কম্পিউটার সাইন্স পড়াশুনা [পর্ব-১৪] :: Computer Organization and Architecture Designing for Performance by William Stallings “২য় ক্লাস” (বেসিক হার্ডওয়্যার)

হ্যালো টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? যারা কম্পিউটার সাইন্সে পড়াশুনা করেন আর যারা কম্পিউটার সাইন্সে পড়াশুনা করেন না, কিন্তু আমার এই কম্পিউটার সাইন্স পড়াশুনা চেইনের চেইন পড়ুয়া তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েই শুরু করবো আজকের নতুন পর্ব বা ক্লাস।

আমাদের এই সাবজেক্ট Computer Organization and Architecture Designing for Performance by William Stallings এর ২য় ক্লাস আজকে।

তার আগে একটা কথা বলে নেই এখানে আমি বইয়ের এ টু জেড আলোচনার চেয়ে ক্লাসের লেকচারের উপর বেশি গুরুত্ব দেই। সেহেতু আপনাদের ক্লাসের একটা আবহ থাকবে এই টিউনগুলোতে আশা করি। অনেকে ভিডিও টিউটোরিয়ালের জন্য বলেছেন, তাদেরকে নিরাশ করবো না আমি। তবে আমি টিউনে টেক্সটে বেশি বিশ্বাসী। আর কিছু দিন পর থেকে হয়তো টেক্সটের সাথে সাথে ভিডিও নিয়েও চলে আসবো। আমি নিজে এই বিষয়ে চেষ্টা করছি।  😆

যাইহোক আসুন শুরু করি আজকের টিউন। যারা গত পর্ব মিস করছিলেন বা বই ডাউনলোড করেন নাই তারা এখান থেকে দেখে নিবেন এবং বই ডাউনলোড করে নিবেন-

আজকে আমাদের আলোচনার বিষয় হার্ডওয়্যার কি এবং হার্ডওয়্যারের গঠন নিয়ে আলোচনা। আসুন তাহলে শুরু করি।  🙄

কম্পিউটার হার্ডওয়্যার (বেসিক) ক্লাস-২

হার্ডওয়্যারঃ

যে ফিজিক্যাল ডিভাইসগুলো দিয়ে কম্পিউটার তৈরি সেটাই হার্ডওয়্যার। অর্থাৎ কম্পিউটারের যাবতীয় ডিভাইস যা আপনি হাত দিয়ে ধরতে পারবেন বা অবয়ব বা কাঠামো দেখতে পারবেন সেটাই মূলত হার্ডওয়্যার।

যেমন, মনিটর, মাউস, কী-বোর্ড, কম্পিউটার ডাটা স্টোরেজ, হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ (HDD), সিস্টেম ইউনিট (Graphic Cards, sound cards, memory, motherboard and chips)

হার্ডওয়্যারের ৪ টি পার্ট আছে।

হার্ডওয়্যার ৪ টি অংশঃ

হার্ডওয়্যারের ৪ টি অংশ। প্রসেসর, মেমোরি, ইনপুট এবং আউটপুট ডিভাইস, স্টোরেজ ডিভাইস।

১) প্রসেসর (Processor)

প্রসেসর হলো কম্পিউটারের ব্রেইন। (The Processor is the brain of the Computer) প্রসেসর ইউজার এবং সফটওয়্যারের নির্দেশনা অনুসারে কাজ করে। প্রসেসরকে Central Processing Unit (CPU) দ্বারা রিপ্লেসড করা হয়েছে। পার্সোনাল কম্পিউটারে প্রসেসরকে ইম্বেড করে মাইক্রো-প্রসেসর বলা হয়।

২) মেমোরি (Memory)

মেমোরি হলো কম্পিউটারের ভেতরর একটি ইলেক্ট্রোনিক স্ক্র্যাস প্যাড (electronic scratch pad) যখন একটি প্রোগ্রাম লাউন্স করা হয় এটি মেমোরি থেকে লোড এবং রান হয়।

1) র‍্যাম (Random Access Memory - RAM)

র‍্যামে ডাটা পূর্ব-নির্ধারিত করা হয় এবং সেই মেমোরি থেকেই তথ্য পড়া (read) হয়। র‍্যামের ডাটা উদ্বায়ী (Volatile) অর্থাৎ যে স্মৃতি ব্যবস্থা বিদ্যুৎসংযোগ ছিন্ন হওয়া মাত্র তথ্য মুছে যায়। সুতরাং র‍্যামে একটি নির্দিষ্ট পাওয়ার সাপ্লাই প্রয়োজন হয়। । র‌্যাম থেকে যে কোন ক্রমে উপাত্ত "অ্যাক্সেস" করা যায়, এ কারণেই একে র‌্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি বলা হয়।

 

2) রোম (read only memory - ROM)

ডাটা এই মেমোরি থেকে পড়া (Read) হয়। রোমের ডাটা অ-উদ্বায়ী অর্থাৎ যে স্মৃতি ব্যবস্থা বিদ্যুৎসংযোগ ছিন্ন হওয়া মাত্র তথ্য মুছে যায় না। এখানে স্থায়ীভাবে নির্দেশনাবলী সংরক্ষণ করে যার মাধ্যমে কম্পিউটার অপারেট করে।

৩) ইনপুট এবং আউটপুট ডিভাইস (input and output devices)

ইনপুট ডিভাইস ইউজার এবং কম্পিউটার ডিভাইস থেকে নির্দেশনা নেই এবং ডাটা একসেপ্ট করে। বাইরে থেকে যতো ডিভাইস ইনপুট করা হয় সবই এর অন্তর্ভুক্ত। ইনপুট ডিভাইসের প্রধান ২ টি পার্ট হলো কী-বোর্ড (keyboard) এবং মাউস (mouse)।

আউটপুট ডিভাইস হলো ইউজার বা কম্পিউটার সিস্টেমে যে প্রদত্ত ডাটা (যেমন ইমেজ, মিউজিক, ভিডিও) ফলাফল হিসাবে দেখায়।

যেমন, মনিটর, প্রিন্টার।

৪) স্টোরেজ ডিভাইস (Storage Device)

স্টোরেজ ডিভাইস স্থায়ীভাবে ডাটা ধরে রাখার জন্য ব্যবহার করা হয়।

স্টোরেজ ডিভাইস মূলত ২ প্রকার। যেমন, প্রাইমারী স্টোরেজ ডিভাইস যেমন র‍্যাম। যা আমরা পূর্বে আলোচনা করেছি। সেকেন্ডলি সেকেন্ডারী স্টোরেজ ডিভাইস, যেটা হার্ড ড্রাইভের মতো কাজ করে। সেকেন্ডারী হার্ড ড্রাইভ ইন্টারনাল, এক্সটারনাল অথবা রিমুভালও হতে পারে।

আশা করি বুঝতে সমস্যা হবে না!!

এই বইয়ের পরবর্তী ক্লাসঃ বিভিন্ন স্টোরেজ ডিভাইসের বর্ণনা এবং বাস (BUS) নিয়ে আলোচনা।

(আমাদের ৬ মাসের সেমিস্টারে ৪র্থ সেমিস্টারে এই কোর্স চলছে, আপনার ইউনিভার্সিটিতে যদি ৪ মাসের সেমিস্টারে অন্য সেমিস্টারে এই কোর্স থাকলে সেইভাবে আপনার মতো করে ঠিক করে সংগ্রহ করে নিন অথবা প্রিয়তে রাখুন) 

শেষ কথা

আর একটা বিষয় এই সিকুয়ালের আগের পর্বগুলো অনেক শিক্ষামূলক ব্লগে কপি হয়েছে। এই টিউন আমি নিজে কষ্ট করে শিখে আপনাদের জন্য করি। সেহেতু অন্য কেউ ক্রেডিট ছাড়া কপি করলে খারাপ লাগে, সেহেতু ক্রেডিট ছাড়া (টেকটিউনসের লিঙ্ক ছাড়া) কেউ কপি করবেন না আশা করি। আর আপনাদের সামনে কেউ করলে আমাকে অথবা টেকটিউনসকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন আশা করি।  :roll: আসুন আমরা কপি পেস্ট মুক্ত বাংলা ভাষা গড়ি এবং নিজেদের মেধার বিকাশ ঘটায়।

আপনাদের কম্পিউটার সাইন্স পড়াশুনার অগ্রযাত্রা আরও সুন্দর হোক, আর ভবিষ্যতে বাংলাদেশে এক্সপার্ট সব কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার দেখবো এই কামনায় আজ এখানেই শেষ করছি।

ধন্যবাদ সবাইকে।  :lol:

Level 0

আমি আইটি সরদার। Web Programmer, iCode বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 263 টি টিউন ও 1750 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 21 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি ইমরান তপু সরদার (আইটি সরদার),পড়াশুনা শেষ করছি কম্পিউটার প্রযুক্তিতে (২০১৮); পেশা প্রোগ্রামার। লেখালেখি করি নেশা থেকে ফেব্রুয়ারি ২০১৩ থেকে। লেখালেখির প্রতি শৈশব থেকেই কেন জানি অন্যরকম একটা মমতা কাজ করে। আর প্রযুক্তি সেটা তো একাডেমিকভাবেই রক্তে মিশিয়ে দিয়েছে। ফলস্বরুপ এখন আমার ধ্যান, জ্ঞান, নেশা সবকিছু প্রোগ্রামিং এবং লেখালেখি নিয়ে।...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

@MD. GOLJAR ALI: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ গুলজার ভাই। আশা করি শেষ পর্যন্ত সাথে পাবো। 🙂

ধন্যবাদ ভাই