সহজে গুগুল এ্যাডসেন্স পাওয়ার কার্যকরী কিছু টিপস।

টিটি তে এটি আমার প্রথম টিউন। অনেক দিন ধরে চেস্টা করছি লেখার কিন্ত সময় হয়ে উঠছে না। আজ সময় পেলাম তাই বসে গেলাম  লিখতে।

আশা করি সবায় ভালো আছেন। বেশি কথা না বাড়িয়ে কাজের কথায় আসি, অনেক টিউনস আছে টিটিতে গুগুল এ্যাডসেন্স নিয়ে। তারপরও কিছু টিপস আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই, সহজে এ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য। আমি  নিজে সফল হয়েছি। আশা করি আপনারাও সফল হবেন।

গুগল এ্যাডসেন্স সম্পর্কে কিছু বলব না কারন সবায় কম বেশি এ বিষয়টি সম্পর্কে অবগত আছেন। তো আসুন দেখি কিভাবে সহজে এ্যাডসেন্স পেতে পারি।

আমার টিপস গুলো নিম্ন রুপ:

১। প্রথমে ভেবে নিন আপনি কোন বিষয়ের উপর পারদর্শী।তারপর একটি ডোমেইন নেম রেজি: করুন। সাইটটি কিন্তু হতে হবে ইংরেজিতে।

২। এখন আপনাকে যে বিষয়টির উপর বেশি গুরুত্ব দিতে হবে সেটি হচ্ছে সাইট ডিজাইন। এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। গুগল কিন্তু কালারফুল ডিজাইন কখনই পছন্দ করেনা। সুতরাং আমাদেরকে অবশ্যই একটি সাদামাটা অর্থাৎ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন টেমপ্লেট  তৈরি করতে হবে। এখান থেকে ডেমো দেখতে পারেন। News

৩। টেমপ্লেট তৈরি হয়েগেলে সাইটটি রান করান। কোন পোস্ট না করে আপনার সাইটটি গুগলে index করাবেন না।

৪। এবারের ধাপটি খুবই গুরুত্বপূর্ন অর্থাৎ সাইটের পোস্ট। এ বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ন এ কারনে যে, একটি সাইটের প্রানই হচ্ছে content সুতরাং আমাদেরকে এবিষয়টির উপর গুরুত্ব দিতে হবে।

আমরা এখন সাইটে পোস্ট করার জন্য content তৈরি করব। এখন আপনি যে কিওয়ার্ড নিয়ে সাইট বানাবেন সেই কিওয়ার্ড এর উপর ভিত্তি করে একটি content তৈরি করুন। সেটা কিছু ইন্টারনেট থেকে ধার করে আবার কিছু নিজের মত করে লিখুন। হু বহু কপি পেস্ট করবেন না, তাহলে মিশনটা সফল হবেন না।

এখন আপনার লেখা শেষ হলে ১-২টা ছবি আপনাকে content এর মধ্যে যুক্ত করতে হবে। ছবি গুলো অবশ্যই আপনার content related.

এখানে আরেকটি খুবই গুরুত্বপুর্ণ ট্রিক্স হচ্ছে ছবি। ছবিগুলোকে আমরা পেইন্ট টুল এর মধ্যমে ড্রইং করব। আমার কথাটি যদি আপনারা বুঝতে না পারেন তাহলে এখান থেকে ছবির ধারনাটা নিতে পারেন। আমরা জানি, ছবিও নিরব ভাষায় কথা বলে। আর এই ছবিটাকে যদি আমরা একটু ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করি তাহলে গুগল অনেকটা খুশি হয়।

এবার প্রথম পোস্টটি সম্পন্ন করুন।

প্রথম পোস্টটি সম্পন্ন হলে বাকি on page seo এর কাজ সম্পন্ন করুন। (যেমনঃ site map sub, search eng. submission & other.)

এভাবে ৫-১০টি পোস্ট করুন । অবশ্যই social bookmark করতে ভুলবেন না।

৫+ পোস্ট করার পর আমাদের মূল কাজ অর্থাৎ এ্যাডসেন্সের জন্য আবেদন করা। আপনাকে নতুন একটি জিমেইল থেকে আবেদন করতে হবে। যেটি থেকে পূর্বে আবেদন করেননি।

আশা করি এ্যাডসেন্স এ্যাপরুভ হয়ে যাবে।আমি মাত্র ৫টি পোস্ট করার পর আবেদন করেছিলাম এবং তা এ্যাপ্রুভও হয়েছিল।

সবায় ভালো থাকবেন। আর ভুল হলে ধরিয়ে দিবেন।

আমার ফেসবুক পেইজ

Level 0

আমি টেক পাগল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 38 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

blogger site e adsence dabe ?

অবশ্যই দিবে যদি আপনার সাইটটি গুনগত হয়।

শুনেছি এডসেন্স পেতে সাইটের বয়স, পেজ ভিউ, কিছু ট্রাম এন্ড কন্ডিশন ইত্যাদি লাগে। এ বিষয়ে জানতে চাই।

শুধু কন্টেন্ট এর দিকে খেয়াল রখবেন সাইট ডিজাইনটা সাদামাটা রাখবেন। আর হ্যা, গুগুল এর কিছু টার্মস এ্যান্ড কন্ডিশন আছে যে গুলো গুগল গাইড লাইন থেকে দেখে নিবেন।