ডিজিটাল মার্কেটিং কত প্রকার ও কী কী?

ডিজিটাল মার্কেটিং আমাদের বর্তমান জীবনে ব্যাপকভাবে ব্যবহার হয়। আমাদের চোখের সামনে অনেক রকম ডিজিটাল মার্কেটিং এর উদাহরণ রয়েছে। টিভিতে যে অ্যাড দেখানো হয় তা বর্তমানে ব্যবহৃত একটি বিজ্ঞাপণ মাধ্যম যা Digital Marketing এর একটি জনপ্রিয় উদাহরণ। ফেসবুক, ইউটিউব, সার্চ ইঞ্জিন, ইমেইল প্রভৃতির মাধ্যমে ইন্টারনেটে ডিজিটাল মার্কেটিং পরিষেবা প্রদান করা হয়ে আসছে। হাতের কাছে যে মোবাইল আপনি দেখেন সেটাও কোননা কোনভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে জড়িত, সেটাতে ইন্টারনেট সংযোগ থাকুক বা না থাকুক।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি

বর্তমান যুগ তথ্যপ্রযুক্তির যুগ। এ যুগে তথ্য প্রযুক্তিকে কে কিভাবে ব্যবহার করবে তার উপর তার সাফল্য নিহিত থাকে। তথ্য ও প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারের জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং চালু হয়েছে। DIGITAL MARKETING শব্দটা দ্বারাই বোঝা যাচ্ছে এটা বর্তমান যুগের কোনও একটা এডভান্স কিছু।

যখন আমরা কোনও পণ্য (product), সেবা অথবা তার বিজ্ঞাপণ প্রচারণার জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার করি তখন সেটাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলা হয়। আপনার হয়ত মনে হতে পারে ই-কমার্স ডিজিটাল মার্কেটিং এর কোন অংশ নয়। না, আসলে ই-কমার্স ডিজিটাল মার্কেটিং এর সবথেকে বড় এবং কালজয়ী উদাহরণ।

বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তির এই যুগে ই-কমার্সের চাহিদা বাংলাদেশে অনেক জনপ্রিয় হচ্ছে এবং হবে। তাই বলতে পারি ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ই-কমার্সের একটা বড় গোষ্ঠী হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশের সকল কৃষকেরাও একদিন এখানে নিজেদের নাম লেখাবে। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রকারভেদ

ডিজিটাল মার্কেটিং বিভিন্ন প্রকার হতে পারে। তবে প্রধানত একে ছয় ভাগে ভাগ করা হয়।

  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং
  • ইমেইল মার্কেটিং
  • সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন
  • ওয়েব এনালাইটিক্স বা ওয়েব বিশ্লেষণ
  • সোশাল মিডিয়া মার্কেটিং
  • কন্টেন্ট মার্কেটিং

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং:

সকল অনলাইন মার্কেটিং সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং জিনিসটার সাথে যুক্ত। তাই একজন নতুন উদ্যোক্তাকে এই বিষয়ে যথেষ্ঠ জ্ঞান অর্জন করে নিতে হয়। কেননা এই জিনিসটা সকল মার্কেটিং এর সাথে বিন্দু মাত্র হলেই যুক্ত রয়েছে। তার জন্য সার্চ ইঞ্জিনে সবার উপরে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

ইমেইল মার্কেটিং:

এখন প্রায় সকলের কাছেই ই-মেইল পরিষেবা রয়েছে এবং এই ই-মেইল মার্কেটিং ব্যবহার করেই অনেক বড় বড় কোম্পানি তাদের বিজ্ঞাপণ চালাচ্ছে। ই-মেইল মার্কেটিং হলো বর্তমান যুগের সেরা মার্কেটিং। যোগাযোগের পাশাপাশি এটা বিজ্ঞাপণের একটা আলাদা স্থান দখল করে নিয়েছে।

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন:

ইন্টারনেট ব্যবহারে মানুষ এতটাই অভ্যস্থ হয়ে গেছে যে, কোন কিছু কেনার আগে একবার হলেও ইন্টারনেটে সেটা নিয়ে একটু ঘাটাঘাটি করেই ছাড়বে। আশাকরি আপনিও বাদ দেন নাই। তবে হয়ত কেউ কেউ একটু ব্যতিক্রম থাকতে পারেন। তো এই সুযোগে নিজের পেজে ভালো করে এসইও করে ভিজিটর জোগার করতে পারেন। তাছাড়া পেইড পদ্ধতিতেও আপনি সার্চ ইঞ্জিনে বিজ্ঞান বসিয়ে ট্রাফিক পেতে পারেন।

ওয়েব এনালাইটিক্স বা ওয়েব বিশ্লেষণ:

গুগল আমাদের তথ্য প্রতি নিয়ত বিশ্লেষণ করে এবং সেই অনুসারেই বিজ্ঞাপণ দেখায়। গুগলের এনালাইটিক্স নামের একটা প্রোগ্রাম প্রায় অধিকাংশ ওয়েবসাইটে থাকে যা আমাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে এবং সেই অনুযায়ী বিজ্ঞাপণ দেখায়।
সোশাল মিডিয়া মার্কেটিং:

ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সংখ্যা পৃথিবীর জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকের একটু বেশি হবে। সেই ব্যবহারকারীদের মধ্যে আবার ৭৫% লোক নিয়মিত সোশাল মিডিয়া ব্যবহার করে। তাই সোশাল মিডিয়া একটা চমৎকার মার্কেটিং স্পেস হিসেবে নিজের একটা যায়গা করে নিয়েছে। এটাই বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর জগৎ এ সেরার সেরা স্থান দখল করে আছে। ইউটিউব মার্কেটিং এবং ফেসবুক মার্কেটিং বাংলাদেশে জনপ্রিয় একটি মার্কেটিং।

কন্টেন্ট মার্কেটিং :

কন্টেন্ট মার্কেটিং এর চাহিদা ব্যাপক হারে রয়েছে বাংলায় এর চাহিদা থাকলেও সার্চ ইঞ্জিন বা ইন্টারনেট জগতে তথ্য কম থাকায় এটা একটু সমস্যার বিষয়৷ কিন্তু এখনো যা ইনকাম হয়। তাতে কোন সন্ধেহ নেই৷ কন্টেন্ট মার্কেটিং কতটা কার্যকর। তাছাড়া একটা পন্যের যাবতীয় সুবিধা অসুবিধা লিখে কোন পণ্যে কেনার জন্য উৎসাহী করলে অনেক সুন্দর ফলাফল পাওয়া সম্ভব। এটা প্রামাণিত হয়েছে।

মার্কেটিং যাইহোক, যেটাই করবেন একটু চিন্তাভাবনা করে করুন। নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে যদি নিজের কাজ শুরু করতে চান তাহলে আপনি নিজেকে প্রশ্ন করে দেখুন আপনার জন্য কোনটা ঠিক আছে তারপর সেটাকে ব্যবহার করে ডিজিটাল মার্কেটিং জগৎে লেগে পড়ুন। ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে কন্টেন্ট মার্কেটিং দিয়ে নিজের কাজ শুরু করলে আপনি অল্প খরচেই নিজের ব্যবসাকে দ্বাড় করাতে পারবেন। ফেসবুক বা সোশাল মিডিয়াতে ই-কমার্স নিয়ে কাজ শুরু করলে ডিজিটাল মার্কেটিং এর শুরুটা খুব ভালো হয়।

Level 1

আমি ইফতেখার নাইম। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 6 টি টিউন ও 4 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 9 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস