ব্যবহার করুন Shizuku! ব্যাচ রিস্টোর করুন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস!

টিউন বিভাগ অ্যান্ড্রয়েড Apps
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 12
কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা

আমরা যখন আমাদের অ্যান্ড্রয়েড ফোনটিকে রিসেট করি, তখন আমাদের ফোন থেকে সমস্ত অ্যাপ, এসএমএস এবং অন্যান্য সকল ডাটা গুলো হারিয়ে যায়। আর পরবর্তীতে আমাদেরকে সে সমস্ত অ্যাপ গুলো মোবাইলে ইন্সটল করতে হয়, যা অনেক সময় সাপেক্ষ এবং ব্যয়বহুলও বটে। কারণ, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমরা মোবাইল ডাটা ব্যবহার করে যাবতীয় অ্যাপস ইনস্টল করে থাকি।

তবে, মোবাইল রিসেটের পর মূল সমস্যা হলো, আমাদের মোবাইল থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ এবং এসএমএস হারিয়ে যায়, যেগুলো আমরা আর পূর্বের মত ফিরে পাই না। কিন্তু, আপনি যদি আপনার মোবাইলটির ব্যাকআপ নিয়ে রাখতেন, তাহলে পরবর্তীতে এই সমস্যায় পড়তে হতো না। অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ব্যাকআপ নেওয়ার জন্য বেশ কিছু টুল বা অ্যাপ রয়েছে, যেগুলো আমরা ব্যবহার করতে পারি।

অ্যান্ড্রয়েডের প্রথম থেকে অনেকেই ফোনের ব্যাকআপ টুল হিসেবে Titanium Backup ব্যবহার করত। এই অ্যাপ্লিকেশনটি বছরের পর বছর ধরে ব্যবহারকারীদের কাছে একটি শক্ত অবস্থান ধরে রেখেছিল, তা অনস্বীকার্য। যাইহোক, বর্তমান সময়ে আর Titanium Backup অনেকেই ব্যবহার করতে চান না এবং এটির দিন প্রায় শেষ, কারণ অরিজিনাল ডেভলপাররা এই অ্যাপটির আর আপডেট করে না।

এর মানে হলো যে, এই মুহূর্তের নতুন স্মার্টফোন এবং নতুন ডিভাইস গুলোতে এটির সাপোর্ট নেই। তবে, আপনি যদি আপনার স্মার্টফোনের অ্যাপ সহ যাবতীয় ডেটা ব্যাকআপ রাখতে চান, তাহলে আপনার জন্য অন্যান্য আরো সকল বিকল্প অ্যাপ রয়েছে, যেগুলো এটির চাইতেও ভালো সার্ভিস দিতে পারে।

আজকের এই টিউনে আমি এরকমই একটি অ্যাপ নিয়ে আলোচনা করেছি, যেটি ব্যবহার করে আপনি আপনার ডিভাইসের সম্পূর্ণ ব্যাকআপ নিয়ে রাখতে পারবেন। টিউটিতে আমি আলোচনা করেছি, কীভাবে আপনার ডিভাইসের ব্যাকআপ নেওয়ার জন্য Shizuku অ্যাপ ব্যবহার করতে হয় এবং কীভাবে আপনি আপনার ফোনের সম্পূর্ণ ব্যাকআপ নিয়ে রাখবেন।

ফোনের ব্যাকআপের জন্য কেন Google One ব্যবহার করবেন না?

ফোনের ব্যাকআপের জন্য কেন Google One ব্যবহার করবেন না?

বর্তমানে প্রায় সমস্ত অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনের ফোনগুলোতে ব্যাকআপ নেওয়ার ব্যবস্থা হিসেবে Google One ডিফল্টভাবে সেটিংসে যুক্ত করে দেওয়া থাকে। তবে, এটির মাধ্যমে কিন্তু আপনার মোবাইলের সমস্ত ডেটা অনলাইন একাউন্টে সেভ হয় না। এক্ষেত্রে শুধুমাত্র আংশিকভাবে আপনার অনলাইন অ্যাকাউন্টে অ্যাপের ডেটা সেভ করা হয়।

এটি মূলত আপনার মোবাইলে ইন্সটল থাকা অ্যাপ গুলোর তালিকা সেভ করে রাখে এবং সেগুলো পরবর্তীতে গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে। যার ফলে, আপনি যখনই প্রত্যেকবার Factory Reset দিবেন এবং ডিভাইস রিস্টোর করবেন, তখন আপনার ডিভাইসের ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন পড়বে। আর, এরকমভাবে প্রত্যেকবার ফ্যাক্টরি রিসেট এর পর অ্যাপ গুলো ডাউনলোড করা সত্যিই অনেক বিরক্তিকর।

আর এই কারণেই, আপনাকে Google One এ ডিভাইসের ব্যাকআপ না রেখে অন্য কোন নির্ভরযোগ্য অ্যাপ ব্যবহার করা উচিত।

আপনার কেন Swift Backup ব্যবহার করা উচিত?

আপনার কেন Swift Backup ব্যবহার করা উচিত?

Swift Backup হলো এমন একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ, যা অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ডেটা ব্যাকআপ এবং রিস্টোর প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। এই অ্যাপসটি মূলত Shizuku সার্ভিসের উপর নির্ভর করে কাজ করে থাকে। যেটি ব্যবহার করার জন্য Shizuku সার্ভিস রান করতে হয়।

এটি দিয়ে, অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের অ্যাপস, এসএমএস, কল লগ, কন্টাক্ট লিস্ট, ক্যালেন্ডার এবং আরও বেশ কিছু ধরনের ডেটা ব্যাকআপ করে রাখা যায়। ডিভাইসের সমস্ত ধরনের ব্যাকআপের জন্য Swift Backup হলো একটি পারফেক্ট অ্যাপ, যেটি ডিভাইসে Root Access এর প্রয়োজন ছাড়াই অফলাইন এবং কাস্টম ক্লাউড স্টোরেজে ব্যাকআপ রাখার সুবিধা প্রদান করে।

আপনি যদি কোন ধরনের ঝুঁকি না নিয়ে মোবাইলের ডেটা গুলো ব্যাকআপ করে রাখতে চান, তাহলে Swift Backup আপনার জন্য উপযুক্ত। আপনি যদি ফোনটিকে ফ্যাক্টরি রিসেট করার আগে Swift Backup ব্যবহার করে ব্যাকআপ নিয়ে রাখেন, তাহলে পরবর্তীতে ফোন ব্যাকআপের সময় এবং ইন্টারনেট ডাটা সাশ্রয় হতে পারে।

এক্ষেত্রে যেহেতু আপনাকে গুগল প্লে স্টোর থেকে সেসব অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে না, তাই এটি আপনার জন্য বেশ কাজের একটি অ্যাপ হবে।

কীভাবে Shizuku সার্ভিস ইনস্টল ও Active করবেন?

কীভাবে Shizuku সার্ভিস ইনস্টল ও Active করবেন?

Swift Backup এর সমন্বয়ে Shizuku ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সর্বাধিক সুবিধা পাওয়ার জন্য আপনার সম্পূর্ণ রুট অ্যাক্সেস এর প্রয়োজন হবে। যেখানে, Swift Backup এর কিছু ফিচার সঠিক ভাবে কাজ করার জন্য আপনার ফোনে অবশ্যই রুট সুবিধা থাকতে হবে। যাইহোক, Shizuku সার্ভিস টি মূলত আপনাকে আপনার ব্যাকআপ অ্যাপ গুলো রিস্টোর করতে কাজ করবে।

আপনি মূলত Swift Backup এর মাধ্যমেই যেকোন মোবাইল অ্যাপস, এসএমএস, কন্টাক্ট লিস্ট এবং কল লগ ব্যাকআপ করতে পারবেন। কিন্তু, আপনি যখন আপনার মোবাইলের ব্যাকআপ থাকা মোবাইল অ্যাপ ও ডেটা গুলো পরবর্তীতে রিস্টোর করতে চাইবেন, তখনই আপনাকে Shizuku‌ সার্ভিস রান করতে হবে। ‌আর, এটি করার জন্য আপনার ফোনের রুট অ্যাক্সেস লাগবে।

তাহলে, এবার আপনার ডিভাইসে Shizuku সার্ভিস Enable করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন:

১. প্রথমে গুগল প্লে স্টোর থেকে Shizuku অ্যাপসটি ইন্সটল করুন।

২. তারপর, Shizuku‌ অ্যাপসটি ওপেন করুন এবং Start via Wireless debugging সেকশনে যান।

৩. তারপর, Pairing বাটনে ক্লিক করুন।

৪. এরপর, Shizuku‌ অ্যাপের On-screen নির্দেশনা গুলো অনুসরণ করুন।

৫. এবার Main স্ক্রিনে চলে আসুন এবং Start বাটনে ট্যাপ করুন।

Shizuku এর Start button

৬. এখন, Shizuku‌ service is running দেখাবে, আর এরপর আপনি পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য এগিয়ে যান। যদিও, আমার এখানে রুট অ্যাক্সেস না দেবার কারণে এরকম ভিন্ন লেখা দেখাচ্ছে।

Shizuku‌ service is running

Swift Backup ব্যবহার করে আপনার অ্যাপস ব্যাকআপ করার পদ্ধতি

Swift Backup ব্যবহার করে আপনার অ্যাপস ব্যাকআপ করার পদ্ধতি

আপনি খুব সহজেই কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমে Swift Backup ব্যবহার করে আপনার মোবাইলের সিস্টেম অ্যাপ থেকে শুরু করে ইন্সটল করার সকল অ্যাপসের ডাটা সহ অ্যাপগুলো ব্যাকআপ করে রাখতে পারবেন। কিন্তু, সেগুলো রিস্টোর করার জন্য Shizuku‌ সার্ভিস ব্যবহার করতে হবে। তার মানে হল, আপনার ডেটা সহ ফোনের অ্যাপস ব্যাকআপ করার জন্য শুধুমাত্র Swift Backup অ্যাপসটির প্রয়োজন পড়বে।

আপনি যদি Swift Backup ওপেন করেন, তাহলে বুঝতে পারবেন যে, এটি ব্যবহার করা কত সহজ। তাহলে চলুন, এবার Swift Backup ইনস্টল করে সেটিকে Shizuku‌ এর সাথে কানেক্ট করার প্রক্রিয়া দেখানো যাক। সেই সাথে, আপনি কিভাবে ব্যাকআপ এবং রিস্টোর করবেন, তা নিচে ধারাবাহিকভাবে আলোচনা করা হলো।

Swift Backup ইন্সটল এবং ব্যাকআপ করার প্রক্রিয়া

১. প্রথমে গুগল প্লে স্টোর থেকে Swift Backup ইনস্টল করুন।

২. এরপর Swift Backup একটি ওপেন করুন এবং Google Account দ্বারা Sign in করুন। তবে আপনি, Continue without an account অপশনে ক্লিক করে অফলাইনে ও এটি ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু আপনি যদি আপনার ব্যাকআপ নেওয়া ফাইলগুলো কোন ক্লাউড স্টোরেজে ব্যাকআপ করে রাখেন অথবা অ্যাপটির অন্যান্য প্রিমিয়াম ফিচার ব্যবহার করতে চান, তাহলে আপনাকে গুগল একাউন্ট দিয়ে লগইন করতে হবে।

Continue without an account

২. এরপর, আপনাকে স্টোরেজ এর পারমিশন দেওয়ার জন্য বলবে। এজন্য আপনি এই অপশনে ক্লিক করুন।

স্টোরেজ এর পারমিশন

২. তারপর, পারমিশন গুলো Allow করে দিন।

পারমিশন গুলো Allow করে দিন

৩. এবার আপনি এখানে অ্যাপটির সাম্প্রতিক সময়ের পরিবর্তন গুলো দেখতে পারবেন। যেগুলো দেখার জন্য নিচের দিকে সোয়াইপ করুন।

Swift Backup এর সাম্প্রতিক সময়ের আপডেট

Swift Backup থেকে অ্যাপস গুলো ব্যাকআপ করুন

আপনি Swift Backup ইনস্টল করার পর অ্যাপটিতে প্রবেশ করুন। এখন আপনি মোবাইলের অ্যাপ, এসএমএস এবং কল লগ ব্যাকআপ করার সুবিধা পাবেন।

১. ফোনের অ্যাপস গুলো ব্যাকআপ করার জন্য Backup All Apps অপশনে ক্লিক করুন।

ফোনের অ্যাপস গুলো ব্যাকআপ করার জন্য Backup All Apps অপশনে ক্লিক

২. তারপর এখান থেকে প্রয়োজনীয় অ্যাপস গুলো মার্ক করুন, যেগুলো আপনি ব্যাকআপ করতে চাচ্ছেন।

অ্যাপ ব্যাক আপ করার জন্য মার্ক করুন

৩. আপনি চাইলে আপনার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের সিস্টেম অ্যাপ গুলো ও ব্যাকআপ করতে পারবেন। এজন্য এখানে থাকা উপরের থ্রি ডট আইকনে ক্লিক করুন।

অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের সিস্টেম অ্যাপ ব্যাকআপ

তারপর, App Backup Settings অপশনে ক্লিক করুন।

App Backup Settings অপশনে ক্লিক

৪. এখন, এখান থেকে Show system apps অপশনটি চালু করে দিন এবং Back এ চলে আসুন।

সিস্টেম অ্যাপ ব্যাকআপের জন্য Show system apps অপশনটি চালু করে দিন

৫. এখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় অ্যাপস গুলো সিলেক্ট করার পর নিচের Backup Options বাটনে ক্লিক করুন।

অ্যাপস গুলো সিলেক্ট করার পর Backup Options বাটনে ক্লিক

৬. এখন আপনি যদি অ্যাপসটির সকল ডাটা সহ ব্যাকআপ করতে চান, তাহলে এখান থেকে Data অপশনটি সিলেক্ট করুন এবং তারপর নিচের Backup বাটনে ক্লিক করুন।

অ্যাপের ডাটা সহ ব্যাক আপ

উল্লেখ্য যে, অ্যাপের ডাটা সহ ব্যাকআপ করার জন্য আপনার ফোনের Root Access এর প্রয়োজন হবে। আর, অ্যাপ ব্যাকআপ করার সময় ডিফল্ট ভাবে ApKs ফরমেট সিলেক্ট করা থাকে, তবে আপনি অতিরিক্ত ব্যাকআপ ফিচার হিসেবে Ext. data, Expansion এবং Media অপশন পাবেন।

আপনি যদি শুধুমাত্র আপনার ইন্সটল করা অ্যাপস গুলোর ব্যাকআপ করার কথা চিন্তা করেন, তাহলে আপনি শুধুমাত্র ApKs অপশনটি সিলেক্ট করুন। আর গেমাররা চাইলে Ext. data সিলেক্ট করে গেমের ফাইল সহ সকল ডেটা ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

আপনি যখন অ্যাপস গুলো সিলেক্ট করে Backup বাটনে ক্লিক করবেন, তখন কিছুটা সময় নিয়ে সেগুলো আপনার মোবাইলের স্টোরেজে ব্যাকআপ হতে থাকবে।

মোবাইলের অ্যাপ ব্যাকআপ সম্পন্ন

আপনি যদি ব্যাকআপ ফাইলগুলো Internal Storage এ সেভ করেন, তাহলে মোবাইল ফ্যাক্টরি রিসেট করার আগে সেগুলো External Storage এ কপি করে রাখুন অথবা অন্য কোন ডিভাইসে ট্রান্সফার করে নিন।

Swift Backup

Official Download @ Swift Backup

Swift Backup ব্যবহার করে ব্যাকআপ থাকা অ্যাপ রিস্টোর করার পদ্ধতি

Swift Backup ব্যবহার করে ব্যাকআপ থাকা অ্যাপ রিস্টোর করার পদ্ধতি

আপনি যখন আপনার মোবাইলটি ফ্যাক্টরি রিসেট করবেন কিংবা মোবাইলে কাস্টম রম ইন্সটল করবেন, তখন দ্রুত সময়ের মধ্যে আপনার ফোনটি কে আবার পূর্বের মতো করার জন্য ব্যাকআপ থাকা অ্যাপস গুলো রিস্টোর করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিবে। ‌আর, আপনার ব্যাকআপ থাকা অ্যাপ বা মেসেজ গুলো রিস্টোর করার প্রক্রিয়াটি ও বেশ সহজ এবং এটির জন্য তেমন বেশি সময় লাগবে না।

আপনার ডিভাইসে ইনস্টল করা Shizuku সার্ভিসটি Active করুন

ফোনের প্রয়োজনে অ্যাপস বা এসএমএস ব্যাকআপ নেওয়ার পর আপনি যখন ফোনটিকে রিসেট করবেন, তখন আপনার ফোনটিতে ব্যাকআপ গুলো ফিরিয়ে আনার জন্য কয়েকটি পদক্ষেপ নিতে হবে। সেগুলো হল:

১. শুরুতেই আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে গুগল দিয়ে সাইন ইন করে প্লে স্টোর থেকে Shizuku এবং Swift Backup অ্যাপস ইনস্টল করে নিন।

২. এরপর‌, Shizuku অ্যাপটি ওপেন করুন এবং আবার Start বাটনে ক্লিক করে সার্ভিসটি Enable করুন।

Shizuku অ্যাপটি ওপেন করুন এবং আবার Start বাটনে ক্লিক

৩. আপনি যখন আপনার মোবাইলে Swift Backup ব্যবহার করার জন্য Shizuku ব্যাকগ্রাউন্ডে Run করবেন, তখন অবশ্যই ডিভাইসটির ব্যাটারি সেটিংস থেকে বা ব্যাকগ্রাউন্ডে অ্যাপসটি সক্রিয় থাকার জন্য Don't Optimized করে দিন। এতে করে, অ্যাপসটি যথাযথভাবে ব্যাকগ্রাউন্ডে কাজ করবে।

Shizuku ব্যাকগ্রাউন্ডে Don't Optimized করে দিন

৪. এবার, Shizuku অ্যাপটি মিনিমাইজ করুন এবং Swift Backup অ্যাপটিতে চলে যান। তার আগে, আপনি অবশ্যই ব্যাকআপ করা ফাইলগুলো Internal Storage এ কপি করে নিয়ে আসুন। ‌

৫. Swift Backup এ চলে আসার পর Apps quick action এর অধীনে থাকা Restore all apps অপশনে ক্লিক করুন। আমার এই অপশনটি কাজ করছে না, এটি কাজ করানোর জন্য ফোনের Root Access লাগবে, যা আমি করছি না। তবে, আপনি যদি এই সার্ভিসটি ব্যবহার করে ফোনের ব্যাকআপ করা অ্যাপ গুলো ফিরিয়ে আনতে চান, তাহলে ফোনটিকে রুট অ্যাক্সেস দিয়ে দিন।

Apps quick action এর অধীনে থাকা Restore all apps অপশনে ক্লিক

৬. এর পরের ধাপে আপনি ব্যাকআপ করার সময় যে ধরনের ফাইল হিসেবে সেটি ব্যাকআপ করে রেখেছিলেন, সেই File টাইপ সিলেক্ট করুন এবং Restore বাটনে ক্লিক করুন।

৭. তারপর ফাইল সিলেক্ট করে রিস্টোর হয়ে গেলে Done বাটনে ক্লিক করে আপনার কাজ শেষ করুন।

এবার, ‌ Swift Backup অ্যাপটি ক্লোজ করে দিয়ে হোমস্ক্রিনে আসুন এবং অ্যাপগুলো পরীক্ষা করে দেখুন। আপনি অ্যাপ গুলোর ফাইলসহ ব্যাকআপ করে রাখেন এবং সেগুলোকে রিস্টোর করেন, তাহলে ফ্যাক্টরিতে সেট করার আগে আপনি যেরকম অ্যাপ রেখেছিলেন, ব্যাকআপ করার পরে ঠিক সেরকম অবস্থায় অ্যাপ গুলো ফিরে পাবেন। তাই, আপনাকে আর কষ্ট করে অ্যাপ গুলোর সেটিং ঠিক করতে হবে না কিংবা প্রয়োজনীয় গেমের লেভেল বৃদ্ধি করার জন্য সময় ব্যয় করতে হবে না।

Shizuku

Official Download @ Shizuku

যে কারণে আপনার সবসময় Swift Backup ব্যবহার করা উচিত

যে কারণে আপনার সবসময় Swift Backup ব্যবহার করা উচিত

আপনি যদি প্রায়ই আপনার ফোনটির সমস্যার জন্য ফ্যাক্টরি রিসেট করে থাকেন, তাহলে আপনার ফোনের জন্য প্রয়োজনে অ্যাপ গুলো বারবার‌ ইনস্টল করার হাত থেকে বাঁচার জন্য Swift Backup ব্যবহার করতে পারেন। এটি, অ্যাপ গুলো ফাইলসহ ব্যাকআপ করে রাখার সুবিধা দেয়, ফলে অ্যাপস গুলো ইন্সটল করার পরও সেটিংস গুলো পূর্বের মতই থাকে।

এছাড়াও, আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েডে কাস্টম রম ইন্সটল করতে চান, তাহলে ও বর্তমানের ব্যবহৃত অ্যাপগুলোকে ব্যাকআপ নিয়ে রাখতে পারেন। যা আপনাকে সবসময় পূর্বের অভিজ্ঞতা দিতে পারে। Swift Backup অ্যাপসটি Shizuku এর সমন্বয়ে আপনাকে রুট অ্যাক্সেস ছাড়াই অ্যান্ড্রয়েডের অ্যাপ গুলোকে খুব সহজেই ব্যাকআপ করার সুবিধা দেয়। তবে, ব্যাকআপ করা অ্যাপগুলো রিস্টোর করার জন্য আপনাকে রুট অ্যাক্সেস দিতে হবে।

যদিও এই অ্যাপসটির কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে, কিন্তু তবুও আপনি এখানে অনেক মূল ফিচার পেয়ে যাবেন। যেটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ফোনে ইন্সটল করা অ্যাপস গুলো ব্যাকআপ করার পাশাপাশি ‌সিস্টেম অ্যাপস গুলো ও ব্যাকআপ করতে পারবেন।

শেষ কথা

আপনি যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অ্যাপস, এসএমএস, কল লগ এবং হোমস্ক্রিনের ওয়ালপেপার গুলো অফলাইন অথবা অনলাইনে ব্যাকআপ করে রাখতে চান, তাহলে আজকের আলোচনা করা Swift Backup অ্যাপসটি আপনার জন্য বেশ উপকারী হতে পারে। যেটি আপনাকে খুব সহজেই মোবাইলের অ্যাপস, এসএমএস, কল লগ এবং হোমস্ক্রিনের ওয়ালপেপার সমূহ মোবাইলের স্টোরেজে ব্যাকআপ করার সুবিধা দেয়।

আর, পরবর্তীতে খুব সহজেই Shizuku এবং Swift Backup এর মাধ্যমে মোবাইলে আগের সেটিংসহ অ্যাপস গুলো ফিরিয়ে আনা যায়।

Level 12

আমি মো আতিকুর ইসলাম। কন্টেন্ট রাইটার, টেল টেক আইটি, গাইবান্ধা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 331 টি টিউন ও 93 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 59 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।

“আল্লাহর ভয়ে তুমি যা কিছু ছেড়ে দিবে, আল্লাহ্ তোমাকে তার চেয়ে উত্তম কিছু অবশ্যই দান করবেন।” —হযরত মোহাম্মদ (সঃ)


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস