সেরাদের সেরা [পর্ব-১১] :: সেরা ১০টি টেকনিক্যাল ওয়েব ব্রাউজার অ্যান্ড্রয়েড এর জন্য

টিউন বিভাগ অ্যান্ড্রয়েড
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

সেরাদের সেরা

হ্যালো টেকটিউনস জনগণ, কেমন আছেন আপনারা সবাই? আশাকরি সবাই ভাল আছেন। এখন থেকে নিয়মিত আবার নতুন টিউন নিয়ে আমরা হাজির হলাম আপনাদের কাছে। আর টেকটিউনসের নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিস নিয়ে ভালো না থেকে আর উপায় আছে? আর এই নিত্যনতুন টপিক আর সার্ভিসের ধারা বজায় রাখার নিমিত্তে, আজকে আমি আপনাদের সাথে একদম নতুন একটি টপিক নিয়ে হাজির হলাম। আর আপনারা এই টিউনের মাধ্যমে জানতে পারবেন অনেক নতুন নতুন সব তথ্য।

বর্তমান সময়ে আমাদের অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য প্রচুর ওয়েব ব্রাউজার আছে, এর মধ্যে অনেকগুলো ব্রাউজার আছে যা কম র‍্যাম এবং পাওয়ার খরচ করে। তবে আমরা এই ফিচারগুলোকে গ্রাহ্য করিনা বললেই চলে, কেবল পারফরম্যান্স এবং ব্রাউজার অ্যাপ গুলোর ব্যবহারযোগ্যতাই এই টিউনে তুলে ধরা হবে। এই টিউনে আলোচিত প্রত্যেকটি অ্যাপই পরীক্ষিত এবং যাচাইকৃত।

০১. XBrowser

তালিকার এক নম্বর ব্রাউজারটি হচ্ছে XBrowser, এই অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় সব ফিচার রয়ছে, ফলে আপনাকে সেই ফিচার ব্যবহার করতে থার্ড পার্টি অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে না। উদাহরণস্বরূপ এই অ্যাপে থার্ড পার্টি কর্তৃক ডেভলপ করা টুলস ব্যবহার না করেই আপনি বিল্ট-ইন মিডিয়া প্লেয়ার এবং ডিসপ্লে ব্রাইটনেস কন্ট্রোল করতে পারবেন। আর এই অ্যাপটি খুবই লাইটওয়েট হওয়াতে লো-এন্ড ডিভাইসগুলোতে অনায়াসে, অনেক ফাস্ট স্পীডে এবং স্মুথ ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন।

এই ব্রাউজারের কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. মিনিমালিস্ট এবং সুপার ফাস্টঃ এই অ্যাপের সাইজ হচ্ছে ১.৩ এমবি, ফলে আপনার ডিভাইসের সবচেয়ে কম স্টোরেজ ব্যবহার করবে। আর এই ব্রাউজার অ্যাপটি খুব স্মুথ এবং ফাস্ট কাজ করে।

২. এড ব্লকিংঃ এই ব্রাউজার অ্যাপটিতে রয়েছে বিল্ট ইন এড ব্লকিং ফিচার। ফলে আপনি সহজেই ৮০% ম্যালেসিয়াস এডগুলোকে ব্লক করতে পারবেন।

৩. পারসোনালাইজড কাস্টমাইজেশনঃ এছাড়াও এই ব্রাউজার অ্যাপটিতে রয়েছে পাওয়ারফুল পারসোনালাইজড কাস্টমাইজেশন অপশন, আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী ব্রাউজার অ্যাপের লুক চেঞ্জ করতে পারবেন।

৪. রিসোর্স স্নিফিংঃ এই ব্রাউজারে রয়েছে শক্তিশালী রিসোর্স স্নিফিং ক্ষমতা, সহজেই ওয়েব রিসোর্স ডাউনলোড (ভিডিও, অডিও, ইমেজ ইত্যাদি) এবং সেভ করে রাখার সুবিধা।

৫. ক্লিন এবং গ্রিনঃ এই ব্রাউজার অ্যাপের ইন্টারফেস ইন্টার‍্যাকশন একদম ক্লিন, কোন নিউজ এর ট্যাব নেই, নেই কোন পুশ নোটিফিকেশনের ঝামেলা এবং ব্যাকগ্রাউন্ড সার্ভিসও নেই, ফলে আপনার ডিভাইসের ব্যাটারি সেভ হচ্ছে এবং স্টোরেজও সেভ হচ্ছে।

৬. সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসিঃ এই ব্রাউজার অ্যাপে খুবই কম প্রাইভেসি পারমিশন নিয়ে কাজ করে, ফলে ইউজারের ডেটা সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারে সহজেই।

৭. Gesture ফাংশনঃ আপনার ব্রাউজিং অভিজ্ঞতাকে আরও উন্নত এবং দ্রুত করার জন্যে এই ব্রাউজার অ্যাপে রয়েছে অনেকগুলো Gesture ফিচার।

৮. রিডিং মোডঃ এই ব্রাউজার অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি ওয়েব সাইটে থাকা আর্টিকেল বের করতে পারে, এড গুলোকে ফিল্টার করতে পারে এবং এই ব্রাউজার ব্যবহার করলে আপনি নিট এন্ড ক্লিন একটি অভিজ্ঞতা পাবেন। এছাড়াও এই ব্রাউজার পেজ প্রিলোড এবং একাধিক পেজকে এক পেজে কনভার্ট করতে পারে।

০২. Dolphin Zero

Dolphin Zero হচ্ছে Dolphin নামের ফুল ফিচার্ড টপ লিস্টের ব্রাউজারের একটি ছোট ভার্সন। এই ব্রাউজার ব্যবহার করে আপনি মেডিক্যাল সাইটগুলো ভিজিট করতে পারেন, আপনার বন্ধুদেরকে এই ব্রাউজার ব্যবহার করে তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগইন করতে, যেকোন ভিডিও দেখা থেকে শুরু করে সব কাজই অনায়াসে করতে পারবেন।

এই ব্রাউজারের কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. ফ্ল্যাশ প্লেয়ারঃ Dolphin Zero ব্রাউজারে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড সাপোর্টেড ফ্ল্যাশ প্লেয়ার যার মাধ্যমে সেরা গেমিং এবং এইচডি ভিডিও দেখার অভিজ্ঞতা পাবেন অনায়াসেই।

২. অ্যাডব্লক ও পপ আপ ব্লকারঃ Dolphin Zero ব্রাউজারে রয়েছে অন্যতম সেরা অ্যাডব্লক সুবিধা। এই অ্যাডব্লকারের সাহায্যে আপনি সহজেই পপআপ, এড, ব্যানার এবং এড-ভিডিওগুলি ব্লক করতে পারবেন সহজেই।

৩. মাল্টিপল ট্যাব বারঃ এই ব্রাউজারে আপনি আপনার ওপেন করা ট্যাব গুলো দেখতে পারবেন এবং আপনি সহজেই পিসি ব্রাউজার এবং ডেস্কটপ ব্রাউজার হিসাবে সোয়াইপ করতে এবং ওয়েব সাইট ব্রাউজ করতে পারবেন।

৪. বুকমার্কস এবং অ্যাড-অন্স সাইডবারঃ Dolphin Zero ব্রাউজার থেকে আপনি  ডানদিকে সোয়াইপ করে এই অপশনে অ্যাক্সেস করতে পারবেন এবং আপনার বুকমার্কস এবং ব্রাউজিং হিস্টোরি দেখতে পারবেন। এছাড়াও ভিডিও ডাউনলোডার, ওয়েব থেকে পিডিএফ, এবং Dolphin ট্রান্সলেটর এর মত বেস্ট সার্ভিস উপভোগ করতে পারবেন।

৫. ছদ্মবেশী / প্রাইভেট ব্রাউজিংঃ Dolphin Zero ব্রাউজার হচ্ছে সুরক্ষিত একটি ব্রাউজার যাতে আপনার হিস্টোরি, কুকিজ ট্রেস, ক্যাশে ইত্যাদি ছাড়াই আপনি রিয়্যাল প্রাইভেট ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারবেন।

৬. পারসোনালাইজড সার্চঃ আপনি সহজেই Google, Yahoo, Bing, Duckduckgo ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিনগুলোতে স্যুইচ করতে পারবেন।

৭. ফাস্ট ডাউনলোডঃ ব্রাউজার থেকে দ্রুত গতিতে ভিডিও ডাউনলোড, ফ্ল্যাশ ভিডিও ডাউনলোড এবং আরও অনেককিছু ডাউনলোড করুন। আপনি এই ব্রাউজারে থাকা ফাইল ম্যানেজার ব্যবহার করেই ডাউনলোড করা ফাইলগুলো সহজেই ডিলিট করতে পারবেন।

৮. সিঙ্কঃ আপনি আপনার ব্রাউজিং হিস্টোরি, বুকমার্ক্স এবং পাসওয়ার্ড অন্য ডিভাইসে সিঙ্ক করতে পারবেন সহজেই। এছাড়াও Dolphin Connect ব্যবহার করে  Android, iPhone, iPad, mobile এবং pc ব্রাউজার যেমনঃ Chrome, Firefox, এবং Safari ইত্যাদি ব্রাউজারে ট্যাব এবং ওয়েবসাইট ওপেন করতে পারবেন।

৯. ক্লিন ইউআই এবং ফাস্ট ন্যাভিগেশনঃ আপনি আপনার সর্বাধিক ব্রাউজ করা ওয়েব সাইটগুলোকে একটি দুর্দান্ত ইউজার ইন্টারফেস এবং ওয়ান-টাচ অ্যাক্সেস করার জন্য স্পীড ডায়াল আইকন হিসাবে ওয়েব সাইটগুলোকে যুক্ত করে থাকে।

১০. Gesture ফাংশনঃ ওয়েব সাইটে এবং জেনারেল ফিচারগুলোর জন্য একটি পারসোনাল Gesture তৈরি করতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ, Bing ওয়েব সাইটে ভিজিট করার জন্য B অক্ষরটি ডিসপ্লেতে আঁকলে সরাসরি Bing ওয়েব সাইটে নিয়ে যাবে।

১১. সোনারঃ Dolphin ব্রাউজার আপনাকে এমন একটি ব্রাউজার অফার করে যার সাথে আপনি কথা বলতে পারেন। এমনকি টাইপ না করেই, আপনার ভয়েস কমান্ড ব্যবহার করে Yahoo, Bing or Duckduckgo সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করতে পারবেন অনায়াসেই।

১২. থিমসঃ Dolphin ব্রাউজারটিকে নিজের পছন্দমত সাজাতে থিমের কালার এবং ওয়ালপেপার কাস্টমাইজ করার অনুমতি দেয়।

০৩. UC Turbo Browser

UC Turbo Browser ব্রাউজারটি হচ্ছে খুবই সিম্পল ডিজাইনের একটি ব্রাউজার, এতে কোন অযাচিত নিউজ এবং পুশ নোটিফিকেশন নেই, ফলে আপনি এই ব্রাউজার ব্যবহার করে আরও ভাল ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা পেতে পারেন।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. মিনিমালিস্ট ডিজাইনঃ এই ব্রাউজারে কোন অযাচিত নিউজ দেখতে পাবেন না, নেই কোন পুশ নোটিফিকেশনের ঝামেলা, স্মার্ট ডিজাইনের কারনে এটি ব্যবহার করা খুবই সহজ এবং আপনি পাবেন ক্লিন এবং কনভিনিয়েন্ট ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা।

২. ফাস্ট ডাউনলোডঃ এই ব্রাউজার তাদের সার্ভারের মাধ্যমে ডাউনলোডের গতি বাড়াতে সাহায্য করে। আর হাই থ্রেড সেট করার মাধ্যমে আপনার ডাউনলোডের গতি অনেক গুনি বাড়িয়ে তুলতে পারে।

৩. ফ্রি ক্লাউড এক্সেলারেশনঃ ফ্রি ক্লাউড এক্সেলারেশন ফিচারের মাধ্যমে আপনি বিশ্বের যেকোন সময় যেকোন জায়গায় ওয়েবসাইট ভিজিট করতে এবং ভিডিও দেখতে সহায়তা করে।

৪. সিকিউর ব্রাউজিংঃ আপনি Incognito মোড অন করে প্রাইভেটলি ওয়েব সাইট ভিজিট করেতে পারবেন অনায়াসে। ফলে আপনার ব্রাউজিং হিস্টোরি এবং কুকি এই মোডে রেকর্ড করা হয় না তাই প্রাইভেসি থাকে শতভাগ প্রাইভেট।

৫. অ্যাড ব্লকঃ এই ব্রাউজারে রয়েছে পাওয়ারফুল অ্যাড ব্লক ফাংশন, ফলে বিভিন্ন ধরনের এড কে ব্লক করার মাধ্যমে আপনার ব্রাউজিং অভিজ্ঞতাকে আরও বুস্টআপ করুন নিমিষেই। এছাড়াও আপনি ম্যানুয়াল ভাবেও এড ব্লক করার বিভিন্ন অপশন পাবেন এড ব্লকিং সেটিংসে।

৬. পারসোনালাইজড ওয়ালপেপারঃ আপনার ফোনে থাকা প্রিয় ছবিগুলোকে ব্রাউজারের ওয়ালপেপার হিসাবে সেট করুন এক ক্লিকের মাধ্যমে সেই ওয়ালপেপারগুলোকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে শেয়ার করুন।

৭. কাস্টমাইজ হোমপেইজঃ আপনি আপনার পছন্দ মত ব্রাউজারের হোমপেজ চেঞ্জ করে নিতে পারবেন। এছাড়াও বুকমার্ক থেকে আপনার প্রিয় ওয়েব সাইট গুলো ব্রাউজারের হোমপেজে যুক্ত করুন, অথবা হোমপেজ খালি রাখতে বিল্ট ইন সাইটগুলোকে রিমুভ করুন।

৮. ভিডিও ডাউনলোডঃ আপনার পছন্দের ভিডিওগুলো ডাউনলোড করে রাখুন যাতে আপনি যেকোন জায়গায় নিজের ইচ্ছামতো যেকোন সময় ভিডিওগুলো দেখতে পারেন।

৯. মাল্টি ল্যাঙ্গুয়েজ সাপোর্টঃ এই ব্রাউজার মাল্টি ল্যাঙ্গুয়েজ সাপোর্ট করে। ফলে বাধাহীন ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা পেতে আপনার জন্য উপযুক্ত ভাষাটি সিলেক্ট করুন।
১০. নাইট মোডঃ নাইট মোড আপনার চোখের জন্য খুবই উপকারী এবং রাতের বেলায় অন্ধকারের মধ্যে খুব আরামে ব্রাউজিং করতে পারবেন অনায়াসেই।

০৪. UC Mini Browser

অ্যান্ড্রয়েডের জন্য UC Mini Browser হচ্ছে একটি মাল্টি ফাংশনাল ওয়েব ব্রাউজার যার মাধ্যমে আপনি আপনার ফেসবুক নিউজ ফিড ব্রাউজ করা থেকে শুরু করে ফেসবুক থেকে আপনার পছন্দের ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন অনায়াসেই। এই ব্রাউজারটি একদম ফ্রি এবং সুপার ডুপার ফাস্ট কাজ করে। ফলে আপনি UC Mini ব্রাউজার ব্যবহার করে দুর্দান্ত ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা পাবেন। এছাড়াও এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করা একদমই সহজ এবং বিভিন্ন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে অনায়াসেই সাপোর্ট করে। আপনার এই ব্রাউজার দিয়ে অনলাইনে ইনফর্মেশন সার্চ করতে, ডাউনলোড করতে এবং আপনার যেকোন ইনফর্মেশন স্যোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন মুহূর্তেই।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোডারঃ খুব সহজেই ফেসবুক থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন এবং যেকোন সময় সেই ভিডিও গুলো উপভোগ করতে পারবেন।

২. ফাস্ট ব্রাউজিংঃ এতে রয়েছে ফাস্টার ব্রাউজিং মোড যা ব্যবহার করে আপনি আপনার সময় এবং ডেটা উভয়ই সেভ করতে পারবেন।

৩. কুইক সার্চঃ এই ব্রাউজারের স্মার্ট সার্চ রেজাল্ট ফিচার রয়েছে যা সার্চ বারেই সার্চ রেজাল্ট শো করে।

৪. ইনকগনিটো ব্রাউজিংঃ আপনারা জানেন ইনকগনিটো মোডে ব্রাউজিং করলে আপনাদের ব্রাউজিং হিস্টোরি রেকর্ড করা হয় না ফলে আপনার প্রাইভেসি সুরক্ষা নিশ্চিত হয়।

৫. নাইট মোডঃ রাতের বেলা নাইট মোডে স্যুইচ করে আরও স্বাচ্ছন্দ্যে ব্রাউজিং করুন।

৬. ডেটা সেভিংঃ UC Browser ব্রাউজার ডেটা কম্পেস করে, নেভিগেশনের গতি বাড়ায় এবং সেলুলার ডেটা ট্র্যাফিক সেভ করতে সহায়তা করে। ফলে যত বেশি UC Browser ব্যবহার করে ব্রাউজিং করবেন আপনি তত বেশি ডেটা সেভ করতে পারবেন।

৭. অ্যাড ব্লকারঃ অ্যাড ব্লকারের সাহায্যে আপনি বিভিন্ন ধরনের অ্যাড কে ব্লক করতে পারবেন যা আপনার ব্রাউজিং অভিজ্ঞতাকে প্রভাবিত করে। ফলে আপনি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে অ্যাড ফ্রি ওয়েব সাইট ভিজিট করতে পারবেন অনায়াসেই।

৮. আরও অনেক কিছুঃ উপরে বর্ণিত ফিচারগুলো ছাড়াও আরও অনেক ফিচার রয়েছে যেমনঃ My Videos, QR Code, Save Page, Text-Only, Full Screen, Bookmarks Import/Export, Check Network ইত্যাদি।

০৫. CM Browser

CM (Clean Master) Browser একটি লাইট ওয়েট মোবাইল ব্রাউজার যা ব্যবহার করে আপনি ম্যালিসিয়াস ভাইরাস থেকে নিজের ডিভাইসকে রক্ষা করতে পারবেন এবং আপনি পাবেন ফাস্ট ব্রাউজিং স্পীড। আর এতে রয়েছে ভিডিও ডিটেক্টশন ফাংশন যার মাধ্যমে আপনি যেকোন ওয়েব সাইট থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। আর এই ফিচারের কারনে আপনার পছন্দের যেকোন ওয়েব সাইট থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন যা অন্যকোন ব্রাউজার দিয়ে ডাউনলোড করতে পারবেন না। এছাড়াও অ্যাডব্লক ফাংশন এর মাধ্যমে আপনি বিরক্তিকর পপ-আপগুলো, ব্যানার অ্যাড, ভিডিও অ্যাড ক্লিক করতে পারবেন এবং এর ফলে আপনি পাবেন অনন্য ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. স্মার্ট ডাউনলোডঃ CM Browser এর স্মার্ট ডিটেক্টশন ফাংশন স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওয়েব সাইটে থাকা ভিডিওগুলো ডিটেক্ট করতে পারে, ফলে আপনি প্রায় অধিকাংশ ওয়েব সাইট থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন অনায়াসেই। আর ব্রাউজারের অ্যাড্রেস বারে ডাউনলোড আইকন থাকে, ফলে আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন উক্ত ওয়েব সাইটের ভিডিও আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন। আর তাই অনলাইন ভিডিওগুলো ডাউনলোড কিভাবে করবেন তা নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না। স্মার্ট ডাউনলোড ফাংশনটিই ব্যবহার করে আপনি সহজেই ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

২. অ্যাডব্লকঃ অ্যাড ব্লকার CM Browser এর ইন্ট্রিগ্রেট করা একটি শক্তিশালী টুলস। আর তাই অ্যাড ব্লকার ফাংশনের মাধ্যমে CM Browser ব্যবহার করে আপনি বিভিন্ন ওয়েব সাইটের বিরক্তিকর অ্যাড ব্লক করতে পারবেন, যেমনঃ পপ-আপস, ব্যানার ইত্যাদি। এছাড়াও CM Browser এর অ্যাড ব্লকার ফাংশনটি ওয়েব সাইটের পেইজ লোডিংয়ের গতি দ্রুত করার পাশাপাশি ইউজারদের ইন্টারনেট ডেটা ব্যবহারও হ্রাস করতে সাহায্য করে।

৩. ম্যালিসিয়াস প্রতিরোধঃ CM Browser ব্যবহার করে আপনি ম্যালিসিয়াস ওয়েব সাইট ব্রাউজ করার সময় আপনাকে সতর্ক করবে। আর তাই CM Browser ব্যবহার করে ম্যালিসিয়াস ওয়েব সাইটের লিংকে ভিজিট করার সময় আপনাকে অবহিত করবে যে এই ওয়েব সাইট ম্যালিসিয়াস ওয়েব সাইট। আর আপনাদের সিকিউরিটি নিশ্চিত করার জন্য CM Browser সন্দেহজনক ফিশিং, ম্যালওয়ার এবং অন্যান্য ক্ষতিকারক ওয়েব সাইট গুলোর একটি লিস্ট চেক করে তা ব্লক করে দেয়, ফলে আপনার থাকেন সবসময় সিকিউর।

৪. ডাউনলোড প্রোটেক্টশনঃ আপনার ডিভাইসকে সুরক্ষিত রাখতে আপনার ডাউনলোড করা ফাইলগুলোর সিকিউরিটি চেক করে থাকে যাতে করে ভুলবশত আপনি ম্যালওয়ার ফাইল ডাউনলোড করে ফেললেও কোন সমস্যায় না পরেন। আর তাই ডাউনলোড শেষ হওয়ার সাথে সাথেই ব্রাউজারটি আপনার জন্য সিকিউরিটির জন্য স্ক্যান করা শুরু করবে। আর এভাবেই প্রতিটি ইউজারের সিকিউরিটি নিশ্চিত করা সহ অনন্য ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারবেন।

৫. প্রাইভেট মোডঃ এই মোডে আপনার ব্রাউজিং হিস্টোরি রেকর্ড করা হয় না, এছাড়াও কুকিজ এবং ক্যাশে ইত্যাদিও রেকর্ড করা হয় না ফলে আপনি আপনার ব্রাউজিং প্রসেসটিকে প্রাইভেট এবং গোপন রাখতে পারবেন।

৬. নেই কোন হিডেন ট্রেসঃ আপনি ব্রাউজার থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে সমস্ত হিস্টোরির ডেটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্লিয়ার করে হয়। ফলে আপনি কোন ওয়েব সাইটে ভিজিট করেছেন তা অন্য কেউ ট্রেস করতে পারবেনা।

৭. ব্রাউজিং গতি বাড়ায়ঃ আপনার ব্রাউজিং স্পীড বাড়ানোর জন্য এই ব্রাউজারে রয়েছে প্রিলোড প্রসেস, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওয়েব পেইজ প্রিলোড করে আপনার সময় বাঁচায়।

০৬. Puffin Web

Puffin Web Browser হচ্ছে খুবই ফাস্ট মোবাইল ব্রাউজার। আর এই ফাস্ট ব্রাউজার যদি কেউ একবার ব্যবহার করে তাহলে অন্য কোন ব্রাউজার আর ব্যবহার করবে না। তাছাড়া Puffin Web Browser এ বিল্টইন ভাবে রয়েছে Adobe-Flash-Over-Cloud 24/7 ফলে আপনাকে আর এই ফিচারটি ক্রয় করতে হচ্ছে না।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. খুবই ফাস্টঃ Puffin Web Browser লো-এন্ড ডিভাইসের রিসোর্স কম ব্যবহার করে cloud servers সেই লোড শিফট করার মাধ্যমে লো-এন্ড ফোন সহ সমস্ত ফোন এবং ট্যাবলেট গুলোর ব্রাউজিং স্পীড বাড়িয়ে তোলে।

২. ক্লাউড প্রোটেক্টশনঃ চিন্তার কোন কারন নেই Puffin app থেকে Puffin server আপনার সমস্ত ইনফর্মেশন এনক্রিপ্ট করা রয়েছে, ফলে ডেটা হারিয়ে যাওয়া বা হ্যাক হওয়া থেকে সুরক্ষা রয়েছে। তাছাড়া Puffin Web Browser ব্যবহার করে আপনি পাবলিক ওয়াইফাই (সাধারণত পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করা নিরাপদ নয়) ব্যবহার করতে পারবেন নিশ্চিন্তে তবে অন্যান্য সাধারণ ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করা মোটেই নিরাপদ নয়।

৩. লেটেস্ট ফ্ল্যাশ প্লেয়ারঃ Puffin তাদের ক্লাউড সার্ভারগুলোকে উন্নত করতে থাকে এবং ক্লাউডে ফ্ল্যাশ প্লেয়ারের লেটেস্ট ভার্সন আপলোড করে থাকে।

৪. সেভ ব্যান্ডউইথঃ Puffin ব্রাউজার থেকে আপনার ডিভাইসে ওয়েব ডেটা সেন্ড করার জন্য Puffin কম্প্রেস এলগরিদম ব্যবহার করে এবং এর মাধ্যমে আপনার ওয়েব ব্রাউজিংয়ের ব্যান্ডউইথ প্রায় ৯০% পর্যন্ত সেভ করতে পারে। (বিঃদ্রঃ স্ট্রিমিং কনটেন্ট অথবা অনলাইনে ভিডিও ভিডিও প্লে করলে সাধারণের থেকে বেশি ডেটা ব্যবহৃত হয়)

০৭. Opera Mini

Opera Mini হচ্ছে লাইটওয়েট এবং সেফ ব্রাউজার যার মাধ্যমে আপনি আপনার দুর্বল ওয়াইফাই কানেক্টশন অথবা মোবাইল ডেটা ব্যবহার করে দ্রুতই ইন্টারনেটে ব্রাউজ করতে পারবেন। এতে রয়েছে অ্যাড ব্লকিং ফাংশন যার মাধ্যমে বিরক্তিকর অ্যাড গুলোকে ব্লক করতে পারবেন এবং এছাড়াও আপনি সহজেই স্যোশাল মিডিয়া থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন অনায়াসেই। এছাড়াও এটি প্রথম এবং একমাত্র ব্রাউজার যার মাধ্যমে আপনি অ্যাপ ফাইল শেয়ার করে নিতে পারবেন।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. সেভ ডেটাঃ আপনি আপনার ব্রাউজিং অভিজ্ঞতাকে ঠিক রেখেই প্রায় ৯০% ডেটা সেভ করতে পারবেন এবং এর বিখ্যাত কম্প্রেসন মোড ব্যবহার করে স্লো নেটওয়ার্কেও দ্রুত গতিতে ব্রাউজ করতে পারবেন অনায়াসে।

২. দ্রুত এবং সহজ গতিতে অফলাইনে ফাইল শেয়ারিংঃ এই ব্রাউজার ব্যবহার করে ফাইল শেয়ার করতে কোন ইন্টারনেট কানেক্টশন বা কোন ডেটা ব্যবহার করা ছাড়াই নিরাপদে ফাইল সেন্ড এবং রিসিভ করতে পারবেন। যেকোন ফাইল ফরম্যাটে ফাইলে শেয়ার করুন যেমনঃ মিউজিক, ভিডিও, ইমেজ বা অন্য যেকোন ফাইল ট্রান্সফার হবে ফ্ল্যাশ গতিতে প্রায় 300MB/s পর্যন্ত গতিতে, ফলে আপনাকে অন্য কোন ফাইল শেয়ারিং অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে না, জাস্ট QR কোড স্ক্যান করুন এবং অন্য যেকোন Opera Mini ব্রাউজারে তা সেন্ড করুন।

৩. অ্যাড ব্লকিংঃ Opera Mini তে  বিল্টইন অ্যাড ব্লকিং ফাংশন রয়েছে যাতে আপনি ওয়েব পেজের বিরক্তিকর অ্যাড ব্লক করে ওয়েব ব্রাউজ করুন।

৪. পারসোনালাইজড নিউজঃ Opera Mini ব্রাউজারের মধ্যে নিউজ ফিডে আপনি আপনার পছন্দমত কাস্টমাইজ করে নিউজগুলো দেখতে পারবেন।

৫. ভিডিও ডাউনলোডঃ হয়তো আপনার হাতে এখন পর্যাপ্ত সময় নেই অনলাইনে ভিডিও দেখার, সমস্যা নেই এই ব্রাউজার দিয়ে যেকোন ওয়েব সাইটের ভিডিও ডাউনলোড করুন এবং আপনি যখন অবসর পাবেন তখন ভিডিও গুলো দেখে নিতে পারবেন।

৬. স্মার্ট ডাউনলোডঃ ব্যাকগ্রাউন্ডে ফাইল ডাউনলোড করে ওয়েব ব্রাউজিং করতে পারবেন এবং আপনি যদি বড় ফাইল ডাউনলোড করেন তাহলে ওয়াইফাই কানেক্টশন না আসা পর্যন্ত ডাউনলোড করা বন্ধ রাখতে পারবেন। তাছাড়া ডাউনলোড সম্পূর্ণ হয়ে গেলে Opera Mini আপনাকে নোটিফাই করবে। আর ডাউনলোড করা ফাইলগুলো খুঁজতে আপনাকে আপনার ফাইলম্যানেজার তন্নতন্ন করে খুঁজতে হবে না, জাস্ট Opera Mini এর ডাউনলোড সম্পন্ন হয়েছে এই নোটিফিকেশনের উপরে ক্লিক করুন।

৭. ব্রাউজ প্রাইভেটলিঃ প্রাইভেট ভাবে ব্রাউজ করার জন্য incognito ট্যাব ব্যবহার করুন এবং এর ফলে আপনার ডিভাইসে কোন হিস্টোরি এবং ক্যাশে ফাইল রেকর্ড করা ছাড়াই ব্রাউজ করতে পারবেন।

৮. ট্যাব গ্যালারীঃ আপনি অনেকগুলো ওয়েব পেইজ একত্রে ওপেন রাখতে ট্যাব ব্যবহার করতে পারেন এবং সহজেই ট্যাবগুলোর মধ্যে নেভিগেট করতে পারবেন।

০৮. Mini Browser

Mini Browser ব্যবহার করে ইন্টারনেট সার্ফিং উপভোগ করুন যেমনঃ ভিডিও দেখা এবং অনলাইন থেকে ভিডিও ডাউনলোড করা, বর্তমানে সমস্ত ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক যেমনঃ 2 জি, 3 জি, 4 জি এবং 5 জি সাপোর্ট করে।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. সিম্পল ডিজাইন এবং সহজ ব্যবহার করা যায়।

২. ইনকগনিটো মোড

৩. বুকমার্ক ফিচার

৪. সার্চ হিস্টোরি

৫. ভিপিএন ছাড়া ব্রাউজার

৬. একাধিক ট্যাব ওপেন করার সুবিধা

৭. লাইটওয়েট (সাইজ প্রায় ২ মেগাবাইট)

৮. ফাস্ট ইন্টারনেট স্পীড

৯. আরও অনেক ফিচার রয়েছে

০৯. Nox Browser

অ্যান্ড্রয়েড ব্রাউজারের জন্য ইনকগনিটো মোড, হিস্টোরি এবং বুকমার্ক লক, থ্রেট ইন্টারসেপশন, অ্যাড ব্লকিং, সার্চ ইঞ্জিন সিলেক্টশন, অফলাইন ব্রাউজিং এবং আরও অনেক ফিচার আছে। ফলে আপনি পাবেন ফাস্ট এবং সিকিউর ওয়েব ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা, আর তাই স্লো ইন্টারনেটকে বিদায় জানান এবং Nox Browser ব্যবহার করে হাই কোয়ালিটির ব্রাউজিং উপভোগ করুন।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. ইনকগনিটো মোডঃ হ্যাকার অথবা ট্রাকার থেকে আপনার প্রাইভেট ডেটা প্রোটেক্ট করুন।

২. সেফ ব্রাউজিংঃ ভাইরাস, ম্যালওয়ার এবং ট্র্যাকিং থেকে আপনার ডিভাইসকে প্রোটেক্ট করুন।

৩. অ্যাড ব্লকিংঃ ওয়েব সাইটের বিরক্তিকর অ্যাড ব্লক করতে পারবেন।

৪. ডাউনলোড ম্যানেজারঃ ডাউনলোড করা ভিডিও, ফাইল, মিউজিক ইত্যাদি সহজেই ডাউনলোড করুন এবং ম্যানেজ করুন ব্রাউজার থেকেই।

৫. নাইট মোডঃ রাতের বেলা ইন্টারনেট ব্রাউজিং করার সময় আপনার চোখকে প্রোটেক্ট করতে নাইট মোডে ব্রাউজ করুন।

৬. মাল্টিপল ট্যাবঃ একাধিক ট্যাব ওপেন করার সুবিধা রয়েছে।

৭. অফলাইন ব্রাউজিংঃ অফালাইনে ব্রাউজ করার জন্য আপনার পছন্দের পেইজগুলো সেভ করে রাখার সুবিধা রয়েছে।

৮. Naked মোডঃ এই মোড ব্যবহার করে ব্রাউজ করলে আপনার ডেটা সেভ করতে পারবেন।

৯. সার্চ ইঞ্জিন স্যুইচঃ একাধিক সার্চ ইঞ্জিন সিলেক্ট করার অপশন রয়েছে।

১০. স্মার্ট ব্রাউজিংঃ আপনি যে ওয়েব সাইট গুলোতে বেশি ভিজিট করেন অথবা আপনি যেসমস্ত কনটেন্ট দেখতে পছন্দ করেন সেই সমস্ত কনটেন্ট গুলোকে টেইলরিং ফিচার হিসাবে শো করবে।

১০. DuckDuck Go

আমাদের সর্বশেষ সিলেক্টেড ব্রাউজারটি হচ্ছে প্রাইভেসি ফ্রেন্ডলি DuckDuckGo সার্চ ইঞ্জিনের অন্য একটি প্ল্যাটফর্ম। এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি আপনার গোপনীয়তা রক্ষা করতে পারবেন, ফলে আপনি ওয়েব সার্চ এবং ব্রাউজ করার সময় আপনার ব্যক্তিগত ইনফর্মেশনকে নির্বিঘ্নে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন।

এই ব্রাউজারের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফিচার নিচে দেওয়া হলঃ

১. অ্যাডভারটাইজিং ট্র্যাকার নেটওয়ার্কঃ আপনার গোপনীয়তার সুরক্ষা প্রদানের জন্য আপনি যে সমস্ত থার্ট পার্টি ট্র্যাকার ডিটেক্ট করবে তা এই ফাংশনের সাহায্যে ব্লক করে দিবে, সময়ের সাথে সাথে আপনাকে ট্র্যাকিং করে যে সমস্ত অ্যাড গুলো শো করতো তাও ডিটেক্ট করবে, যাতে আপনাকে আর ট্র্যাকিং করতে না পারে।

২. এনক্রিপশন সিকিউরিট বাড়ানঃ এই ব্রাউজার ওয়েব সাইটগুলোকে এনক্রিপ্ট করা কানেক্টশন ব্যবহার করতে বাধ্য করে, ফলে আপনার ডেটা সিকিউরিটি অনেকাংশে বেড়ে যায়।

৩. সার্চ প্রাইভেটলিঃ আপনি আপনার সবচেয়ে প্রাইভেট তথ্যগুলো সার্চ ইঞ্জিনে শেয়ার করেন, যেমনঃ আর্থিক, মেডিক্যাল এবং পলিটিক্যাল তথ্য শেয়ার করে থাকেন। আর এই কারণেই DuckDuckGo আপনার সার্চিং হিস্টোরি ট্র্যাক করে না।

৪. ডিকোড প্রাইভেসি পলিসিঃ DuckDuckGo আপনার শেয়ার করা ইনফর্মেশন ট্র্যাক করে না, আর সিকিউরিটি নিশ্চিত করার জন্য তা এনক্রিপ্ট করে ফলে আপনার প্রাইভেসি নিয়ে চিন্তা না করলেও হবে।

টিউন জোসস করুন, আমার টিউন শেয়ার করুন, টেকটিউনসে আমাকে ফলো করুন, আপনাদের মতামত জানান

আমি এরকম নিত্যনতুন কাজের সফটওয়্যার নিয়ে টেকটিউনসে হাজির হবো নিয়মিত। তবে সে জন্য আপনার যা করতে হবে তা হলো আমার টেকটিউনস প্রোফাইলে আমাকে ফলো করার জন্য 'Follow' বাটনে ক্লিক করুন। আর তা না হলে আমার নতুন নতুন টিউন গুলো আপনার টিউন স্ক্রিনে পৌঁছাবে না।

আমার টিউন গুলো জোসস করুন, তাহলে আমি  টিউন করার আরও অনুপ্রেরণা পাবো এবং ফলে ভবিষ্যতে আরও মান সম্মত টিউন উপহার দিতে পারবো।

আমার টিউন গুলো শেয়ার বাটনে ক্লিক করে সকল সৌশল মিডিয়াতে শেয়ার করুন। নিজে প্রযুক্তি শিখুন ও অন্য প্রযুক্তি সম্বন্ধে জানান টেকটিউনসের মাধ্যমে।

Level 8

আমি রায়হান ফেরদৌস। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 163 টি টিউন ও 129 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 58 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Bromite Browser এর নাম কই?