সেরা ৫টি ফাইল ট্রান্সফার অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ফাইল শেয়ার করুন দ্রুত গতিতে

টিউন বিভাগ অ্যান্ড্রয়েড Apps
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

আমরা বেশিরভাগ সময়েই পিসি থেকে ফাইল ট্রান্সফারের জন্য ইউএসবি ক্যাবলের সাহায্য নিয়ে থাকি। কিন্তু অনেক সময় যখন হাতের কাছে ইউএসবি ক্যাবল থাকেনা বা হারিয়ে যা্য়। তখন আমরা সমস্যার সম্মুখীন হই। সাধারণত ইউএসবি ক্যাবলের মাধ্যমে অনেক ভালো স্পিড পাওয়া যায় ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে। একটা সময় ছিলো যখন পিসি থেকে ফাইল ট্রান্সফারের জন্য আমরা ব্লুটুথ ব্যবহার করতাম। তবে ব্লুটুথের মাধ্যমে খুবই কম স্পিড পাওয়া যায়, যারফলে এখন আর ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে ব্লুটুথ ব্যবহার হয়না বললেই চলে। কিন্তু এই ইউএসবি ক্যাবল বা ব্লুটুথ ছাড়াও খুব সহজে ফাইল ট্রান্সফার করা সম্ভব। আজকে আমরা জানবো সেই ৫টি অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে, যার মাধ্যমে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল থেকে পিসিতে বা পিসি থেকে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ফাইল ট্রান্সফার করা সম্ভব।

 সেরা ৫টি ফাইল ট্রান্সফার অ্যাপ্লিকেশন

বর্তমানে ইউএসবি ক্যাবলের ঝামেলা এড়াতে এবং ব্লুটুথের স্লো স্পিড থেকে মুক্তি পেতে ফাইল ট্রান্সফারের জন্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করাই শ্রেয়। কারণ, আপনি যখন ব্যস্ত থাকবেন বা কোনো প্রয়োজনে দ্রুত ফাইল ট্রান্সফারের দরকার পড়বে তখন ইউএসবি ক্যাবল না পেলে এই অ্যাপসই হবে আপনার একমাত্র ফাইল ট্রান্সফার বা শেয়ারের উপায়। তবে আপনার পিসিতে অবশ্যই ওয়াই-ফাই কানেকশন থাকতে হবে এবং ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে স্মার্টফোনেও একই নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত হতে হবে। এই ফাইল ট্রান্সফার অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আপনি ইউএসবি ক্যাবলের মতই বা তারচেয়েও ভালো ট্রান্সফার স্পিড পাবেন। তাহলে জেনে নেওয়া যাক ফাইল ট্রান্সফারের সেরা ৫টি অ্যাপ্লিকেশন সম্বন্ধে।

১) SHAREit

ফাইল ট্রান্সফারের সর্বাধিক জনপ্রিয় ও পরিচিত অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ভিতর শেয়ারইট অন্যতম। প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপসটি ৫০০ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আপনি যে কোনো ফরম্যাটের ফাইল ট্রান্সফার বা শেয়ার করতে পারবেন। তবে ট্রান্সফারের জন্য পিসিতেও শেয়ারইট সফটওয়্যারটি ইনস্টল থাকতে হবে। এটির ট্রান্সফার স্পিড গড়ে ৬ এম্বিপিএস। পিসির জন্য সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে নিচের নীল লিংকে ক্লিক করুন এবং মোবাইলের জন্য ডাউনলোড করতে নিচের সবুজ লিংকে ক্লিক করুন।

shareit transfer

SHAREit for PC SHAREit for Mobile

২) Wifi file transfer

ওয়াইফাই ফাইল ট্রান্সফারও বেশ জনপ্রিয় একটি ফাইল শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন। প্লে স্টোর থেকে এটি ১০ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। তবে ফাইল ট্রান্সফারের জন্য পিসিতে কোনো সফটওয়্যার ইনস্টলের প্রয়োজন নেই। ব্রাউজারে গিয়ে একটি নির্দিষ্ট আইপি ঠিকানার মাধ্যমে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন পিসি এবং মোবাইল উভয়েই। ট্রান্সফার স্পিড গড়ে ৭ এম্বিপিএস। ওয়াইফাই ফাইল ট্রান্সফার অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।

wifi file

Wifi file tranfer

৩) Xender

জেন্ডার একটি অসাধারণ ফাইল ট্রান্সফার অ্যাপ্লিকেশন। এটি প্লে স্টোর থেকে ১০০ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। আইপি ঠিকানা অথবা, QR কোড স্ক্যানের মাধ্যমে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন। এটির বিশেষ সুবিধা হলো, আপনি অডিও প্লে করে শুনতে পারবেন ফাইল ট্রান্সফারের পূর্বেই। এটির ফাইল ট্রান্সফার স্পিড গড়ে ৬.৫ এম্বিপিএস। জেন্ডার অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।

xender transfer

Xender

৪) Web PC Suite

ওয়েব পিসি সুইট অ্যাপ্লিকেশনের ইন্টারফেস অনেকটা জেন্ডারের মতই তবে খানিকটা আলাদা। অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোর থেকে ১ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। ওয়েব ইন্টারফেসের মাধ্যমে অথবা, QR কোড স্ক্যানের মাধ্যমে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন। এটির ফাইল ট্রান্সফার স্পিড গড়ে ৬.২ এম্বিপিএস। ওয়েব পিসি সুইট অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।

pc suite

Web PC Suite

৫) Zapya

এই অ্যাপ্লিকেশনটি অনেকটা শেয়ারইটের মতই। ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে আপনাকে ডেক্সটপ/ল্যাপটপে Zapya সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে হবে। শেয়ারইটের মতই এটিও বিভিন্ন ফরম্যাটের ফাইল ট্রান্সফার করতে পারে। প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ্লিকেশনটি ১০ মিলিয়নেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে এবং এর ফাইল ট্রান্সফার স্পিড গড়ে ৬ এম্বিপিএস। এটি ডাউনলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন। জাপিয়া সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে নিচের নীল লিংকে ক্লিক করুন এবং মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনটি জন্য ডাউনলোড করতে নিচের সবুজ লিংকে ক্লিক করুন।

zapya transfer

Zapya for PC Zapya for Mobile

সহজে ব্যবহারযোগ্য এই ৫টি অ্যাপ্লিকেশনই যথেষ্ট ভালোমানের এবং ফাইল ট্রান্সফার স্পিডও প্রায় একই রকম। তবে ৫টি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আলাদা ভাবে একই ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে স্পিডের কিছু তারতম্য দেখা যায়। যদি এই টিউনটি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই জোসস করতে ভুলবেন না।

Level 0

আমি শাহরিয়ার আহমেদ। , Khulna। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 6 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

পড়তে এবং নতুন কিছু লিখে শেয়ার করতে ভালোলাগে। সেই ভালো লাগাকে শেয়ার করতে পেরেছি টেকটিউন্সের মাধ্যমে। আশাকরি, আপনারা আমার পোস্ট পছন্দ করবেন। আমার নতুন ইউটিউব চ্যানেলটি ওয়েব ডিজাইন বিষয় একটি চ্যানেল। ইচ্ছে হলে ঘুরে আসবেন এবং সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন :) YouTube Channel: https://www.youtube.com/channel/UCZqPl62B3Lm_X_QBm3AIX8A


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস