ফেসবুক থেকে টাকা ইনকামের কয়েকটি কার্যকরী উপায়সমূহ

টিউন বিভাগ ফেসবুক
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 0
টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির যুগ, যুগের সাথে তাল মিলিয়ে মানুষ দিন দিন নতুন নতুন জিনিস আবিষ্কার করছে। আর প্রযুক্তির এমনই একটি অবিশ্বাস্য আবিষ্কার হল ফেসবুক। আর এখন ফেসবুকে চেনে না এমন মানুষ হয়তো আমাদের এই বাংলাদেশে নেই। কিন্তু সাধারণত যারা ফেসবুক ব্যবহার করেন তারা অন্তত একবার এই প্রশ্নটি করেছেন যে এই প্লাটফর্ম থেকে কিভাবে টাকা আয় করা সম্ভব। এই প্রশ্নটি আবার অস্বাভাবিক কিছু নয়। অস্বীকার করার উপায় নেই, এমন অনেক মানুষ আছেন যারা দিনের বেশিরভাগ সময় কাটান এই ফেসবুকে, তাদের অনেকেই খাওয়া-দাওয়া ভুলে দিনের বেশির ভাগ সময় এই ফেসবুকের ভিতরেই থাকেন। ফেসবুক আড্ডাবাজির এই নেশা থেকে কিছু টাকা রোজগার করলে কেমন হবে বলুন। আজ আমি এই টিউনের মাধ্যমে আপনাদের সাথে সেই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

ফেসবুক থেকে টাকা আয়

ফেসবুক থেকে আয় করার অনেক উপায় আছে, এই উপায়গুলোর মাধ্যমে আপনি চাইলে ঘরে বসেই আয় করতে পারেন। এর মধ্যে কিছু উপায় প্রত্যক্ষ এবং কিছু পরোক্ষ। তার মানে আপনি চাইলে আপনা ব্যবসার মার্কেটিং এর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করতে পারেন অথবা আপনি অনলাইন এই ফেসবুকে কেন্দ্র করে ব্যবসা করে টাকা ইনকাম করতে পারেন। আবার আপনি চাইলে আপনার দক্ষতা দেখিয়ে এর মাধ্যমে চাকরিও খুঁজে পেতে পারেন। আপনি ইচ্ছা করলে এখানে অন্যদের ব্যবসার প্রচার বা প্রসার করে নিজের আয়ের সুযোগ তৈরি করতে পারেন। আজকে আমরা ফেসবুক থেকে আয়রে কয়েকটি সেরা উপায় সম্পর্কে জানব। তাহলে চলুন দেরি না করে জেনে নেই ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়সমূহ

ফেসবুক এ ভিডিও পাবলিশ করে ইনকাম

বর্তমানে আপনি চাইলে ফেসবুকের জন্য ভিডিও তৈরি করে অথবা ফেসবুকে লাইভ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। ফেসবুক এ অর্থ উপার্জনের এই সুবিধাটিকে (ফেসবুক বিজ্ঞাপণ) বলা হয়। অর্থাৎ ফেসবুক আপনার ভিডিওতে বিজ্ঞাপণ দেখাবে এবং সেই বিজ্ঞাপণ থেকে আপনাকে কিছু অংশ ভাগ দেবে। তবে এই সুবিধা পেতে হলে বেশ কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। এবং আপনি এটি আপনার ফেসবুক পেজের মাধ্যমে করতে পারেন। এবং আপনার ফেসবুক পেজটিতে বিজ্ঞাপণ দেখানোর জন্য ফেসবুকের কাছে আপনাকে আবেদন করতে হবে। আপনার ফেসবুক পেজটি আবেদন করার কিছু  শর্তগুলি আছে সেগুলো হল:

 

১. অবশ্যই আপনার ফেসবুক পেজে 10 হাজার ফলোয়ার থাকতে হবে।

২. আপনার ফেসবুক টিউন বা ভিডিগুলো গত 60 দিনে ৬ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে।

৩. আপনার ফেসবুক পেজের ভিডিওগুলোতে গত দুই মাসে কমপক্ষে 6, 00000 ভিউ থাকতে হবে। এবং প্রতিটি ভিউ অবশ্যই কমপক্ষে এক মিনিট দীর্ঘ হতে হবে।

৪. ফেসবুকের কপিরাইটনীতি মেনে আপনাকে ভিডিও তৈরি করতে হবে।

৫. অবশ্যই আপনার ফেসবুক পেজে কোনো প্রকার কপিরাইট  ভিডিও আপলোড করা যাবে না।

 

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

আপনি চাইলে আপনার ব্যবসা প্রতিষ্টানের যেকোনো পন্য ফেসবুকের মাধ্যেমে বিক্রি করে খুব সহজেই টাক ইনকাম করতে পারবেন। এটাকে বলা হয় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। তার জন্য অবশ্যই আপনার একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে এবং আপনি আপনার ফেসবুক পেজে আপনার প্রতিষ্ঠানের পণ্যের প্রোডাক্টের সমস্ত বিবরণ দিতে হবে। আপনার পণ্য বা প্রোডাক্ট দেখে যে কাস্টমার অগ্রহী হবে  তারা আপনার ফেসবুক পেজ থেক আপনার পন্যটি আপনার কাছ থেকে অর্ডার করবে। যার মাধ্যমে আপনার পণ্য সরবরাহ করা হবে এবং আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি প্রাধমিকভাবে প্রচার হবে।

তাছাড়া আপনি নিশ্চয়ই দেখেছেন যে আজকাল লোকেরা তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বা পণ্য বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেমন অ্যামাজন, দারাজ, বিডি শপ থেকে কেনে। আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইটগুলোর পণ্য আপনার ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন। ফলস্বরূপ, আপনি একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পাবেন এবং আপনি যত বেশি বিক্রি করবেন তত বেশি আয় করবেন।

নিজের ওয়েবসাইট প্রচার করার মাধ্যেমে ইনকাম

এই ইনকামটি আসলে ফেসবুক থেকে না হলেও গুগল অ্যাডসেন্স থেকে হবে কিন্তু ফেসবুকের মাধ্যেমে। আপনি যদি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স বিজ্ঞাপণ পেতে চান তবে আপনার ওয়েবসাইটে কিছু ট্রাফিক বা ভিজিটর থাকতে হবে। আর আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়ানোর সবচেয়ে কার্যকরী উপায় হল ফেসবুক। ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আপনার ব্লগের প্রতিটি টিউন শেয়ার করে আপনি খুব দ্রুত আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়াতে পারেন। নিয়মিত ফেসবুকে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট প্রচার করুন, তারা যদি সবসময় আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটি ভিজিট করে তাহলে আপনি গুগল অ্যাডসেন্স পাবেন। এবং পরবর্তীতে অ্যাডসেন্স পেলে যত বেশি ভিজিটর আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বাড়াতে পারবেন, তত বেশি আপনার টাক ইনকাম হবে।

ফেসবুক পেজ বিক্রি করে ইনকাম

সাধারণত এর জন্য আপনাকে প্রথমে একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে এবং আপনার ফেসবুক পেজে লাইকের ও ফলোয়ার এর সংখ্যা বাড়াতে হবে। আপনার ফেসবুক পেজে লাইক এবং ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য আপনাকে অবশ্যই ভালো মানের কিছু টিউন করতে হবে। যখন আপনার পেজে লাইকের সংখ্যা বেড়ে যাবে, তখন আপনি আপনার ফেসবুক পেজ অনলাইনের মাধ্যমে খুব ভালো দামে বিক্রি করতে পারেন। আপনি চাইলে এটিকে আপনার ব্যবসাতে রূপ পারেন। এর জন্য আপনাকে প্রথেমে ফেসবুক পেজ খুলে সেটাতে লাইক এবং ফলোয়ার সংখ্যা কিছুদিন পর সেটাকে খুব ভালো দামে বিক্রি করে দিবেন। এভাবে আপনি অনেকগুলো পেজ খুলে এই কাজটি করার মাধ্যমে খুব ভালো পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আমাদের কিছু পরামর্শ

এই ছিল আমাদের আজকে আয়োজন। ফেসবুক থেকে আয় করার আরও অনেক উপায় আছে। বিশেষ করে যাদের ওয়েবসাইট আছে এবং যারা ইন্টারনেট মার্কেটার তাদের ফেসবুক থেকে আয় করার আরও অনেক উপায় আছে। তাই সময় নষ্ট করে চেষ্টা করতে থাকুন কিভাবে এই উপায়গুলো ব্যবহার করে ফেসবুক থেকে আয় করা যায়। আশাকরি এই উপায়গুলো যদি আপনি সর্ম্পন ফলো করে তাহলে আপনিও খুব দ্রুত ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন। টিউন ভালো লাগলে অবশ্যই আমাদের টিউমেন্ট করে জানাবেন।

 

Level 0

আমি আরজে পলাশ। টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস 1 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস