কীভাবে আপনার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে SIM Lock Enable করবেন?

টিউন বিভাগ অ্যান্ড্রয়েড
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 15
কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা

একটি মোবাইল ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সিম কার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। একটি সিম কার্ডের সাথে অনেক বিষয় জড়িত থাকে। মোবাইলের একটি সিম কার্ডের সাথে, আপনার পরিচিত ব্যক্তিদের তালিকা, আপনার কথোপকথনের হিস্টরি, টেক্সট মেসেজ, ব্যাংকিং ইনফরমেশন, সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টের সিকিউরিটি এবং আরও অনেক বিষয় যুক্ত থাকতে পারে।

কিন্তু, কোন কারণে যদি আপনার সিম কার্ড দিয়ে হারিয়ে যায় অথবা কোন ব্যক্তি সেটি ইচ্ছাকৃত ভাবে চুরি করে, তাহলে এক্ষেত্রে আপনি তাৎক্ষণিক ভাবে কি করতে পারেন? যদিও আপনি আপনার সেই সিমটি তাৎক্ষণিক ভাবে উদ্ধার করার জন্য বেশ কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। এর মধ্যে অন্যতম হলো, আপনি সরাসরি সেই সিম অপারেটরের কাস্টমার কেয়ারে ফোন করে, সিমটির ব্যাপারে তথ্য দেওয়ার মাধ্যমে সেটিকে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিতে পারেন অথবা খুব দ্রুত সিমটি রিপ্লেস করে নিতে পারেন।

তবে, আপনি এক্ষেত্রে যখন জানতে পারবেন যে, আপনার মোবাইলটি চুরি হয়েছে অথবা আপনার মোবাইল থেকে সিম কার্ডটি খুলে নেওয়া হয়েছে; ততক্ষণে অনেক বেশি দেরি হয়ে যেতে পারে। আর এর মধ্যেই, সেই ব্যক্তি হয়তোবা আপনার সিম কার্ডটি ব্যবহার করে টাকা তুলে নিতে পারে অথবা আপনার সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে।

যাইহোক, এমন পরিস্থিতিতে আমরা চাই যে, কোন ব্যক্তি আমাদের মোবাইল থেকে সিম কার্ডটি খুলে নিলেও, যেন সেটি আর তিনি ব্যবহার করতে পারেন না। আপনি যদি এরকমটি করতে চান, তাহলে আপনার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে সিম কার্ডটি লক করে রাখতে হবে। এতে করে, অন্য কোন ব্যক্তি আপনার মোবাইল থেকে সিম কার্ডটি চুরি করে ও ব্যবহার করতে পারবেনা। এক্ষেত্রে, সেই ব্যক্তিকে সিম কার্ডটি ব্যবহার করতে হলে মোবাইল চালু করার সময় অবশ্যই সঠিক পিন ইনপুট দিতে হবে।

আর তা না হলে, সেই সিম কার্ডটি আর মোবাইলটিতে কাজ করবে না।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে কীভাবে SIM Card Lock সেটআপ করবেন?

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে কীভাবে SIM Card Lock সেটআপ করবেন?

আপনার ব্যবহৃত অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে সিম কার্ড লক করার জন্য আপনাকে অবশ্যই আপনার অপারেটরদের দেওয়া ডিফল্ট পিন নাম্বরটি ব্যবহার করতে হবে। আপনি এই ডিফল্ট পিন নাম্বারটি সিমের সাথে দেওয়া কার্ডে পেয়ে যাবেন। স্বাভাবিকভাবে, প্রত্যেকটি অপারেটরের ডিফল্ট পিন নাম্বার হল ১২৩৪ এবং ১১২২। তবে, সিমটি লক করার আগে আপনি সিমটির কাগজ সাথে রাখতে পারেন।

চলুন, তাহলে এবার দেখা যাক, আপনি কীভাবে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে সিম কার্ড লক করবেন।

১. এজন্য প্রথমে আপনি আপনার মোবাইলের Settings থেকে Security অপশনে চলে যান।

Android mobile security settings

২. এরপর, মোবাইল ব্র্যান্ড এবং মডেল অনুযায়ী আপনাকে More security settings অপশনে ও যাওয়া লাগতে পারে। তবে, আমার এখানে Security এর অধীনেই SIM Lock এর অপশনটি রয়েছে। এবার আপনি সেখান থেকে "SIM card lock" অপশনে ট্যাপ করবেন।

SIM card lock settings

৩. এবার, Lock SIM card এর পাশের অপশনটি চালু করে দিন।

Sim card lock option enable

৪. এখন এখানে সিমটির ডিফল্ট পিন নম্বর দিতে বলবে, যা আপনি সিমটির কাগজে পেয়ে যাবেন। আর, আপনার সিম কার্ডটি কোন অপারেটরের এবং তাদের ডিফল্ট পিন নম্বর কি, এটি জানার জন্য আপনি গুগলে সার্চ করতে পারেন। এই মুহূর্তে আমি গ্রামীণফোনের সিম কার্ড ব্যবহার করছি, তাই আমি গ্রামীণ সিমের ডিফল্ট পিন ১২৩৪ ইনপুট দিয়ে Ok করবো।

৫. তারপর, নিচে থাকা Change SIM PIN এ ট্যাপ করুন।

Sim card lock pin change

৬. এবার, সেখানে আপনাকে Old PIN দিন এবং তারপর New PIN দিন। তবে, Old PIN দেওয়ার ক্ষেত্রে আপনি অবশ্যই সতর্ক থাকুন। কেননা, আপনি যদি এখানে তিনবার ভুল পিন দেন, তাহলে আপনার সিমটি ব্লক হয়ে যাবে এবং যা ঠিক করার জন্য আপনাকে সিম কার্ডে থাকা PUK কোড ব্যবহার করতে হবে।

৭. এই ফিচারটি সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা চেক করার জন্য এবার আপনার Restart করুন অথবা সিম কার্ডটি অন্য কোন ফোনে Insert করুন। এবার আপনি যদি এখানে দেখেন যে, মোবাইলটি চালু হওয়ার পর সিম একটিভ করার জন্য আপনাকে পিন নাম্বর দিতে বলছে, তাহলে SIM Card Lock সেটিংস টি সঠিকভাবে কাজ করছে। এখন থেকে আর আপনার মোবাইল থেকে সিম কার্ডটি খুলে নিয়ে কেউ চাইলেই ব্যবহার করতে পারবে না। কেননা, তাকে সেই সিম কার্ডটি ব্যবহার করার জন্য আপনার দেওয়া পিন নাম্বারটি জানতে হবে।

আর সেকারণে, সেই ব্যক্তি চাইলেও আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট সহ অন্য কোন একাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিতে অথবা আপনার সিম কার্ডকে ব্যবহার করে কোন অপরাধমূলক কাজ করতে পারবে না।

Samsung ফোনে কীভাবে সিম কার্ড লক সেটআপ করবেন?

Samsung ফোনে কীভাবে সিম কার্ড লক সেটআপ করবেন?

স্যামসাং Galaxy ফোন গুলো সাধারণত One UI Android এর ইউজার ইন্টারফেস ব্যবহার করে। আর তাই, এসব মোবাইলের সেটিংস ইউজার ইন্টারফেস, সাধারণ অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল গুলোর তুলনায় আলাদা। আর তাই, সাধারণ অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোর তুলনায় আপনাকে Samsung Galaxy ফোনের ভিন্নভাবে সিম কার্ড লক সেটআপ করতে হবে। আপনি নিচের পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার Samsung Galaxy ফোনের সিম কার্ড লক করতে পারবেন।

১. এজন্য প্রথমে আপনি আপনার স্যামসাং ফোনের Settings ওপেন করুন। এরপর, নিচের দিকে Scroll করে "Biometrics and security" তে চলে যান।

Samsung phone security and privacy

২. তারপর, "Other security settings" অপশনটি সিলেক্ট করুন।

Samsung mobile Other security settings

৩. এবার, "Set up SIM card lock" এ ট্যাপ করুন।

Samsung phone SIM card lock setup

৪. এখন আপনি এখানে পূর্বের মতোই সিম কার্ড লক করার অপশনটি দেখতে পাবেন। যেখানে আপনি, Lock SIM card অপশনে ক্লিক করে, আপনার সিমটির ডিফল্ট পিন নাম্বার দিন এবং SIM Lock Enable করুন।

Samsung mobile sim card lock setting enable

৫. তারপর অধিক নিরাপত্তার জন্য একইভাবে "Change SIM card PIN" অপশনে ক্লিক করে নতুন পিন সেট করুন।

তবে এখানে আপনাকে বলে রাখি যে, সিম কার্ড লক করার প্রক্রিয়াটি ফোন ভেদে আলাদা আলাদা হতে পারে। আর তাই, খুব দ্রুত SIM Card Lock Settings টি খুঁজে পাওয়ার জন্য আপনার মোবাইলের সেটিংস এর সার্চ অপশন ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে, সেটিংস থেকে সার্চ বক্সে ক্লিক করুন এবং তারপর SIM Lock লিখলেই কাঙ্ক্ষিত সেটিংস টি পেয়ে যাবেন।

সেই সাথে, আপনার এটি জেনে রাখা ও গুরুত্বপূর্ণ যে, আপনি যদি কখনো তিনবার ভুল চেস্টার কারণে আপনার সিমটি লক করে ফেলেন, তাহলে সেটি ঠিক করার জন্য PUK Code এর প্রয়োজন হবে। আর এই PUK Code টি শুধুমাত্র সিমের সাথে থাকা কার্ডটিতে পাওয়া যায়। আর আপনি যদি সিম কেনার পর সেই কার্ডটি হারিয়ে ফেলেন, তাহলে সিমটি আনলক করার জন্য আপনাকে অবশ্যই সেই অপারেটরের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

এরকম পরিস্থিতিতে আপনি অবশ্যই আপনার সেই লক হয়ে যাওয়ার সিমটি ব্যবহার করতে পারবেন না। তাই, সেই সিমটির ব্যাপারে কথা বলার জন্য আপনাকে অন্য একটি সচল সিম ব্যবহার করতে হবে এবং সেটি দিয়েই মোবাইল অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধির সাথে যোগাযোগ করতে হবে। সেখান থেকে আপনি প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে PUK Code জেনে নিতে পারবেন।

আপনার যদি eSIM থাকে, তাহলে কী করবেন?

আপনি যদি এই মুহূর্তে eSIM ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে আপনি সেটিতেও সিম লক Enable করতে পারবেন। আর আপনি যদি একটি Removable SIM card ব্যবহার করেন এবং সেটিতে সিম লক করে রাখেন, তাহলে ও কিন্তু যে কেউ সেটি খুলে নিয়ে আপনার পাসওয়ার্ড দিয়ে সিমটা আনলক করতে পারে। ‌অথবা, সেই ব্যক্তি আপনার সিমটি সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে পাসওয়ার্ড রিকভার করতে পারে।

কিন্তু আপনি যদি একটি ই-সিম ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার ফোন থেকে সেটি সরানো সম্ভব নয়। তবে, eSIM চুরির হাত থেকে রক্ষা করা গেলেও, মোবাইলটি অবশ্যই ঝুঁকির মধ্যে থাকে। তাই, সিম কার্ডটি বাদ দিয়ে আপনি অবশ্যই মোবাইলটি নিরাপত্তার প্রতি বেশি মনোযোগ দিন।

মোবাইলে সিম কার্ড লক করা কেন জরুরী?

মোবাইলে সিম কার্ড লক করা কেন জরুরী?

একটি মোবাইলে সিম কার্ড লক করা এজন্যই জরুরী যে, যাতে করে অন্য কোন ব্যক্তি আপনার সিম কার্ডটি নিয়ে ব্যবহার করতে না পারে। অর্থাৎ, তিনি আপনার মোবাইল থেকে সিম কার্ডটি খুলে নিয়ে তার মোবাইলে লাগালে ও, সঠিক পিন না জানার কারণে তিনি সেটিকে একটিভ করতে পারবেন না। আর এর ফলে, আপনার সেই সিমের সাথে সম্পর্কিত সকল তথ্যগুলো থাকবে নিরাপদ।

আর যদি আপনি আপনার সিমটিকে লক না করেন, তাহলে কোন ব্যক্তি চাইলেই আপনাকে একেবারে নিঃস্ব করেও দিতে পারে। এক্ষেত্রে তারা প্রতারণার উদ্দেশ্যে কিংবা আপনার সেই সিমের সাথে লিংক করা বিভিন্ন একাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার জন্য কৌশলে সিম কার্ডটি সংগ্রহ করতে পারে। এরপর, বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে তারা সেসব একাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি আপনার মোবাইলে ব্যবহৃত সিম কার্ডটি দিয়ে একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ওপেন করে থাকেন, তাহলে তারা প্রথমে সেই মোবাইল নাম্বারটি দিয়ে আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগইন করার চেষ্টা করবে। এক্ষেত্রে তারা সেই ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড Reset করার জন্য আপনার সিম কার্ডটিকে কাজে লাগাতে পারে।

আর আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ ব্যবহারকারীই, নিজেদের ব্যবহৃত সিম-কার্ড দিয়ে বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট চালু করে থাকি এবং সেগুলোর Two Step Verification হিসেবে ও নিজেদের ব্যবহৃত সিম কার্ডটির নাম্বার দিয়ে থাকি।

তাহলে, আপনি একবার কল্পনা করুন যে, যদি আপনি আপনার ব্যবহৃত সিম কার্ডটিকে লক না করে থাকেন, তাহলে আপনার সিম কার্ডটি হারিয়ে গেলে কিংবা চুরি হয়ে গেলে তারা আপনার সাথে কী কী করতে পারে। আমাদের এরকম অসতর্কতার জন্য প্রায়ই বিভিন্ন সাইবার আক্রমণের শিকার হতে হয়। এমনকি, আপনি আপনার পরিচিত জনদের মাধ্যমে ও এরকম পরিস্থিতির শিকার হতে পারেন। তাই, আপনার নিরাপত্তার জন্য অবশ্যই আপনার সিম কার্ডটি লক করা উচিত। আর তা না হলে, আপনি ভবিষ্যতে অনেক বড় ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন।

সিম কার্ড লক করা সম্পর্কে শেষ কথা

আমাদের ব্যবহৃত মোবাইলটি কখন হারিয়ে যাবে বা চুরি হয়ে যাবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই। আর সে কারণেই, আমাদেরকে পূর্বে থেকেই সতর্ক হওয়া উচিত, যাতে করে আমাদের সিমটি হারিয়ে গেলে ও কোন ধরনের বিপদ না ঘটে। যাতে করে, কোন ব্যক্তি আমাদের ব্যবহৃত সিমটি কাজে লাগিয়ে অন্য কোন অপরাধমূলক কাজ করতে না পারে অথবা সেই সিমটিতে থাকা কোন তথ্য অ্যাক্সেস করতে না পারে।

আর সে কারণেই, আমাদের ফোন থেকে অবশ্যই সিম কার্ডটি লক করে রাখা জরুরী, যাতে করে অন্য কোন ব্যক্তি আমাদের সিম কার্ডটি নিয়ে ব্যবহার করতে না পারে। যদি কেউ আমাদের সিম কার্ডটি পেয়ে যায়, তাহলে সেটি ব্যবহার করার জন্য তাদেরকে নির্দিষ্ট পিন নাম্বর ইনপুট দিতে হবে, যা তার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই, আপনি আপনার সিমটির সাথে লিংক থাকা, ব্যাংক একাউন্ট, সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট, কন্টাক্ট নাম্বার, কল হিস্টরি, মেসেজ এবং যাবতীয় ইনফরমেশন গুলো নিরাপদ রাখার জন্য অবশ্যই SIM Card Lock ফিচারটি ব্যবহার করা উচিত। ধন্যবাদ।

Level 15

আমি মো আতিকুর ইসলাম। কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 364 টি টিউন ও 93 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 61 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 3 টিউনারকে ফলো করি।

“আল্লাহর ভয়ে তুমি যা কিছু ছেড়ে দিবে, আল্লাহ্ তোমাকে তার চেয়ে উত্তম কিছু অবশ্যই দান করবেন।” —হযরত মোহাম্মদ (সঃ)


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস