চিটিকা এড কি গুগলের চাইতেও ভাল?

আমরা অনেকেই গুগল এডসেন্স সম্পর্কে আমার চেয়ে অনেক বেশি জানেন যে এটি সব এড নেটওয়ার্কের সেরা। যাহোক আমাদের অনেকেই জানেননা যে চিটিকা এডসেন্স এর সমপর্যায়ের এড নেটওয়ার্ক। বর্তমান ইন্টারনেট এড জগতে গুগল এডসেন্স এবং চিটিকা সেরা দুই কোম্পানি। তবে কিছু ক্ষেত্রে চিটিকা অনেক এগিয়ে আছে গুগল এডসেন্স থেকে।গত দুই বছরে চিটিকা এত বেশি বিস্তার লাভ করেছে যে আগামি কয়েক বছরের মধ্যে এটিই ইন্টরনেট এড জগতের গুরু হতে চলেছে।
চিটিকা বর্তমানে গুগলের এক নাম্বার প্রতিদ্বন্দী এবং মাথা ব্যাথার প্রধান কারন। চিটিকার পে পার ক্লিক রেট তুলনামুলক ভাবে গুগল এডসেন্সের চেয়ে বেশি। তাছাড়া চিটিকার টেক্সট এড গুগল এডসেন্সের টেক্সট এড এর চেয়ে অনেক অনেক বেশি রিলেটেট এমন কি অনেক বেশি ক্লিক পাওয়া যায়। নিচে আমার গত এক মাসের ইনকামের একটি চিত্র দিলাম।

কেন চিটিকা এড গুগলের চাইতেও ভাল?

কেন চিটিকা এড গুগলের চাইতেও ভাল?

১. গুগলের ১০০১ টা পলিসি আছে যার একটি লঙ্ঘন করলে ব্যান খাওয়া নিশ্চিত এবং সব পলিসি  মেনে চলা অনেক কঠিন। কিন্তু চিটিকার সামান্য কিছু পলিসি আছে এবং সব পলিসি  মেনে চলা অনেক সহজ যদিও আপিন আমার মত নতুন হন।

২. চিটিকার সবচেয়ে বড় বড় গুন হল যখন ভিজিটর কোন এডে ক্লিক করে তখন এটি আপনার পেজ থেকে ভিজিটরকে নতুন ট্যাবে অন্য পেজে নিয়ে যায় ফলে ট্রফিক হারানোর ভয় কম থাকে, কিন্তু গুগল ঐ পেজই নতুন পেজ ওপেন করে এবং আপনার অনেক কষ্টের ট্রফিক নিয়ে যায় যা আপনি আর ফিরে পাবেননা।

৩.  যদি আপনার কিছু ভালো কন্টেন্ট এবং ভিজিটর থাকে তাহলে এপ্লাই করলেই চিটিকার এপ্রুভাল পাবেন কিন্তু হাই কোয়ালিটি কন্টেন্ট এবং ভিজিটর না থাকে গুগল এডসেন্স পাবেননা। তাছাড়া গুগল সামান্য কিছু ভাষার সাইট এপ্রুভ করে যার মধ্যে আমাদের প্রানের চেয়ে প্রিয় বাংলা ভাষা নেই!!! অন্যদিকে চিটিকা সব ভাষার সাইটই এপ্রুভ করে যার মধ্যে আমাদের প্রানের চেয়ে প্রিয় বাংলা ভাষাও আছে।

৪. গুগল সবাইকে সমান চোখে দেখেনা। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার জন্য এক রকম পলিসি এবং বাকি জন্য অন্য রকম পলিসি। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়াকে ডান চোখ দিয়ে এবং বাকি সবাইকে বাম চোখ দিয়ে দেখে যা কিছুটা বর্ণবাদের মত। যে কন্টেন্ট আমাদের সাইটে দিলে কপি কন্টেন্ট হয় সেই একই কন্টেন্ট বা তার চেয়েও নিন্ম মানের কন্টেন্ট আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার সাইটে দিলে ১০০% ইউনিক হয়। কন্তু চিটিকার এরকম কোন সমস্যা নেই।

৫. চিটিকাতে $১০ হলেই উত্তোলন করতে পারবেন কিন্তু গুগলে $১০০ এর কম উত্তোলন করতে পারবেন না। উপরন্তু আমি অনেককে দেখেছি যারা গুগলে $১০০ ইনকাম করার আগেই ১০ বার ব্যান খায়, আবার অনেকেই $১০০০ ইনকাম করে যাদের ৯৫% আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়া থেকে, গুগলের ডান চোখের বদৌলতে। আমাদের দেশ খেকেও অনেকেই ইনকাম করে যাদের সংখ্যা অনেক কম।

৬. চিটিকার আরেকটি গুরুত্তপুর্ন দিক হল তাদের রেফারেল পোগ্রাম যার মাধ্যমে আপনি পাবলিশার বা এডভারটাইজার উভয়কেই রেফারেল করতে পারেন, বিনিময়ে তাদের ইনকামের ১০% আপনি পাবেন যা গুগলের নেই।

যদি আপনার ভালো মানের কন্টেন্ট এবং অনেক ভিজিটর থাকে তাহলে চিটিকা থেকে মাসে $১০০ - $ ১০০০ ইনকাম করা খুবই সম্ভব। তাই আপনাকে বলছি অযথা এডসেন্স বা অন্য কোন এডের জন্য সময় নষ্ট না করে আজকেই একটি চিটিকা একাউন্ট খুলুন এখান থেকে এবং ইনকাম শুরু করুন কালকে থেকেই।

টিউনটি তাদের উদ্দশ্যে করা যারা বারবার এডসেন্সে এপ্লাই করেও এপ্রোভাল পাচ্ছেননা, ব্যান খেয়েছেন, ব্লগিং করে টাকা কামাতে চান, একটি নির্ভরযোগ্য এড নেটত্তয়ার্ক খুঁজছেন, যারা টাকা আয় না করতে পেরে ব্লগিং করার চিন্তা বাদ দিয়েছেন। মনে রাখবেন কঠোর পরিশ্রম, ভালো মানের কন্টেন্ট এবং ভিজিটর থাকলে চিটিকাই আপনার ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়ে দিতে পারে। শুভকামনা রইল।

আমার ব্লগ: Avowzone

Level 0

আমি গোলাম রাব্বানী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 24 টি টিউন ও 112 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

Proud to be the leading Leading Digital Marketing Agency since 2012 and largest Social Media Marketing Services in the world. We offer all kind of social media marketing services that can establish your brand online and help to grow your online business. Let us make some noise for your business,...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

গুগল সবাইকে সমান চোখে দেখেনা। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার জন্য এক রকম পলিসি এবং বাকি জন্য অন্য রকম পলিসি। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়াকে ডান চোখ দিয়ে এবং বাকি সবাইকে বাম চোখ দিয়ে দেখে যা কিছুটা বর্ণবাদের মত। যে কন্টেন্ট আমাদের সাইটে দিলে কপি কন্টেন্ট হয় সেই একই কন্টেন্ট বা তার চেয়েও নিন্ম মানের কন্টেন্ট আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার সাইটে দিলে ১০০% ইউনিক হয়। কন্তু চিটিকার এরকম কোন সমস্যা নেই।

তাই?? আমিত জানতাম চিটারে US/UK আর এশিয়ার ভিজিটর থাকা সাইট আকাশ পাতাল ব্যাবধান করে রেখেছে। আর কয় মাস আছেন চিটারের সাথে? আমি বছর ২ আগে রেজি করেছিলাম। প্রথম কয়ক মাস বেশ ভালই দিচ্ছিল। কিন্তু তার পরেই শুরু হল আসল ভন্ডামি। খুব কম পে করে , পার ক্লিকে ১-২ সেন্ট বা কখনো ১০০ ক্লিকে ২০-২৫ সেন্ট করে দিত। তাই এড সরিয়ে নিয়েছিলাম, মাস ২ আগে আবার এড বসাই বাট কোন ইমপ্রুভ পাই নাই তাই আবার তুলে দিয়েছি।

আর হ্যা আপনি কিন্তু রেফারেল লিংক দিয়েছেন যা টিটির নিয়মের বাইরে । 🙂
১.১৪ কোন রকমের এ্যাডসেন্স বা এফিলিয়েট জাতীয় এ্যাড ও লিংক এবং এফিলিয়েট লিংক দিয়ে করা সর্টলিংক (Short Link) দিয়ে টিউন করা যাবে না।

ভাই আমি নতুন তাই জানিনা কোন লিঙ্ক দেওয়া যাবে আর কোনটি দেওয়া যাবে না…..

প্রসঙ্গ ১:
“গুগল সবাইকে সমান চোখে দেখেনা। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার জন্য এক রকম পলিসি এবং বাকি জন্য অন্য রকম পলিসি। আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়াকে ডান চোখ দিয়ে এবং বাকি সবাইকে বাম চোখ দিয়ে দেখে যা কিছুটা বর্ণবাদের মত। যে কন্টেন্ট আমাদের সাইটে দিলে কপি কন্টেন্ট হয় সেই একই কন্টেন্ট বা তার চেয়েও নিন্ম মানের কন্টেন্ট আমেরিকা, ইউরোপ আর অষ্ট্রেলিয়ার সাইটে দিলে ১০০% ইউনিক হয়। কন্তু চিটিকার এরকম কোন সমস্যা নেই”

=>> আমার মনে হয় উপরোক্ত প্যারাগ্যাফটি আপনি ভুল বুঝেছেন। এটি কন্টেন্ট সম্পর্কে বর্ণনা পেমেন্ট সম্পর্কে না।

প্রসঙ্গ ২: আপনি বলেছেন-
“আমিত জানতাম চিটারে US/UK আর এশিয়ার ভিজিটর থাকা সাইট আকাশ পাতাল ব্যাবধান করে রেখেছে। আর কয় মাস আছেন চিটারের সাথে? আমি বছর ২ আগে রেজি করেছিলাম। প্রথম কয়ক মাস বেশ ভালই দিচ্ছিল। কিন্তু তার পরেই শুরু হল আসল ভন্ডামি। খুব কম পে করে , পার ক্লিকে ১-২ সেন্ট বা কখনো ১০০ ক্লিকে ২০-২৫ সেন্ট করে দিত। তাই এড সরিয়ে নিয়েছিলাম, মাস ২ আগে আবার এড বসাই বাট কোন ইমপ্রুভ পাই নাই তাই আবার তুলে দিয়েছি।”

=>> আমার মাথাই প্রথম ব্লগিং এর চিন্তা আসে ২০০৩ সালে, ২০০৪ সালে ব্লগস্পটে শখের বশে একটি ব্লগ খুলি এবং সেই বছরই ব্লগিং করে টাকা কামানোর চেষ্টা করি। অবেশষে ২০০৫ সাল থেকে চিটিকার মাধ্যমেই ব্লগিং থেকে টাকা কামানোর শুরু করি। মাঝখানে কয়েক বছর এডেসন্স ব্যবহার করে চিটিকার চেয়ে অনেক বেশি ইনকাম করতে থাকি। এখন আমার ৩ টি ব্লগ সব মিলিয়ে মাসে ৫০০০০ – ৭০০০০ ভিউ হয় যার ৬৫% ভিজিটর USA থেকে। ভালই ইনকাম করতে থাকি এবং দিনরাত গুগলের জন্য দোয়া করতে থাকি।হঠাৎ এক দিন দেখি ব্লগের এড স্পেস গুলো ফাঁকা হয়ে আছে, এডসেন্স একাউন্টে লগিন করতে গিয়ে দখি আমাকে আমার ইমেইল চেক করভে বলছে, ইমেইল চেক করে দেখি আমার স্বপ্ন ভেঙ্গে গেছে, আমি ব্যান খেয়েছি!!! তারপর আবার নতুন এডসেন্স খুলি, কিছুদিন পরে একই ঘটনা ঘটে। আবারও এডসেন্স খোলার চেষ্টা করে দেখি আমার যেটুকু বাঁকী ছিল সেটুকুও গুগল নিয়ে নিয়েছে মানে আমার সবগুলো সাইট ব্যান করে দিয়েছে এবং আমি আর কখনো ঐসব সাইটে গুগলের এড দিতে পারব না। এখন ব্লগিং এর চিন্তা আমার মাথা থেকে মুছে গেছে।

কিছুদিন পর আবার ব্লগিং শুরু করি চিটিকা এড দিয়ে যা এখন ফুল টাইম হিসেবে করছি ও হাঁ এখন ঐ ৩টা সাইট থেকেই আমি মাসে $60 – $ 100 ইনকাম করি যা গুগল ব্যন করে দিয়ে ছিল।

এখন আমার ২০ টি চালু ব্লগ যেগুলোর গুগল পেজ রেঙ্ক ১-৫। কিছু ব্লগে এডসেন্স এবং সব গুলোতেই চিটিকা ইউস করছি। এই সামান্য অভিঙ্গতা থেকেই উপরোক্ত কথাগুলো লিখেছিলাম।গুগল আমার স্বপ্ন ভেঙে দিয়েছিল যা চিটিকা জোড়া লেগে দিয়েছ।উপরন্তু চিটিকা আমাকে নতুন ভাবে চলার পথ দেখিয়েছে যা গুগল বন্ধ করে দিয়েছিল।

যা হোক আপনার ব্লগে তো দেখলাম এডসেন্স ব্যবহার করছেন তো আপনার এডসেন্স এর হিস্টোরি টা জানালে আমার মত নাদানের অনেক উপকার হবে।

উত্তরের আপেক্ষাই থাকলাম। ধন্যবাদ।

Level 0

preetech3 vai আমি আমার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে চিটিকা লাগাইছি। অ্যাড ও শো করে কিন্তু আমি চিটিকা অ্যাকাউন্ট এ ডুকে দেখি কোন ভিউ বারে না। আর ওয়ার্ডপ্রেস সাইট এ চিটিকার উজারনেম ও পাস দিতে বলে আমি উজারনেম ও পাস দেয় কিন্তু wrong দেখায়। আমি এখন কি করবো।
আমাকে হেল্প করেন preetech3 ভাই ফেসবুকে আমিঃ https://www.facebook.com/

Level 0

amio chitikar ad use korchi http://www.ourasiabd.com

Chitika Adsenseপাওয়ার জন্য এই লিংকে ক্লিক করে একাউন্ট তৈরি করুন।
http://bit.ly/1GZQ1nd