ফেসবুক হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচার ৬ টি উপায়

Level 1
১০ম শ্রেণী, উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ঢাকা

বর্তমানে আমরা সবাই কোনো না কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করেই থাকি। তার মধ্যে একটি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক। আমাদের সবারই এখন ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট রয়েছে। সকল বয়সের মানুষই এই ফেসবুক ব্যবহার করতে পারে। এটির মাধ্যমে সবাই নিজেদের বন্ধু-বান্ধবের সাথে কথা বলা থেকে শুরু করে নিজেদের ছবি ভিডিও শেয়ার করে থাকে। কিন্তু এই ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেভাবে দিন দিন বাড়ছে সেইভাবে এই ফেসবুকে প্রতারণার ফাঁদ ও বেড়ে যাচ্ছে। অনেক সময়ই এইসব ফাঁদে পড়ে ফেসবুক আকাউন্ট হ্যাক হয়ে যায়। এতে অনেক সময় মানুষ অনেক ধরনের ক্ষতির সম্মুখীনও হতে পারে। অনেকের বাক্তিগত তথ্য, ছবি ও ভিডিও চুরি হয়ে যেতে পারে। তখন সে বিশেষ করে মেয়েরা হয়রানির শিকারও হাত পারে। তাই আমাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যাতে হ্যাক না হয় তার জন্য কিছু কৌশল আমরা অবলম্বন করতে পারি। নিচে এমন ৬ টি পদক্ষেপ বলা হলো যার দ্বারা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচা সম্ভব।

1. জাটিল পাসওয়ার্ড:

হ্যাকারদের হাত থেকে নিজেদের অ্যাকাউন্ট বাঁচাতে আপনাকে অবশ্যই একটি জটিল পাসওয়ার্ড দিতে হবে। আপনারা আপনাদের পাসওয়ার্ডে বড় হাতের অক্ষর ও ছোট হাতের অক্ষরে সংমিশ্রণে তৈরি করতে পারেন। এছাড়া এক যেকোনো বিশেষ চিহ্নও পাসওয়ার্ডে ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে হ্যাকারের আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করতে পারার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়। কিন্তু এখানে বিশেষ লক্ষণীয় একটি বিষয় হচ্ছে পাসওয়ার্ড এতটাও জটিল কর যাবে না যাতে পরবর্তীতে আপনারই সেটা মনে না থাকে। তখন প্রয়োজনের সময় আপনিও বিপদে পড়ে যেতে পারেন।

2. ii) ডাবল Authentication:

 

ফেসবুকের সেটিংসে গিয়ে প্রাইভেসি নামক অপশন এ ক্লিক করলে সেখানে Two-factor Authentication অপশন পেয়ে যাবেন। সেটিকে আপনার অবশই চালু করে রাখবেন। সেইখানে যদি আপনারা মোবইল নাম্বার দিয়ে যদি অপশনটি চালু করেন তাহলে আপনার নাম্বর ব্যতীত অনা কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। এখন আপনাদের সিম হারিক গেলে তখন আপনারা কি করবেন সেই প্রশ্ন মনে জাগতে পারে। তার অন্য সেই খানেই নিচে কোডের একটি অপশন দেওয়া থাকবে। সেই কোড ব্যবহার করে আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে ঢুকতে পারবেন কিন্তু শুধু একবারের জন্য। পরবর্তীতে আপনাকে নাম্বার পরিবর্তন করে ফেলতে হবে।

3.  অপরিচিত লিঙ্ক এ প্রবেশ না করাঃ 

আপনারা অনেক সময় অপরিচিত লিঙ্ক এ প্রবেশ করি যা একদমই উচিত নয়। এতে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যেতে পারে। আমাদেরকে অনেক সময় ইমেইল এর মাধ্যমে বিভিন্ন লিঙ্ক পাঠানও হয়। এছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় লোভনীয় কিসছু পুরস্কার এর জন্য লিঙ্ক এ প্রবেশ করার কথা বলা হয়ে থাকে। যদি আপনি না জেনে সেই লিঙ্ক এ  প্রবেশ করেন তাহলে আপনার ব্যক্তিগত সকল তথ্য প্রতারক চক্রের কাছে চলে যাবে।

4. গুগলে পাসওয়ার্ড সেভ করে না রাখাঃ

অনেক মানুষই এখন গুগলে পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখে। কিন্তু আপনার ফোন যদি অন্য কারো হাতে দেন তখন সে খুব সহজ এ আপনার পাসওয়ার্ডটি দেখে নিতে পারবে। তাই আপনি যদি অনেক বেশি ভুলো মনের মানুষ না হন তবে পাসওয়ার্ড সেভ করে রাখবেন না।

5. না জেনে কোন অ্যাপ ইন্সটল করবেন নাঃ

আমাদের মধ্যে অনেকে কিছু অপ্রয়োজনীয়ও অ্যাপ ইন্সটল করে রাখি। তখন সেই অ্যাপ এর মাধ্যমেও হ্যাকার আপনার আক্যাউন্ট হ্যাক করে ফেলতে পারে। আপনি কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে গেলে দেখি বিভিন্ন ধরনের পারমিশন চায়। আপনি একবার সেই গুলো চালু করে দিলে। আপানার ফোনের সকল নিয়ন্ত্রন হ্যাকার এর কাছে চলে যায়। তখন সে শুধু ফেসবুক নয় বরং আপনার ফোনের সব তথ্য চুরি করে ফেলতে পারে।

6. ফিসিং সাইট :

ফিসিং সাইট হলো এমন ধরনের ওয়েবপেজ যেখানে যেখানে ফেসবুকের মত ইন্টারফেস দেখালেও সেটি প্রকৃতপক্ষে ফেসবুকে ইন্টারফেস হয় না। এই সকল ওয়েবসাইট থেকে খুব সহজে হ্যাকাররা মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য যেমন ফেসবুকের পাসওয়ার্ড এইসব চুরি করে থাকে। অনেক সময় মানুষ বুঝতে পারে না যে কিভাবে তার ফেসবুকের পাসওয়ার্ড অন্যের হাতে গেল। বর্তমানে এ ফিসিং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মানুষের ফেসবুক পাসওয়ার্ড চুরি হওয়ার সম্ভাবনা বেড়েছে। তাই এই সকল ওয়েবসাইটে নিজেদের ফেসবুক পাসওয়ার্ড না দেওয়া ভালো।

 

উপরের এই সকল উপায় কেও যদি অনুসরণ করে তবে কোনদিন তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হবে না।

Level 1

আমি স্বচ্ছ সাফায়েত। ১০ম শ্রেণী, উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 8 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস