ফ্রিলান্সিং নিয়ে কিছু উচিত কথা।

কিছু কথা আর কিছু ঘটনা তুলে ধরলাম আগে সম্পুন্য পড়ুন তার পর মন্তব্য করুন।

এক সাহসী উদ্দামী যুবক তার সাহস ও উদ্দাম নিয়ে উচু একটি পাহাড় জয় করার উদ্দেশে যাত্রা করেছে। পথের মাঝে তার দেখা হয় চারজন ব্যাক্তির সাথে। তাদের চারজনের বক্তব্য গুলো ছিল এমন ...

প্রথম জনঃ যারাই ওখানে উঠার চেষ্টা করেছে তারাই আর কেউ ফেরেনি।

দ্বিতীয় জনঃ হবে না।

তিতীয় জনঃ সম্ভব না।

চতুর্থ জনঃ চলুন আমি আছি আপনার সাথে।

যুবক বলেঃ সবাই তো বলে ওখানে পৌছানো সম্ভব না।

তখন চতুর্থ জন বলেঃ কেউ যদি বলে সম্ভব না বা পারবেন না । তার মানে তার জীবনে তিনি সেটা করতে পারেনি। তার মানে এই না যে আপনি ও পারবেন না ।আপনি পারবেন যদি আপনার ইচ্ছা আর উদ্দাম থাকে। আছে ?

উপরের গল্পটা দেখতে এখানে যান।

এইবার আসি আসল কথাই। যারা ফ্রিলান্সিং এ আগ্রহী তাদের জন্য এই টিউনটা। ফিলান্সিংকে যারা পেশা হিসেবে নিতে চান তাদের আগে বুঝতে হবে ফ্রিলান্সিংটা কি?  যেমন ব্যাবসা, চাকুরি ইত্যাদি পেশার একটা প্লাটফ্রম। যেমন কেউ চাউলের ব্যবসা করে, কেউ পোশাকে আবার কেউ করে সিমেন্টের। তেমনি কেউ পুলিশের চকুরি করে, কেউ ডাক্তারের আবার কেউ পিয়নের। ঠিক ফ্রিলান্সিং এমন একটা পেশার প্লাটফ্রম ।এখানে কেউ করে করে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, কেউ করে  গ্রাফিক্স ডিজাইন, আবার কেউ করে আটিকেল রাইটিং। আপনাকে ব্যবসা করতে গেলে যেমন আপনি যেইটার ব্যবসা করবেন তা আপনাকে শিখতে হবে চাকরি করতে গেলেও তাই। তেমন  ফ্রিলান্সিং করতে গেলেও তাই। আপনি যে বিষয়ের উপর  ফ্রিলান্সিং করতে চান তা আপনাকে জানতে হবে শিখতে হবে।

নতুন যারা ফ্রিলান্সিং করতে আগ্রহি তারা বিভিন্ন ব্লগ  বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে নিয়মিত আটিকেল বা লেখা  পরে থাকেন । এটা খুবি ভাল একটা ব্যপার । কিন্তু আজকাল কিছু লেখা যেগুল তাদের হতাশার মাঝে ফেলেদিচ্ছে। লেখা গুলার ধরন এমন...

  • কে আপনি ফ্রিলান্সার হতে পারবেন না ।
  • ফ্রিলান্সার  না হতে পারার ৫ বা ১০ টি কারন ।
  •  ফ্রিলান্সিং এ আপনি কেন সফল হবেন না । ইত্যাদি

নতুন যারা ফ্রিলান্সিং এ আগ্রহী তাদের বলবো এই ধরনের লেখা পড়ার থেকে ১০০ হাত দূরে থাকুন। কারন এই ধরনের লেখা আপনার স্বপ্ন দেখার আগেই ভেঙ্গে দিতে পারে। আর যারা এই ধরনের লেখা লিখেন তাদের বলি ভাই নবিন দের যাত্রা শুরুর আগেই সাহস হারা করবেন না। এক সাগর দুধকে নষ্ট করতে এক কোয়া তেতুল ই যতেষ্ট। তেতুল ও ভাল জিনিস দুধ ও ভাল জিনিস। তেমন আমি বলছি না আপনাদের ঐ লেখা গুলা খারাপ। কিন্তু হাজার টা সাহসের কথা মানুষ কে যত টুকু এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে না, একটা বার্থতার কথা তার থেকে বেশি পরিমানে পিছায়ে নিয়ে আস্তে পারে। তাই আমি বলবো সব সময় পজিটিভ চিন্তা করুন।

ফ্রিলান্সিং কারো বাপ দাদার সম্পত্তি না যে ভাগের ভাগ একটু হলেও পাবেন  😆 । ফ্রিলাসিং করতে হলে যে বিষয়ের উপর করবেন সেটা আপনা কে খুব  ভালোভাবে শিখতে হবে।

গতো কয়েক দিন আগে আমাদের এক বড় ভাই একটা টিউন করেছেন  "ফ্রিলান্সিং- মধ্যবিত্ত পরিবারের তরুনদের স্বপ্নভঙ্গের নতুন ভাইরাস। দায়ী কে?"

আমি তার এই টিউনের সাথে সম্পুন্য একমত না। কারন আজ যারা ফ্রিলান্সিং এ সফল তার ৭০% ই মধ্যবিত্ত পরিবারে সন্তান।

আরো অনেক কিছু হয়তো বাদ পরে গেছে। যাই হোক এখানে আমি আমার ব্যাক্তিগত অভিমত তুলে ধরলাম। অনেক ভুল থাকতে পারে সে গুলা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আর কারো কোন অভিমত থাকলে জানবেন।

Level 0

আমি AB Siddik। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 5 টি টিউন ও 29 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

এ ব্যাপারে হ্যা বা না এর টিউন প্রায় সমান
তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি মাঠে নেমেই দেখব Freelancing কতটা কঠিন
না দেখেই ভয় পেলে তো আর কাউকে বলতে পারব না যে কি দেখে ভয় পেয়ছি
ধন্যবাদ

    Level 0

    @BD Razzak: আপনার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানাই।

Level 0

“ফ্রিলান্সিং- মধ্যবিত্ত পরিবারের তরুনদের স্বপ্নভঙ্গের নতুন ভাইরাস। দায়ী কে?”
ভাই টিউনটা ভালো করে বুঝে তার পর সেটা নিয়া কথা কইয়েন.
আমার মনে হয় না বুঝেই ঐটা নিয়া টানাটানি শুরু করছেন.

    Level 0

    @Saiful: আমি বুঝেই কথাটি বলেছি। যদি আপনি আমার লেখাটা ভাল করে পড়েন তো বুঝতে পারবেন। আর ঐ লেখা নিয়ে আমার কোন সমস্যাই নাই। আমি শুধু মধ্যবিত্ত কথাটার কথা বলেছি। যদি ওটা এমন হত “ফ্রিলান্সিং- তরুনদের স্বপ্নভঙ্গের নতুন ভাইরাস। দায়ী কে?” তাহলে কেমন হত ভেবে দেখেন।

Level 0

ও আচ্ছা আচ্ছা

Level 0

ঠিক বলছেন ভাই,

    Level 0

    @arvin blue: ধন্যবাদ আপনাকে।

    Level 0

    @আরিফ বিল্লাহ: Thanks 🙂