এআই এর সুবিধা

এআই নিয়ে কথা

যে রোবটের হাতে আমাদের ভবিষ্যত
আসসালামু আলাইকুম, আশাকরি সকলে ভালো আছেন।
আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই এর জনপ্রিয়তা বিশ্বব্যাপী। এর জনপ্রিয়তা বর্তমানে অনেক বেশি এবং এ নিয়ে মানুষের কৌতুহলের শেষ নেই। এর বর্তমান, ভবিষ্যত নিয়ে মানুষের প্রশ্নের শেষ নেই। বলা হয়ে থাকে, বর্তমানের সব কাজ এআই দ্বারা ১২০ বছর এর মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। এআই মানব সভ্যতার একটি যুগান্তকারী আবিস্কার। এই এআই মানবজীবনের ঘটে চলা কাজগুলো যেগুলো ঘন্টার পর ঘন্টা করা লাগত তা কয়েক সেকেন্ডেই করে দেয়। এবং দৈনন্দিন কাজ গুলোও সহজে করা যায়।
সাথে আমাদের পথচলা কেউ সহজ করে দেয়। এ আই এর শ্রেণীর আরেকটি যুগান্তকারী আবিষ্কার রোবট, যা বর্তমানে প্রায় মানুষের মতোই কথা, কাজ করতে পারে এমনকি একটি রোবট একটি দেশের নাগরিকত্বও পেয়েছে। প্রত্যেক জিনিসের ভালো ও খারাপ দিক থাকে। এআই এর সুবিধার পাশাপাশি অসুবিধাও রয়েছে। অবশ্যই খারাপ দিক গুলোকে সংশোধন করা উচিত। এবং এই প্রযুক্তিকে সামনের দিকে আগানো উচিত। যাতে জীবনযাপন আরো ভালো হয়। আজ আমি এআই এর ভালো দিক অর্থাৎ সুবিধা নিয়ে কথা বলব তাহলে চলেন বেশি কথা না বলে শুরু করি।

এআই এর সুবিধা

ভুল না করা

-
আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স কখনো ভুল করবেনা। কারন এটির কাছে সব তথ্যের এক্সেস থাকে। মানুষের যেসব কাজ ভুল হয় সেগুলো এআই নির্ভুল ভাবে সম্পুর্ণ করতে পারে। হ্যাঁ এআই ভুল করতে পারে কিন্তু যদি প্রোগ্রামিং সঠিক ভাবে করা হয় তাহলে তা কখনো ভুল করবেনা। যদিও যান্ত্রিক ত্রুটির কথা আলাদা।

তাড়াতাড়ি সমাধান দেওয়া

-
এআই বলার সাথে সাথে উত্তর দিতে পারে। এটি পার্সোনাল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করবে। যে সমাধানের জন্য কিছু নির্দিষ্ট সময়ের প্রয়োজন হয় তা এআই দ্বারা নিমেষেই সমাধান পাওয়া যায়। এই কারনে এআই চ্যাটবটগুলো দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

২৪/৭ সার্ভিস পাওয়া

-
মানুষের বিশ্রামের প্রয়োজন হলেও এআই সবসময় কাজ করবে। এটি আপনার সহকারী হিসেবে ২৪ ঘন্টাই আপনাকে সহায়তা করবে। যার কারনে আপনি সবসময় আপনার সমস্যা গুলোর সমাধান করতে সাহায্যকারি হাত পাবেন।

কাজ তাড়াতাড়ি করা

-
এ আই দিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টার কাজ খুব তাড়াতাড়ি করতে পারবেন কিছু সময়ের মধ্যে। ওয়েবসাইট তৈরি গ্রাফিক্স ডিজাইন এর মত কাজ যেগুলা অনেক সময় লাগতো তাই কিছু সময়ের মধ্যে করা সম্ভব হচ্ছে। যার কারণে কাজের গতি বেড়েছে এবং খরচ ও সময় ও কম লাগছে।

নিজের মতামত দেয়া

-
যেহেতু সবসময় আপনার পাশে এ আই থাকবে সে ক্ষেত্রে আপনার সকল সমস্যার সমাধান দিতে পারে। এতে আপনার সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আরেকজন সহযোগী পাবেন। সে নিজের মতামত আপনাকে জানাবে যাতে আপনি সবচাইতে ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

কাজ সহজ করা

-
এ আই প্রযুক্তি যতদিন উন্নত বা প্রতিষ্ঠিত হতে থাকবে মানুষের কাজ সহজ হতে থাকবে। এআই প্রযুক্তি দ্বারা তৈরিকৃত পণ্য রোবট, রোবটিক ভ্যাকিউম ক্লিনার, সেন্সর লাইট, google নেস্ট বা এলেক্সার মতো স্মার্ট গ্যাজেট প্রতিদিনই মানুষের কাজ সহজ করছে। এআই এর কারনে বাসার কাজগুলো খুব সহজপই করা যাচ্ছে

লাভ বেশি হওয়া

-
এআই এর রোবটের কারণে মজুরি খরচ, সেলস বাড়ানো, দাম ঠিক করা এমনকি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য এ আই সাহায্য করবে। যা যে কোন কোম্পানির জন্য ভালো এবং একটি এটি ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

এছাড়াও আরো অনেক সুবিধা রয়েছে :-

ভালো উত্তর দেওয়া
তারাতাড়ি সমাধান নিতে সাহায্য করা
স্বচ্ছতা
বিশ্বাস
তথ্যের উৎস সহজ হওয়া

শেষ কথা

প্রত্যেক জিনিসের ভালো ও খারাপ দিক থাকে। এআই আমাদের বিজ্ঞানীদের একটি যুগান্তকারী আবিষ্কার। এ আই সব সময় মানুষের কল্যাণের জন্য তৈরি এবং মানুষের জন্য সব সময় কাজ সহজ করার জন্যই কাজ করতে পারলে এটি অবশ্যই একটি ভালো ভাবে বিশ্বতে ছড়িয়ে দেয়া জরুরি

এতদুর আসলেন তার মানে আশাকরি নিশ্চয়ই আর্টিকেল টি ভালো লেগেছে। ভাল লাগলে জোসস দেয়ার অনুরোধ রইলো।
ধন্যবাদ

Level 1

আমি মাসুমা মিরা। Field officer, Sfdf, Ishwardi। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি টেকটিউনস এ আর্টিকেল লিখি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস