আপনার অনলাইন এর কাজগুলো অটোমেটিক করে ফেলুন আর আপনার অনলাইন লাইফকে করে ফেলুন আরও সহজ ও দ্রুততম

সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আমার আজকের টিউন শুরু করছি। আশা করি সবাইভাল আছেন। আমিও ভাল আছি। আর কেউ যদি খারাপ থেকেও থাকেন আজকের এই টিউনটা পড়ার পর মনে হয়না তিনি আর খারাপ থাকবেন।

বর্তমান যুগটাই হল অটোমেশনের যুগ। আমাদের প্রাত্যাহিক কাজকর্ম থেকে শুরু করে সবকিছূ এমনকী মহাকাশ গবেষণা পর্যন্ত আমরা অটোমেটিক মেশিনের মাধ্যমে করে থাকি। এই অটোমেশন যেন মানুষের কষ্টকে পরপর দূর করেই চলেছে। বিভিন্ন সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আমরা আমাদের পিসির বিভিন্ন কাজ অটোমেটিক করে থাকি, আমাদের প্রাত্যাহিক জীবনের যেকোন কাজ যেমন রান্না করা থেকে শুরু করে কোন স্থানে ভ্রমণ পর্যন্ত এখন মেশিনারি হয়ে গেছে।

 

তো, এত সব কিছুই যখন অমরা অটোমেশনের মাধ্যমে করে থাকি তাহলে আমাদের অনলাইনের কাজগুলো কেন করব না ? অবশ্যই করব। আর এটা খবই সম্ভব ও সহজ।

আপনারা If This Then That (IFTTT) এর নামটা কেউ কেউ শুনে থাকবেন। অবশ্য বেশীরভাগ মানুষেরই না শোনার কথা।

যাই হোক, ব্যাপার সেটা না, ব্যাপার হলো এটা এমন একটা সার্ভিস যেটার মাধ্যমে আপনি আপনার অনলাইনের বিভিন্ন কাজ সিডিউল করে রাখতে পারবেন। এর নামের মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে যে এটা একটা রোবটের মত কাজ করে। আপনি যেমন if else প্রোগ্রামিং করতেন, এই ব্যাপারটাও সেই রকম। যেমন, যদি আপনার অনলাইনে এই কাজটা ঘটে থাকে তাহলে ওই কাজটা কর। এই টাইপের একটা অটোমেশন সফটওয়্যার এটা।

উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, যদি কেউ আপনাকে ফেসবুকে কোন ফটো ট্যাগ করে আপনি সেগুলো আপনার ড্রপবক্সে জমা করে রাখতে চান। জাস্ট এখানে সাইন আপ করে এই কমান্ডটি দিয়ে আসুন। আর সব ওকে। আপনার কাজ হয়ে যাবে। এই রকম বহু কাজ রয়েছে যেগুলো এই অটোমেশন পদ্ধতির মাধ্যমে করা সম্ভব। অবশ্য, আপনি এJb ভাবছেন যে কীভাবে কী করবেন ?? কীভাবে এই কমান্ডগুলো দিবেন, চিন্তার কোন কারণ নেই। এই টিউনে এর সব প্রসিডিউর গুলো বর্ণণা করা হবে। আর এটা একটা সম্পূর্ণ ফ্রী টুলস। এর জন্য কোন টাকা পয়সা লাগবে না।

আজ আমি আপনাদের এই প্রক্রিয়ার একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত খুবই সুন্দরভাবে বর্ণণা করব।

প্রথমে সাইন আপ

এই সার্ভিসটি ইউজ করতে হলে প্রথমে এখানে গিয়ে সাইন আপ করুন। সাইন আপের সময় নীচের মত একটা ওয়েবপেজ পাবেন। এখানে সাইন আপ এ ক্লিক করে প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন দিয়ে একটা একাউন্ট তৈরী করুন। তারপর আপনার এই কাজ শেষ।

 

এই  ফর্মে প্রয়োজনীয়্ ইনফরমেশন গুলো ফিল আপ করে একাউন্ট ক্রিয়েট করুন।

এরপর একাউন্ট ক্রিয়েট হয়ে গেলে আপনি নীচের মত একটা পেজ দেখতে পাবেন। বুঝতেই পারছেন নিশ্চই কী করতে হবে।

 

 

চ্যানেল সিলেক্ট করা

এখানে আপনাকে আপনার কোন অনলাইন একটিভিটি কেমন হলে কী করতে হবে সেটাই বলে দিতে হবে। এখানে কিছু না করে কনটিনিউ বাটন চেপে যান। এর পর দুই বার কনটিনিউ বাটন প্রেস করার পর আপনার সামনে এমন একটা উইন্ডো আসবে।

এখানে আপনি কোন কোন বিষয়ে আগ্রহী বা কোন কোন বিষয়ে কাজ করতে চান সেটা সিলেক্ট করতে হবে। আপনি যে বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করতে চান বা যে চ্যানেল গুলো নিয়ে কাজ করতে চান সেগুলোর উপর ক্লিক করুন। ফলে সেহুলোর এক কোণে সবুজ রঙের টিক চিহ্ন চলে আসবে। এবার সিলেক্টিং শেষ হলে কন্টিনিউ বাটন প্রেস করুন।

রেসিপি

এবার নীচের চিত্রের মত আপনার সামনে আপনার বিষয়ের সাথে রিলেটেড বিভিন্ন রেসিপি আপনার সামনে সো করা হবে।

এই  রেসিপি জিনিসটা হল এমন একটা জিনিস যেটা কে আমরা বিভিন্ন ধরণের কাজ হিসেবে ডিফাইন করতে পারি। এখানে দুই ধরণের  রেসিপি রয়েছে। ইফ রেসিফি, আর ডু রেসিপি।ইফ  রেসিপি এ গিয়ে আপনি কী কাজ ঘটলে কোন ডু  রেসিপি কাজ করবে সেটা বলে দিতে হবে। এভাবে ইফ রেসিপি ও ডু রেসিপিকাজ করে থাকে। অর্থাৎ,  রেসিপি হল বিভিন্ন চ্যানেলের ভিতর একটা সেতুবন্ধন বা সম্পর্ক তৈরী করে। যেমন উদাহরণস্বরূপ আমরা বলতে পারি একটা  রেসিপি কথা :

“ যদি ফেসবুকের প্রোফাইল পিক চেঞ্জ হয় তাহলে টুইটারেরও চেঞ্জ কর”।

এটা হল একটা  রেসিপি উদাহরণ। এখানে সার্চ বক্সে গিয়ে আপনি আপনার পছন্দের বা কাজের বিভিন্ন  রেসিপি সার্চ করতে পারেন।

রেসিপি তৈরি করা

উপরের চিত্রের একদম উপরে ডান দিকে দেখান মাই রিসিপ নামে একটা অপশন আছে। ওইটার উপর ক্লিক করুন। তারপর এইরকম একটা পেজ দেখতে পাবেন।

 

এই পেজে “Creat A Rceipe” বাটনে ক্লিক করুন। এখানে আমার আগে থেকেই একটা রিসিপ ক্রিয়েট করা আছে বলে সেটা সো করছে। আপনার ক্ষেত্রে এটাতে কিছু সো করবে না।  তখন আপনি এমন একটা পেজ দেখতে পাবেন। এখান থেকে THIS এ ক্লিক করুন।

 

ট্রিগার চ্যানের সেট করা

ফলে দেখতে পাবেন যে অনেকগুলো অপশন আপনার সামনে এসে হাজির হয়েছে। না বুঝলে নীচের চিত্র ফলো করুন।

এখান থেকে আপনাকে একটা চ্যানেল সিলেক্ট করতে হবে যার উপর আপনি কাজ করতে চান। এখানে বিভিন্ন বিষয় দেওয়া আছে। যেকোন একটা সিলেক্ট করুন। ধরুন, আমি ফেসবুক সিলেক্ট করলাম। ফলে এটা আপনার ফেসবুকের সাথে কান্টেক করার পারমিশন চাইবে ও আপনি কানেক্ট বাটনে চাপ দিলে এটা বিভিন্ন পারমিশন নিবে। এরপর পারমিশন দেবার পর আপনি ফেসবুকের বিভিন্ন কাজ যেটা আপনি এই অ্যাপ দিয়ে করতে পারবেন তার একটা লিস্ট দেখতে পাবেন। নীচের চিত্রটা খেয়াল করুন।

এখান থেকে আমি আমকে যদি কেউ কোন ফটো ট্যাগ করে এই অপশনটা সিলেক্ট করেছি। আপনি নিজের ইচ্ছা মত যেকোন অপশন সিলেক্ট করতে পারেন।

এবার নীচের মত একটা চিত্র দেখতে পাবেন।

এখানে আপনাকে ট্রিগার চয়েজ করতে বলা হবে। ক্রিয়েট ট্রিগার প্রেস করু ন। ফলে আবার আগের মত একটা ইফ, দেন, দ্যাট পেজ দেখতে পাবেন। এবার এখান থেকে THAT এ ক্লিক করুন।

 

 

একশন চ্যানেল সেট করা

দেখুন অনেকগুলো কাজ যা ফেসবুকের ফটো ট্যাগের পরে ঘটতে পারে বা আপনি করতে পারেন তার একটা লিস্ট দেওয়া আছে। এখান থেকে আপনাকে ফেসবুকের ট্যাগের পর কী একশন নিতে হবে সেটা বলে দিতে হবে।

এখান থেকে আমি এন্ড্রয়েড এসএমএস সিলেক্ট করেছি। আপনি যেকোন একটা সিলেক্ট করতে পারেন। এটা সিলেক্ট করুর পর আপনি এইরকম একটা চিত্র দেখতে পাবেন। সেখান থেকে Send An SMS এ ক্লিক করুন। তারপর নীচের মত একটা ফর্ম আসবে।

ফর্মএ সব ভ্যালিড ডাটা দিয়ে পূরণ করে ক্রিয়েট একশন বাটনে চাপ দিন।

 

 

 

কনফার্মেশন করা

 

এবার এমন একটা লাস্ট কনফার্মেশন পেজ আসবে। এখানে ক্রিয়েট বাটনে চাপ দিন। ফলে আপনির একটা কাজ অনলাইনে সিডিউল করা হয়ে গেল। ফলে আপনি নীচের চিত্রের মত একটা কনফার্মেশন পাবেন।

এখানে ক্রিয়েট রিসিপ এ ক্লিক করলেই আপনার কাজ শেষ। এভাবে আপনি আপনার সুবিধা মত বিভিন্ন চ্যানেল থেকে ইফ ও ডু রিসিপ তৈরী করতে পারেন ও সেগুলো আপনার বাস্তব জীবনে কাজে লাগাতে পারেন।

আর এখানে অনেক ইফ ও ডু রিসিপ রয়েছে যেটার সবগুলো এভঅবে বর্ণণা করা সম্ভব নয়। তাই আমি জাস্ট একটা উদাহরণ দিয়ে আপনাদের বিষয়টা দেখালাম। অঅর আপনার কী ধরণের কাজ করা লাগবে সে অনুসারে ইফ্ও ডু রিসিপ তৈরী করুন।

আজ এই পর্যন্তই। কোন বিষয়ে কনফিউশন থাকলে টিউমেন্ট করতে ভুলবেন না। সবাইকে ধন্যবাদ।

Level 2

আমি অরিন্দম পাল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 82 টি টিউন ও 316 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 19 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মানসিক ভাবে দূর্বল । কোন কাজই কনফিডেন্টলি করতে পারি না , তবুও দেখি কাজ শেষ পর্যন্ত হয়ে যায় । নিজের সম্পর্কে এক এক সময় ধারণা এক এক রকম হয় । আমার কোন বেল ব্রেক নেই । সকালে যে কাজ করব ঠিক করি , বিকালে তা করতে পারি না । নিজের...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

valo laglo anek. rhanks

যদিও কখনো এমন ট্রিগারে চাপ দেব কিনা সন্দেহ আছে, তারপরও জিনিসটা বেশ কৌতুহলোদ্দীপক…..যাদের অনলাইনে মাল্টিটাস্কিং জিনিসটা অনেক বেশী প্রয়োজনীয় তাদে কিছুটা হলেও সীমিত সুবিধা এটা অবশ্যই দেবে বলে মনে হচ্ছে 😛

IFTTT ভাগাভাগির জন্য ধইন্যা 🙂

nyc tune. thanks bhaia.

Level 0

Thanks a lot.

Level 0

আমি অনেকদিন যাবত ব্যাবহার করছি , সুন্দর টিউন 😉

বেশ গুছিয়ে লিখেছেন কিন্তু :p

সুন্দর টিউন 🙂

খুব ভালো লাগলো, কাজের জিনিস