ইন্টারনেট ! ইন্টারনেট ! আমরা ভালো কাজ করতেছি না খারাপ ?

কবছর আগের কথা চিন্তা করেন, আপনার প্রিয় গায়কের একটা নতুন গান রিলিজ হয়েছে। আপনাকে গান টা শুনতে হলে যেতে হবে দোকানে, গিয়ে আগে দেখতে হবে সেখানে গান টা আছে কিনা , পেলে সেটার জন্য পুরো ক্যাসেট বা সিডিটা কিনতে হবে। বাসায় আসবেন, প্লেয়ারে লাগাবেন , তারপর শুনতে পাবেন।

আজকে আমার দিকে তাকান, কোন সার্চ ইঞ্জিন যেমন google  বা কোন একটা সুধু মিউজিক সার্চ ইঞ্জিন যেমন TopFreeSongs এ যান, সার্চ করেন , পেয়ে যাবেন, ডাউনলোড করে নিলেই হলো।

আবার পেছন দিকে তাকান , একটা সিনেমা দেখতে হল এ যাওয়া, বা শুক্রবারের জন্য অপেক্ষা করে থাকার দিন এখন আছে ? নাই তো ভাই, আমরা এখন ঘোলা কিছু দেখি না, হাই কোয়ালিটি এর মুভি ডাউনলোড করে নিজের ইচ্ছেমত যখন খুশি সেভাবে দেখি।

সেদিন প্র্যাকটিক্যাল করতে বসছি, একটা কোড মনে নাই। আমি কি করলাম ? কোন এক অজানা প্রভাইডারের সার্ভার থেকে কোড টা নিলাম, হুট করেই মনে হলো আমার পেছনের তাকে বই টা আছে। সেখান থেকেই খুজে নিতে পারতাম।বাট নেট আসক্ত হয়ে পড়ছি কোনভাবে।

আসলে এগুলো উদাহারন ছিলো। আমরা এখন দরকারি বই টা কিনি না , পিডি এর আকারে ডাউনলোড করে নেই নেট থেকেই, বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ ও রাখি অনলাইনে।

আমার আজকের টিউন করার উদ্দ্যেশ্য অন্যরকম।

ধরা যাক আপনি একজন গায়ক কি একজন লেখক। অনেক কষ্ট করে একটা মিউজিক এ্যালবাম কি বই বের করলেন। দেখা গেলো খুব কম মানুষ ই বই টা কিনলো। বাকিরা সবাই ডাঊনলোড করেই নিলো সেটা।

এতে ভালো দিক একটা, আপনার পরিচিতি, যারা দুরত্ব বা টাকার কারনে গান বা বই টা পেতেন না তারাও পেলেন । অর্থাৎ আপনার ক্রিয়েশন টা ছরিয়ে গেলো অনেক বেশীদুর।

আর খারাপ দিক হলো আপনার খরচের একভাগ ও উঠবে না, আপনার মনোবল নষ্ট হয়ে যাবে। এমন কি চিরতরে আপনার প্রতিভা ও হারিয়ে যেতে পারে।

এবার আরেক যুক্তি, সবকিছুতেই সবার স্বাধীনতা থাকা উচিত, আর অনলাইনে কোন কিছুকেই প্রাইভেট প্রপার্টি করে রাখার কোন উপায় নাই। মানে এ পাশ ওপাশ দুপাশের যুক্তি ই আছে।

সো, টেকটিউন্স বাংলা ভাষায় সবথেকে বড় কমিউনিটি।এখান কার  ইউজার দের কাছে আমি মতামত চাই, কারন আমি নিজেও এবং এখানে অনেকেই ডাউনলোডের অনেক বড় বড় সাইট পরিচালনা করেন। আসলে কি করা উচিত।

ফ্রি কন্টেন্ট দিয়ে ভোক্তা অধিকার দেয়া উচিত না , না দিয়ে আর্টিস্ট দের বাচানো উচিত ?

ফুটঃ আমার টেকটিউন্স গুলোর আপডেট পাবেন আমার ব্লগ অথবা  ফেসবুকে

Level New

আমি শিমুল শাহরিয়ার। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 12 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 90 টি টিউন ও 497 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমার সম্পর্কে আমি নিজেও খুব বেশী একটা জানি না । তাই কিছু বলার/লিখার সাহস পেলাম না , আমার সাইট http://www.fajlami.com


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আমার মতে-“আর্টিস্ট দের বাচানো উচিত” প্রতিবেশী দেশ ভারতের দিকে দেখুন- ওরা সিনেমা দেখতে টিকেট কেটে হলে যায় । এভাবে ওদের Film Industry বাঁচে । সবার আগে মন দরকার যা আমাদের নেই । আমরা কিন্তু ইচ্ছা করলেই পারি ।

    @Tanjamin: আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ভাই

    @Tanjamin:
    বাংলাদেশে যদি ভালো সিনেমা হতো অবশ্যই আমরা নিজেরাও টিকিট কেতে দেখতে জেতাম। বাংলাদেশ পইড়া আছে সেই সাকিব খান কে নিয়ে।
    আমরা অনেকেই কিন্তু মনপুড়া , টেলিভিশন এই টাইপের মুভি দেখতে গিয়েছি তাইনা ?

আপনার সাথে একমত 🙂
ধন্যবাদ

ভাই টেকটিউনস এ স্পাম বেড়ে গেছে এ নিয়া সচেতন করেন এবং এডমিনদের অবহিত করেন।
নয়ত আমার মত এই ব্লগ প্রেমিরা আর এখানে আসবেনা 🙁

    @sarwar sajeeb: হুম্মম ব্যাপার টা চোখে পড়েছে আমারো। দেখি ডেস্কে জানিয়ে

মাঝামঝি সমাধানও যে সম্ভব না তা না।যেমন গানের ক্ষেত্রে ইপি/ডেমো ভার্সনগুলো উন্মুক্তকরে দেয়া যেতে পারে।কিন্তু আমরা ক্রেতারাই সব,আমরা চাইলেই কেবল শিল্পী আর ভোক্তা অধিকার দুইই রক্ষা পাবে।

ফ্রি বা স্বাধীন যাই বলুন না কেন, সেটা বন্ধ হবেনা। আমার মতে আর্টিস্টদের কষ্ট বা খরচের ধারনা দিয়েই ফ্রি কন্টেন্ট দিয়ে ভোক্তা অধিকার দেয়া উচিত।
প্রতিটি কাজের জন্যেই তাদেরকে প্রচুর পরিশ্রম করতে হয়। তাই আমাদের উচিত সাইট গুলোতে মূল কপি কেনার অনুরোধ বা কাজের মূল্যায়ন সম্পর্কে ডাউনলোডের সময় জানানো।

আর গানের বেপারে বলি কপিরাইট এর উপোর ওই ভাবে কনো শাস্তি নাই।
কেও কনো আইনানুক ব্যাবস্থা নিচ্ছে না।
যদি এর বেপারে কনো নিতিমালা করে দেই তাহলে এমন হইনা।

    @রাকিব হাসান: আইন করে একটা ফাইলের অনলাইনে প্রচার বন্ধ করা সম্ভব না।

ভাই যদি ভাল movie মুক্তি পায় তাহলে অবশ্যই সবাই টিকেট কেটে দেখবে