555 Timer IC বেসিক জ্ঞান নিন

আসসালামু আলাইকুম,

কেমন আছেন আপনারা? আশা করি ভাল আছেন। ভাল থাকবেন আশা করি। আমার জন্য দোয়া করবেন।

আপনারা যারা ইলেকট্রনিক্স পাগলা, তারা সম্ভবতই ৫৫৫ টাইমার আইসি-এর নাম শুনেছেন? ঘড়ি ও বিভিন্ন টাইমার তৈরি করতে এর বহুল ব্যবহারের কারনে নাম হয়ে গেছে ৫৫৫ টাইমার আইসি।

কি? দেখেননি? না দেখলে সমস্যা নেই। এইযে ছবি,

এর ৮ খানা পিন দেখেই একে চেনা যায়। সব ক্ষেত্রে একে ডাকা হয় NE555N নামে।

একেএ ৫৫৫ টাইমার।

তো এই আইসি যে কেবল ঘড়ি বানাতেই লাগে তা কিন্তু নয়, যেকোনো ছোটখাটো সেন্সর ও মোটর অপারেশনে ইউজ করা হয় একে।

এখন এর পিন গুলো চিনে নিই,

খেয়াল করেছেন? ১ নম্বর পিনের উপর একটা ছোট গোল ফুটো একে বলে "নচ" (Notch) এটা দ্বারা বোঝা যায় কোনটা ১ নম্বর পিন।

গোল গর্তটা দেখেছেন?
  • ১ নম্বর পিনে নিগেটিভ বা গ্রাউন্ড সাপ্লাই দিতে হবে।
  • ২ নম্বর পিনে ট্রিগার।
  • ৩ নম্বর পিনে সব রকম আউটপুট কারেন্ট আসে যা মুলত পজিটিভ কারেন্ট যা প্রায় ২০০mA
  • ৪ নম্বরে নিগেটিভ কারেন্ট দিলে সাথে সাথে পুরো টাইমার রিসেট হয়ে যাবে। ভেতর থেকে প্রায় ১০০K রোধ দিয়ে সংযুক্ত। চিপটিকে রিসেট করতে ০.৮ ভোল্ট লাগবে।
  • ৫ নম্বরে ভোল্টেজ কন্ট্রোল, ভেরিয়েবল রিসিস্টর দিতে হবে ভিসিসি থেকে বা পজিটিভ থেকে।
  • ৬ নম্বর পিনে থ্রেসহোল্ড।
  • ৭ নম্বর পিনে ডিসচার্জ পিন।
  • ৮ নম্বরে পজিটিভ কারেন্ট সাপ্লাই যার মান +৪.৫ থেকে ১৬ ভোল্ট।

আচ্ছা, এর ভেতরে কি আছে?

555 টাইমার চিপ হল একটি Intergrated Circuit (IC) এবং এতে সিলিকনে ঢাকা একটি ছোট্ট সার্কিট আছে।

প্রতিটি পিন যে সার্কিটে কানেক্টেড তাতে আছে ২০ টা ট্রাঞ্জিস্টর, ২ টা ডায়োড এবং ১৫ টা রিসিস্টর।

তিনটা 5k রিসিস্টর লক্ষ করেছো? এইজন্যেই এর নাম 555 

এই টাইমারের বিভিন্ন সার্কিট বানাতে যে আউটপুট পাওয়া যাবে তার একটা অনলাইন ক্যালকুলেটর আছে।

আমার ব্লগ

যদি কোনরুপ সমস্যা হয়, তবে টিউমেন্ট করবেন।

আমার ব্লগ

আর্জেন্ট যোগাযোগে ফেসবুক আছে আমার।

আমার অন্য সাইট জিআর+

আমার ফেসবুক পেজ 

Level 0

আমি ব্লগার তাওসিফ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 97 টি টিউন ও 61 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 4 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

খুব সুন্দর হয়েছে চালিয়ে যান

Awesome …

খুব ভাল টিউন। তবে এতে কিছু তথ্যগত বিভ্রাট আছে। যেমনঃ

# ৪ নম্বরে পজিটিভ কারেন্ট দিলে সাথে সাথে পুরো টাইমার রিসেট হয়ে যাবে।
>> প্রকৃত পক্ষে ৪ নং পিনে গ্রাউন্ড দিলে রিসেট হয়। পজেটিভ দিয়ে রিসেট প্রতিরোধ করা হয়
# ৮ নম্বরে পজিটিভ কারেন্ট সাপ্লাই যার মান ৩ থেকে ৯ ভোল্ট।
>> প্রকৃত পক্ষে ৫৫৫ আইসি সাধারন ভাবে ৪.৫ ভোল্ট থেকে ১৬ ভোল্টে অপারেট করে।
# ২ নম্বর পিনে ট্রিগার, এটা ৬ নম্বর পিনের আউটপুট নিয়ন্ত্রণ করে। এটা ১ ও ৩ নম্বর পিনের ইনপুট ভোল্টেজের পার্থক্য যাচাই করে আউটপুট হাল্কা বা গাঢ় করে।যদি পিন ২ ও পিন ৬ লো হয় তবে আউটপুট হাই হয়ে যাবে।যদি পিন ৬ হাই ও পিন ২ লো হয় তবে আউটপুট লো থাকবে।
>> “২ নম্বর পিনে ট্রিগার, এটা ৬ নম্বর পিনের আউটপুট নিয়ন্ত্রণ করে”- সত্য নয়।
>> “এটা ১ ও ৩ নম্বর পিনের ইনপুট ভোল্টেজের পার্থক্য যাচাই করে আউটপুট হাল্কা বা গাঢ় করে।”-বিভ্রান্তিকর। ৩ নং পিনের আউটপুট হলো অন /অফ। হালকা গাড় বলে কোন ব্যাপার নেই
>>”যদি পিন ৬ হাই ও পিন ২ লো হয় তবে আউটপুট লো থাকবে।”- হাই লো ব্যাপারটি স্পষ্ট হয় নি।

আশাকরি একটু খেয়াল করে লিখলে আরো ভাল লিখতে পারবেন। আমারো ভূল হতে পারে তাই পজেটিভ রিসপন্স আশা করছি।