অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং গাইডলাইন ৩য় পর্ব

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ৩য় পর্বে আপনাকে স্বাগতম। ২য় পর্বে আলোচনা করেছিলাম অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি, ওয়েবসাইটের প্রয়োজনীয়তা এবং ট্রাস্টেড মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে। ৩য় পর্বে যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করবো সেগুলো হল প্রফিটেবল নিস, নিস অথরিটি এবং প্রোডাক্ট সিলেকশন সম্পর্কে। তাহলে চলুন শুরু করা যাকঃ

 

১। সিলেক্ট করুন একটি প্রফিটেবল নিসঃ

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক হল প্রফিটেবল নিস সিলেক্ট করা। যদি আপনি একটি প্রফিটেবল নিস টার্গেট করতে ভুল করেন তাহলে আপনি কখনই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফল হতে পারবেন না। সহজ ভাষায়, প্রফিটেবল নিস বলতে সেই কাজটিকে বুঝায় যে নিস নিলে আপনি স্বতঃস্ফূর্তভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন। আমি আপনাকে বলব কিভাবে আপনি একটি প্রফিটেবল নিস সিলেক্ট করবেন।

  1. প্রথমত চিন্তা করুন, যে আপনি কোন বিষয়ে আপনি ভাল এবং কোন কাজে আপনার অভিজ্ঞতা আছে। মনে করুন, আপনি একজন মেডিক্যাল প্রফেশনের তাহলে আপনার জন্য সবচেয়ে প্রফিটেবল নিস হল হেলথকেয়ার আইটেম নিয়ে কাজ করুন। যদি আপনি একজন ফুড কুকার হউন তাহলে আপনার জন্য প্রফিটেবল নিস হল ফুড আইটেম। যদি আপনি একজন বিউটিশিয়ান হউন তাহলে আপনার জন্য প্রফিটেবল নিস হল বিউটি আইটেম। অর্থাৎ আপনি আপনার নিজের দক্ষতার সাথে মিল রেখে নিস সিলেক্ট করবেন। কারন এতে আপনার সফলতার সম্ভাবনা বেশি এবং আপনি দ্রুত সফলতা অর্জন করতে পারবেন।
  2. দ্বিতীয়ত চিন্তা করুন, আপনি কোন নিস সিলেক্ট করলে স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করতে পারবেন। আপনি যেই নিস নিয়ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করতে পারবেন সেটি আপনার জন্য প্রফিটেবল নিস। যেহেতু আপনি এই নিস নিয়ে সাচ্ছন্দবোধ করেন এবং যে নিস সিলেক্ট করেছেন তাতে আপনার আত্ববিশ্বাস আছে, তাহলে এটি আপনাকে সফলতা এনে দিবে।
  3. তৃতীয়ত চিন্তা করুন, কোন প্রোডাক্টগুলো মানুষের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয়। মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রোডাক্টের মধ্যে আছে পোশাক, ফুড, ইলেকট্রনিক আইটেম ইত্যাদি। যেহেতু এই প্রোডাক্টগুলো মানুষের সব সময় লাগে, তাহলে এটিই আপনার জন্য প্রফিটেবল নিস। কারন এই প্রোডাক্টগুলো সেল করার সুযোগ থাকে বেশি। এই নিসগুলোর যেকোনো একটি নিয়ে কাজ করলে আপনি অবশ্যই সফলতা অর্জন করবেন।

নোটঃ এমন নিস কখনই সিলেক্ট করবেন না যেগুলো মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় না এবং একবার কিনলে আর ২য় বার কিনতে হয় না।

 

২। নিস অথোরিটিঃ

আপনি যে নিস নিয়ে কাজ করবেন অবশ্যই সেই নিস সম্পর্কে আপনার অথরিটি থাকা লাগবে। এছাড়া আপনি সেল করতে পারবেন না। আর সেল না হলে তো সফলতার কথা চিন্তাই করা যায় না। নিস অথরিটি মানে হল আপনি যে নিস নিয়েছেন সেই নিস সম্পর্কে আপনার দক্ষতা, অভিজ্ঞতা। মনে করুন আপনার নিস হল “ওয়েট লস”। এখন এই নিস সম্পর্কে আপনার কি দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা আছে সেটিই হল নিস অথরিটি। এই নিস অথরিটি আপনাকে সাহায্য করবে ভাল মানের কনটেন্ট লিখতে এবং নিস অথরিটিই আপনার সেল বৃদ্ধি করবে। আমি আপনাকে বলছি কিভাবে আপনি নিস অথরিটি অর্জন করবেনঃ

  1. যদি আপনার নিস হয় “ওয়েট লস” তাহলে আপনি ব্রাউজারের সার্চ অপশনে কি লিখুন “best weight loss blog”। তাহলে দেখবেন ওয়েট লস সম্পর্কে অনেক ব্লগ আসবে। আপনি সেখান থেকে টপ ১০টি ব্লগ সাইটের লিংক কপি করে রাখুন। আর নিয়মিত ব্লগগুলো পড়তে থাকুন। প্রতিদিন মিনিমাম ১ ঘন্টা সময় দিন ব্লগ পড়ার জন্য।
  2. মার্কেটপ্লেসগুলো তাদের প্রোডাক্ট সম্পর্কে কি তথ্য দিয়েছে সেগুলো ভাল করে আয়ত্ব করুন।
  3. তারপর আপনি ওয়েট লসের যে প্রোডাক্টগুলো নিয়ে মার্কেটিং করবেন সেইগুলোর রিভিউগুলো খুঁজে বের করুন। বের করার পর তাদের রিভিউগুলো পড়ুন, তাদের রিভিউ লেখার স্টাইলগুলো ফলো করতে পারেন।
  4. এভাবে আপনি ১ মাস ব্লগ এবং রিভিউগুলো নিয়মিত পড়তে থাকুন। ১ মাস পরে নিস সম্পর্কে ভাল আইডিয়া চলে আসবে। তখন আপনি আপনার নিস সম্পর্কে কনটেন্ট লিখতে পারবেন। এভাবেই আসতে আসতে আপনার নিস সম্পর্কে অথরিটি অর্জন করতে হবে।

যখন আপনি নিস অথরিটি অর্জন করবেন, তখনই আপনি ভাল মানে কনটেন্ট লিখতে পারবেন, ল্যান্ডিং পেজ বানাতে পারবেন এবং প্রচুর পরিমানে সেল করতে পারবেন। যদি নিস অথরিটি অর্জন করতে না পারেন তাহলে শুধু ক্লিক পাবেন, কোন সেল পাবেন না।

 

৩। প্রোডাক্ট সিলেকশনঃ

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে প্রোডাক্ট সিলেকশন গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। যদি আপনি সঠিক প্রোডাক্ট সিলেক্ট করতে না পারেন তাহলে কোন সেল আসবে না এবং কখনও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে  সফলতা অর্জন করতে পারবেন না আমি আপনাকে বলছি কি কি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে প্রোডাক্ট সিলেক্ট করবেনঃ

  1. প্রথমত আপনাকে দেখতে হবে মার্কেটপ্লেসগুলোতে কি কি প্রোডাক্ট আছে।
  2. দ্বিতীয়ত আপনাকে জানতে হবে এবং খুঁজে বের করতে হবে মানুষ কি কি প্রোডাক্ট চায়?
  3. আপনাকে সেই প্রোডাক্ট সিলেক্ট করতে হবে যেটি মানুষ ইন্সট্যান্টলি কিনে। যদি ইন্সট্যান্টলি বা কয়েকদিনের মধ্যে না কিনে তাহলে সেই ধরনের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে লাভ নেই।
  4. যেসকল প্রোডাক্ট অনেক যাচাই করে কিনে সেই সকল প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করা যাবে না। ২টি কারনে করা যাবে না। প্রথম বিষয়টা হল আপনি যে কোম্পানির অ্যাফিলিয়েট করছেন তাদের কুকি ডুরেশনের সময় কতটুকু? যদি ১ দিন হয় তাহলে কখনই সম্ভব না। আর আপনার লিংকে গিয়ে যদি কুকি ডুরেশনের পরে কিনে তাহলে আপনি তো কমিশন পাবেন না। তাহলে আপনার তো কোন লাভ নেই। দ্বিতীয় হল এমন হতে পারে আপনি যে প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করছেন কাস্টমার অন্য আরেকজন মার্কেটারের সাইটে ভাল রিভিউ পেয়েছে যার কারনে কাস্টমার আপনার সাইটে আসবে না। এটাই স্বাভাবিক।
  5. আপনি যে নিস নিয়ে কাজ করবেন, অবশ্যই সেই নিসের বেস্ট সেলার প্রোডাক্টগুলো সিলেক্ট করতে হবে। এতে কাস্টমার সহজে বুঝতে পারবে যে এই প্রোডাক্টের মান ভাল।
  6. আপনাকে অবশ্যই ৪ রেটিং বিশিষ্ট প্রোডাক্টগুলো সিলেক্ট করতে হবে। এর কম রেটের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে সফলতা অর্জন করা যাবে না। কম রেটিং এর কারন হল সেই প্রোডাক্টগুলো মানুষ কিনে না বা কিনলেও কম।
  7. আপনি এমন একটি প্রোডাক্ট সিলেক্ট করবেন যার দাম কমপক্ষে ৮০-১০০ ডলার। এর চেয়ে কম দামের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে লাভ নেই। কারন আপনি যদি ১০০ ডলারের প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে ৮-১০ ডলার না পান, তাহলে কাজ করে কোন লাভ নেই। এটি ফ্রেন্ডলি রিটার্ন হয়না।
  8. আপনি যে প্রোডাক্ট সিলেক্ট করবেন অবশ্যই সেই প্রোডাক্টের রিভিউ যেন ২০ বা তার চেয়ে বেশি হয়। কারন চেয়ে কম রিভিউর প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করা যাবে না। তাছাড়া প্রোডাক্টের রিভিউগুলো পজেটিভ না নেগেটিভ তা দেখে নিতে হবে। নেগেটিভের পরিমাণ বেশি হলে সেই প্রোডাক্ট নিয়ে কখনই কাজ করা যাবে না।

 

উপসংহারঃ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সফলভাবে করার জন্য প্রতিটি বিষয় গুরুত্বসহকারে পরিপূর্ণ করতে হবে। সামান্য  ত্রুটি করা যাবে না। কারন কোন একটির মধ্যে ত্রুটি হলে আপনি সফল হতে পারবেন না। পোস্টটি ভাল লাগলে টিউমেন্টে জানাবেন। জাতে লিখার আগ্রহ আরও বেড়ে যায়। পরবর্তী পর্বের অপেক্ষায় থাকুন ইনশাআল্লাহ

Level 0

আমি মোহাম্মাদ আলী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

হাই বন্ধুরা, আমি মোহাম্মাদ আলী। আমি একজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার এবং বাংলায় ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে লেখা-লেখি করি। আমি এই ব্লগের ফাউন্ডার। প্রয়োজনে ব্লগটি ঘুরে আসতে পারেনঃ Blog: https://digitalmarketingsoldier.com


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস