ফটোশপ সি এস-6 মাস্টার্স টিউটোরিয়াল [পর্ব-০২] :: সাদা-কালো ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডকে রঙীন করা

ফটোশপ সি এস-6 মাস্টার্স টিউটোরিয়াল

নমস্কার, ফিরে এলাম ২য় পর্ব নিয়ে। ১ম পর্বের ঠিক পর থেকেই শুরু করছি, ফলে যারা আমার ১ম পর্বটি এখনো দেখেননি তাদের কে আমার এই সিরিজের ১ম পর্বটি দেখে নিতে অনুরোধ করছি, না হলে এই tutorial- এর অনেকটা অংশই বুঝতে পারবেন না (১ম পর্ব দেখার জন্য)এই page-এ ভিজিট করুন https://www.techtunes.co/adobe-photoshop/tune-id/397714

১.        বুঝতেই পারছেন যে  এই  ইমেজটির ব্যাকগ্রাউন্ডটি  বেশ জটিল, ফলে কাস্টমার যদি চান যে এই ব্যাকগ্রাউন্ডটাই ওনার চাই, তাহলে আমার মনে হয় আমি এখন যে  পদ্ধতিটি  এখানে  দেখাবো সেটি এই কাজের জন্য বেশ ভালো, অবশ্য যদি অন্য পদ্ধতি কাউর জানা থাকে তাহলে সেটাই তিনি  ব্যবহার করতে পারেন। প্রথমেই, ৪ টে লেয়ারকে Shift চেপে সিলেক্ট   করে ctrl + e চাপুন এবং background বলে তৈরী হওয়া সিঙ্গেল লেয়ারটির একটা duplicate লেয়ার তৈরী করতে ctrl + j চাপুন I নীচের ছবিটি দেখুন।

২.এবারে একটি নতুন লেয়ার নিয়ে লেয়ারের ব্লেন্ড  মোডটি নর্মাল এর জায়গায় কালার করে দিন।  ব্রাশ টুল সিলেক্ট করে  ব্রাশের হার্ডনেস ৫০ করে দিন এবং ফোরগ্রাউন্ড কালারে সবুজ রঙ নিয়ে ফুলগুলির পাতাগুলিকে  সবুজ রঙ করে দিন (প্রয়োজনে ctrl এবং + চিহ্ন চেপে ছবিটিকে বড় করে নিয়ে  ব্রাশের সাইজ ছোটো করে কাজ করুন) ব্রাশের ফ্লো ৫০ থেকে ৬০ করে নেবেন।এরপর ফোরগ্রাউন্ড কালারে রঙ পরিবর্তন করে করে ফুলের বাকি অংশ গুলিকে রঙ করে ফেলুন।

৩.এখন, নতুন আরেকটি লেয়ার নিয়ে একই সেটিংসে  ব্রাশ দিয়ে ব্যাকগ্রাউন্ড-এর গোল গোল গুলিকে বিভিন্ন রঙে রঙ করে দিন এবং লেয়ারের ব্লেন্ডমোডটি এবারে নর্মালের স্থানে সফ্টলাইট করে দিন ও লেয়ারের ওপেসিটি ৭০- এর কাছা-কাছি রাখুন।

৪.আবার আরেকটি নতুন লেয়ার নিয়ে লেয়ারের ব্লেন্ডমোডটি  নর্মালের স্থানে সফ্টলাইট করে দিন ও লেয়ারের ওপেসিটি ৭০ এর কাছা-কাছি রেখে টুলবার থেকে গ্র্যাডিয়েন্ট টুল সিলেক্ট করে সুন্দর একটি গ্র্যাডিয়েন্ট কালার নীয়ে ছবিটির মাঝখান থেকে কোনা-কুনি করে ডান দিকের উপরের কোন পর্যন্ত টানুন।

৫. সবশেষে, লেয়ার প্যানেলের নীচের দিকের ২ নং বাটনটি অর্থাৎ, এড লেয়ার মাস্ক বাটনটি ক্লীক করে মাস্কিং লেয়ারের সাদা বাক্সটি সিলেক্ট রেখে ফোরগ্রাউন্ড কালারে কালো রঙ নিয়ে সাবধানে সফ্ট রাউন্ড ব্রাশ নিয়ে মানুষের ছবিটিতে ঘষে দিন (মনে রাখবেন, সুক্ষ্ম যায়্গাগুলিতে ছবিটি বড় করে নেবেন এবং ব্রাশ সাইজ ছোটো করে নেবেন, তবু যদি ভুল হয় তবে x কী চেপে ভুল  যায়্গাগুলিতে ঘষে দেবেন)।

পরিশেষে জানাই যে, আমার টিউটোরিয়াল গুলি আপনাদের কাজে লাগছে কিনা তা টিউমেন্ট করে জানান, নাহলে বুঝতে পারছিনা, এই টিউটোরিয়াল গুলি আপনাদের প্রয়োজনে আসছে কিনা ?!! সাথে থাকুন, আশাকরি আপনাদের আরও ভালো ভালো টিউটোরিয়াল দিতে পারবো, আপনারা উপকৃত হলেই আমার পরিশ্রম সার্থক হলো বলে মনে করব। ধন্যবাদ, খুব শীঘ্রই আবার লেখা দেবো।

Level 0

আমি ধীমান কর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 17 টি টিউন ও 65 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level New

ধন্যবাদ দাদা। আপনার টিউনগুলো অবশ্যই কাজে আসছে। তবে আমার মনে হয় প্রত্যেক পর্বে প্রাকটিসের জন্য সোর্স ফাইলের লিংক দিলে ভালো হবে। আশাকরি শেষ পর্যন্ত চালিয়ে যাবেন।

Please keep continue. It really awesome. 🙂

ভাই আপনার টিউন গুলো চমৎকার হচ্ছে। যদি ভিডিও টিওটোটিয়াল থাকতো একদম পারফেক্ট হতো ।