হুয়াওতে নিষিদ্ধ হলো অ্যান্ড্রয়েড সহ ইউটিউব, জিমেইল

সম্পৃতি সংবাদ মাধ্যমে জানা গেছে চীন ভিত্তিক স্মার্টফোন নির্মাণকারী ব্র্যান্ড হুয়াওয়েকে আর অ্যান্ড্রয়েড সেবা দেবে না মার্কিন টেক জায়ান্ট গুগল।
এর ফলশ্রুতিতে হুয়াওয়ের নতুন মডেলের হ্যান্ডসেটগুলোতে আর থাকছে না জিমেইলসহ অন্যান্য জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত গুগল অ্যাপসগুলো।
একই সঙ্গে বর্তমানে বাজারে থাকা হুয়াওয়ের ডিভাইসগুলোতে আর কোনো ধরনের আপডেট ভার্সন পাওয়া যাবে না স্মার্টফোনের জন্য গুগল মালিকানাধীন অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডর।
এতে করে হুয়াওয়ের মার্কেটে দেখা দিতে পারে নানান ধরনের সমস্যা।
কেন এমন সিদ্ধান্তে গেলেন গুগল এবং আপনার ব্যাবহিত বর্তমান অ্যান্ড্রয়েড হুয়াওয়ে ডিভাইসের বা কি হবে?
সেটা জানতে হলে নিচের ভিডিওটি দেখতে  পারেন

https://youtu.be/8JqLn9hm0jM

বা আর্টকেল পড়ুন।

গত রোববারে আন্তর্জাতিক একটা সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এক বিশেষ প্রতিবেদনে গুগল প্রোডাক্ট বয়কটের বিষয়টি সামনে আসে।
এতে করে হুয়াওয়ে ডিভাইসে থাকবে না নিদিষ্ট কিছু কোন গুগল প্রোডাক্ট,
এতে করে হুয়াওয়ে ব্যবহার কারিরা এর সুবিধা ভোগ করতে পারবেন না।
এটি করা মূল কারন হচ্ছে রাজনৈতিক দলের রেশারেশি
প্রতিবেদটিতে বলা হয়, ট্রাম্প প্রশাসনের ‘ব্ল্যাকলিস্ট’ এর কারণে হুয়াওয়ের সঙ্গে চলমান দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বন্ধ করতে যাচ্ছে গুগল। তবে ‘ওপেন সোর্স প্ল্যাটফর্ম’ এ থাকা সফটওয়্যারগুলোই শুধু সচল থাকবে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনগুলোতে।

গুগলের এমন সিদ্ধান্তের প্রভাব সম্পর্কে ওই সংবাদমাধ্যম বলছে যে, চীনে গুগল ব্যবহার সীমিত আকারে থাকায় সেখানে খুব একটা প্রভাব ফেলবে না এ সিদ্ধান্ত। তবে চীনের বাইরে অন্যান্য দেশগুলোতে অ্যান্ড্রয়েড এবং গুগলের নানারকম অ্যাপস বেশ জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত। তাই সেসব দেশের হুয়াওয়ে ডিভাইস ব্যবহারকারীরা পড়তে যাচ্ছেন বেশ বড় রকমের ঝামেলায়। যা চীনা প্রতিষ্ঠানটির বৈশ্বিক ব্যবসায় প্রভাব ফেলবে।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ট্রাম্প প্রশাসন আনুষ্ঠানিকভাবে হুয়াওয়েকে যুক্তরাষ্ট্রে ‘কালো তালিকা’ ভুক্ত করে। এমন সিদ্ধান্তের পরেই নিজেদের সিদ্ধান্ত জানায় গুগল। এর ফলশ্রুতিতে হুয়াওয়ের নতুন হ্যান্ডসেটগুলোতে আর অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম থাকবে না। তাই থাকবে না ‘গুগল প্লে’ অ্যাপ স্টোর।

তবে এ বিষয়ে মার্কিন প্রশাসন, গুগল বা হুয়াওয়ের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে। তবে ‘সম্ভাব্য’ সব উপায় হুয়াওয়ে খতিয়ে দেখছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

চীনের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে ব্যবহারকারীদের তথ্য পাচারের মাধ্যমে হুয়াওয়ে এবং আরেক চীনা কোম্পানি জেডটিই গুপ্তচরবৃত্তিতে লিপ্ত আছে বলে বরাবরই অভিযোগ করে আসছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্র দেশগুলো। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রে ফাইভ-জি সেবার কাজে প্রতিষ্ঠান দু’টিকে ‘নিষিদ্ধ’ও ঘোষণা করা হয়েছে,

এক বিবৃতিতে গুগল জানায়, তারা আদেশ মেনেই কাজ করছে এবং এর প্রভাব পর্যালোচনা করছে। গুগলের নতুন এই সিদ্ধান্তের কারণে হুয়াওয়ে গুগলের নিরাপত্তাবিষয়ক আপডেট ও প্রযুক্তিগত সহায়তা আর পাবে না। তবে ‘ওপেনসোর্স প্ল্যাটফর্ম’-এ থাকা সফটওয়্যারগুলোই শুধু সচল থাকবে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনগুলোয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, হুয়াওয়ের নতুন ডিভাইসে ইউটিউব, জি-মেইল, গুগল ম্যাপ, ক্রোম ব্রাউজারের মতো জনপ্রিয় গুগল অ্যাপসগুলো আর থাকবে না। কারণ, এসব সেবা ওপেনসোর্স লাইসেন্সের আওতায় পড়ে না। এগুলো পেতে গুগলের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির প্রয়োজন হয়। তবে গুগল প্লে স্টোরের অ্যাকসেস থাকা বর্তমান হুয়াওয়ের ডিভাইস ব্যবহারকারীরা এখনো গুগলের অ্যাপ্লিকেশনের আপডেট ডাউনলোড করতে পারবেন।
তবে এ বিষয়ে হুয়াওয়ের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, এই সিদ্ধান্ত হুয়াওয়ের ব্যবসার ওপর ব্যাপক প্রভাব ফেলবে। পশ্চিমে হুয়াওয়ের ব্যবসা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কারণ, স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা গুগল প্লে স্টোর বাদে ফোন কিনতে আগ্রহী হন না।

নতুন ডিভাইস গুলোতে কোন এন্ড্রোয়েট অপারেটিং সিস্টেম থাকবে না এবং বিকল্প ব্যাবস্তা হিসাবে হুয়াওয়ে ব্যবহার করতে যাচ্ছে তাদের তৈরিকৃত নতুন অপারেটিং সিস্টেম হংমেং।
এতে করে পুরান ফোন গুলোতে আপডেটের মাধ্যমে এন্ড্রোয়েট থেকে হংমেং এ পরিবর্তন করা যাবে।

শেষ তথ্য মোতাবেক আরো ভালো কিছু করতে চাইয়ে চিনা এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে।
পরবর্তী টেক আপডেট জানতে এবং প্রতিনিয়ত টেক ভিডিও পেতে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন,
ভিডিওটি ভালো লাগলে ভিডিওটিতে একটি লাইক দিন এবং আপনার মতামত টিউমেন্টে লিখে জানান,
দেখা হবে আগামী সপ্তাহের টেক আপডেট ভিডিওতে,
আজকের মত বিদায় নিচ্ছি খোদা হাফেজ।

Level 0

আমি শোআইব ইমরান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 55 টি টিউন ও 13 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস