ফেসবুক ভেরিফিকেশন ২০১৭ সাথে ফেক ন্যাশনাল আইডি তৈরি করে যেভাবে সাবমিট করে ফেসবুক ভেরিফিকেশন করবেন তার a to z বাংলা টিউটোরিয়াল।

সবাই কেমন আছেন ?আশা করি ভালো আছেন।

আজকের টিউনটি সম্পূর্ণ আমার একটা অভিঙ্গতা শুধু আপনাদের মাঝে শেয়ার করব।কালকে ফেসবুক লগিন করে দেখি আমার ফেসবুক আইডি ভেরিফিকেশন চাচ্ছে।সেটা ছিল আমার মেইন আইডি।আসলে ফেসবুক কি জন্য যে ভেরিফিকেশন চায় তার কারন খুব কম জনেই বলতে পারেন সঠিকভাবে।

আমার যে সমস্যা জন্য ভেরিফিকেশন চাচ্ছিল তা হল আমার নাম টা তাদের ফেক মনে হয়েছিল।তার যথেষ্ট কারন আছে প্রথম কারন আমি ধরে নিতে পারি যে আমার নামটা সিঙ্গেল ছিল তাই হয়ত তাদের পছন্দ হয় নাই।

দ্বিতীয়ত আমার নামটা নরমান চ্যারেক্টারে ছিল না একটু স্টাইলিশ চ্য্যারেক্টারে ছিল।নিচের ফোটো টা দেখলে কিছুটা বুঝতে পারবেন আমার নামের সমস্যা কি ছিল।

আমার মনে হয় এজন্যই আমার ভেরিফিকেশন দিয়েছে।তবে সবার সমস্যা যে এক হবে এমনও কথা নেই কারো অন্য সমস্যা হতে পারে।তবে আমি আজকের টিউনে যে পদ্বতি শেয়ার করব টা ফলোও করলে হয়ত আপনার সমস্যা সমাধান হতে পারে।

আমি কি পদ্বতি অবলম্ভন করে ভেরিফিকেশন করব

প্রথমত আপনার একটা ন্যাশনাল আইডি কার্ড লাগবে। চিন্তা করা লাগবে না আপনার মত আমারও কোন ন্যাশনাল আইডি কার্ড ছিল না।তাই আমরা একটা ফেক ন্যাশনাল আইডি কার্ড বানাবো।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

কি ন্যাশনাল আইডি কার্ডটি দেখে কি আপনার আসল মনে হল।যদি এরকম মনে হয় তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন।আমি তো আগেই বললাম আমার কোন ন্যাশনাল আইডি কার্ড নেই।তাহলে এটা নিশ্চয় ফেক তাই না।আসলেই ফেক! সমস্যা নেই আপনিও আজকের টিউনের সাথে থাকলে একটা ফেক আইডি কার্ড বানাতে পারবেন।

এজন্য বেশি কিছু করা লাগবে না একটা ভিডিও শেয়ার করব সেটা মনযোগ দিয়ে দেখলেই চলবে।একদম সিম্পল ভাবে আমি টিউটোরিয়ালটা তৈরি করেছি যাতে আপনারা সবাই তৈরি করতে পারেন।কেউ এড়িয়ে যাবেন না ফেসবুক ভেরিফিকেশনে কিন্তু এটা লাগবে।এই ফেক ন্যাশনাল আইডি এর মাধ্যমেই আমরা আমাদের ফেসবুক আইডি ভেরিফিকেশন করব।

তো ভিডিওটি দেখুন তাহলে

আর হ্যা কেউ খারাপ কাজে এই আইডি ব্যবহার করবেন না।আর যদি করেন সেটা আমি কিংবা টেকটিউনের কেউ দায়ী থাকব না।

এটা শুধু এজন্যই করা আমরা আমাদের ফেসবুক ভেরিফিকেশন করব এজন্যই অন্য কোন সার্থ এটা দিয়ে হাসিল করবেন না।

ফেসবুক ভেরিফিকেশন ২০১৭

আপনার অনেক পথ অতিক্রম করে আনলাম আমি যে টিউটরিয়াল জন্য আজকের এই টিউন লিখতে বসছি সেই জায়গায়। আসলে ফেসবুক ভেরিফিকেশনে ঐসব পদ্বতি আমাদের প্রয়োজন তাই আমি আগে আমার প্রয়োজনীয় পদ্বতিগুলো আগে শেয়ার করেছি।ইদানিং সবাই প্রায় ফেসবুক ভেরিফিকেশন নামে কথা টা অনেক শুনতাছেন।যার অনেক কারন ও রয়েছে।

ফেসবুক চাচ্ছে যে ফেক আইডি দমন করবে।এজন্য তারা একটা পদক্ষেপ নিয়েছে সেটা হল ৬ মাসের একটা অভিজান।ফেক আইডি গুলো দমন করে যাচ্ছে। তবে ভালো সাথে অনেক সময় খারাপ ও হয়ে যায়।যেমন আমার সাথে হয়েছিল।এটা কিন্তু আমার মেইন আইডি ছিল।আমার মেইন আইডিটিও ভেরিফিকেশন ফালানো হয়।আমার সাথে হয়েছে আপনার সাথেও হতে পারে তাই পদ্বটি শিখে রাখলে যদি কাজে লাগে তো কাজে লাগাতে পারবেন।ফেসবুক ভেরিফিকেশন করে দেখলাম আসলেই এটা একটা সহজ পদ্বতি যদি আপনার কিছুটা বুদ্ধি খাটান।

যায়হক যেভাবে কাজটি করবেন তার জন্য একটা ভিডিও তৈরি করেছি আশা করি সমাধান হয়ে যাবে।দেখুন নিচ থিকে ভিডিওটি

মনে হয় ভিডিও টি দেখলে আপনার সমস্যা সমাধন হবে।আর মেইন আইডি ব্যবহার করবেন সবকিছু real তথ্য  দিয়ে ভুয়া কিছু দিবেন না।তাহলে এরকম সমস্যায় আর পড়বেন না।

সবশেষে যা বলব:

এরকম আরও সুপার টিপস পেতে আমার  YouTube Channel টি সাবস্ক্রাইব করুন এবং টেকটিউনস এর সাথেই থাকুন ভালো কিছু পেতে। মেতে উঠুন প্রযুক্তির সুরে।

Level 1

আমি ওমর এফ বাসিত। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 49 টি টিউন ও 24 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 6 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাই, কিভাবে ফেসবুক পেজ ভ্যারিফাইড করা যায় সেটার ট্রিক্স দেন।

ভাল লাগল