিং
  • ড্রপশিপিং
  • ড্রপসার্ভিসিং
  • ইকমার্স।

এছাড়া আছে সার্ভে, ট্রেডিং।

এসবের আবার বিভিন্ন ক্যটাগারি আছে, ওয়েব ডেভলপিং এর ভিতর আছে:

  • ফ্রন্ট এন্ড ডেভলপারব্যকএন্ড ডেভলপার
  • ফুলস্ট্যক ডেভলপার
  • এছাড়া আছে গেম ডেভলপার
  • সফটওয়ার ডেভলপার।

এসব ডেভলপিং শিখতে হলে আপনাকে প্রোগার্মিং ল্যঙ্গুয়েজ মানে কোডিং শিখতে হবে। ডেভলপিং শেখার জন্য যেসব ল্যঙ্গুয়েজ শিখতে হয়:

  • html
  • css
  • java &jequry
  • responsive design
  • bootstrap
  • php
  • rubby
  • python
  • nodejs
  • wordpress
  • laravel
  • git
  • ui\ux

এখানে সিরিয়ালি ল্যঙ্গুয়েজ দেয়া। আপনি কোডিং না শিখেও শুধুমাত্র ওয়ার্ডপ্রেস এর ব্যবহার শিখেও ফ্রিলান্সিং করে আয় করতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইনের ভিতর ফটোশপ, ইলাস্ট্রাটর এটা তো জানতেই হবে, এরসাথে ডিজাইনিং এ ক্রিয়েটিভ হতে হবে। গ্রাফিক্স ডিজাইনে আছে:

  • বিজনেস কার্ড
  • লোগো, ব্যনার
  • টিউনার
  • টিশার্ট
  • বুক কভার ডিজাইন।

এছাড়া ইমেজ এডিটিং, ভিডিও এডিটিং, ইমেজের ব্যকগ্রাউন্ড রিমুভ।

ডাটা এন্ট্রির ভিতর আছে:

  • মাইক্রোসফট এক্সেল
  • পাওয়ারপয়েন্ট
  • পিডিএফ টু ডক ফাইল
  • ফাইল কনভার্ট।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভিতর আছে:

  • ফেসবুক মার্কেটিং
  • গুগল এড
  • এসিও
  • কনটেন্ট মার্কেটিং
  • ভিডিও মার্কেটিং
  • ইন্সটাগ্রাম মার্কেটিং
  • লিঙ্কডিন মার্কেটিং
  • পিন্টারেস্ট মার্কেটিং
  • টুইটার মার্কেটিং
  • ইমেইল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং এ সেক্টর অনেক বড়। এসব সব শিখতে হবে এমন না, যেকোন একটা কাজ শিখে ফ্রিলান্সিং করা যায়। এখন কমন কিছু প্রশ্ন কোনটা সহজ?

  • কোনটার মার্কেট চাহিদা বেশি?

মার্কেট চাহিদা সব কিছুর আছে, আর কোনটা বেসিক্যলি সহজ না। আবার এতটাও কঠিন না, যে শেখা যাবে না। এরপর প্রশ্ন ইংরেজি না জানলে কি ফ্রিলান্সিং করা যায় না?

ইংরেজি জানা দরকার কিন্ত শুরুর দিকে ইংরেজি আর্টিকেল লেখা কাজ বাদে অন্য কাজে ইংরেজিতে খুব এক্সপার্ট হতে হবে বিষয়টা এমন না। যোগাযোগ করার মত ইংরেজি শুরুর দিকে হলেই হবে। এরপর কাজ করতে করতে ইংরেজিতে এক্সপার্টনেস চলে আসবে। আর শুরুর দিকে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করে কাজ করা যায়।

  • এরপর প্রশ্ন ডেভলপিং শিখতে কতদিন লাগে?

এর উত্তর এককথায় দেয়া সম্ভব না। আপনি প্রতিদিন সিরিয়াসলি যেভাবে সময় দেবেন সেভাবে শিখবেন। তবে এভারেজ বলা হয়ে থাকে প্রতিদিন ৩ঘন্টা সময় দিয়ে শিখলে ও অনুশীলন করলে এক বছরে ভাল এক্সপার্ট হওয়া সম্ভব। কারো একটু বেশি দিন কারো একটু কম দিন লাগতে পারে। এটা মেধা, ডেডিকেশনের উপর নির্ভর, আর শেখার জন্য প্যশন থাকা উচিত। আর এখানে শেখার সাথে অনুশীলন করতে হবে।

  • এরপর প্রশ্ন এখানে যত স্কিলের কথা বলা হয়েছে এসব কোথায় শিখব?

আপনার স্থানীয় ট্রেনিং সেন্টারে শিখতে পারেন। ফ্রিতে গুগল, ইউটিউবে শিখতে পারেন। ইংরেজি বুঝলে বিভিন্ন ইংরেজি লার্নিং ওয়েবসাইটে অনলাইনে শিখতে পারেন। বাংলা লার্নিং ওয়েবসাইটেও শিখতে পারেন। এসব লার্নিং ওয়েবসাইটে শিখতে হলে আপনাকে টাকা খরচ করে শিখতে হবে।

  • এবার প্রশ্ন ইউটিউব, গুগলে ফ্রি তে না শিখে পেইড কোর্সে কেন শিখব?

এটার উত্তর ইউটিউবে শেখা চ্যলেঞ্জিং। কারন সেখানে শেখার পরিবেশ কম থাকে। কিন্ত লার্নিং প্লাটফর্মে শেখার পরিবেশ বেশি থাকে।

  • এরপর প্রশ্ন ফ্রিলান্সিং এর এই কাজ এ অনেক এক্সপার্ট না হয়েও কি আয় করা যায়?

এটার উত্তর দেয়া কঠিন! তবে এফেলিয়েট, সিপিএ মার্কেটিং, ড্রপশিপিং, ড্রপসার্ভিসিং, ইকমার্স এই মাধ্যম থেকে আয় করতে হলে আপনার আর্থিক বিনিয়োগের সামর্থ থাকতে হবে।

  • এবার প্রশ্ন আমি কি শিখব?

এটা কোটি টাকার প্রশ্ন! আপনার যাতে আগ্রহ সেটাই শিখবেন। তবে আপনি যেটাই শিখুন শুরুতে ইউটিউব নিয়ে কাজ করুন। এটা ফ্রিলান্সিং কোন কাজ শেখার সাথে শেখা যায়। আর ইউটিউব হচ্ছে এমন একটা প্লাটফর্ম এটা প্রতিদিন কিছু সময় এখানে দিলে পরে এটা থেকে আপনি আউটপুট পাবেন।

প্রফেশনালভাবে ইউটিউব এ কাজ করার জন্য প্রফেশনাল ইউটিউব কোর্স করা ভাল। বহুব্রিহি এটা বেশ ভাল লার্নিং ওয়েবসাইট, এখানে ডিজিটাল মার্কেটিং সহ বিভিন্ন কোর্স আছে। এখানে কোর্স করতে পারেন।

এমেসবি একাডেমি এই লার্নিং ওয়েবসাইট এটাও খুব ভাল লার্নিং প্লাটফর্ম, এখানে কোর্সের কোয়ালিটি ভাল, কোর্সের প্রাইস রিজিওনাল, এরউপর কোর্সে ডিসকাউন্ট থাকে, এখানে ফাইভার সাকসেস কোর্স,  মার্চ বাই আমাজান টিশার্ট ডিজাইন,  অ্যাপস ডেভলপিং, সফটওয়ার ডেভলপিং, মাল্টিভেন্ডর ইকমার্স ড্রপশিপিং এই কোর্স গুলা এখানে তো বটেই খুব কোয়ালিটি কোর্স।

ধন্যবাদ!

 

Level 8

আমি এম এইচ মামুন। Manager, Tasa'ad Private Limited, Pabna। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 122 টি টিউন ও 134 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 50 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।

{জানিয়ে দাও} (,) {না হয় জেনে নাও}


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস