ইউকে তে পড়াশুনা (ইউকে স্টুডেন্ট ভিসা আবেদন পদ্ধতি)

ইউকে তে সারা পৃথিবীর ৬০টির ও বেশি দেশ থেকে ছাত্ররা পড়াশুনা করতে আসে। সারা দুনিয়াতে ইউকের শিক্ষা বাবস্থা স্বীকৃতএবং প্রশংসনীয়। বাংলাদেশের অনেক ছাত্রদের সপ্ন থাকে ইউরুপ, অস্টেলিয়া, ক্যানাডা, ইউএসএ তে পড়াশুনা করার। কিন্ত উন্নত এই দেশ গুলুতে স্টুডেন্ট ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রধান প্রতিবন্ধকতা হল দুইটি ১) লেভেল অব ইংলিশ ২) অর্থনৈতিক সছছলতা।
আমি আজকে আপনাদের কে ইউকে তে স্টুডেন্ট ভিসা আবেদনের প্রক্রিয়া সম্পরকে ধারনা দেয়ার চেষ্টা করব। ইউকে তে স্টুডেন্ট ভিসা কেটাগরি টি কে পিবিএস (পয়েন্ট বেইজেড সিস্টেম) টায়ার ফউর জেনারেল স্টুডেন্ট (১৮+) ভিসা বলা হয়। পিবিএস (পয়েন্ট বেইজেড সিস্টেম) টায়ার ফউর জেনারেল স্টুডেন্ট (১৮+) ভিসায় মোট ৪০ পয়েন্ট। কাস (কনফারমেসন অব এক্সেপ্টেঞ্চ ফর স্টাডিজ) এর জন্য ৩০ পয়েন্ট আর ব্যাংক সছছলতার জন্য ১০ পয়েন্ট। সব ঠিক থাকলে একজন ছাত্র যখন ৪০ পয়েন্ট পাবেন তখন তিনি ভিসা পাওয়ার জন্য বিবেচিত হবেন।
বলা প্রয়ুজন যে ইউকে তে ওয়ার্ক পারমিট সহ স্টুডেন্ট ভিসা পাওয়ার শর্ত হল দুইটি ১) কলেজ বা ইউনুভারসিটি টির হাইলি ট্রাস্টেড রাঙ্কিং থাকতে হবে ২) কলেজ বা ইউনুভারসিটি টি গভমেন্ট ফান্ডেড বা সরকারি হতে হবে।
আবেদনের জন্য ন্যূনতম যোগ্যতাঃ এসএসসি, এইএসসি (ডি গ্রেড বেতিত) অথবা সমমান এবং আইএলস অথবা সমমান । আন্ডারগ্রেড এবং পোস্টগ্রেড পোগ্রাম এর জন্য আইএলস প্রতি বান্ড এ নুন্নতম ৫ দশমিক ৫ করে মোট ৬ থাকতে হবে। আর আইএলস প্রতিটি বান্ড এ ৪ দশমিক ৫ করে মোট ৫ থাকলে ফাউন্ডেশন কোর্স এ অথবা ডিপ্লোমা কোর্স এ আবেদন করা যাবে।
সছছলতার প্রমানঃ টাকা জমা দেয়ার নুন্নতম ২৮ দিনের পরের ব্যাংক স্টেইটমেন্ট এবং সারটিফিকেইট।
ইনার লন্ডনে হলে জমা টাকার পরিমান= থাকা খাওয়া বাবদ ৯০০০ পাউন্ড+ বকেয়া টিউশন ফী।
আউটার লন্ডনে হলে জমা টাকার পরিমান= থাকা খাওয়া বাবদ ৭২০০ পাউন্ড+ বকেয়া টিউশন ফী।
পাসপোর্ট আবশ্যকীয়।

আবেদনের প্রক্রিয়াঃ ইউকে এম্বাসির পরামর্শ হল অ্যাপ্লাই আরলি ফ্লাই আরলি। শেশন সুরু হয়ার নুন্নতম দুই মাস আগে কাজ শুরু করার উত্তম সময়।
ধাপ ১> ফোনের (+880-2-9676071, 01713 069183, 01713 481797, 01713 047471 01713 066230
01713 481798 , 01714 161385 ) মাদ্দমে এপনমেন্ট নিয়ে ঢাকা (ধানমন্ডি মেডিনুভা), চিটাগাং, বা সিলেট এ মেডিকেল করা। মেডিকেল ফি ৫৫১৫ টাকা
ধাপ ২> ব্যাংক এ (অনলাইন হলে ভাল হয়) দরকারি টাকা জমা দেয়া।
ধাপ ৩> কলেজ বা ইউনুভারসিটি্র নিয়ম মত অফার লেটার এর জন্ন আবেদন করা।
ধাপ ৪> কলেজ বা ইউনুভারসিটি্র হিসাবে টিউশন ফী ড্রাফ্‌ট বা টিটি করা।
ধাপ ৫> কলেজ বা ইউনুভারসিটি্র হিসাবে টিউশন ফী ড্রাফ্‌ট বা টিটি করার সাত বা তিন কর্ম দিবসের পর কাস (কনফারমেসন অব এক্সেপ্টেঞ্চ ফর স্টাডিজ) পাওয়া যাবে।
ধাপ ৬> এম্বাসিতে ইমেইলের [email protected] মাধ্যমে কাস ডিটেলস পাঠিয়ে এপঅনমেন্ট নেওয়া।
ধাপ ৭> অনলাইন বা ভিএএফ৯ ফরম এবং অ্যাপেন্ডিক্স ৮ যথাযথভাবে পুরন করে ১ কপি রঙ্গিন ছবি (৩৫ইন্টু ৪৫), ব্যাংক স্টেইটমেন্ট এবং সকল সারটিফিকেইট এর মুল কপি ফটু কপি সহ নির্দিষ্ট সময়ে ভিসা আবেদন কেন্দ্র ঢাকা বা সিলেট এ ভিসা ফি প্রদানপূর্বক আবেদন করতে হবে।
ধাপ ৮> ১৫ থেকে ২৫ কর্ম দিবসের মদ্ধে ফাইল ডেলিভারি দিবে।
বিদ্রঃ ইউকের ইউনুভারসিটি গুলুতে আইএলস ছাড়া আবেদনের সুযোগ আছে।

Level 0

আমি rahatbd। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 13 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 32 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি সাধারন মানুষ, ভালবাসি দেশকে, পরিবারকে, বন্ধুদেরকে আর টেকনোলজি কে ...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস