এআই কী মানবজীবনের জন্য ঝুকিপূর্ণ

এআই কী মানবজীবনের জন্য ঝুকিপূর্ণ

রোবটের ছবি
এআই মানবজীবনের অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠছে। যদিও বর্তমানে এটি সকল মানুষের কাছে পরিচিত নাম নয় তারপরও এটি খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এআই মানবজীবনকে সহজ করার জন্য তৈরি। বর্তমান এআই গুলো খুব বেশি কিছু করতে না পারলেও তা কিন্তু দিন দিন আরও শক্তিশালী হচ্ছে। আগে যা মানুষ কল্পনা করতে পারেনি তা বর্তমানে সম্ভব হচ্ছে এই প্রযুক্তির কারনে। হতে পারে কয়েকদিন পর তা মানুষের মতোই কাজ করার মত আধুনিক হয়ে যাবে। হতে পারে এই এআই সামনে আরও উন্নত হয়ে ঘন্টার পর ঘন্টার কাজগুলো কয়েক সেকেন্ডে করে দিবে। শুধু ভবিষ্যতে যে হবে তা নয় এমনকি তা বর্তমানেও হচ্ছে। আগে যে ছবিগুলো গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে একটা এমাউন্ট খরচ করার পর করা লাগত তা এখন কয়েক সেকেন্ডই করা সম্ভব হচ্ছে। সামনে হয়তো আরও কঠিন কাজ করা যাবে। অনেকে হয়তো এটাকে আশীর্বাদ হিসেবে দেখলেও এটা কিন্তু মানবজাতির জন্য একটি দুঃখের কারন হতে পারে।

কারণ ইতোমধ্যেই এটি ডাটা এন্ট্রি এর মত জব প্রায় শেষ করে দিয়েছে। আমি তো শুধুমাত্র ডাটা এন্ট্রির কথা বললাম কিন্তু বর্তমানে আরো অনেক জব রয়েছে শেষ করার মত। যেমন কম্পিউটার প্রোগ্রামার, কোডার, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার এবং ডাটা এনালিস্ট কম্পিউটার প্রোগ্রামিং এর মত আরও অনেক। যা কিন্তু কোনো ভাবেই মানবজাতির জন্য কল্যাণকর নয়। এছাড়া এআই পরিচালনা করার জন্য কিন্তু অনেক বড় ডাটা সেন্টারে প্রয়োজন হয় কারণ সেখানে অনেক তথ্য রাখার প্রয়োজন হয়। এআই গুলো কিন্তু মানুষের প্রাইভেট তথ্য রাখে। তারা আপনার একাউন্টের যাবতীয় তথ্য কিন্তু তারা নিজেদের কাছে রাখে। ওরাও তারা এই ডাটা গুলো ব্যবহার করার পারমিশন কিন্তু অ্যাপ ওপেন সাথে সাথে নিয়ে নেয়। যা কিন্তু মানুষের নিরাপত্তা জনিত যে কোন ধরনের সমস্যা করাতে পারে। এছাড়া এর উত্তর গুলোতে স্বচ্ছতার অভাব দেখা দিতে পারে। অপরাধগত সমস্যাও সংগঠিত হতে পারে। এছাড়া পরিবেশগত, আইনগত বিভিন্ন দিকে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এই এআই আরো উন্নত হবে সাথে এআইএর যেসব নতুন নতুন প্রযুক্তি অর্থাৎ রোবট এর মতো জিনিস গুলো তৈরি হবে সেগুলো কিন্তু বিভিন্ন ধরনের ইন্ডাস্ট্রি বা কোম্পানির চাকরি কমিয়ে দিতে পারে। আরেকটি বড় সমস্যার যা নিয়ে বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন মানুষ চিন্তায় রয়েছেন তা হল, এটা কি মানবজাতাকে ছাড়িয়ে যাবে?। সামনে এআই এর প্রভাব আরো অনেক বেড়ে যাবে যাকে না আগামীতে মানবজাতির জন্য অশুভ কিছু বয়ে আনতে পারে। এআই এর একটি জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান ওপেন এ আই এর প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্ক এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি মনে করেন এই এআই মানব জাতিকে ছাড়িয়ে যাবে যাকিনা মানুষ জাতির জন্য হুমকির কারণ হবে। স্টিফেন হকিংস তার মৃত্যুর আগে এ ধরনের কথা বলেছিলেন। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। অল্টম্যান বলেছেন, এ আই নিয়ন্ত্রণে একটি সংস্থা তৈরি করা প্রয়োজন। এছাড়া আরো অনেক ব্যক্তি এআইকে নিয়ে সমস্যার কথা জানিয়েছেন, যার উপর শীঘ্রই কোন ব্যবস্থা নিয়ে প্রয়োজন। শুধুমাত্র যে নেতিবাচক তা নয় অনেক ইতিবাচক হিসেবেও বিষয়টিকে দেখছে। তারা বলছেন যে এআই কখনো মানুষ কে ছাড়া সামনে যেতে পারবে না।

শেষ কথা

যাই হোক এ আই এর যেমন ভালো দিক রয়েছে তেমন খারাপ দিকও রয়েছে। শীঘ্রই এইসব বিষয় নিয়ে একটি সংস্থা তৈরি করা প্রয়োজন যা কিনা এআই এর নিয়ন্ত্রক হিসেবে কাজ করবে। এআই যেমন মানুষের জীবন সহজ করছে তেমনি তা মানব জাতিকে ঝুঁকির মধ্যেও ফেলছে। প্রযুক্তি ও মানব জাতির মধ্যে একটি ব্যালেন্স তৈরি করার না গেলে কিন্তু সামনে সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে। এআইয়ের উপর নির্ভরশীল না হয়ে একে সুবিধার মতো ভোগ করলে হয়তো এই সমস্যা থেকে বেঁচে যাওয়া যাবে। আজকের জন্য এইটুকুই, ধন্যবাদ

Level 1

আমি মাসুমা মিরা। Field officer, Sfdf, Ishwardi। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 মাস 4 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি টেকটিউনস এ আর্টিকেল লিখি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস