উপহার নিন বিশ্বখ্যাত এন্টিভাইরাস Eset Smart Security (জেনুইন লাইসেন্সসহ)! ১০০% কাজ হবেই, না দেখলে আফসোস হবে!!

السلام عليكم আসসালামু আলাইকুম।
সুপ্রিয় টিটি সাইটের সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা। এবং আমার প্রকাশিত ১১৫ তম টিউনে স্বাগতম। ভাবছি, আজকের ১ম টিউনটি অন্যকোন বিষয় দিয়ে শুরু করব। যেখানে প্রায় সকলেরই কাজে দিবে। তাই টিউনটি শেয়ার করছি এন্টিভাইরাস টিপস্ হিসাবে।
আমরা অনেকেই Antivirus Software ব্যবহার করি। এমন কোন পিসি ব্যবহারিকে খুঁজে পাওয়া দুষ্কর যারা এন্টিভাইরাস ব্যবহার করেন না। এই এন্টিভাইরাস আবার অনেকে ফ্রি এবং ক্রয় করে ব্যবহার করে। এর মধ্য অবশ্য ফ্রির সংখ্যাটাই বেশী। Antivirus যেটাই ব্যবহার করি না কেন তাকে যদি প্রতিনিয়ত Update না করা হয় তাহলে ক্ষতিকর ভাইরাসের বিপক্ষে কোন কাজে আসবে না।

ইসেটের কার্যকারীতা ও বৈশিষ্টবলী

আমি এই পর্যন্ত নিজে যতগুলো এন্টিভাইরাস ব্যবহার করেছি। ইসেটের সাথে কারোর তুলনা হয়না। যদি প্রশ্ন করা হয় বর্তমানে কোন এন্টিভাইরাস টপ লিডার হিসাবে সবার উপরে? এখানে আমি ইসেটকেই সবার শীর্ষেই বলব। আরও বলব এখন ইসেটের প্রতিদ্বন্দী শুধু ইসেটই। বর্তমানে এন্টিভাইরাস হিসাবে ১ম Eset, ২য় Norton, ৩য় Kaspersky অবস্থানে আছে। তাছাড়া Eset একটি শান্ত শীষ্ট এন্টিভাইরাস। বিশ্বের প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউজার এটি ব্যবহার করছে। এবং পৃথিবীর প্রায় ১৯০ টি দেশেই এটির অনুমোদিত ডিলার রয়েছে। এর নানাবিধ বৈশিষ্ট আছে যেখানে অন্য এন্টিভাইরাসে পাবেন না। যেমন-

১। এটি পিসিকে কখনোই  স্লো করেনা। বরং পূর্বের থেকে পিসির গতিকে সাবলিল ও গতিশীল করে তোলে।
২। অযথা Ram এর  জায়গা দখল করেনা।
৩। ডাউনলোড ফাইল আকার বেশী নয়। যে কোন মডেম থেকে সহজেই ইনষ্টল করা যায়। কিন্তু অন্য এন্টিভাইরাস ডাউনলোডের ক্ষেত্রে বিরক্তিকর যেমন- নর্টনের প্রথমদিকে ডাউনলোড ফাইল এর  আকার প্রায় ১৩০ এমবি. ক্যাসপার স্কাই এর তাই। ইসেটের মাত্র ১৫-২৫ এমবি.
৪।  Eset  স্প্যাম মেইল ধরতে অত্যন্ত পটু।
৫। যে কোন সন্দেহজনক সাইটকে Automatic ব্লক করে দেয়।
৬। মাসে ২ বার হলেও আপডেট করতে পারবেন- যারা জিপি সীম কে ইন্টারনেট হিসাবে Use করেন, তারা ১০ টাকা ভরলেই হবে। অর্থাৎ ১৫ দিনে আপডেট ফাইল নামাতে সাইজ মাত্র ২ মেগাবাইটের মত লাগবে। কিন্তু অন্য সকল এন্টিভাইরাসে প্রতিনিয়তই আপডেট সচল রাখতে হয়।
৭। User Interface অসাধারন ও  সহজে বোধগম্য।
৮। যে কোন ভাইরাস পাওয়া মাত্রই ও ভাইরাস যুক্ত ফাইলকে Automatic ব্লক করে দেয়। ফলে পিসিতে কোন ভাইরাস ক্ষতি করতে পারেন।
৯। অন্য এন্টিভাইরাস USB কে ডিটেক্ট করতে পারেনা। আবার নিজেদের স্ক্যান করে দেখিয়ে দিতে হয়। কিন্তু ইসেট নিজেই ইউএসবিকে ডিটেক্ট করে নেয় এবং স্ক্যান করার জন্য তৈরি থাকে।

Eset  কে কিভাবে ইনষ্টল করবেন?

পূর্বে Eset Install করা অনেক সহজ ব্যাপার ছিল। অর্থাৎ পূর্বে Eset  সাইট থেকে যে কোন ফাইলকে ডাউনলোড করে নিলে শুধু Password ও Serial Key দিলেই হত। তাছড়া Download ফাইলকে অফলাইন হিসাবে যে কোন সময় পূনরায় ইনষ্টলের কাজে লাগানো যেত। বর্তমানে Eset Vendor অনেক চালাক হয়ে গেছে।  যেখানে অন্য এন্টিভাইরাস কোম্পানীর অফলাইনে Install এর সুবিধা দেয়  কিন্তু ইসেট এখানে অফলাইনের মত Install এর সুযোগ বন্ধ করে দিয়েছে।  তাই Install করতে হলে ইসেটের সাইট থেকে Live Install করতে হবে। অবশ্য যাদের পিসিতে পূর্বে ইসেটের ফাইল Download করা অআছে (প্রায় ৫৮ MB সাইজের) তারা অফলাইনে Install  করতে পারবেন। কিন্তু সমস্যা একটি থাকছে যখনই নতুন করে আপডেট করা হচ্ছে তখন পূর্বেকার Install system কে ইসেট সার্পোট করছেনা। যেমন আমি পূর্বেকার System এ-ফাইল ডাউনলোড করতে গিয়ে ৪ বার ধরা খেয়েছি। দেখা গেছে এখানে সবই ইনষ্টল ও আপডেট হয়েছে কিন্তু ফাইল Missing করছে ইসেট সঠিকভাবে কাজ করছেনা। তাই সবচেয়ে উত্তম কাজ হল- Eset server থেকে সরাসরি Install ও Update করা। কিংবা অফলাইন ফাইল নামিয়ে তা ইনস্টল করা।

  • ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি ডাউনলোড করে নিন অফিসিয়াল সাইট হইতে এখানে

চিত্রের মাধ্যমে ইসেট ইনষ্টল ও সক্রিয় করুন

মনে করি আপনি সাকসেস ভাবে ইসেটের ফাইলটি ডাউনলোড করতে পেরেছেন। তাহলে এবার ইনস্টলের পালা। আমি চিত্র আপলোড করে দিচ্ছি। আপনারা চিত্রের দিকে ভালভাবে লক্ষ্য করলে সফলভাবে ইনস্টল করতে পারবেন। তাহলে শুরু করি।
১। ডাউনলোকৃত ফাইলটিতে ক্লিক করুন ইনস্টলের জন্য। চিত্র আসলে তাতে Continue তে ক্লিক করুন

২।  চিত্রের দিকে লক্ষ করে টিকমার্ক সহ ইনস্টলে ক্লিক করুন
 ৩। ইনস্টল প্রসেস হতে থাকবে
 ৪। সাকসেস হলে Done বাটনে ক্লিক করবেন এবং লাইসেন্স একটিভেশনের জন্য একটি ফাঁকা ঘর বিশিষ্ট চিত্র আসবে। সেখানে লাইসেন্স কোড প্রয়োগ করতে হবে। লাইসেন্স কোড আমার টিউনের সবার নিচের লিংক হতে নামিয়ে নিবেন।
৫।  লাইসেন্স কোড একটিভ/সক্রিয় করার জন্য আপনার ইন্টারনেট কানেকশন চালু করুন। ইন্টারনেট চালু হলে একটি বার্তা আসবে। এখানে পাবলিক নেটওয়ার্ক নির্বাচন করলেই হবে। কিংবা হোম নেটওয়ার্ক হলেও চলবে।
৬।  লাইসেন্স কোড সঠিক ভাবে প্রয়োগ করলে একটি চিত্র আসবে। সেখানে Done বাটনে ক্লিক করুন।
৭। এবার এন্টিভাইরাসটি আপডেট করুন ও আপডেট হতে থাকবে
৮। ব্যাস! কাজ শেষ। এবার লাইসেন্স কী শো করবে পরিপূর্ণ ১ বছরের জন্য।
  •  Eset License Key Download করুন

 এখানে 

 সর্বশেষ

😆 😛 আশা করি, টিউটোরিয়ালটি অনুসরন করে এবার নিজেই উপরোক্ত কাজটি করতে পারবেন। ব্যাস! এবার আরামসে ব্যবহার করুন ৩৬৫ দিনের জন্য ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি। এবং পিসিকে রাখুন ১০০% ভাইরাস মুক্ত। আজ এই পর্যন্তই। পোষ্টটির কোন ভূল ত্রুটি দৃষ্টি গোচর হলে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার আহবান রাখছি। পরিশেষে সবার সুখী জীবন ও সুস্থতা কামনা করছি। আল্লাহ হাফেজ-

Level 1

আমি এএমডি আব্দুল্লাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 157 টি টিউন ও 1047 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

সম্মানীয় ভিজিটর বন্ধুগন! সবাইকে আন্তরিক সালাম ও ভালবাসা। আশা করি ভাল আছেন। পর সংবাদ যে, আমরা একটি ব্লগ সাইট তৈরি করেছি। সাইটটি সম্পূর্ণ ব্যতিক্রম শিক্ষা ও প্রযুক্তি নির্ভর। প্রযুক্তি, শিক্ষা, কম্পিউটার বিষয়ক যেমনঃ অনলাইন ইনকাম, ফ্রিল্যান্স, টিউটোরিয়াল, মুভি, গেমস, সফটওয়্যার, ভ্রমন, ইতিহাস, ভূগোল, কার্টুন, ধর্ম, টেক সংবাদ, এবং সংবাদপত্র ফিউচার...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

chat ee ashen…kotha ache.

Level 0

panda free ta niye valoi aci. agey avast use kortam.

    ধন্যবাদ। এন্টিভাইরাস এবং সিকিউরিটির মধ্য বেশ কিছু উপাদানের পার্থক্য আছে। তথাপি এন্টিভাইরাস ফ্রি হলেও ইন্টারনেট সিকিউরিটি কখনও ফ্রি হয়না। হ্যা অনেকেই লাইসেন্স, ক্রাক হিসাবে ব্যবহার করেন। ফ্রি এন্টিভাইরাসের মধ্য পান্ডার থেকেও অধিক কার্যকর এভিরা, এভিজি। এভাস্টাও ভাল। তবে নিয়মিত আপডেট না দিলে সমস্যা করে।

পাগল হইসেন? আপনার দেওয়া কি যদি ইউজ করি তাহলে সেটা কেমতে জেনুইন? 😛

    ধন্যবাদ। হইতো পাগল হইতে পারি..! তবে একটু বুঝিয়ে বললে ভাল হত। হ্যা যে সিরিয়াল কী গুলো ৩/৪/৬ মাস মেয়াদী সেইগুলো অনেক সময় আনজেনুইন হতে পারে। তথাপি অনেকেই ট্রায়াল কি কিংবা ফিক্স করে ইসেট ব্যবহার করছেন। অপরদিকে আমি যদি পূর্নাঙ্গভাবে আনজেনুইন কি শেয়ার করাতাম, তাহলে আজকের এই টিউনটি করতাম না। কারন, এমনিতে ইসেট ৮ ভার্সন ক্রাক করে লাইফ টাইম চালানো যায়। আমি নিজে ইসেট প্যাকেজটি ক্রয় করেছি পেইড ভার্সন হিসাবে, তাই ভাবলাম শেয়ার করলে হয়ত কারোর উপকার হতে পারে। তবে হ্যা এটা ঠিক যে, কোন লাইসেন্স কি যদি পাবলিসিটি হয়ে যায় তবে তা আনজেনুইন হতে সময় লাগেনা। উপরন্তু ক্রয় করে যে কি শেয়ার করলাম বাস্তবিক অর্থে সেটি ১০০% জেনুইন লাইসেন্স বলে আখ্যায়িত করা যায়।

    ধন্যবাদ।এটা ম্যাগাজিন/ব্লগ অনুসারে সংগৃহীত। তবুও সেখানে এন্টিভাইরাসের অনেক কিছুর আপডেট নাই।তবে এভি টেস্ট, ভাইরাস বুলেটিন টীমের তথ্যাবলী গ্রহনযোগ্য।