সেরা দামে JISULIFE FA13P রিচার্জেবল ফ্যান কিনুন

Level 1
পেইজ মোডারেটর ও কন্টেন্ট রাইটার, টটেজা, চট্টগ্রাম

শীত প্রায় শেষের দিকে আর গরমের শুরু হতে না হতেই যেন লোডশেডিং বেড়েই চলেছে। আর গরমে লোডশেডিং এর পরিমানও বেড়ে যায়। তাই এই অসহনীয় গরম সহ্য করা ব্যাপক কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। তবে এখন আর চিন্তা নেই। বাজারে JISULIFE FA13P পাওয়া যাচ্ছে।
JISULIFE FA13P এক্সটেন্ডেবল ডেস্ক ফ্যান। এটি ৮০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এছাড়াও ৫ স্পিডের ৩৬০° রোটেশনও করা যায়। বর্তমানে এখন বাংলাদেশেও পাওয়া যাচ্ছে। এই ফ্যান সবচেয়ে  সাশ্রয়ী মূল্যে পাওয়া যাচ্ছে।
আপনি এই ফ্যান কেন কিনবেন?
JISULIFE FA13P ৮০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার। এটি একটি ৫ স্পিড অটো-অসিলেশন এক্সটেন্ডেবল ডেস্ক ফ্যান। কিছুদিন পরই ভীষন গরম পড়া শুরু হবে। গরমের দিনে আপনাকে ঠান্ডা এবং আরামদায়ক রাখার জন্য এটি একটি উপযুক্ত ফ্যান হতে পারে।
ব্যাটারী ব্যাকআপ: এই ফ্যানের ব্যাটারীর ধারন ক্ষমতা ৮০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার। তবে এই ফ্যান আপনাকে ২৮ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দিতে পারে। যদিও কোম্পানি দাবী করছে এটি হাই স্পীডে ২৮ ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দিতে পারবে। যা পুরোদমে সত্যি নাও হতে পারে। অর্থাৎ ব্যাকআপ রেইট ২৮ ঘন্টার কাছাকাছি হতে পারে। তবে এসব ফ্যান থেকে এমন কিছু আশাও করা উচিত। কিন্তু আমার ধারনা মতে, ৮ঘন্টা অব্দি হাই স্পীডে আর ১০+ ঘন্টা অব্দি লো স্পীডে ভালো ব্যাকআপ দিতে পারে।
আমরা রিচার্জেবল ফ্যান ব্যবহারকারী হিসেবে সাধারণত ৫+ ঘন্টা ব্যাকআপ দেওয়া ফ্যান পেলেই খুশি। কারন এসব রিচার্জেবল ফ্যানগুলোকে চার্জ দিয়ে ব্যবহার করতে হয়। তাই চার্জের যেকোনো সময় শেষ হতে পারে। সব যন্ত্রেরই সীমাবদ্ধতা থাকে। এসব রিচার্জেবল ফ্যানগুলোও তার ব্যতিক্রম হয়না।
স্পীড: এই ফ্যানের স্পীড প্রায় ৫ টি মুডে পরিবর্তন করা যায়। আর সবচেয়ে সুবিধাজনক মুড বলা যেতে পারে স্লিপিং মুডটিকে। এই মুডে ফ্যানটির বাতাস একবার বেড়ে যাবে। আর অন্যবারে কিছুটা কমে যাবে। তাতে ঘুমের সময় আরামদায়ক পরিবেশ পাওয়া যাবে। এই ফ্যানটিতে কেবল ৮ মিটার দূরে রেখেও হাই স্পীডে বাতাস দিতে পারবে।
টাইমার সেটিং: JISULIFE FA13P ফ্যানে টাইমার সেটিং এর ব্যবস্থা রয়েছে। তাই আপনি কতক্ষণ এটা চালাতে চান তা সেট করতে পারবেন। আর টাইমার ফাংশন সাধারণত সব ফ্যানে থাকে না। এতে টাইমার সেটিং থাকায় অযথা চার্জ হওয়া নষ্ট হবেনা। আর অকারনে ফ্যান অযথা চলবেনা। আর টাইমার সেটিং ঘন্টা অনুযায়ীও করা যাবে। অর্থাৎ কেউ ফ্যান ১ ঘন্টা ব্যবহার করতে চাইলে সে টাইমার সেটিংএ ১ ঘন্টা দিবে। আবার কেউ যদি ৪ ঘন্টা ব্যবহার করতে চাইলে সেই টাইমার সেটিং এ ৪ ঘন্টা দিবে।
পাখার ধরন: এই ফ্যানের পাখার ধরন ব্রাশলেস ফাইবার প্লাস্টিক। ফ্যানের উপরের অংশ খুলেই ভিতরের পাখা গুলো পরিষ্কার করা যাবে। এই ফ্যানের পাখার সাইজ প্রায়  ৬.৫ ইঞ্চি হয়ে থাকে।
চার্জিং ক্যাবল: এটিতে টাইপ-সি USB ২.০ দ্রুত চার্জিং ক্যাবলও আছে। আপনি অবসরে আপনার ফোনও চার্জ করতে পারেন। সত্যিই এই সুবিধা সব ফ্যানে থাকেনা। সাম্প্রতিক ফ্যানগুলো টাইপ সি চার্জিং হওয়াতে আমরা পাওয়ার ব্যাংক এবং মোবাইল ফোনও চার্জ করতে পারব।
JISULIFE ব্রান্ডের একদম প্রথম দিকের ফ্যানের সময় মাইক্রো USB দিয়ে থাকলেও, এখন আপডেট ফ্যানগুলো টাইপ সি সেট আপ করেছে। এতে ফাস্ট চার্জিং এর ইস্যু টা অনেকটা সলভড বলা চলে। তবে এই ছোট সাইজের ফ্যানটি চার্জ হতে প্রায় ৬ ঘন্টা সময় নিয়ে থাকে।
রোটেশন: বর্তমানে রিচার্জেনল ফ্যানেও রোটেড হয়ে বাতাস ছড়িয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এটি  প্রায় ৩৬০° রোটেট করে আপনার রুমের চারদিকে বাতাস ছড়িয়ে দিবে। আবার আপনি চাইলে আপনার পছন্দনীয় দিক টাও সেট করতে পারবেন। এছাড়াও এটা বড় কিংবা ছোট করা যায়। তাই বড় কিংবা ছোট করার মাধ্যমে বাতাসের তারতম্যের কিছু প্রভাব পড়তে পারে। এটিকে লম্বায় ৩০ইঞ্চি এবং ছোট তে ১২" + অব্দি ছোট করা যাবে।
ওজন: JISULIFE FA13 ফ্যানের ওজন প্রায় ৭৩৫গ্রাম। অন্য ফ্যানের তুলনায় ওজন খুবই কম। এটি দেখতে ছোট হয়ে থাকে।
এখন একটু ফ্যানের আওয়াজ নিয়ে ধারনা দিই। আমরা সবাই কমবেশি জানি আলাদা স্ট্যান্ড ফ্যানগুলো যেমন বাতাস দিয়ে থাকে ঠিক তেমন আওয়াজের সৃষ্টি করে। তবে আশার কথা হচ্ছে, এই ফ্যানের কারনে তেমন আওয়াজ পাওয়া যাবেনা। অনেকেই  ফ্যানের আওয়াজ পছন্দ করেনা। আর তাই এসব ফ্যান নেওয়ার আগ্রহ হারায়।
নিজের অভিমত: জিসুলাইফের আলাদা একটা জনপ্রিয়তা আছে। যা আপনি ইউটিউব কিংবা বিভিন্ন ফেসবুক পেইজের রিভিউ দেখলে আন্দাজ করতে পারবেন। গত কয়েক বছরে এর জনপ্রিয়তা আরও বেড়েছেই বলা যায়। বাসায় ছোট শিশু কিংবা এক বা দুজনের জন্য এই ফ্যান যথেষ্ট হতে পারে। আপনার বাজেট যদি ৩৫০০ টাকা হয় তবে নিজের পছন্দসই গ্যাজেটের দোকান  থেকে কিনে নিতে পারেন। আর JISULIFE FA13 দাম অনুযায়ী খুব ভালোই পারফরম্যান্স দিয়ে থাকে।

Level 1

আমি আত্তিয়া ফারাহ। পেইজ মোডারেটর ও কন্টেন্ট রাইটার, টটেজা, চট্টগ্রাম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস 2 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস