ডিজিটাল মার্কেটিং কী? ডিজিটাল মার্কেটিং A to Z

Level 4
শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর

ডিজিটাল মার্কেটিং শব্দটির সাথে আমরা কমবেশি সকলেই পরিচিত। কিন্তু এই ডিজিটাল মার্কেটিং কী? ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ কী? এবং কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করব? এই ধরনের প্রশ্ন প্রায়ই মাথায় ঘুরতে থাকে।

এই ধরনের প্রশ্ন যদি আপনার মাথায় ঘোর পাক খায় তাহলে আজকের টিউনটি আপনার জন্য। আজকের টিউনে শেষ পর্যন্ত সাথে থাকলে ডিজিটাল মার্কেটিং a to z সবকিছু জানতে পারবেন।

বর্তমানে সফল ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে নতুন উদ্যোক্তা সকলেই তার ব্যবসায়ের প্রসারের জন্য প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে জড়িত। অনেকেই এই বিষয় সম্পর্কে স্পষ্ট ধারনা রাখে না বিধায় ডিজিটাল মার্কেটিং এর কার্যকরী সুবিধাগুলো কাজে লাগাতে পারে না। আপনি যদি একজন ডিজিটাল মার্কেটার হতে চান কিংবা ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে নিজের ব্যবসাকে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে চান তাহলে পুরো টিউনটি পড়ুন।

ডিজিটাল মার্কেটিং কী?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর সংজ্ঞা

ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে বিস্তর ধারনা নেয়ার আগে জেনে নিন ডিজিটাল মার্কেটিং কাকে বলে। ডিজিটাল মার্কেটিং হলো ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে ব্যবসায় বা পণ্যের বিজ্ঞাপণ বা প্রচার করা। বর্তমানে প্রায় প্রতিটি মানুষের কাছেই ডিজিটাল প্রযুক্তি যেমন- মোবাইল, কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ রয়েছে। এই যে একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক সারা বিশ্বজুড়ে রয়েছে, এই নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়ে এখন মার্কেটং করা খুব সহজ হয়ে উঠেছে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে পণ্যের প্রচার করার পাশাপাশি অনলাইন মাধ্যমে বিক্রিও করতে পারবেন। আবার চাইলে আপনার অফলাইন বিজনেস এর প্রচারও অনলাইন মাধ্যমে করতে পারবেন। এতে আপনার বিজনেস এর ব্রান্ডিং খুব সহজেই হবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ কী?

ডিজিটাল মার্কেটিং যে সকল কাজ করে

মার্কেটিং ও ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ আপাতদৃষ্টিতে একই। আগে কোম্পানি কোনো নতুন পণ্য বাজারে আনলে ঐ কোম্পানির কর্মীরা মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পণ্যের প্রচার করত। আর এখন সেই কাজটি প্রযুক্তির কল্যাণে ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে করা যাচ্ছে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে কোনো ব্যবসায় প্রতষ্ঠান ও ঐ প্রতিষ্ঠানের পণ্য সম্পর্কে ক্রেতাদের কাছে সকল তথ্য তুলে ধরে। ফলে পণ্যের প্রচার হয় এবং বিক্রয় বৃদ্ধি পায়। পণ্যের প্রচার সঠিকভাবে করতে পারলে একটা সময়ে এসে ঐ কোম্পানি বা নির্দিষ্ট পন্যটি একটি ব্রান্ডে পরিনত হয়। মোদ্দা কথা ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ হলো ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে ব্যবসায় বা পণ্যের প্রচার করা।

ডিজিটাল মার্কেটিং কত প্রকার?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রকারভেদ

ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রকারভেদ করতে গেলে বেশ দীর্ঘ একটি তালিকা হয়ে যাবে। কেননা ডিজিটাল মার্কেটিং এর অসংখ্য শাখা রয়েছে। এখানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কয়েকটি জনপ্রিয় প্রক্রিয়া বা মাধ্যম সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

১. সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ব্যবসায়ের বিজ্ঞাপণ দিলে তাকে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বলে। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, রেডিট, লিংকডইন, পিন্টারেস্ট ইত্যাদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমরা প্রায়ই বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপণ দেখতে পাই। এটাই মূলত সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি পণ্যের প্রচারের পাশাপাশি সরাসরি পণ্য বিক্রয়ও করতে পারবেন।

২. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

স্বনামধন্য কিংবা নতুন কোনো কোম্পানির পণ্য ডিজিটাল মাধ্যমে কমিশন এর বিনিময়ে বিক্রি করে দেয়াকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলে। সহজ বাংলায় এটাকে দালালি ব্যবসায় বলেও অভিহিত করা যায়। বর্তমানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং খুব বেশি জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছে। বিশ্বের স্বনামধন্য বেশ কিছু কোম্পানি এই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে টিকে আছে।

৩. ইমেইল মার্কেটিং

আমাদের সকলের ফোনেই ইমেইল অ্যাপ্লিকেশনটি থাকে। আর আমরা নিয়মিত ইমেইল চেক করি কেননা এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগ মাধ্যম। এই ই মেইল এড্রেসে মাঝে মাঝেই বিভিন্ন কোম্পানি তাদের নতুন কোনো পণ্য সম্পর্কে তথ্য দেয়। কিংবা কোনো ডিসকাউন্ট অফার থাকলে তা ইমেইল এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়। তাদের বিজ্ঞাপণে প্রলুব্ধ হয়ে আমরা সেই সাইটে প্রবেশ করে পণ্যটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করি এবং পছন্দ হলে পণটি অর্ডারও করে ফেলি। এই যে ইমেইল এর মাধ্যমে ব্যবসায়ের প্রচার হলো ও বিক্রি হলো এটাই মূলত ইমেইল মার্কেটিং।

৪. মোবাইলের মাধ্যমে বিজ্ঞাপণ

অনেক সময়ই বিভিন্ন কোম্পানি থেকে প্রমোশনাল মেসেজ কিংবা সরাসরি কল আসে আমাদের মোবাইলে। এভাবে তারা তাদের কোম্পানির নতুন কোনো পণ্য কিংবা ডিসকাউন্ট অফার সম্পর্কে জানাতে চায়। এতে করে ব্যবসায়ের একটি কার্যকরী প্রচার নিশ্চিত হয়। সরাসরি মোবাইল ফোন এর মাধ্যমে এই যে ব্যবসায়ের প্রচার ও প্রসার হলো এটাই মোবাইল বিজ্ঞাপণ।

৫. ওয়েবসাইট বিজ্ঞাপণ

একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে পৃথিবীজুড়ে শতকরা ৭০ ভাগ ক্রেতা কোনো পণ্য কেনার আগে ইন্টারনেটে সার্চ করে তথ্য সংগ্রহ করে ও ভালো মন্দ যাচাই বাছাই করে। আপনার বিজনেস এর একটি সুসজ্জিত ওয়েবসাইট থাকলে ইন্টারনেটে সার্চ করে ক্রেতারা সকল তথ্য সহজেই পেয়ে যাবে। ওয়েবসাইটে আপনার ব্যবসায়ের সকল পণ্য সম্পর্কে সুসজ্জিত তথ্য রাখলে ক্রেতা আকৃষ্ট হবে। ফলে বিক্রয় বৃদ্ধি পাবে। ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে পণ্যের প্রচার ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি জনপ্রিয় পদ্ধতি।

এছাড়াও কনটেন্ট মার্কেটিং, রেফারেল মার্কেটিং, পে-পার ক্লিক, সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং ইত্যাদি ডিজিটাল মার্কেটিং এর আওতাভুক্ত।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে বলতে গেলে বলতে হবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ রয়েছে। যতোই দিন যাচ্ছে ততোই মানুষ প্রযুক্তির ওপর নির্ভর হয়ে পড়ছে। একটা সময়ে দেখা যাবে মানুষ কোনাকাটা করার জন্য এতো সময় ব্যয় করবে না। অনলাইন মাধ্যমেই বিশ্বস্ত কোনো সাইট থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলবে। তাছাড়া দিন দিন নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার উন্নয়নের ফলে মানুষ পুরোপুরি ইন্টারনেট নির্ভর হয়ে পড়ছে। তাই ডিজিটাল মার্কেটিং হয়ে উঠবে মার্কেটিং এর প্রধান শাখা। যারা এখন থেকেই ডিজিটাল মার্কেটিং দিয়ে কাজ করছেন তাদের অভিনন্দন। যারা এখনও ডিজিটাল মার্কেটিং নির্ভর ব্যবসায় পরিচালনার কথা ভাবছেন না, তারা ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওপর বিস্তর জ্ঞান অর্জন করে এই সেক্টরে ভবিষ্যৎ গড়ার চেষ্টা করুন।

ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স

ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স

ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে সঠিক ধারনা না থাকলে ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স করতে পারেন। বর্তমানে বিভিন্ন অনলাইন ও অফলাইন প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওপর কের্স এর আয়োজন করে থাকে। ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স এর মাধ্যমে আপনি একজন দক্ষ ডিজিটাল মার্কেটার হতে পারবেন৷ অন্য কোম্পানির ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে কাজ করতে পারবেন। নিজের ব্যবসায়ের প্রসার বৃদ্ধি করতে পারবেন৷ সেইসাথে ডিজিটাল মার্কেটিং ফ্রিলান্সার হিসেবে একটি উজ্জ্বল ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে আশাকরি পুরোপুরি ধারনা পেয়েছেন। এই সেক্টরে আগ্রহ থাকলে আজ থেকেই আরও বিস্তর তথ্য সংগ্রহ করতে থাকুন এবং নিজের ক্যারিয়ার গড়ুন ডিজিটাল মার্কেটিং এর ওপর। ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে আরও কোনো আইডিয়া বা তথ্য জানলে এই টিউনে টিউনমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

Level 4

আমি শারমিন আক্তার। শিক্ষার্থী, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, গাজীপুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 39 টি টিউন ও 24 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস